X
শুক্রবার, ১৪ জুন ২০২৪
৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

‘মিশনে থাকাকালেও মিতুকে হত্যার চেষ্টা করেছিল বাবুল আক্তার’

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম
০২ মে ২০২৩, ২১:৩৮আপডেট : ০২ মে ২০২৩, ২১:৪১

মাহমুদা খানম মিতু হত্যা মামলায় পুলিশের সাবেক এসপি বাবুল আক্তারের বিরুদ্ধে আদালতে সাক্ষ্য দিয়েছেন নিহতের বাবা মোশাররফ হোসেন। মঙ্গলবার (২ মে) আদালতে দ্বিতীয় দিনের মতো এই মামলার সাক্ষ্যগ্রহণ চলে। মামলার বাদী মিতুর বাবা তার অসমাপ্ত সাক্ষ্য দিয়েছেন। তৃতীয় অতিরিক্ত চট্টগ্রাম মহানগর দায়রা জজ মো. জসিম উদ্দিনের আদলতে এ সাক্ষ্য দেন।

আদালত সূত্র জানায়, ‘আদালতে মোশাররফ হোসেন বলেন, মাহমুদা খানম মিতুকে হত্যার জন্য ভাড়াটে সন্ত্রাসীদের ৭০ হাজার টাকা দিয়েছিল স্বামী সাবেক পুলিশ সুপার বাবুল আক্তার। বাবুলের বন্ধু প্রেস মালিক সাইফুলের মাধ্যমে এ টাকা যায় ভাড়াটে খুনি কামরুল ইসলাম ওরফে মুসার হাতে।’

আদালতে তিনি আরও বলেন, ‘কক্সবাজারে এনজিও সংস্থায় কর্মরত বিদেশি নারী গায়েত্রী অমর সিংয়ের সঙ্গে প্রেমে জড়িয়ে পড়ে বাবুল আক্তার। এ কারণে স্ত্রীকে পথের কাটা মনে করে তাকে সরিয়ে দিতে একাধিকবার পরিকল্পনা করেছিল। এমনকি বাবুল আক্তার যখন মিশনে সুদান গিয়েছিল (২০১৪ সাল), তখনও মিতুকে হত্যার চেষ্টা করেছিল তাতে সফল হয়নি। এরপর যখন চীনে ছিল তখনও হত্যায় পরিকল্পনা করা হয়। সে সময়ও সফল হয়নি। ২০১৬ সালের ১ জুনও মিতুকে হত্যায় পরিকল্পনা করেও ব্যর্থ হয় ভাড়াটে খুনিরা। সর্বশেষ বাবুল আক্তার ঢাকায় থাকা অবস্থায় ২০১৬ সালের ৫ জুন মিতুকে হত্যায় সফল হয়।’

এদিকে, দুপুরে বাবুল আক্তারকে আদালতে তোলা হয়। বাবুল-মিতু দম্পতির দুই ছেলে-মেয়ে আক্তার মাহমুদ মাহির ও মেয়ে টাপুরও আদালতে আসেন বাবুল আক্তারের বর্তমান স্ত্রীর সঙ্গে। এ সময় সন্তানদের ধরে কেঁদেছেন বাবুল আক্তার।

চট্টগ্রাম মহানগর দায়রা জজ আদালতের সরকারি কৌঁসুলি আবদুর রশিদ বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘মিতু হত্যা মামলায় আজ আদালতে আজও সাক্ষ্য দিয়েছেন মামলার বাদী নিহত মিতুর পিতা মোশাররফ হোসেন। এর আগে ৯ এপ্রিল তার সাক্ষ্য গ্রহণ শুরু হয়। আজ দ্বিতীয় দিনের মতো আদালতে তার অসামাপ্ত সাক্ষ্য দিয়েছেন। সাক্ষ্য শেষে জেরা শুরু করেছিলেন আসামি পক্ষের আইনজীবীরা। আদালত জেরা মুলতবি রেখে আগামী ৮ মে পরবর্তী দিন ধার্য করেছেন।’

বাবুল আক্তারের আইনজীবী গোলাম মাওলা মুরাদ বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘মিতুর বাবা মোশাররফ হোসেনের সাক্ষ্য শেষ হয়েছে। জেরা শুরু হয়েছে। আগামী ধার্য তারিখে বাকি জেরা হবে। আদালতে আজ বাবুল-মিতু দম্পতির ছেলে মেয়েরা এসেছিল। কারাগারে বন্দি বাবাকে আদালতে দেখতে এসেছেন তারা। প্রথমে পুলিশ তাদের সঙ্গে দেখা করতে দেওয়া হয়নি। পরে আদালতের নির্দেশে দুপুরে খাবারের বিরতিতে ২টা থেকে ৩টায় দুই ছেলেমেয়েকে দেখা করতে দেওয়া হয়। তখন দুই ছেলেমেয়েকে জড়িয়ে ধরে বাবুল আক্তার কান্নায় ভেঙে পড়েন। কান্না করেন ছেলে-মেয়েও।’

