X
মঙ্গলবার, ১৯ অক্টোবর ২০২১, ৩ কার্তিক ১৪২৮

সেকশনস

বাংলাদেশ থেকে যুক্তরাজ্য ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা শিথিল

আপডেট : ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২৩:৩৯

বাংলাদেশের নাগরিকদের জন্য ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা শিথিল করছে যুক্তরাজ্য।

শুক্রবার (১৭ সেপ্টেম্বর) এক ঘোষণায় যুক্তরাজ্যের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানায়, রেড লিস্ট থেকে বাংলাদেশকে এম্বার লিস্টে দেওয়া হচ্ছে।

আগামী ২২ সেপ্টেম্বর থেকে এটি কার্যকর হবে। এর আগে কেউ যদি বাংলাদেশ থেকে যুক্তরাজ্যে সফর করে তবে রেড লিস্ট অনুযায়ী সাবধানতা অবলম্বন করতে হবে।

এর আগে, করোনা সংক্রমণ বাড়তে থাকায় গত ২ এপ্রিল বাংলাদেশ থেকে ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছিলো যুক্তরাজ্য।

আরও পড়ুন: বাংলাদেশের ওপর ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা দিলো যুক্তরাজ্য

/এসএসজেড/এমএস/

সম্পর্কিত

এজেন্ডায় থাকতে পারে ‘অপপ্রচারকারীদের’ ফিরিয়ে আনার ইস্যু

এজেন্ডায় থাকতে পারে ‘অপপ্রচারকারীদের’ ফিরিয়ে আনার ইস্যু

বাংলাদেশের কোভিশিল্ড টিকার সনদের স্বীকৃতি দিলো যুক্তরাজ্য

বাংলাদেশের কোভিশিল্ড টিকার সনদের স্বীকৃতি দিলো যুক্তরাজ্য

যশোর থেকে চট্টগ্রাম ও কক্সবাজারে ইউএস-বাংলার ফ্লাইট শুরু

যশোর থেকে চট্টগ্রাম ও কক্সবাজারে ইউএস-বাংলার ফ্লাইট শুরু

বিমানের সাবেক চেয়ারম্যান ও এমডিকে জিজ্ঞাসাবাদ

বিমানের সাবেক চেয়ারম্যান ও এমডিকে জিজ্ঞাসাবাদ

রাসেলের স্বপ্ন ছিল সেনা কর্মকর্তা হওয়ার: প্রধানমন্ত্রী

আপডেট : ১৯ অক্টোবর ২০২১, ১৯:০৪

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ছোট ছেলে রাসেলের জীবনে কোনও দাবি ছিল না বলে জানিয়েছেন তারই বড় বোন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, ‘রাসেলের একটাই স্বপ্ন ছিল, বড় হয়ে সেনা কর্মকর্তা হবে।’

মঙ্গলবার (১৯ অক্টোবর) জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ছোট ছেলে শেখ রাসেলের ৫৮তম জন্মদিন উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউতে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত এ সভায় প্রধানমন্ত্রী তার সরকারি বাসভবন গণভবন থেকে ভার্চুয়ালি যুক্ত হন।

১৫ আগস্ট হত্যাকাণ্ডের বর্ণনা দিতে গিয়ে স্মৃতিকাতর হয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘এই দিকে চাচার লাশ, ওই দিকে কামালের লাশ, আব্বার লাশ। মায়ের লাশ। সব মাড়িয়ে ওপরে নিয়ে রাসেলকে সবার শেষে নির্মমভাবে হত্যা করে। অথচ রাসেল ছোটবেলা থেকে এত সহজ-সরল ছিল।’

