X
শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪
১ আষাঢ় ১৪৩১

ফের হাশিম মাহমুদের গানে চঞ্চল (ভিডিও)

বিনোদন রিপোর্ট
১৩ মার্চ ২০২৪, ১৪:০৯আপডেট : ১৩ মার্চ ২০২৪, ১৬:৫১

বছর দুয়েক আগের কথা। খুব সহজ-সরল কথার এক গান আসে প্রকাশ্যে। আর মুহূর্তেই ঝড় তোলে অন্তর্জালে। না, সেই ঝড় শুধু ফেসবুক-ইউটিউবেই সীমাবদ্ধ থাকেনি; বরং ওই গান বাংলাদেশ ও ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মানুষের মুখে মুখে রটে যায়। যার রেশ এখনও কাটেনি সেভাবে।

গানটির নাম ‘সাদা সাদা কালা কালা’। যেটা ব্যবহৃত হয়েছে মেজবাউর রহমান সুমন নির্মিত সিনেমা ‘হাওয়া’য়। ইমন চৌধুরীর সংগীতায়োজনে গানটিতে কণ্ঠ দেন এরফান মৃধা শিবলু। তবে গানটির মূল স্রষ্টা তথা গীতিকার ও সুরকার হলেন হাশিম মাহমুদ। অগোচরে থাকা এই গুণী শিল্পীর খবরও সামনে আসে গানটির জনপ্রিয়তার সুবাদে।

‘হাওয়া’র মূল তারকা চঞ্চল চৌধুরী। ‘সাদা সাদা কালা কালা’ গানে তারও উপস্থিতি রয়েছে। দুই বছর পর আবারও হাশিম মাহমুদের গানে পাওয়া গেলো চঞ্চলকে। এবার শুধু অভিনয়ই নয়, সোজা গাইলেন। বলা যদিও নিষ্প্রয়োজন, অভিনেতা চঞ্চল গায়ক হিসেবেও দক্ষ। তার কণ্ঠে মৌলিক ও কাভার বেশ কিছু গান শ্রোতাপ্রিয় হয়েছে।

এবার তিনি কণ্ঠে তুললেন হাশিম মাহমুদের লেখা-সুরের আরেকটি গান। যেটার শিরোনাম ‘বাজি’। মঙ্গলবার (১২ মার্চ) রাতে নিজের সোশ্যাল হ্যান্ডেলে গানটি শেয়ার করেছেন ‘চান মাঝি’। সঙ্গে জানিয়েছেন, কীভাবে এই গান তার কণ্ঠে উঠলো, সেই গল্প।

‘হাওয়া’র চান মাঝি চঞ্চল চঞ্চল বললেন, ‘অনেক দিন আগে বিনোদের (সংগীত পরিচালক) স্টুডিওতে একটা অনুষ্ঠানের রিহার্সেল করতে গিয়ে হাশিম মাহমুদের এই গানটি পূর্ব প্রস্তুতি ছাড়াই রেকর্ড করেছিলাম। এরপর নিজে নিজেই ভিডিও বানিয়ে রেখে দিয়েছিলাম। আজ (১২ মার্চ) সবার জন্য পোস্ট করলাম।’

‘গঙ্গা যদি যাইতে পারি, তোমায় আমি পাইতে পারি, ভ্রমর কালো নদী/ তরী যদি বাইতে পারি, সাদা পাল উড়াইতে পারি, ভ্রমর কালো নদী/ নদীতে তুফান উঠিলে, পানি যদি না সেচিলে, অঘটনেও রাজি/ তোমায় আমি পাইতে পারি বাজি/’—এমন কথার গানটি এর আগেও বিভিন্ন শিল্পী গেয়েছেন। চঞ্চলও তার ভালোলাগা থেকে গাইলেন। নতুন করে এর সংগীতায়োজন করেছেন বিনোদ রায়। ভিডিও ধারণ করেছেন তাহসিন।

গানটির স্রষ্টা হাশিম মাহমুদকে নিয়ে অভিনেতার ভাষ্য, “হাশিম মাহমুদের গান ছড়িয়ে পড়ুক সবার প্রাণে। ‘সাদা সাদা কালা কালা’ কিংবা ‘ফুল ফুটেছে গন্ধে সারা মন’ এসব গানের স্রষ্টা তিনি।”

বলা দরকার, হাশিম মাহমুদের লেখা-সুরের ‘ফুল ফুটেছে’ (কথা কইও না) গানটি নতুন আয়োজনে প্রকাশ করা হয়েছে কোক স্টুডিও বাংলার মতো বড় অনুষ্ঠানে। যেটার অন্তর্জালে শুধু কোকের চ্যানেলেই ৫৬ মিলিয়নের বেশি ভিউ।

উল্লেখ্য, নব্বই দশকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় পরিচিত মুখ ছিলেন হাশিম মাহমুদ। নিজের লেখা-সুরের গান গেয়ে তিনি সবাইকে মুগ্ধ করে রাখতেন। ‘বৈরাগী’ নামে তার একটি গানের দলও ছিল। তবে পরবর্তী সময়ে অসুস্থতার কারণে নিজের গানই ভুলে যান তিনি। সেই অসুস্থতা নিয়েই নিভৃতে নারায়ণগঞ্জে এখন তার বসবাস। অন্যদিকে তার গান বাতাসের বেগে ছড়িয়ে গেছে দেশ-দেশান্তরে। হাশিম মাহমুদ

/কেআই/এমওএফ/
সম্পর্কিত
‘তুফান’ সম্মেলন: মধ্যমণি মিমি, এঁকে দিলেন হার্ট চিহ্ন
‘তুফান’ সম্মেলন: মধ্যমণি মিমি, এঁকে দিলেন হার্ট চিহ্ন
সনু নিগাম ও অরিজিতের প্রথম দ্বৈত গানের সঙ্গে চঞ্চলের অভিনয়
সনু নিগাম ও অরিজিতের প্রথম দ্বৈত গানের সঙ্গে চঞ্চলের অভিনয়
চঞ্চলকে অস্বস্তিতে ফেলে দিলেন স্বস্তিকা!
চঞ্চলকে অস্বস্তিতে ফেলে দিলেন স্বস্তিকা!
যেভাবে চঞ্চলের খোঁজ পেয়েছিলেন গৌতম ঘোষ
যেভাবে চঞ্চলের খোঁজ পেয়েছিলেন গৌতম ঘোষ
বিনোদন বিভাগের সর্বশেষ
এবার ঢাকার নাটকে ও ওয়েব ফিল্মে ‘ভাইরাল বেবি’ দর্শনা
এবার ঢাকার নাটকে ও ওয়েব ফিল্মে ‘ভাইরাল বেবি’ দর্শনা
ছাত্ররাজনীতি নিয়ে ঈদের নাটক
ছাত্ররাজনীতি নিয়ে ঈদের নাটক
আইটেম গার্ল হিসেবে শেষ পারফরম্যান্সে মিলা
আইটেম গার্ল হিসেবে শেষ পারফরম্যান্সে মিলা
অন্যভাবে গায়িকা ঐশীকে উপস্থাপন
অন্যভাবে গায়িকা ঐশীকে উপস্থাপন
গাইলেন নন্দিত নৃত্যজুটি শিবলী-নিপা!
গাইলেন নন্দিত নৃত্যজুটি শিবলী-নিপা!