X
বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই ২০২৪
৯ শ্রাবণ ১৪৩১

লোহিত সাগরে হুথিদের হামলা, দ্বিতীয় ব্রিটিশ জাহাজ ডুবে যাওয়ার আশঙ্কা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
১৯ জুন ২০২৪, ১১:৩৪আপডেট : ১৯ জুন ২০২৪, ১১:৩৪

ইয়েমেনের হুথিরা লোহিত সাগরে টিউটর নামের একটি দ্বিতীয় ব্রিটিশ জাহাজ ডুবিয়ে দিয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। মঙ্গলবার (১৮ জুন) এই তথ্য জানিয়েছে ইউনাইটেড কিংডম মেরিটাইম ট্রেড অপারেশনস (ইউকেএমটিও)। ইউকেএমটিও, হুথি এবং অন্যান্য উৎসের আগের প্রতিবেদন অনুসারে, গ্রিক মালিকানাধীন টিউটর কয়লা বহন করছিল। ১২ জুন ক্ষেপণাস্ত্র ও একটি বিস্ফোরক-বোঝাই রিমোট-নিয়ন্ত্রিত নৌকা দিয়ে এটির ওপর হামলা করা হয়। ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্স এই খবর জানিয়েছে।

একটি নিরাপত্তা আপডেটে ইউকেএমটিও বলেছে, ‘সামরিক কর্তৃপক্ষ টিউটরের সর্বশেষ রিপোর্ট করা স্থানে সামুদ্রিক ধ্বংসাবশেষ ও তেল দেখা গেছে বলে জানিয়েছে।’

এ বিষয়ে মন্তব্যের জন্য টিউটরের ব্যবস্থাপকের সঙ্গে তাৎক্ষণিকভাবে যোগাযোগ করা যায়নি।

ধারণা করা হচ্ছে, এক ক্রু সদস্য হামলার সময় টিউটরের ইঞ্জিন রুমে ছিলেন। তিনি এখন নিখোঁজ রয়েছেন।

ইরান-সমর্থিত হুথিরা নভেম্বর থেকে লোহিত সাগর অঞ্চলে বাণিজ্যিক জাহাজগুলোকে লক্ষ্যবস্তু করে চলেছে। গাজায় ফিলিস্তিনিদের সঙ্গে সংহতি জানিয়ে এই হামলা পরিচালনা করছে তারা।

এর আগে, প্রথমবারের মতো যুক্তরাজ্যের মালিকানাধীন রুবিমার জাহাজটিকে ডুবিয়ে দেয় হুথিরা।  ক্ষেপণাস্ত্র আঘাত হানার প্রায় দুই সপ্তাহ পর ২ মার্চ জাহাজটি বিধ্বস্ত হয়ে ডুবে যায়।

হুথিরা লাইবেরিয়া-পতাকাবাহী জাহাজ, একইসঙ্গে পালাউ-পতাকাযুক্ত ভারবেনাকে গুরুতরভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করার এক সপ্তাহ পর ইউকেএমটিও এর জাহাজ ‘টিউটর’ ডুবে যাওয়া আশঙ্কা করা হচ্ছে। ভারবেনা কাঠের নির্মাণ সামগ্রীতে বোঝাই ছিল।

হামলার কারণে সৃষ্ট আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে না পেরে ভারবেনার নাবিকরা জাহাজ পরিত্যাগ করেছিল। জাহাজটি এখন এডেন উপসাগরে ভেসে যাচ্ছে। এটি ডুবে যাওয়ার বা আরও হামলা শিকার হওয়ার ঝুঁকিতে রয়েছে।

নভেম্বর থেকে অন্য একটি জাহাজও দখল করেছে হুথিরা। পৃথক হামলায় তিন নাবিককে হত্যা করেছে তারা।

হুথিদের ড্রোন ও ক্ষেপণাস্ত্র হামলার কারণে বাণিজ্যিক জাহাজগুলোকে সুয়েজ খালের বাণিজ্য শর্টকাট রাস্তা থেকে আফ্রিকার আশেপাশের দীর্ঘ রুটে সরিয়ে নিতে বাধ্য করা হচ্ছে। এতে করে ডেলিভারি বিলম্বিত হচ্ছে এবং খরচের পরিমাণও বাড়ছে, যা বিশ্ব বাণিজ্যকে ব্যাহত করেছে।

সোমবার ইয়েমেনের হোদেইদাহ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ও লোহিত সাগরের সালিফ বন্দরের কাছে কামারান দ্বীপকে লক্ষ্য করে বিমান হামলা চালিয়েছে মার্কিন ও ব্রিটিশ বাহিনী। গত সপ্তাহে জাহাজে হুথিদের হামলার প্রতিশোধ হিসেবে এই হামলা চালিয়েছে তারা।

/এএকে/
সম্পর্কিত
জ্বালাও-পোড়াও ও নিহতে মিরপুরের ৩ দিন
কূটনীতিকরা স্তম্ভিত, বলেছেন বাংলাদেশের পাশে আছেন: পররাষ্ট্রমন্ত্রী
সংঘাতে ডিএনসিসির ২০৫ কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি
সর্বশেষ খবর
জ্বালাও-পোড়াও ও নিহতে মিরপুরের ৩ দিন
জ্বালাও-পোড়াও ও নিহতে মিরপুরের ৩ দিন
কূটনীতিকরা স্তম্ভিত, বলেছেন বাংলাদেশের পাশে আছেন: পররাষ্ট্রমন্ত্রী
কূটনীতিকরা স্তম্ভিত, বলেছেন বাংলাদেশের পাশে আছেন: পররাষ্ট্রমন্ত্রী
সংঘাতে ডিএনসিসির ২০৫ কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি
সংঘাতে ডিএনসিসির ২০৫ কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি
নাটকীয় হারে আর্জেন্টিনার অলিম্পিক যাত্রা শুরু
নাটকীয় হারে আর্জেন্টিনার অলিম্পিক যাত্রা শুরু
সর্বাধিক পঠিত
ধারণা ছিল একটা আঘাত আসবে: প্রধানমন্ত্রী
ধারণা ছিল একটা আঘাত আসবে: প্রধানমন্ত্রী
কোটা নিয়ে রায় ঘোষণার আগে যা বলেছিলেন প্রধান বিচারপতি
কোটা নিয়ে রায় ঘোষণার আগে যা বলেছিলেন প্রধান বিচারপতি
চাকরিতে কোটা: প্রজ্ঞাপনে যা আছে
চাকরিতে কোটা: প্রজ্ঞাপনে যা আছে
কোটা আন্দোলন: প্রধানমন্ত্রীর বর্ণনায় ক্ষয়ক্ষতির চিত্র 
কোটা আন্দোলন: প্রধানমন্ত্রীর বর্ণনায় ক্ষয়ক্ষতির চিত্র 
কারফিউ বা সান্ধ্য আইন কী 
কারফিউ বা সান্ধ্য আইন কী