শেখ রাসেলের স্মৃতিচারণ করে শেখ হাসিনা বলেন, ‘রাসেল আমাদের সবার ছোট। ১৯৬৪ সালে তার জন্ম। বেঁচে থাকলে এখন ৫৭ বছর বয়স হতো। কিন্তু মাত্র ১০ বছরে বয়সে তাকে হারিয়ে যেতে হলো ঘাতকের নির্মম বুলেটের আঘাতে। আমার হাত ধরেই কিন্তু রাসেল হাঁটা শিখে। আমরা পাঁচটা ভাইবোন ছিলাম। সে আমাদের চার জনের অত্যন্ত আদরের। কিন্তু বাবার স্নেহবঞ্চিত।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘যখন বিরোধী দলে ছিলাম তখনও চেষ্টা করেছি, এখনও চেষ্টা করি, এই দেশের শিশুরা তাদের লেখাপড়া, তাদের চিকিৎসা ব্যবস্থা, তারা যেন নিয়মিত স্কুলে যেতে পারে। আজকে যেমন আমরা ডিজিটাল বাংলাদেশ করেছি, সেই ডিজিটাল বাংলাদেশ, সেইটা তৈরি করার জন্য তাদেরকে প্রস্তুত করা, তাদেরকে ট্রেনিং দেওয়া, সব রকম ব্যবস্থা করে দিচ্ছি।’

সরকার প্রধান বলেন, ‘শিশুর নিরাপত্তা, শিশু অধিকার আইন তো জাতির পিতা ১৯৭৪ সালে করে দিয়ে গেছেন। প্রাথমিক শিক্ষাটাকে অবৈতনিক করে দিয়ে গেছেন, বাধ্যতামূলক করে দিয়ে গেছেন। কাজেই আমার বাবার আদর্শ নিয়েই আমরা এগিয়ে যাচ্ছি। আমাদের এই দেশের শিশুরা যেন আর এই নির্মমতার শিকার না হয়।’

‘বঙ্গবন্ধু হত্যার বিচার হবে না’ বলে দেশে আইন হয়েছিল বিষয়টি জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘সারা বিশ্বে অনেকেই মানবাধিকারের কথা তোলে। আমাকে অনেক সময় মানবাধিকার নিয়ে প্রশ্ন করে। তখন আমার মনে হয়— আমি জিজ্ঞেস করি, তাদের কি অধিকার আছে এ প্রশ্ন করার। যেখানে আমার বাবা, মা, ভাইদের হত্যা করার পর বিচার চাইতে পারিনি।’

শেখ হাসিনা বলেন, ‘পঁচাত্তরের পরে এই দেশে ১৯টা ক্যু হয়েছে। আমি জানি, বিএনপির অনেক নেতা বা বিএনপিতে আগে ছিল, তারা দাবি করেন যে, জিয়াউর রহমানের হাতে নাকি সেনাবাহিনী খুব নিয়মশৃঙ্খলার মধ্যে ছিল এবং শক্তিশালি হয়েছে। সেখানে আমার প্রশ্ন— ১৯টা ক্যু (১৯৭৫-৮১) হয় যখন একটা দেশে, তাহলে সেই দেশে সেনাবাহিনী শক্তিশালী ও নিয়মশৃঙ্খলার মধ্যে থাকে— এই দাবি করে কোন মুখে। এই কথা বলেইবা কোন মুখে?’

তিনি বলেন, ‘জিয়াউর রহমান শুধু জাতির পিতার হত্যার সঙ্গে জড়িত তাই নয়, সে তো সেনাবাহিনীর হাজার হাজার সৈনিক ও কর্মকর্তাদের হত্যা করেছে। বিমান বাহিনীর কর্মকর্তাদের হত্যা করেছে।’

গণভবন প্রান্ত থেকে আলোচনা সভাটি সঞ্চালনা করেন আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আবদুস সোবহান গোলাপ। স্বাগত বক্তব্য রাখেন দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। বক্তব্য রাখেন— সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য মতিয়া চৌধুরী, আবদুর রাজ্জাক, জাহাঙ্গীর কবির নানক, আবদুর রহমান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম প্রমুখ।

/পিএইচসি/এপিএইচ/

সম্পর্কিত

পীরগঞ্জের ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য শুকনো খাবার-ঢেউটিন-নগদ টাকা বরাদ্দ

পীরগঞ্জের ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য শুকনো খাবার-ঢেউটিন-নগদ টাকা বরাদ্দ

পীরগঞ্জের ঘটনা তদন্তে জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের কমিটি গঠন 

পীরগঞ্জের ঘটনা তদন্তে জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের কমিটি গঠন 

সব ধর্মের মানুষ নিজ ধর্ম পালন করবে স্বাধীনভাবে: প্রধানমন্ত্রী

সব ধর্মের মানুষ নিজ ধর্ম পালন করবে স্বাধীনভাবে: প্রধানমন্ত্রী

পীরগঞ্জের ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য শুকনো খাবার-ঢেউটিন-নগদ টাকা বরাদ্দ

