X
রবিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২
৯ আশ্বিন ১৪২৯

গহনার জন্য স্ত্রীকে হত্যার অভিযোগ, যুবক গ্রেফতার

সাভার প্রতিনিধি
১২ আগস্ট ২০২২, ১৫:২৩আপডেট : ১২ আগস্ট ২০২২, ১৫:২৩

সাভারে সামিয়া আক্তার (২৫) নামে এক গৃহবধূকে হত্যার অভিযোগে তার স্বামী সাদনাম সাকিব হৃদয়কে (৩০)  গ্রেফতার করেছে।

শুক্রবার (১২ শুক্রবার) দুপুরে সাভার পৌর এলাকার ব্যাংক কলোনি মহল্লা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। হৃদয় ওই এলাকার জাকারিয়া হোসেনের ছেলে। সামিয়া মানিকগঞ্জের সিংগাইর থানার মিজানুর রহমানের মেয়ে।

নিহতের স্বজনরা অভিযোগ করে বলেন, ‌‘পাঁচ বছর আগে পারিবারিকভাবে হৃদয় ও সামিয়ার বিয়ে হয়। বিয়ের সময় সামিয়াকে ২৫ ভরি স্বর্ণের গহনা দেওয়া হয়। গহনা নিয়ে স্বামী ও শ্বশুর-শ্বাশুড়ির সঙ্গে বাগবিতণ্ডা হয়। এর জেরেই সামিয়াকে শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়েছে।’

সামিয়ার ছোট মামা আশিকুর রহমান ইছা বলেন, ‘বিয়ের সময় সামিয়ার বাবা ও মামারা মিলে ২৫ ভরি স্বর্ণের গহনা, মোটরসাইকেল ও তিন লাখ টাকার আসবাবপত্র দিয়েছিলেন। বিয়ের পরপরই কৌশলে গহনা হাতিয়ে নেয় শ্বাশুড়ি জায়েদা পারভিন। গহনা নিয়ে শ্বশুর-শাশুড়ি ও স্বামীর সঙ্গে মাঝে মাঝে ঝগড়া হতো সামিয়ার।  গহনা নিয়ে কথা বললেই তাকে মারধর করতো।’

তিনি আরও বলেন, ‘বৃহস্পতিবার বেলা ৩টার দিকে সামিয়া ফোন করে আমাদের জানায়, ওকে (সামিয়া)  মারধর করছে স্বামী ও শ্বশুর-শাশুড়ি। ৩টা ৩৭ মিনিটে হৃদয় আমাদের ফোনে জানায়, সামিয়া স্টোক করেছে, তাকে সাভারের এনাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে। হাসপাতালে গিয়ে সামিয়ার মরদেহ দেখতে পাই। গহনা নিয়ে কথা বলায় আমার ভাগনিকে ওরা হত্যা করেছে। আমি হত্যাকারীদের ফাঁসি চাই।’

সাভার মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কাজী মাইনুল ইসলাম জানান, রাতে এনাম মেডিক্যাল হাসপাতাল থেকে লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনায় তিন জনের নামে মামলা করেছেন সামিয়ার বাবা। প্রধান আসামি হৃদয়কে গ্রেফতার করা হয়েছে। তার বাবা-মাকে গ্রেফতারে অভিযান চলছে।

/এসএইচ/
সম্পর্কিত
ধর্ষণে ব্যর্থ হয়ে স্কুলছাত্রীকে বালিশ চাপা দিয়ে হত্যা করেছে গৃহশিক্ষক
আদালতে জবানবন্দিধর্ষণে ব্যর্থ হয়ে স্কুলছাত্রীকে বালিশ চাপা দিয়ে হত্যা করেছে গৃহশিক্ষক
ডিজে দম্পতি ‘হত্যাকাণ্ডের’ ৪ বছর পর আসামিদের স্বীকারোক্তি
ডিজে দম্পতি ‘হত্যাকাণ্ডের’ ৪ বছর পর আসামিদের স্বীকারোক্তি
স্বামী-শ্বশুরের নির্যাতনের বর্ণনা দেওয়ার পর গৃহবধূর মৃত্যু
স্বামী-শ্বশুরের নির্যাতনের বর্ণনা দেওয়ার পর গৃহবধূর মৃত্যু
ভগ্নিপতিকে হত্যার অভিযোগে শ্যালক আটক
ভগ্নিপতিকে হত্যার অভিযোগে শ্যালক আটক
বাংলা ট্রিবিউনের সর্বশেষ
এতদিন কোথায় ছিলেন রহিমা?
এতদিন কোথায় ছিলেন রহিমা?
আ.লীগ সব সময় জনগণের ভোটেই ক্ষমতায় আসে: প্রধানমন্ত্রী
আ.লীগ সব সময় জনগণের ভোটেই ক্ষমতায় আসে: প্রধানমন্ত্রী
মহরতে স্মৃতিকাতর প্রযোজক অপু বিশ্বাস (ভিডিও)
মহরতে স্মৃতিকাতর প্রযোজক অপু বিশ্বাস (ভিডিও)
আজ মহালয়া, দেবীপক্ষের শুরু
আজ মহালয়া, দেবীপক্ষের শুরু
এ বিভাগের সর্বশেষ
ধর্ষণে ব্যর্থ হয়ে স্কুলছাত্রীকে বালিশ চাপা দিয়ে হত্যা করেছে গৃহশিক্ষক
আদালতে জবানবন্দিধর্ষণে ব্যর্থ হয়ে স্কুলছাত্রীকে বালিশ চাপা দিয়ে হত্যা করেছে গৃহশিক্ষক
স্বামী-শ্বশুরের নির্যাতনের বর্ণনা দেওয়ার পর গৃহবধূর মৃত্যু
স্বামী-শ্বশুরের নির্যাতনের বর্ণনা দেওয়ার পর গৃহবধূর মৃত্যু
ভগ্নিপতিকে হত্যার অভিযোগে শ্যালক আটক
ভগ্নিপতিকে হত্যার অভিযোগে শ্যালক আটক
তালাবদ্ধ ঘরে বৃদ্ধ দম্পতির হাত-মুখ বাঁধা লাশ
তালাবদ্ধ ঘরে বৃদ্ধ দম্পতির হাত-মুখ বাঁধা লাশ
নানাকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ, নাতি পলাতক
নানাকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ, নাতি পলাতক