X
মঙ্গলবার, ৩১ জানুয়ারি ২০২৩
১৬ মাঘ ১৪২৯

বাংলাদেশ ব্যাংকের হস্তক্ষেপে ঘুরে দাঁড়াচ্ছে পুঁজিবাজার

গোলাম মওলা
০৭ অক্টোবর ২০২২, ২০:০৯আপডেট : ০৭ অক্টোবর ২০২২, ২০:০৯

অবশেষে আস্থা হারানো পুঁজিবাজারের দিকে মনোযোগ দেওয়া শুরু করলো বাংলাদেশ ব্যাংক। শুধু তাই নয়, আনুষ্ঠানিকভাবে বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর আব্দুর রউফ তালুকদার পুঁজিবাজারকে সব ধরনের সহায়তার আশ্বাস দিয়েছেন। পাশাপাশি তিনি দেশবাসীকে সঞ্চয়পত্র না কিনে শেয়ার বাজারে আসার পরামর্শ দিয়েছেন।

গত ৩ অক্টোবর বিশ্ব বিনিয়োগকারী সপ্তাহের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে গভর্নর বলেন, ‘আমি চাই, মানুষ  সঞ্চয়পত্র না কিনে পুঁজিবাজারে আসুক।’ অনুষ্ঠানে আব্দুর রউফ তালুকদার আরও বলেন, ‘বন্ড বাজারের উন্নয়ন হলে ব্যাংক খাতে খেলাপি ঋণ কমবে, পুঁজিবাজারেরও উন্নয়ন হবে।’

তিনি উল্লেখ করেন, পুঁজিবাজারকে সহায়তা করা আমাদের কাজ, সেটি আমরা করছি। ভবিষ্যতেও করে যাবো।

জানা গেছে, পুঁজিবাজারকে জনপ্রিয় করতে নানা ধরনের সাপোর্ট দেওয়ার কথা ভাবছে বাংলাদেশ ব্যাংক।

ইতোমধ্যে শেয়ার বাজারে সরকারি ট্রেজারি বিল ও বন্ড লেনদেন চালুর প্রজ্ঞাপনও জারি করেছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। এর ফলে গত সপ্তাহে এই বাজারে মূলধন বেড়েছে পৌনে ২ হাজার কোটি টাকা। বাজার সংশ্লিষ্ট তথ্য বলছে, গত সপ্তাহে চার দিন লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে তিন দিন উত্থান হয়েছে, আর একদিন সূচকের পতন হয়েছে। গত সপ্তাহে সূচকের পাশাপাশি বেড়েছে লেনদেন হওয়া বেশিরভাগ কোম্পানির শেয়ারের দাম। তাতে বিনিয়োগকারীদের বাজার মূলধন অর্থাৎ পুঁজি বেড়েছে ১ হাজার ৭৬২ কোটি টাকা।

পুঁজিবাজার বিশ্লেষকদের অনেকেই বলছেন, বাংলাদেশ ব্যাংকের হস্তক্ষেপ অব্যাহত থাকলে এই পুঁজিবাজার আবারও ঘুরে দাঁড়াবে।

জানা গেছে, সরকার ট্রেজারি বিল ও বন্ডের মাধ্যমে ঋণ নিয়ে থাকে। এখন এসব বিল ও বন্ড কেনা যাবে শেয়ার বাজারেও। এর বিপরীতে মিলবে সুদ। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) ও চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) এসব সরকারি বিল-বন্ডের লেনদেন শুরু হচ্ছে আগামী সোমবার (১০ অক্টোবর)। বাংলাদেশ ব্যাংকের ডেট ম্যানেজমেন্ট বিভাগ বৃহস্পতিবার (৬ অক্টোবর) এ সংক্রান্ত একটি প্রজ্ঞাপন জারি করেছে।

