X

সেকশনস

প্রত্যক্ষদর্শীর বর্ণনায় চকবাজার অগ্নিকাণ্ড

আপডেট : ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০১:৪৩

প্রত্যক্ষদর্শীর বর্ণনায় চকবাজার অগ্নিকাণ্ড

রাজধানীর চকবাজার অগ্নিকাণ্ডে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত ওয়াহিদ ম্যানশন। ঘটনার সময় ওই ভবনের তৃতীয় তলার বারান্দায় বসেছিলেন ঢাকা সিটি কলেজের ২য় বর্ষের শিক্ষার্থী রাকিবুল ইসলাম সজিব। তার চোখের সামনেই আগুন লাগার ঘটনা ঘটে বলে জানিয়েছেন তিনি। একই সঙ্গে আগুন লাগার পর পর নিজের পরিবারের সদস্যদের ও মালিকের পরিবারের সদস্যদের নিরাপদে বের করে নিয়ে আসেন। বাসাটি পুরো ধ্বংসস্তুপে পরিণত হলেও তারা সকলে নিরাপদে বের হতে পেরেছিলেন বলে জানান তিনি।

গত ২০ তারিখ রাত ১০ টা ৩৮ মিনিটে চকবাজার চুড়িহাট্টা জামে মসজিদ সংলগ্ন স্থানে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। ফায়ার সার্ভিস এন্ড সিভিল ডিফেন্সের হিসেব অনুযায়, এই অগ্নিকাণ্ডে মারা গেছেন ৬৭ জন। ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে পাঁচটি ভবন।

আগুনের সূত্রপাত

আগুন কিভাবে সূত্রপাত হয় এবং তার ও মালিকের পরিবারের সদস্যদের কিভাবে নিরাপদে বের করে নিয়ে আসেন তা বিস্তারিত জানিয়েছেন রাকিবুল ইসলাম সজিব। তিনি বলেন, ‘যখন ঘটনা ঘটে তখন আমি ওয়াহিদ ম্যানশনের তৃতীয় তলার বারান্দায় ছিলাম। চেয়ার নিয়ে বসে মোবাইল চালাচ্ছিলাম। রাস্তায় তখন জ্যাম ছিল। বাসার নিচে একটি পিকআপ ভ্যান আসে। ওটাতে সিলিন্ডার ছিল। সিলিন্ডারগুলো সম্ভবত পাশের হোটেলে সাপ্লাই দেওয়ার জন্য আনা হয়েছিল। হঠাৎ েএকটা বিকট আওয়াজ হয়। বাইরে তাকিয়ে দেখি, রাস্তা থেকে কিছু একটা উপরে উঠে এসেছে। আর নিচের রাস্তাটা পুরা আগুনের ময়দান হয়ে আছে। আগুন ছাড়া তখন চোখের কিছুই দেখা যাচ্ছিল না। পুরো বাড়ি বিকট আওয়াজে কাঁপছিল। আমার রুমে একটা টিভি ছিল। সেটা আওয়াজই জাস্ট ফেটে গেছে। গ্যাস সিলিন্ডার থেকে আগুন লাগছে এটা ঠিক আছে কিন্তু খুব দ্রুত আগুন ছড়াইছে কেমিক্যাল থেকে।’ 

ভবনে কেমিক্যালের গোডাউন 

ওয়াহিদ ম্যানশনের নিচতলায় কেমিক্যাল গোডাউন; দোতলায় পারফিউম  এর গোডাউন, রিফিল করার কাচামাল; তৃতীয় তলায় চার ইউনিটের মধ্যে তিনটিতে ফ্যামিলি ও একটিতে পারফিউমের গোডাউন; চতুর্থ তলায় কসমেটিক্স ও পারিফিউমের গোডাউন ছিল বলে জানিয়েছেন তৃতীয় তলার রাকিবুল ইসলাম সজিব। তার ভাষ্য, আমাদের বিল্ডিং এ পারফিউম এর গোডাউন ছিল। দোতালায় পারফিউম, তিনতলায় এক ইউনিটে, আন্ডারগ্রাউন্ডে বড় বড় ড্রাম ছিল কেমিক্যালের, আবার প্লাস্টিকের দানাও ছিল।চতুর্থ তলাতেও পারফিউম আর কসমেটিকসের গোডাউন ছিল। কেমিক্যালের কারণে আগুনটা দ্রুত ছড়ায় গেছে। উল্টা পাশের কর্ণারের দোকানটায় কেমিক্যাল ছিল। ক্যামিকেলের কারণে যারা জ্যামে আটকে ছিল তারা সামনে পিছে কোথায় যেতে পারেনি। ওখানে আগুনে পুড়ছে।