আপডেট : ১৯ অক্টোবর ২০২১, ১৮:৫৪

রংপুরের পীরগঞ্জ উপজেলায় সম্প্রতি হামলায় ক্ষতিগ্রস্তদের মানবিক সহায়তা হিসেবে একশ’ বান্ডিল ঢেউটিন এবং গৃহনির্মাণ বাবদ তিন লাখ টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। এছাড়া শুকনো ও অন্যান্য দুইশ’ প্যাকেট খাবার বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে।

দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয় থেকে সোমবার (১৮ অক্টোবর) এ বরাদ্দ দেওয়া হয়। মন্ত্রণালয় থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, প্রতিটি প্যাকেটে ১০ কেজি মিনিকেট চাল, এককেজি দেশি মসুরের ডাল, এককেজি আয়োডিনযুক্ত লবণ, একলিটার সয়াবিন তেল, এককেজি চিনি, ১০০ গ্রাম মরিচের গুঁড়া, ২০০ গ্রাম হলুদের গুঁড়া এবং ১০০ গ্রাম ধনিয়া গুঁড়াসহ মোট আটটি আইটেম রয়েছে। প্রতিটি প্যাকেট খাবারে চার সদস্যের পরিবারের প্রায় একসপ্তাহ চলে যাবে বলে আশা করা হচ্ছে।

মঞ্জুরিকৃত ঢেউটিন, নগদ অর্থ এবং অন্যান্য খাবার সংশ্লিষ্ট সংসদ সদস্যের সঙ্গে পরামর্শক্রমে ক্ষতিগ্রস্তদের মাঝে বিতরণ করার জন্য নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

 

/এসআই/আইএ/

সম্পর্কিত

পীরগঞ্জের ঘটনা তদন্তে জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের কমিটি গঠন 

পীরগঞ্জের ঘটনা তদন্তে জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের কমিটি গঠন 

সব ধর্মের মানুষ নিজ ধর্ম পালন করবে স্বাধীনভাবে: প্রধানমন্ত্রী

সব ধর্মের মানুষ নিজ ধর্ম পালন করবে স্বাধীনভাবে: প্রধানমন্ত্রী

গণমাধ্যম এড়িয়ে গেলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

গণমাধ্যম এড়িয়ে গেলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

জাকাত ব্যবস্থাপনায় নতুন আইন মন্ত্রিসভায় অনুমোদন

জাকাত ব্যবস্থাপনায় নতুন আইন মন্ত্রিসভায় অনুমোদন

৫৮ জেলায় করোনায় মৃত্যু নেই

আপডেট : ১৯ অক্টোবর ২০২১, ১৮:৪০

গত ২৪ ঘণ্টায় তার আগের ২৪ ঘণ্টার তুলনায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু কমেছে। গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন সাত জন। গতকাল ১০ জনের মৃত্যুর কথা জানিয়েছিল স্বাস্থ্য অধিদফতর।

অধিদফতর মঙ্গলবার (১৯ অক্টোবর) জানায়, গত ২৪ ঘণ্টায় মারা যাওয়া  সাত জন নিয়ে দেশে করোনায় সরকারি হিসাবে মোট মারা গেছেন ২৭ হাজার ৭৮৫ জন।

অধিদফতর জানায়, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশের ৫৮ জেলায় করোনায় কেউ মারা যায়নি। আর মারা যাওয়া সাত জনের মধ্যে ঢাকা মহানগরসহ ঢাকা জেলায় তিন জন এবং চট্টগ্রাম, কুমিল্লা, কুড়িগ্রাম ও কুষ্টিয়া জেলায় একজন করে রয়েছেন।

আর গত ২৪ ঘণ্টায় ময়মনসিংহ, রাজশাহী, বরিশাল ও সিলেট বিভাগে করোনায় আক্রান্ত হয়ে কারও মৃত্যু হয়নি।

 

