X
বুধবার, ০৬ জুলাই ২০২২
২১ আষাঢ় ১৪২৯

খাগড়াছড়ির সেই প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে মামলা

আপডেট : ১১ মে ২০২২, ১৮:৫২

জেলার মাটিরাঙা উপজেলার খেদাছড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ইকবাল হোসেনের বিরূদ্ধে মামলা করেছেন সহকারী প্রধান শিক্ষক নুরুল ইসলাম। কেটে নেওয়া নয় দিনের বেতন ফেরত প্রার্থনা করে খাগড়াছড়ি যুগ্ম জেলা জজ মাহমুদুল হাসানের আদালতে এই মামলা করেন সহকারী প্রধান শিক্ষক।

সহকারী প্রধান শিক্ষক নুরুল ইসলাম জানান, গত ২০ বছরে প্রধান শিক্ষক কারণে-অকারণে তাকে ৬৭টি কারণ দর্শানোর নোটিশ করেছেন। সর্বশেষ গত ফেব্রুয়ারি মাসে বিদ্যালয়ে অনুপস্থিতির অভিযোগ এনে কেটেছেন নয় দিনের বেতন। সব সময় প্রধান শিক্ষকের কারণ দর্শানোর নোটিশের আতঙ্কে থাকায় তিনি ইতোমধ্যে স্ট্রোক করেছেন এবং করেছেন ওপেন হার্ট সার্জারিও। সর্বশেষ কারণ দর্শানোর নোটিশ অবৈধ এবং নয় দিনের বেতন ফেরত পাওয়ার প্রার্থনায় করেছেন মামলা।

সহকারী প্রধান শিক্ষক আরও বলেন, ‘১৯৯৬ সালে তিনি বিদ্যালয়টিতে যোগদান করার প্রধান শিক্ষকের বৈষম্যমূলক আচরণের শিকার হয়েছেন। এই পর্যন্ত পাওয়া প্রত্যেকটি কারণ দর্শানোর নোটিশের জবাব দিলেও কোনও শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নিতে পারেননি প্রধান শিক্ষক। কিন্তু গত ২২ মার্চ ১৪ দিন সময় দিয়ে পাঁচটি বিষয়ের ব্যাখ্যা চেয়ে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেওয়ার মাত্র একদিন পরে ২৩ মার্চ নয় দিন উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে অনুপস্থিত দেখিয়ে প্রায় সাড়ে সাত হাজার টাকা বেতন কাটা সম্পূর্ণ বেআইনি।’

তিনি আরও বলেন, ‘গত ২ এপ্রিল সর্বশেষ কারণ দর্শানোর নোটিশের জবাব দেওয়ার পর ৫ এপ্রিল প্রধান শিক্ষক বরাবর দরখাস্ত দিয়ে নয় দিনের বেতন ফেরত পাওয়ার আবেদন করেছি, কিন্তু না দেওয়ায় বাধ্য হয়ে মামলা করেছি।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে প্রধান শিক্ষক ইকবাল হোসেন জানান, যেহেতু সহকারী প্রধান শিক্ষক মামলা করেছেন, তাই তিনি আইনগতভাবেই জবাব দেবেন এবং মামলায় লড়বেন।

বিদ্যালয় পরিচালনা পরিষদের সভাপতি কামাল উদ্দিন চৌধুরী বলেন, ‘বিষয়টি আলাপ-আলোচনার মাধ্যমে সমাধান না করে সহকারী প্রধান শিক্ষকের মামলা করা  ঠিক হয়নি। এটি বিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রীদের মাঝে নেতিবাচক প্রভাব ফেলবে।’

আরও খবর: প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে সহকারী প্রধান শিক্ষককে হয়রানির অভিযোগ

 
/এমএএ/
বাংলা ট্রিবিউনের সর্বশেষ
ভিজিএফের চালে পাথর, সুবিধাভোগীদের মাঝে ক্ষোভ
ভিজিএফের চালে পাথর, সুবিধাভোগীদের মাঝে ক্ষোভ
এডিট করা ছবি ভাইরালের হুমকি, যুবকের ৮ বছর জেল
এডিট করা ছবি ভাইরালের হুমকি, যুবকের ৮ বছর জেল
গরু ব্যবসায়ীদের ৩০ লাখ টাকা ও ১০টি গরু ডাকাতি
গরু ব্যবসায়ীদের ৩০ লাখ টাকা ও ১০টি গরু ডাকাতি
হাটে ছাগল আছে ক্রেতা নেই
হাটে ছাগল আছে ক্রেতা নেই
এ বিভাগের সর্বশেষ
স্ত্রীর রহস্যজনক মৃত্যু, রিমান্ডে কাউন্সিলর পুত্র
স্ত্রীর রহস্যজনক মৃত্যু, রিমান্ডে কাউন্সিলর পুত্র
ডিপোতে আগুন: তদন্ত শেষ করতে পারেনি ৬ কমিটির পাঁচটি
ডিপোতে আগুন: তদন্ত শেষ করতে পারেনি ৬ কমিটির পাঁচটি
চট্টগ্রাম সিটির বর্জ্য অপসারণ করবে ৫ হাজার শ্রমিক 
চট্টগ্রাম সিটির বর্জ্য অপসারণ করবে ৫ হাজার শ্রমিক 
পশুর অবৈধ হাট বসানোয় ৪০ হাজার টাকা জরিমানা
পশুর অবৈধ হাট বসানোয় ৪০ হাজার টাকা জরিমানা
র‍্যাবের সঙ্গে মাদক ব্যবসায়ীদের সংঘর্ষে আহত ৩
র‍্যাবের সঙ্গে মাদক ব্যবসায়ীদের সংঘর্ষে আহত ৩