যেভাবে নিজের পরিবারের সদস্য ও অন্যদের বাঁচালেন

‘আমি আগুন দেখার সাথে সাথে বুঝতে পারি এটা ভয়াবহ। কেমিক্যাল যে আশপাশে আছে সেটাতো জানতাম। আমি দ্রুত বারান্দা থেকে সরে গিয়ে আম্মুকে বলি যে দ্রুত বের হতে হবে।বাসায় আমার আম্মু, ছোট বোন, চাচা ছিল। আম্মু বলল, বাবা ভুমিকম্প হইছে কি? আমি বললাম না আগুন। আমি বাসার কাউকে সময় দিই না। জুতা পড়ারও সময় পায়নি। সবাইকে নিয়ে আমি যখন বাসার গেটে আসি তখন পুরা বাড়ির বিদ্যুৎ চলে যায়। মোবাইলের লাইট দিয়ে সিঁড়ি দিয়ে তাদের নিয়ে নিচে নামি। সাথে সাথে বাড়ির যত লোক ছিল তারাও নিচে নেমে আসে। নিচ তলায় এসে আগুন দেখার পর সবাই বলছিল যে বাইরে যাওয়া যাবে না। এখানেই থাকি। বাইরের পরিস্থিতি দেখার জন্য আমি আর ড্রাইভার আঙ্কেল দুজন গেটে আসি। গেটে এসে দেখি শুধু বাম পাশটায় আগুন নেই। তারপর আমি এসে সবাইকে বলি যে, এখানে থাকা যাবে না বের হয়ে যেতে হবে। কারণ আমরা এখানে থাকলে ধোঁয়া আর গ্যাসেই মারা যাবো। তখন আমি একে একে সবাইকে বের করে নিয়ে আসি। বাড়িওলার মা ছিল তৃতীয় তলায়।উনাকে আমার চাচা ও ড্রাইভার আঙ্কেল উঠিয়ে নিয়ে আসে। আমিও সাথে সাথে বের হয়ে আসি। এরপর যখন ফিরে আসি তখন সব শেষ। আমাদের পাঁচ রুমের ইউনিট ছিল। আমার রুমের খাট ও ওয়াড্রপ বাদে বাসার সব পুড়ে গেছে।

তিনি জানান, ঘটনার পর তারা উর্দু রোডে মামার বাসায় উঠেছেন। সেখান থেকে ক্লাস ও বাবা অফিস করছেন। আগুনে তার সব সার্টিফিকেট পুড়ে গেছে।

ওয়াহিদ ম্যানসনের বর্তমান মালিক দুজন। ওয়াহিদের দুই ছেলে সোহেল ও হাসান। তাদের বাবা মারা গেছেন অনেক আগে। ঘটনার দিন একজন মালিক হাসান বাড়িতে ছিলেন না। তিনি ও তার পরিবার বেড়াতে গিয়েছিলেন। আর অপর মালিক সোহেলের বাসাতে তার স্ত্রী ছিলেন না। তবে বাসায় ছিলেন, উনার মেয়ে, মা ও কাজের লোক। তাদের সবাইকে নিরাপদে বাইরে নামিয়ে আনা হয়েছিল বলে জানিয়েছেন সজিব।

সজিব বলেন, ‘এই বাড়ির বাড়িওয়ালা দুই ভাই। তৃতীয় তলা একজনের আন্ডারে ছিল ও চতুর্থ তলা আরেকজনের আন্ডারে ছিল। তখন একজন বাড়িওয়ালা ছিল। অন্যজন  বাইরে ঘুরতে গিয়েছেন। মূল মালিক ওয়াহিদ উনার নামে বাড়ি। উনি মারা গেছেন। এখন তার দুই ছেলে এখানে থাকে।

মধ্যরাতে গোডাউনে আসত কেমিক্যাল

‘বিল্ডিংয়ে কেমিক্যালগুলো আসত রাত ১২টার পর। বড় বড় কার্গোতে করে এগুলো নিয়ে আসা হতো। আন্ডারগ্রাউন্ড বস্তায় করে কেমিক্যাল এনে রাখা হতো, অনেকটা সিমেন্টের বস্তার মতো। ড্রামও ছিল। আর তৃতীয় তলায় পারফিউমগুলো আনা হতো কার্টুনে করে। এগুলোর কাঁচামালও ছিল। দুই তলায় পারফিউম ও  র ম্যাটেরিয়াল গুলো ছিল।’

