সিএএ নিয়ে সরকারের জবাব শুনতে চায় ভারতের সুপ্রিম কোর্ট

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ২২:১৬, জানুয়ারি ২২, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ২২:১৮, জানুয়ারি ২২, ২০২০

সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের (সিএএ) ওপর স্থগিতাদেশ দিতে অস্বীকৃতি জানিয়েছে ভারতের সর্বোচ্চ আদালত। সিএএ সংশ্লিষ্ট ১৪৩টি আবেদনের জবাব দিতে কেন্দ্রীয় সরকারকে চার সপ্তাহের সময় দিয়েছে প্রধান বিচারপতি এস এ বোবদের নেতৃত্বাধীন তিন সদস্যের বেঞ্চ। বুধবার শুনানি শেষে আদালতের আদেশে বলা হয়েছে, সুপ্রিম কোর্টের পাঁচ সদস্যের বেঞ্চ আইনটি নিয়ে অর্ন্তবর্তী আদেশ দেবে। ভারতের সম্প্রচারমাধ্যম এনডিটিভি জানিয়েছে, সুপ্রিম কোর্টের বুধবারের আদেশে স্পষ্ট যে, আইনটি নিয়ে সরকারের যুক্তি না শুনে কোনও আদেশ দেবেন না তারা।

গত ডিসেম্বরে ভারতের নাগরিকত্ব আইনে সংশোধনী আনা হলে দেশজুড়ে তীব্র বিক্ষোভ শুরু হয়। আইনটির বিরুদ্ধে স্থগিতাদেশ চেয়ে সুপ্রিম কোর্টে জমা পড়ে ১৪৩টি আবেদন। বুধবার এসব আবেদনের ওপর শুনানি শুরু হলে ভারতের অ্যাটর্নি জেনারেল আদালতে জানান, সরকারের কাছে মাত্র ৬০টি আবেদনের অনুলিপি পৌঁছেছে। বাকি অনুলিপি না পেলে এনিয়ে সরকারের মন্তব্য সম্ভব নয় বলে জানিয়ে আদালতের কাছে সময় প্রার্থনা করেন তিনি। এরপরেই আদালত চার সপ্তাহ সময় বেধে দেয়।

আবেদনগুলোর পক্ষে শুনানিতে অংশ নিয়ে সিনিয়র আইনজীবী কপিল সিবাল আদালতকে সিএএ-র ওপর স্থগিতাদেশ জারির আবেদন করেন। একই সঙ্গে এই বিষয়ে আদালতের চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত না আসার আগ পর্যন্ত জাতীয় জনসংখ্যা নিবন্ধীকরণের (এনপিআর) কাজ স্থগিত করারও আহ্বান জানান তিনি।

/জেজে/

লাইভ

টপ