/জেএ/আইএ/

সম্পর্কিত

একমাস ধরে করোনা পরিস্থিতি স্বস্তিদায়ক

একমাস ধরে করোনা পরিস্থিতি স্বস্তিদায়ক

দ্বিতীয় দিনের মতো আজও শনাক্তের হার ২-এর নিচে

দ্বিতীয় দিনের মতো আজও শনাক্তের হার ২-এর নিচে

পাঁচ মাস পর সর্বনিম্ন শনাক্ত

পাঁচ মাস পর সর্বনিম্ন শনাক্ত

করোনায় ৪ বিভাগ মৃত্যুহীন

করোনায় ৪ বিভাগ মৃত্যুহীন

পীরগঞ্জের ঘটনা তদন্তে জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের কমিটি গঠন 

আপডেট : ১৯ অক্টোবর ২০২১, ১৮:৩১

রংপুরের পীরগঞ্জে হিন্দু সম্প্রদায়ের বাড়িঘরে অগ্নিসংযোগ ও লুটপাটের ঘটনা তদন্তে তিন সদস্যের কমিটি গঠন করেছে জাতীয় মানবাধিকার কমিশন। তদন্ত সম্পন্ন করে আগামী ৭ কার্যদিবসের মধ্যে কমিশনের কাছে পূর্ণাঙ্গ তাদের প্রতিবেদন দাখিলের  কথা বলা হয়েছে। সোমবার (১৮ অক্টোবর) কমিশনের পরিচালক (প্রশাসন ও অর্থ) কাজী আরফান আশিক স্বাক্ষরিত এক অফিস আদেশে এ তথ্য জানা যায়।

জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের পরিচালক (অভিযোগ ও তদন্ত) মোহাম্মদ আশরাফুল আলমকে আহ্বায়ক করে গঠিত কমিটির অপর দুই সদস্য হলেন রংপুরের জেলা প্রশাসক মনোনীত একজন প্রতিনিধি এবং জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের উপ-পরিচালক এমএ রবিউল ইসলাম। 

অফিস আদেশে বলা হয়, বসতভিটা ভাঙচুর, অগ্নিসংযোগ ও লুটপাটের ঘটনা অত্যন্ত নিন্দনীয়, যা মানবাধিকারের চরম লঙ্ঘন। কমিটি ঘটনার প্রকৃত চিত্র উদঘাটন, মানবাধিকার লঙ্ঘনবিষয়ক তথ্যাদি সংগ্রহ ও বিশ্লেষণ, স্থানীয় প্রশাসন ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর দায়িত্বে কোনও অবহেলা ছিল কিনা, সে বিষয়ে তথ্য অনুসন্ধান করবে।

এতে আরও বলা হয়, পীরগঞ্জ উপজেলার রামনাথপুর ইউনিয়নের মাঝিপাড়াসহ অন্যান্য কয়েকটি স্থানে বাড়িঘরে অগ্নিসংযোগ ও লুটপাটের ঘটনা জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের দৃষ্টিগোচর হয়। প্রকাশিত সংবাদ প্রতিবেদন মতে, গত রবিবার রাত ১০টার দিকে দুর্বৃত্তরা এ হামলা করে।

 

/আরটি/আইএ/

সম্পর্কিত

পীরগঞ্জের ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য শুকনো খাবার-ঢেউটিন-নগদ টাকা বরাদ্দ

পীরগঞ্জের ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য শুকনো খাবার-ঢেউটিন-নগদ টাকা বরাদ্দ

সব ধর্মের মানুষ নিজ ধর্ম পালন করবে স্বাধীনভাবে: প্রধানমন্ত্রী

সব ধর্মের মানুষ নিজ ধর্ম পালন করবে স্বাধীনভাবে: প্রধানমন্ত্রী

গণমাধ্যম এড়িয়ে গেলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

গণমাধ্যম এড়িয়ে গেলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

জাকাত ব্যবস্থাপনায় নতুন আইন মন্ত্রিসভায় অনুমোদন

জাকাত ব্যবস্থাপনায় নতুন আইন মন্ত্রিসভায় অনুমোদন

সব ধর্মের মানুষ নিজ ধর্ম পালন করবে স্বাধীনভাবে: প্রধানমন্ত্রী

আপডেট : ১৯ অক্টোবর ২০২১, ১৮:৪২

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, বাংলাদেশ অসাম্প্রদায়িক চেতনার দেশ। সব ধর্মের মানুষ তার ধর্ম পালন করবে স্বাধীনভাবে। সেটাই আমাদের লক্ষ্য। তিনি বলেন, ‘এত রক্ত ক্ষয়, এত কিছু বাংলাদেশে ঘটে গেছে, আর যেন এ ধরনের ঘটনা না ঘটে।’