গত ৮ মাস আগে সজিবরা বাসায় উঠার পর পাঁচমাস তৃতীয় তলার একটি ইউনিট ফাঁকা ছিল। এরপর একটি গোডাউন ভাড়া দেওয়া হয় বলে জানান সজিব। মালিকের ভাষ্য, কেমিক্যাল আর মানুষ একসঙ্গে থাকবে, এটা পুরান ঢাকার বৈশিষ্ট

অগ্নিকাণ্ডের কয়েকদিন আগে সজিবের বাবা মালিক হাজী সোহেলকে বলেছিল, হয় পুরো বাড়িতে ফ্যামিলি অথবা গোডাউন দুটো থেকে একটা ভাড়া দেওয়ার জন্য। তখন মালিক হাজী সোহেল সজিবের বাবাকে বলেন,

‘কেমিক্যাল মানুষ সব একসঙ্গে মিলে থাকবে, এটা পুরান ঢাকার বৈশিষ্ট্য। এগুলো বলে লাভ হবে না।’  বলছিলেন রাকিবুল ইসলাম সজিব।

 

 

/আরজে/এমএইচ/

সম্পর্কিত

‘চলতি মাসেই ভ্যাকসিন দেওয়ার আশা’

বাংলা ট্রিবিউনকে স্বাস্থ্যমন্ত্রী‘চলতি মাসেই ভ্যাকসিন দেওয়ার আশা’

টিএসসি ভাঙা বন্ধে জনমত গড়বে স্থপতি ও সচেতন সমাজ

টিএসসি ভাঙা বন্ধে জনমত গড়বে স্থপতি ও সচেতন সমাজ

৯০ ভরি সোনা ছিনিয়ে নেওয়ার অভিযোগে গ্রেফতার মাদকের সহকারী পরিচালক রিমান্ডে

৯০ ভরি সোনা ছিনিয়ে নেওয়ার অভিযোগে গ্রেফতার মাদকের সহকারী পরিচালক রিমান্ডে

অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ (ফটোস্টোরি)

অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ (ফটোস্টোরি)

শাহজালালে ৩ কেজি সোনাসহ যাত্রী আটক

শাহজালালে ৩ কেজি সোনাসহ যাত্রী আটক

সেবা খাতের বিদেশি প্রতিষ্ঠান বৈদেশিক ঋণ আনতে পারবে

সেবা খাতের বিদেশি প্রতিষ্ঠান বৈদেশিক ঋণ আনতে পারবে

আবরার ফাহাদ হত্যা মামলা: প্রথম তদন্ত কর্মকর্তার সাক্ষ্যগ্রহণ

আবরার ফাহাদ হত্যা মামলা: প্রথম তদন্ত কর্মকর্তার সাক্ষ্যগ্রহণ

‘প্রতিকূলতাকে জয় করে এগিয়ে যাচ্ছে নারীরা’

‘প্রতিকূলতাকে জয় করে এগিয়ে যাচ্ছে নারীরা’

ব্যাংক এশিয়ার নারী কর্মকর্তার বিরুদ্ধে দুদকের মামলা

ব্যাংক এশিয়ার নারী কর্মকর্তার বিরুদ্ধে দুদকের মামলা

সড়ক দুর্ঘটনায় আহত পুলিশ সদস্য মারা গেছেন

সড়ক দুর্ঘটনায় আহত পুলিশ সদস্য মারা গেছেন

পঞ্চম ধাপে ২৮ ফেব্রুয়ারি সব পৌরসভায় ইভিএমে ভোট

পঞ্চম ধাপে ২৮ ফেব্রুয়ারি সব পৌরসভায় ইভিএমে ভোট

দূরশিক্ষণে অংশ নিচ্ছে না সাড়ে ৬৯ শতাংশ শিক্ষার্থী!

দূরশিক্ষণে অংশ নিচ্ছে না সাড়ে ৬৯ শতাংশ শিক্ষার্থী!

