নাগরিকত্ব আইনের বিরোধীরা ‘বাংলাদেশি মুসলিম’ : বিজেপি নেতা

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ১৮:৫৮, জানুয়ারি ২৭, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১৯:০৮, জানুয়ারি ২৭, ২০২০

ভারতের মুসলিমবিদ্বেষী নাগরিকত্ব আইনের বিরোধীদের ‘বাংলাদেশি মুসলিম’ বলে দাবি করেছেন বিজেপি-র কেন্দ্রীয় সম্পাদক রাহুল সিনহা। রবিবার ভারতের প্রজাতন্ত্র দিবসে এমন মন্তব্য করেন তিনি।
রাহুল সিনহা হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেন, কলকাতায় নাগরিকত্ব আইন (সিএএ) বিরোধী আন্দোলনকারীরা ‘বাংলাদেশি মুসলিম’ এবং তাদের ভারত ছাড়তে হবে। তার ওই মন্তব্যের তীব্র নিন্দা জানিয়েছে কংগ্রেস, তৃণমূল ও সিপিএম নেতারা।

কলকাতার পার্ক সার্কাসে গত ৭ জানুয়ারি থেকে মুসলিম নারী ও তাদের সঙ্গে থাকা শিশুরা ‘সিএএ’ বিরোধী অবস্থান কর্মসূচি চালিয়ে যাচ্ছে। বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতারা তাদের সমর্থন জানিয়েছেন। তবে বিজেপি নেতা রাহুল সিনহা বলেছেন, “পার্ক সার্কাসে যে বাচ্চারা আন্দোলন করছে, ওরা বিদেশি! ওখানে সব বাংলাদেশি মুসলমান। ওদের ভারত ছাড়তেই হবে। ‘আজাদি’  স্লোগান এখানে চলবে না। ভারতকে টুকরো করতে চায় যারা, তারা জাতীয় পতাকা হাতে ধরলেই কি সব মেনে নিতে হবে? যত চেষ্টাই করুন, যারা এদেশের নন, তাদের এদেশ ছাড়তেই হবে!”

রাহুল সিনহার ওই মন্তব্যের সমালোচনা করে লোকসভায় কংগ্রেসের দলনেতা অধীর চৌধুরী এমপি বলেছেন, ‘যারা এখানে আন্দোলন করছেন, তারা সবাই এই দেশের মানুষ।

রবিবার পার্ক সার্কাসে আন্দোলনকারীদের পাশে দাঁড়াতে সেখানে গিয়েছিলেন অধীর চৌধুরী। তিনি বলেন, ‘এখানে যারা আন্দোলন করছেন তারাই প্রকৃতপক্ষে এই দেশের বাসিন্দা। যদি অধীর চৌধুরী এখানে এসে থাকে, অধীর চৌধুরীকে বিদেশি, বাংলাদেশি বলতে পারেন। কিন্তু এখানে যারা আন্দোলন করছেন তারা সবাই ওদের (বিজেপি) চেয়ে বেশি এদেশি। তারা এই দেশের মানুষ বলেই ওদের এত মাথাব্যাথা।’

অধীর চৌধুরী বলেন, ‘আমাকে ওরা (বিজেপি) বিদেশি বা অনুপ্রবেশকারী বলতে পারে। কিন্তু এদেশের সংবিধানকে বাঁচাতে যারা আন্দোলন করছেন, তাদের এমন কথা বলা যায় না। সব মানুষ এক হয়ে প্রতিবাদে নেমেছেন বলে বিজেপির মাথা খারাপ হয়ে গেছে।’

পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সরকারের মন্ত্রী ও তৃণমূলের নারী সংগঠনের নেত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য বিজেপি নেতাদের নাম না নিয়ে কটাক্ষ করে বলেন, ‘কেউ পোশাক দেখে অনুপ্রবেশকারী চিনে ফেলছে! কেউ খাওয়া দেখে অনুপ্রবেশকারী চিনে ফেলছে! যারা প্রতিবাদী তাদেরকে দেশদ্রোহী, অনুপ্রবেশকারী বলা হচ্ছে! আমরা তীব্র ধিক্কার জানাই। মানুষে মানুষে বিভাজন, এটা কেউ মেনে নেবে না।’

বামফ্রন্টের চেয়ারম্যান ও সিপিএম নেতা বিমান বসু বলেছেন, ‘অবাক কাণ্ড! যারা প্রতিবাদ করবে, ভারতীয় সংবিধানের আদর্শ রক্ষা করার জন্য কাজ করবে তারাই বাংলাদেশি হবে! তারাই বিদেশি হবে? এসব জঘন্য কার্যকলাপ থেকে রাহুল বাবুদের বিরত থাকা উচিত।’

বাম পরিষদের নেতা ও সিপিএম বিধায়ক সুজন চক্রবর্তী বলেন, ‘নির্বোধ ও অসভ্যের মতো কথা না বললে বিজেপি হওয়া যায় না! মানুষই এসবের জবাব দেবেন।’ সিপিএমের রাজ্য সম্পাদক সূর্যকান্ত মিশ্র বলেন, রাহুল সিনহা নির্বোধের মতো মন্তব্য করছেন। সূত্র : পার্স টুডে।

 

/এমপি/

লাইভ

টপ