মঙ্গলবার (১৯ অক্টোবর) জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ছোট ছেলে শেখ রাসেলের জন্মদিবস উপলক্ষে আওয়ামী লীগ আয়োজিত আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন। প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউতে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে যুক্ত হন তিনি।

পঁচাত্তরের ১৫ আগস্ট হত্যাকাণ্ডের বিচার প্রক্রিয়া বর্ণনা করে শেখ হাসিনা বলেন, ‘খুনিদের প্রতি খালেদা জিয়ার এই যে পক্ষপাতিত্ব এটার কারণটা কী? কারণটা খুব স্পষ্ট। কারণ, খুনি মোশতাকের সঙ্গে জিয়াউর রহমান সম্পূর্ণভাবে এই খুনের সঙ্গে জড়িত ছিল। এই রাসেলকে সর্বশেষে হত্যা করা হয়। বলা হয়েছিল, ওই ছোট্ট শিশুটি যেন না বাঁচে। এই নির্দেশটা কে দিয়েছিল? কারা দিয়েছিল? সব শেষে, সবচেয়ে এটাই কষ্টের।’

তিনি বলেন, ‘যখন বিরোধী দলে ছিলাম তখনও চেষ্টা করেছি, এখনও চেষ্টা করি এই দেশের শিশুরা তাদের লেখাপড়া, তাদের চিকিৎসা ব্যবস্থা, তারা যেন নিয়মিত স্কুলে যেতে পারে। আজকে যেমন আমরা ডিজিটাল বাংলাদেশ করেছি, সেই ডিজিটাল বাংলাদেশ, সেটা তৈরি করার জন্য তাদের প্রস্তুত করা, তাদের ট্রেনিং দেওয়া, সব রকম ব্যবস্থা করে দিচ্ছি।’

সরকার প্রধান বলেন, ‘শিশুর নিরাপত্তা, শিশু অধিকার আইন তো জাতির পিতা ১৯৭৪ সালে করে দিয়ে গেছেন। প্রাথমিক শিক্ষাটাকে অবৈতনিক করে দিয়ে গেছেন, বাধ্যতামূলক করে দিয়ে গেছেন। কাজেই আমার বাবার আদর্শ নিয়েই আমরা এগিয়ে যাচ্ছি। আমাদের এই দেশের শিশুরা যেন আর এই নির্মমতার শিকার না হয়।’

তিনি বলেন, ‘কিন্তু দুর্ভাগ্য আমাদের, এখনও আমরা দেখি, সেই নির্মমতা এখনও মাঝে মাঝে দেখি। পরবর্তীতেও আমরা দেখেছি। কিন্তু এইটা যেন না হয়। দেখেছি, আগুন দিয়ে পুড়িয়ে কীভাবে হত্যা করা হচ্ছে জ্যান্ত মানুষগুলোকে, শিশুকে পর্যন্ত। এই খালেদা জিয়া বিরোধী দলে থাকতে অগ্নিসন্ত্রাস করে চলন্ত বাসে আগুন দিয়ে মানুষ পুড়িয়েছে। বাপ দেখেছেন নিজের চোখের সামনে আগুনে পুড়ে সন্তান মারা যাচ্ছে। সে রকম নিষ্ঠুর ঘটনা তো বাংলাদেশে ঘটেছে। এটাই হচ্ছে সব থেকে দুর্ভাগ্য এই বাংলাদেশের।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমি এইটুকু চাইবো, এখানে মানবতার প্রশ্ন যারা তোলে, তারা যেন এই ঘটনাগুলো ভালোভাবে দেখে যে বাংলাদেশে কী ঘটলো। কিন্তু আমরা সরকারে আসার পর থেকে আমাদের প্রচেষ্টা—কোনও শিশু রাস্তায় ঘুরে বেড়াবে না, টোকাই থাকবে না। তাদের যেন একটা ঠিকানা থাকে, তারা যেন একটু ভালোভাবে বসবাস করতে পারে।’