সাক্ষ্যগ্রহণের সময় আদালতে বাবুল আক্তার ছাড়াও আসামি আনোয়ার হোসেন, শাহজাহান মিয়া ও মোতালেব মিয়া প্রকাশ ওয়াসিমকে আদালতে হাজির করা হয়। এ মামলার আসামিদের মধ্যে জামিনে থাকা এহতেশামুল হক ভোলাও আদালতে উপস্থিত ছিলেন। তবে কালু পলাতক ও মুছা নিখোঁজ রয়েছেন। গত ১৩ মার্চ এ আদালত বাবুল আক্তারসহ সাত আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করে বিচার শুরুর সিদ্ধান্ত দেন।

২০১৬ সালের ৫ জুন ছেলে আক্তার মাহমুদ মাহিরকে স্কুলবাসে তুলে দিতে গিয়ে চট্টগ্রাম নগরের জিইসি মোড়ের কাছে খুন হন মাহমুদা খানম মিতু। এই ঘটনায় তার স্বামী বাবুল আক্তার বাদী হয়ে তিন জনকে আসামি করে পাঁচলাইশ থানায় মামলা করেন। মামলাটি প্রথমে তদন্ত করে পাঁচলাইশ থানা পুলিশ। এরপর তদন্তের দায়িত্ব পায় নগর গোয়েন্দা পুলিশ। পরে আদালতের নির্দেশে ২০২০ সালের জানুয়ারিতে মিতু হত্যা মামলা তদন্তের দায়িত্ব পায় পিবিআই। এরপর পাল্টে যায় মিতু হত্যা মামলার গতিপথ। পিবিআইয়ের তদন্তে উঠে আসে বাবুল আক্তারই মিতু হত্যার মূল আসামি।

/এফআর/
সম্পর্কিত
এমপি আজীমকে বালিশচাপা দিয়ে খুন! স্বীকারোক্তি সিয়ামের
এমপি আজীম হত্যাকাণ্ডখুনির সঙ্গে তৃতীয় মাধ্যমে যোগাযোগ করেন মিন্টু, দিয়েছেন অর্থ
এমপি আনার হত্যা: মিন্টু ৮ দিনের রিমান্ডে
সর্বশেষ খবর
ঢাকা থেকে শ্রীমঙ্গল ছুটলেন তৌসিফ-তটিনী
ঢাকা থেকে শ্রীমঙ্গল ছুটলেন তৌসিফ-তটিনী
কোরবানিতে যেসব বিষয় খেয়াল রাখা উচিত
কোরবানিতে যেসব বিষয় খেয়াল রাখা উচিত
তীব্র প্রতিদ্বন্দ্বিতার ঝাঁজ তুলে শুরু হচ্ছে ইউরো
তীব্র প্রতিদ্বন্দ্বিতার ঝাঁজ তুলে শুরু হচ্ছে ইউরো
ঈদ আসছে, ‘আওয়াজ’ বাড়ছে কামারপাড়ায়
ঈদ আসছে, ‘আওয়াজ’ বাড়ছে কামারপাড়ায়
সর্বাধিক পঠিত
ষষ্ঠ থেকে নবম শ্রেণির মূল্যায়ন: যেসব নির্দেশনা দেওয়া হলো শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে
ষষ্ঠ থেকে নবম শ্রেণির মূল্যায়ন: যেসব নির্দেশনা দেওয়া হলো শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে
শনিবার শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ নাকি খোলা, সিদ্ধান্ত ঈদের পর
শনিবার শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ নাকি খোলা, সিদ্ধান্ত ঈদের পর
কোটি টাকার গরু, ১৫ লাখের ছাগল এবং ‘ফুটানি’
কোটি টাকার গরু, ১৫ লাখের ছাগল এবং ‘ফুটানি’
এনবিআরের সাবেক কমিশনার ওয়াহিদা রহমানের দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা
এনবিআরের সাবেক কমিশনার ওয়াহিদা রহমানের দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা
ঈদের পর মেট্রোরেলে নতুন পিক-অফপিক
ঈদের পর মেট্রোরেলে নতুন পিক-অফপিক