X
মঙ্গলবার, ২৫ জানুয়ারি ২০২২, ১১ মাঘ ১৪২৮
সেকশনস

রিটার্ন জমা দেওয়ার মাত্র ২ দিন বাকি, বাড়বে না সময়

আপডেট : ২৮ নভেম্বর ২০২১, ১৮:১৪

আয়কর রিটার্ন জমা দেওয়ার আর মাত্র দুদিন বাকি। আগামী ৩০ নভেম্বর আয়কর বিবরণী বা রিটার্ন জমা দেওয়ার সময়সীমা শেষ হতে যাচ্ছে। যদিও করোনাভাইরাস মহামারির কারণে গত বছর আয়কর বিবরণী দাখিলের সময় এক মাস বাড়ানো হয়েছিল। অনেকে মহামারির মধ্যে আয়কর বিবরণী জমা দিতে সময় বাড়ার আশা করলেও এবার তা আর হচ্ছে না। অর্থাৎ নির্ধারিত সময়ের পর কেউ আয়কর বিবরণী জমা দিতে চাইলে গুনতে হবে জরিমানা।

এদিকে শেষ মুহূর্তে এসে কর অঞ্চলগুলোতে রিটার্ন দাখিলে উপচেপড়া ভিড় দেখা যাচ্ছে। আয়কর অফিসে করদাতাদের স্বতঃস্ফূর্ত উপস্থিতি লক্ষ্য করা গেছে।

প্রসঙ্গত, মহামারির করোনার কারণে গতবারের মতো এ বছরও আয়কর মেলার আয়োজন করা হয়নি। মেলার পরিবর্তে ৩১টি কর অঞ্চলে উৎসবমুখর পরিবেশে রিটার্ন জমা নেওয়া হচ্ছে। এনবিআরের কর্মকর্তারা বলছেন, সময় যত ঘনিয়ে আসছে ততই ভিড় বাড়ছে। রবিবার (২৮ নভেম্বর) রাজধানীর সব কর অঞ্চলে উপচেপড়া ভিড় লক্ষ্য করা গেছে। অবশ্য মাসের প্রথম ২৩/২৪ দিন তেমন ভিড় ছিল না বললেই চলে।

এনবিআর সূত্র বলছে, এবার করদাতাদের বার্ষিক আয়কর রিটার্ন জমা দেওয়ার সময় বাড়ানো হবে না। তবে কেউ নির্ধারিত সময়ে রিটার্ন জমা দিতে না পারলে আইনানুযায়ী সময় চেয়ে আবেদন করতে পারবেন।

করদাতার রিটার্ন জমা দেওয়ার যৌক্তিক কারণ দেখিয়ে দুই থেকে চার মাস পর্যন্ত সময় বাড়িয়ে নিতে পারবেন। এজন্য নির্ধারিত ফরমে আবেদন করতে হবে।  আবেদন করে সময় পেলেও বিলম্ব সুদ দিতে হবে, জরিমানা দিতে হবে না।

আয়কর অধ্যাদেশ অনুযায়ী জরিমানা, করের ওপর ৫০ শতাংশ অতিরিক্ত সরল সুদ কিংবা করের টাকার ওপর মাসিক ২ শতাংশ হারে বিলম্ব সুদ আরোপ করতে পারবেন।

এ প্রসঙ্গে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের সদস্য (করনীতি) মো. আলমগীর হোসেন বলেন, জরিমানা এড়াতে নির্ধারিত সময়ের মধ্যে করদাতাদের আয়কর বিবরণী দাখিল করা উচিত। কারও কোনও সমস্যা থাকলে নির্ধারিত সময়ের মধ্যে সংশ্লিষ্ট কমিশনারের কাছে সময়ের আবেদন করতে হবে। আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে বিনা জরিমানায় এক মাস সময় পাওয়া যাবে।

বর্তমানে দেশের প্রায় ৬৮ লাখের বেশি কর শনাক্তকারী নম্বরধারী (টিআইএন) আছেন। তাদের মধ্যে ২৫ লাখের মতো টিআইএনধারী করদাতা নিয়মিত রিটার্ন দেন। তবে এ বছর সেই সংখ্যা বৃদ্ধি পেতে পারে।

করোনা মহামারি বিবেচনায় চলতি বছরে আয়কর মেলা না হলেও এনবিআরের আওতাধীন সারাদেশে ৩১টি কর অঞ্চলে মেলার মতো সেবা দেওয়া হচ্ছে। প্রতিটি কর অঞ্চলে জোন ভিত্তিক বুথ, ই-টিআইএন ও তথ্য সেবা বুথ রাখা হয়েছে। রিটার্ন দাখিলের পর করদাতারা তাৎক্ষণিকভাবে প্রাপ্তি স্বীকারপত্রও পাচ্ছেন।  নভেম্বর মাসকে সেবা মাস হিসেবে পালন করেছে এনবিআর।

এর আগে গত ২৪ নভেম্বর চলতি করবর্ষের ব্যক্তিশ্রেণি করদাতাদের আয়কর রিটার্ন জমা দেওয়ার সময়সীমা আগামী ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত বাড়ানোর আহ্বান জানায় দ্য চিটাগং চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি (সিসিসিআই)। জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের চেয়ারম্যান আবু হেনা মো. রহমাতুল মুনিমের প্রতি এমন আহ্বান জানিয়ে চিঠি দিয়েছিলেন সিসিসিআই সভাপতি মাহবুবুল আলম। চিঠিতে সিসিসিআই সভাপতি উল্লেখ করেন, বিশ্বব্যাপী করোনা পরিস্থিতি এবং আমাদের অর্থনীতিতে এর প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ প্রভাবের কারণে অনেক করদাতার পক্ষে এই নির্ধারিত সময়ের মধ্যে রিটার্ন দাখিল করা সম্ভব  না।

/জিএম/এমআর/
সম্পর্কিত
রিটার্ন দাখিল ২৩ লাখ, কর আদায় ৩ হাজার ২৮১ কোটি টাকা
রিটার্ন দাখিল ২৩ লাখ, কর আদায় ৩ হাজার ২৮১ কোটি টাকা
রবিবার পর্যন্ত আয়কর রিটার্ন জমা দেওয়া যাবে
রবিবার পর্যন্ত আয়কর রিটার্ন জমা দেওয়া যাবে
জাতীয় আয়কর দিবস আজ
জাতীয় আয়কর দিবস আজ
এবার আয়কর রিটার্ন জমার সময় বাড়বে না
এবার আয়কর রিটার্ন জমার সময় বাড়বে না
সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
রিটার্ন দাখিল ২৩ লাখ, কর আদায় ৩ হাজার ২৮১ কোটি টাকা
রিটার্ন দাখিল ২৩ লাখ, কর আদায় ৩ হাজার ২৮১ কোটি টাকা
রবিবার পর্যন্ত আয়কর রিটার্ন জমা দেওয়া যাবে
রবিবার পর্যন্ত আয়কর রিটার্ন জমা দেওয়া যাবে
জাতীয় আয়কর দিবস আজ
জাতীয় আয়কর দিবস আজ
এবার আয়কর রিটার্ন জমার সময় বাড়বে না
এবার আয়কর রিটার্ন জমার সময় বাড়বে না
রিটার্ন জমার সময় একমাস বাড়ানোর প্রস্তাব চিটাগাং চেম্বারের
রিটার্ন জমার সময় একমাস বাড়ানোর প্রস্তাব চিটাগাং চেম্বারের
© 2022 Bangla Tribune