তিনি বলেন, ‘আমাদের একটাই লক্ষ্য—এই দেশের প্রতিটি গৃহহীন মানুষ একটা ঘর পাবে। প্রতিটি মানুষ শিক্ষা পাবে। চিকিৎসা পাবে। ভালোভাবে বাঁচবে। প্রতিটি শিশু তার যে মেধা, তার যে জ্ঞান, তার যে বুদ্ধি, সেটা যেন বিকশিত হতে পারে। বাংলাদেশকে তারা যেন সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যেতে পারে। সেই চেষ্টাই আমি করে যাচ্ছি।’

/পিএইচসি/এপিএইচ/এমওএফ/

সম্পর্কিত

পীরগঞ্জের ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য শুকনো খাবার-ঢেউটিন-নগদ টাকা বরাদ্দ

পীরগঞ্জের ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য শুকনো খাবার-ঢেউটিন-নগদ টাকা বরাদ্দ

পীরগঞ্জের ঘটনা তদন্তে জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের কমিটি গঠন 

পীরগঞ্জের ঘটনা তদন্তে জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের কমিটি গঠন 

গণমাধ্যম এড়িয়ে গেলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

গণমাধ্যম এড়িয়ে গেলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

জাকাত ব্যবস্থাপনায় নতুন আইন মন্ত্রিসভায় অনুমোদন

জাকাত ব্যবস্থাপনায় নতুন আইন মন্ত্রিসভায় অনুমোদন

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

এজেন্ডায় থাকতে পারে ‘অপপ্রচারকারীদের’ ফিরিয়ে আনার ইস্যু

হাসিনা- জনসন বৈঠকএজেন্ডায় থাকতে পারে ‘অপপ্রচারকারীদের’ ফিরিয়ে আনার ইস্যু

বাংলাদেশের কোভিশিল্ড টিকার সনদের স্বীকৃতি দিলো যুক্তরাজ্য

বাংলাদেশের কোভিশিল্ড টিকার সনদের স্বীকৃতি দিলো যুক্তরাজ্য

যশোর থেকে চট্টগ্রাম ও কক্সবাজারে ইউএস-বাংলার ফ্লাইট শুরু

যশোর থেকে চট্টগ্রাম ও কক্সবাজারে ইউএস-বাংলার ফ্লাইট শুরু

বিমানের সাবেক চেয়ারম্যান ও এমডিকে জিজ্ঞাসাবাদ

উড়োজাহাজ লিজ নিয়ে বিতর্কবিমানের সাবেক চেয়ারম্যান ও এমডিকে জিজ্ঞাসাবাদ

ভারত থেকে ফিরেছেন বিমানের ১২৪ যাত্রী 

ভারত থেকে ফিরেছেন বিমানের ১২৪ যাত্রী 

যুক্তরাজ্যের রিপোর্ট গ্রহণযোগ্য নয়: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

যুক্তরাজ্যের রিপোর্ট গ্রহণযোগ্য নয়: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

আন্তর্জাতিক ফ্লাইট পরিচালনা: ২০ দেশের ওপর থেকে বিধি নিষেধ প্রত্যাহার

আন্তর্জাতিক ফ্লাইট পরিচালনা: ২০ দেশের ওপর থেকে বিধি নিষেধ প্রত্যাহার

সর্বশেষ

১২ তলা অফিসার্স ক্লাব হচ্ছে বিমান বাহিনীর

১২ তলা অফিসার্স ক্লাব হচ্ছে বিমান বাহিনীর

পীরগঞ্জের ঘটনা পূর্বপরিকল্পিত: স্পিকার

পীরগঞ্জের ঘটনা পূর্বপরিকল্পিত: স্পিকার

চলতি মাসের ১৮ দিনে সাড়ে ৩ হাজার ডেঙ্গু রোগী হাসপাতালে

চলতি মাসের ১৮ দিনে সাড়ে ৩ হাজার ডেঙ্গু রোগী হাসপাতালে

এবার শার্লিনের বিরুদ্ধেই মামলা ঠুকছেন রাজ-শিল্পা

এবার শার্লিনের বিরুদ্ধেই মামলা ঠুকছেন রাজ-শিল্পা

পীরগঞ্জের ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য শুকনো খাবার-ঢেউটিন-নগদ টাকা বরাদ্দ

পীরগঞ্জের ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য শুকনো খাবার-ঢেউটিন-নগদ টাকা বরাদ্দ

© 2021 Bangla Tribune