জানা গেছে,  বিল ও বন্ড কিনলে মেয়াদপূর্তিতে সুদ দেওয়া হয়। শেয়ার বাজারে বিনিয়োগেও তা-ই হবে। এতে চাহিদা বেশি থাকলে দাম কিছুটা বাড়তে পারে। এখন যাদের হাতে বিল ও বন্ড কেনা আছে, তারা বিক্রি করতে চাইলেই কেবল সোমবার কেনা যাবে। তবে প্রতি সপ্তাহে নিলাম হয়, এরপর বাজারে বিল ও বন্ড পাওয়ার সুযোগ তৈরি হবে। বর্তমানে বিল-বন্ডে সর্বোচ্চ সুদ ৯ শতাংশ পর্যন্ত। টাকা ধার করতে সরকারের আছে বিভিন্ন মেয়াদি বন্ড ও বিল।

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, বর্তমানে সরকারি ট্রেজারি বন্ড-বিলের লেনদেনে ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের পাশাপাশি সব শ্রেণির বিনিয়োগকারীর কেনাবেচার সুযোগ আছে। সরকারি এসব সিকিউরিটিজে সাধারণ বিনিয়োগকারীদের বিনিয়োগ আরও সহজ করার লক্ষ্যে ডিএসই ও সিএসইতে আগামী সোমবার পরীক্ষামূলক লেনদেন চালু হচ্ছে। এ জন্য ব্যাংকগুলোকে প্রয়োজনীয় উদ্যোগ নিতে বলা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, বর্তমানে বাংলাদেশ ব্যাংকের মাধ্যমে পরিচালিত বিভিন্ন মাধ্যমে সরকারি ট্রেজারি বিল ও বন্ডের কেনাবেচা হচ্ছে। দেশের প্রতিটি ব্যাংক থেকে ‘সিকিউরিটি হিসাব’ খোলার মাধ্যমে সাধারণ মানুষেরও সরকারি বন্ড কেনার সুযোগ আছে। এ বন্ডে বিনিয়োগ করতে হবে কমপক্ষে এক লাখ টাকা বা এর গুণিতক। তবে শেয়ার বাজারে লেনদেনের ক্ষেত্রে এ সীমা প্রযোজ্য হবে না।

এদিকে সরকারি ছুটির কারণে গত বুধবার (৫ অক্টোবর) লেনদেন বন্ধ থাকায় বিদায়ী সপ্তাহে পুঁজিবাজারে মোট চার কর্মদিবস লেনদেন হয়েছে। এ চার দিনের মধ্যে সপ্তাহের প্রথম কর্মদিবস উত্থানের মাধ্যমে লেনদেন হয়েছে। এরপরের দিন সোমবার সূচকের পতন হয়েছে। তবে তারপর দুই কর্মদিবসে উত্থানের মাধ্যমে লেনদেন হয়েছে।

গত সপ্তাহে দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) মোট ৩৮৭টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে ১০১টি কোম্পানির শেয়ারের দাম বেড়েছে, কমেছে ৯৪টির, আর অপরিবর্তিত ছিল ১৯২টির।

বাজারের তথ্য বিশ্লেষণ করে দেখা যাচ্ছে, লেনদেন হওয়া বেশিরভাগ কোম্পানির শেয়ারের দাম বাড়ায় বিদায়ী সপ্তাহে ডিএসইর প্রধান সূচক আগের সপ্তাহের চেয়ে ৫৬ পয়েন্ট বেড়ে ৬ হাজার ৫৬৯ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। ডিএসইর অপর দুই সূচকের মধ্যে ডিএসইএস সূচক ২৩ পয়েন্ট বেড়ে ১ হাজার ৪৪৩ পয়েন্ট এবং ডিএস-৩০ সূচক আগের সপ্তাহের চেয়ে ৩১ পয়েন্ট বেড়ে দুই হাজার ৩৬১ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে।

