X
বুধবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০২১, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৮

সেকশনস

দলের উপকারে মুশফিকের এই সিদ্ধান্ত

আপডেট : ০২ অক্টোবর ২০২১, ১৬:৪০

মুশফিকুর রহিমের কিপিং নিয়ে আলোচনা দীর্ঘদিনের। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজে এই আলোচনায় ঘি ঢেলে দেন প্রধান কোচ রাসেল ডমিঙ্গো। মুশফিক ও নুরুল হাসান সোহানকে পাঁচ ম্যাচের পরীক্ষায় বসতে হবে বলে জানান তিনি। যদিও সব ম্যাচেই দেখা গেছে সোহানকে কিপিংয়ের দায়িত্ব পালন করতে। দীর্ঘ ১৬ বছর ধরে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলছেন মুশফিক। কুড়ি ওভারের ক্রিকেটে ৮৮ ম্যাচে বাংলাদেশের জার্সিতে নামলেও মাত্র ১১ ম্যাচ গ্লাভস ছাড়া ছিলেন। ওই ম্যাচগুলোতে উইকেটের পেছনে দায়িত্ব পালন করেছেন সোহান।

মুশফিকের কিপিং নিয়ে সাবেক অনেক ক্রিকেটার সরব থাকলেও তিনি নিজে ছিলেন চুপ। মাশরাফি মুর্তজা তো বলেই দিয়েছিলেন, ১৭ বছর ধরে বাংলাদেশ দলে সার্ভিস দেওয়া মুশফিকের পরীক্ষায় বসাটাকে ‘অপমান’ হিসেবে দেখেছেন তিনি। এই প্রসঙ্গে এতদিন চুপ থাকলেও গণমাধ্যমকে মুশফিক জানালেন, দলের চাওয়াতেই কিপিং থেকে তার সরে আসা।

রাজধানীর এক হোটেলে নিজের নামে একটি অনলাইন গেমসের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে মুশফিক বলেছেন, ‘বারবারই বলি যে টিম ম্যানেজমেন্ট যেভাবে আমাকে দেখতে চাইবে, আমিও সেভাবে সেই ভূমিকায় মানিয়ে নিতে চাই। এখন যদি তারা ব্যাটিংয়ে আমার কাছ থেকে অনেক বেশি কিছু আশা করেন, তো আমি সেটাই চেষ্টা করবো। যেন এখানে ফোকাস করে দলের উপকারে আসতে পারি। আর আমি মনে করি যে একজন ব্যক্তির চেয়ে অবশ্যই দল বড়। তো আমি ব্যাপারটাকে সেভাবেই নিচ্ছি।’

নতুন ভূমিকাতে দারুণ সফল মুশফিক। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজে দারুণ গ্রাউন্ড ফিল্ডিংয়ের পাশাপাশি ভালো কিছু ক্যাচ নিয়েছেন। বৃহস্পতিবার চট্টগ্রামে হাই পারফরম্যান্স ইউনিটের সঙ্গে ম্যাচে বাউন্ডারি লাইনে দেখার মতো এক ক্যাচ নিয়েছেন অভিজ্ঞ এই  ক্রিকেটার। মুশফিক জানালেন, নতুন ভূমিকাতে ভালো করার চেষ্টা করছেন তিনি, ‘দলের চিন্তা বা কম্বিনেশন যদি অন্যরকম থাকে যেটা কিনা সদস্য হিসেবে, অবশ্যই আমাকে মানিয়ে নিতে হবে, আমি চেষ্টা করি সবসময় টিম প্লেয়ার হিসেবে খেলার। লক্ষ্য একটাই- দলের জয়ে ভূমিকা রাখা, সেটা যেকোনও পজিশনে থেকে হোক। তাই সবসময় যে দায়িত্বই দেওয়া হোক না কেন, সেটা ঠিকভাবে পালন করার চেষ্টা করি।’

পারিবারিক কারণে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলতে পারেননি মুশফিক। কঠোর বিধিনিষেধে খেলা হয়নি অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষেও। এরপর নিউজিল্যান্ড সিরিজে ফিরলেও রান করতে পারেননি। পাঁচ ম্যাচে মুশফিকের সংগ্রহ ছিল ৩৯! তাই টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আগে নিজেকে ফিরে পেতে ‘এ’ দলের হয়ে দুটি ওয়ানডে খেলার সিদ্ধান্ত নেন তিনি। প্রথম ম্যাচে ৭০ রানের পর দ্বিতীয় ম্যাচে খেলেছেন ৬২ রানের ইনিংস। সব মিলিয়ে বলাই যায়, বিশ্বকাপের আগে আত্মবিশ্বাস সঙ্গী হয়েছে মুশফিকের।

এ ব্যাপারে বাংলাদেশের সাবেক অধিনায়ক বললেন, ‘আমার আসলে রান করা না করাতে খুব বেশি নজর ছিল না। ইচ্ছা ছিল ম্যাচের মধ্যে যেন থাকতে পারি। কারণ আমি শেষ ম্যাচ খেলেছিলাম প্রায় আড়াই-তিন মাস আগে, নিউজিল্যান্ড সিরিজের আগে (জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে) টেস্টের প্রথম ইনিংসের পর চলে আসি পরিবারের কারণে। দেখা যায় যে ম্যাচের মধ্যে না থাকলে আন্তর্জাতিকভাবে ওই প্রতিযোগিতাটা, হাই ইন্টেন্সিটিটা বা প্রস্তুতিটা হয় না। যতই ব্যাক্তিগত বা দলের সঙ্গে অনুশীলন করি না কেন, যত দিন ম্যাচ না খেলবেন আসল প্রস্তুতিটা আসে না। এই দুই ম্যাচ আমার প্রস্তুতির জন্য একটু হলেও কাজে দেবে।’

এইচপির সঙ্গে দুটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলার আগে শৈশবের কোচ নাজমুল আবেদীন ফাহিমের শরণাপন্ন হয়েছিলেন মুশফিক। শৈশবের কোচের সঙ্গে কাজের অভিজ্ঞতা ভাগাভাগি করলেন তিনি এভাবে, ‘স্যারের সঙ্গে সবসময়ই কথা বলে থাকি। আর স্যার যেহেতু আমি, সাকিব, আমাদের সবকিছুই জানেন যে ওদের কোথায় সমস্যা হতে পারে বা ওরা কীভাবে খেলে তা দেখেন। আর যেহেতু স্যার এখন বিকেএসপিতে ব্যাক করেছেন, আর ওখানে গেলে স্যারের সান্নিধ্যটা পাওয়া যায় এবং ওখানকার প্র্যাকটিস সুবিধাও এখন অনেক বেটার। তো আমার কিছু এরিয়ায় সমস্যা ছিল।’

/আরআই/কেআর/

সম্পর্কিত

শান্ত বলছেন, ম্যাচ বাঁচানো সম্ভব

শান্ত বলছেন, ম্যাচ বাঁচানো সম্ভব

যুব বিশ্বকাপ ও এশিয়া কাপের দল ঘোষণা বাংলাদেশের

যুব বিশ্বকাপ ও এশিয়া কাপের দল ঘোষণা বাংলাদেশের

টেস্ট ব্যাটিং কী, জানা আছে মুমিনুলদের?

টেস্ট ব্যাটিং কী, জানা আছে মুমিনুলদের?

ভালো পেসার আসবে কবে? সুজন বললেন, ‘আল্লাহ যেদিন দেন’

ভালো পেসার আসবে কবে? সুজন বললেন, ‘আল্লাহ যেদিন দেন’

quiz
সর্বশেষসর্বাধিক
© 2021 Bangla Tribune