X
বুধবার, ৩০ নভেম্বর ২০২২
১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৯

স্বর্ণালঙ্কার ফিরিয়ে দিলো চোর

বরিশাল প্রতিনিধি
০৫ সেপ্টেম্বর ২০২২, ২২:৫১আপডেট : ০৫ সেপ্টেম্বর ২০২২, ২২:৫১

বরিশালের বানারীপাড়া পৌর শহরের ২ নম্বর ওয়ার্ডে সিঙ্গাপুর প্রবাসীর স্ত্রীর চুরি যাওয়া স্বর্ণালঙ্কার ও ডায়মন্ড ফিরিয়ে দিয়েছে চোর। সোমবার (৫ সেপ্টেম্বর) রান্নাঘরের ভেতর চুরি যাওয়া স্বর্ণালঙ্কার দেখতে পেয়ে দারুণ খুশি রহিমা খাতুন। রহিমা সিঙ্গাপুর প্রবাসী মিজানুর রহমানের স্ত্রী এবং বানারীপাড়া মাহমুুদিয়া সিনিয়র আলিম মাদ্রাসার শিক্ষক।

রহিমা বলেন, সকালে রান্না ঘরের দরজা খোলা দেখতে পাই। পরে মেঝেতে চুরি যাওয়া অলঙ্কারের বাক্স পড়ে থাকতে দেখি। বাক্স খুলে তার মধ্যে রাখা দু’ছড়া সোনার চেন, এক জোড়া কানের দুল, দুটি আংটি, ডায়মন্ড ও সোনার দুটি নাক ফুল ও রূপার (নুপুর) অলঙ্কারসহ খোয়া যাওয়া সবই ফেরত পেয়েছি। 

রহিমা আরও বলেন, ২৪ আগস্ট বিকালে বাসার দরজা খোলা পেয়ে চোর স্টিলের আলমারি থেকে অলঙ্কারের বাক্স চুরি করে নিয়ে যায়। এরপর খোঁজ করলে পাশের বাড়ির ভাড়াটিয়া হেনারা বেগম জানান বাসার গেট থেকে ওইদিন ওই সময় এক কিশোরীকে বের হতে দেখেছেন। ৩ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যায় ওই কিশোরীকে বাসার সামনের রাস্তায় দেখা যায়। পরে স্থানীয়দের সহায়তায় তাকে আটক করলে সে জানায় উপজেলার সদর ইউনিয়নের জম্বদ্বীপ গ্রামের অটোবাইক চালক রুম্মানের নির্দেশে চুরি করেছে। কিশোরীর নাম মুন্নি। তার বাড়ি বানারীপাড়ার সীমান্তবর্তী স্বরূপকাঠি উপজেলার অলঙ্কারকাঠি গ্রামে। 

রহিমা জানান, ওইদিন পুলিশ এসে কিশোরীকে থানায় নিয়ে জিঙ্গাসাবাদ করার পর রুম্মানকে আটক করা হয়। থানায় কিশোরী ও রুম্মানকে মুখোমুখি করে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। রুম্মানকে দেখিয়ে তার নির্দেশে চুরি করে সবকিছু তার হাতে তুলে দিয়েছে বলে জানায় কিশোরী। কিন্তু মামলা করতে রাজি না হওয়ায় ৪ সেপ্টেম্বর রাতে ওই দুইজনকে অভিভাবকের জিম্মায় দেয় পুলিশ।

বানারীপাড়া থানার ওসি এসএম মাসুদ আলম চৌধুরী বলেন, ওই কিশোরী মেয়েটি চুরির কথা অকপটে স্বীকার করলেও রুম্মান ব্যাপক জিঙ্গাসাবাদেও স্বীকার করেনি। প্রবাসীর স্ত্রী মামলা করতে রাজি না হওয়ায় তাদের শর্ত সাপেক্ষে পরিবারের জিম্মায় দেওয়া হয়।

ওসি আরও বলেন, থানায় ওই প্রবাসীর স্ত্রীর কান্না দেখে চোরের মানবিকতা জাগ্রত হতে পারে কিংবা পরবর্তীতে ধরা পড়ার ভয়ে তারা চুরি করে নেওয়া স্বর্ণালঙ্কারসহ সবকিছু গোপনে ফেরত দিয়ে থাকতে পারে বলে ধারণা তার।

/টিটি/
ইউক্রেনের প্রতি সমর্থন প্রত্যাহার নয়: ন্যাটো
ইউক্রেনের প্রতি সমর্থন প্রত্যাহার নয়: ন্যাটো
ঝিনাইদহে দুই পক্ষের সংঘর্ষে নিহত ১
ঝিনাইদহে দুই পক্ষের সংঘর্ষে নিহত ১
ঢাবিতে কোণঠাসা বিরোধী ছাত্র সংগঠনগুলো!
ঢাবিতে কোণঠাসা বিরোধী ছাত্র সংগঠনগুলো!
চাকরি দেওয়ার কথা বলে নারীকে সৌদি আরবে ‘বিক্রি’, চলতো ভয়াবহ নির্যাতন
চাকরি দেওয়ার কথা বলে নারীকে সৌদি আরবে ‘বিক্রি’, চলতো ভয়াবহ নির্যাতন
সর্বাধিক পঠিত
আ.লীগ নেত্রীর বাসায় নৈশভোজে মার্কিন রাষ্ট্রদূত
আ.লীগ নেত্রীর বাসায় নৈশভোজে মার্কিন রাষ্ট্রদূত
সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে সমাবেশ না করার সিদ্ধান্ত বিএনপির
সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে সমাবেশ না করার সিদ্ধান্ত বিএনপির
বিএনপিকে ২৬ শর্তে সোহরাওয়ার্দীতে গণসমাবেশের অনুমতি: ডিএমপি
বিএনপিকে ২৬ শর্তে সোহরাওয়ার্দীতে গণসমাবেশের অনুমতি: ডিএমপি
বাংলাদেশের অংশগ্রহণ নিয়ে ধোঁয়াশা
চায়না-ইন্ডিয়ান ওশান ফোরাম অনুষ্ঠানবাংলাদেশের অংশগ্রহণ নিয়ে ধোঁয়াশা
ফিফার মান বাঁচালেন ‘বিটিএস’ জাংকুক!
ফিফার মান বাঁচালেন ‘বিটিএস’ জাংকুক!