সূচক ও লেনদেন হওয়া অধিকাংশ কোম্পানির শেয়ারের দাম বাড়ায় বিদায়ী সপ্তাহে বাজার মূলধন বেড়েছে ১ হাজার ৭৬২ কোটি ৪০ লাখ ৭৭ হাজার ৬৮৭ টাকা। যদিও আগের সপ্তাহে মূলধন কমেছিল ২ হাজার ৮২৯ কোটি ৯৪ লাখ ৩৮ হাজার ৪২ টাকা। গত সপ্তাহের শুরুতে বাজার মূলধন ছিল ৫ লাখ ১৯ হাজার ৯১৪ কোটি ৪ লাখ ৮৫ হাজার ৫ টাকা, যা সপ্তাহের শেষ কর্মদিবসে বেড়ে  দাঁড়িয়েছে ৫ লাখ ২১ হাজার ৬৭৬ কোটি ৪৫ লাখ ৬২ হাজার ৬৯২ টাকায়। অর্থাৎ মূলধন বেড়েছে দশমিক ৩৪ শতাংশ।

বিদায়ী সপ্তাহে ডিএসইতে মোট লেনদেন হয়েছে ৫ হাজার ২৭৮ কোটি ১৭ লাখ ৮০ হাজার ৪৯৮ টাকা। আগের সপ্তাহে লেনদেন হয়েছিল ৭ হাজার ৩০৬ কোটি ১৭ লাখ ৬৭ হাজার ১৬৪ টাকা। অর্থাৎ আগের সপ্তাহের চেয়ে ২ হাজার ২৭ কোটি ৯৯ লাখ ৮৬ হাজার ৬৬৬ টাকার লেনদেন কমেছে। শতাংশের হিসাবে যা ২৭ দশমিক ৭৬ শতাংশ।

অপরদিকে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জেও (সিএসই) গত সপ্তাহে সিএসইর সার্বিক সূচক ১৪৩ পয়েন্ট বেড়ে ১৯ হাজার ৩৩২ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। এসময়ে লেনদেন হয়েছে ৮৯ কোটি ১৯ লাখ ৯১ হাজার ৪২৫ টাকা। লেনদেন হওয়া ৩০৭টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে দাম বেড়েছে ৮৭টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের, কমেছে ৭৮টির আর অপরিবর্তিত ছিল ১৪২টির দাম।

 

/এপিএইচ/
সর্বশেষ খবর
সংবাদ প্রকাশের পর কুমিল্লার হাইওয়ে হোটেলে অভিযান
সংবাদ প্রকাশের পর কুমিল্লার হাইওয়ে হোটেলে অভিযান
ভাড়াটে খুনি দিয়ে ভাতিজাকে খুন করান সাইফুল
ভাড়াটে খুনি দিয়ে ভাতিজাকে খুন করান সাইফুল
অভিনেত্রী আঁখির অবস্থা এখনও আশঙ্কাজনক
অভিনেত্রী আঁখির অবস্থা এখনও আশঙ্কাজনক
শীতপ্রবণ তেঁতুলিয়ায় আশ্রয়ণ প্রকল্পে বদলে যাওয়া জীবনের গল্প
শীতপ্রবণ তেঁতুলিয়ায় আশ্রয়ণ প্রকল্পে বদলে যাওয়া জীবনের গল্প
সর্বাধিক পঠিত
এসআইবিএল থেকে মাহবুব-উল-আলমের পদত্যাগ
এসআইবিএল থেকে মাহবুব-উল-আলমের পদত্যাগ
এনআইডি’র সঙ্গে সমন্বয় করে পাসপোর্ট সমস্যা দ্রুত সমাধানের সুপারিশ
এনআইডি’র সঙ্গে সমন্বয় করে পাসপোর্ট সমস্যা দ্রুত সমাধানের সুপারিশ
রাশিয়ার সঙ্গে সরাসরি সংঘাতে প্রস্তুত ন্যাটো?
রাশিয়ার সঙ্গে সরাসরি সংঘাতে প্রস্তুত ন্যাটো?
অভিনেত্রী আঁখির অবস্থা এখনও আশঙ্কাজনক
অভিনেত্রী আঁখির অবস্থা এখনও আশঙ্কাজনক
আলাদা ইউনিট করে রাজউকই পূর্বাচলে নাগরিক সেবা দেবে
আলাদা ইউনিট করে রাজউকই পূর্বাচলে নাগরিক সেবা দেবে