সর্বশেষ

জমি নিয়ে বিরোধে মা-মেয়েকে কুপিয়ে হত্যা

জমি নিয়ে বিরোধে মা-মেয়েকে কুপিয়ে হত্যা

‘চলতি মাসেই ভ্যাকসিন দেওয়ার আশা’

বাংলা ট্রিবিউনকে স্বাস্থ্যমন্ত্রী‘চলতি মাসেই ভ্যাকসিন দেওয়ার আশা’

হাবিপ্রবির চার শিক্ষার্থী র‌্যাবের হাতে আটক

হাবিপ্রবির চার শিক্ষার্থী র‌্যাবের হাতে আটক

সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত দুই পুলিশ সদস্যের দাফন সম্পন্ন

সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত দুই পুলিশ সদস্যের দাফন সম্পন্ন

আমার হৃদয়ে তার সোনালি স্বাক্ষর

আমার হৃদয়ে তার সোনালি স্বাক্ষর

নিলয় দাসকে নিয়ে ওভিসি

নিলয় দাসকে নিয়ে ওভিসি

মায়া তো মায়াই, যত দূরে যায়...

মায়া তো মায়াই, যত দূরে যায়...

বাংলাদেশের ক্রিকেটে ফেরার দিনটা তামিম-সাকিবের ‘বিশেষ’

বাংলাদেশের ক্রিকেটে ফেরার দিনটা তামিম-সাকিবের ‘বিশেষ’

ভোলায় হিমালয়ী গৃধিনী শকুন উদ্ধার

ভোলায় হিমালয়ী গৃধিনী শকুন উদ্ধার

যুক্তরাজ্যে করোনায় দৈনিক মৃত্যুর নতুন রেকর্ড

যুক্তরাজ্যে করোনায় দৈনিক মৃত্যুর নতুন রেকর্ড

টিএসসি ভাঙা বন্ধে জনমত গড়বে স্থপতি ও সচেতন সমাজ

টিএসসি ভাঙা বন্ধে জনমত গড়বে স্থপতি ও সচেতন সমাজ

নামবিহীন ক্লিনিক সিলগালা, লাখ টাকা দণ্ড

নামবিহীন ক্লিনিক সিলগালা, লাখ টাকা দণ্ড

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

‘চলতি মাসেই ভ্যাকসিন দেওয়ার আশা’

বাংলা ট্রিবিউনকে স্বাস্থ্যমন্ত্রী‘চলতি মাসেই ভ্যাকসিন দেওয়ার আশা’

পঞ্চম ধাপে ২৮ ফেব্রুয়ারি সব পৌরসভায় ইভিএমে ভোট

পঞ্চম ধাপে ২৮ ফেব্রুয়ারি সব পৌরসভায় ইভিএমে ভোট

করোনায় আরও মৃত্যু ২০

করোনায় আরও মৃত্যু ২০

‘যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে আরও ঘনিষ্ঠভাবে কাজ করবে বাংলাদেশ’

‘যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে আরও ঘনিষ্ঠভাবে কাজ করবে বাংলাদেশ’

টিকা সংরক্ষণে যে পরিকল্পনা সরকারের

টিকা সংরক্ষণে যে পরিকল্পনা সরকারের

পরীক্ষা ছাড়া ফল প্রকাশে সংসদে বিল

পরীক্ষা ছাড়া ফল প্রকাশে সংসদে বিল

আলজেরিয়ায় অভিবাসনের নামে মানবপাচার  

আলজেরিয়ায় অভিবাসনের নামে মানবপাচার  

আটক বাঙালি সৈন্যদের সীমান্ত থেকে পাঞ্জাবে আনা হচ্ছে

আটক বাঙালি সৈন্যদের সীমান্ত থেকে পাঞ্জাবে আনা হচ্ছে

যুক্তরাজ্যফেরত যাত্রীদের ১৪ দিন কোয়ারেন্টিনের সুপারিশ জাতীয় কমিটির

যুক্তরাজ্যফেরত যাত্রীদের ১৪ দিন কোয়ারেন্টিনের সুপারিশ জাতীয় কমিটির

ত্রিপক্ষীয় বৈঠক নিয়ে চীনের রাষ্ট্রদূতের সঙ্গে পররাষ্ট্র সচিবের আলোচনা

রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনত্রিপক্ষীয় বৈঠক নিয়ে চীনের রাষ্ট্রদূতের সঙ্গে পররাষ্ট্র সচিবের আলোচনা


[email protected]
© 2021 Bangla Tribune
Bangla Tribune is one of the most revered online newspapers in Bangladesh, due to its reputation of neutral coverage and incisive analysis.