প্রধানমন্ত্রীর সাবেক স্ত্রীকে হত্যায় অভিযুক্ত ফার্স্ট লেডি

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ১০:০৩, ফেব্রুয়ারি ০৫, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১৩:৪১, ফেব্রুয়ারি ০৫, ২০২০

আফ্রিকার দেশ লেসোথোর প্রধানমন্ত্রীর সাবেক স্ত্রীকে হত্যায় অভিযুক্ত হয়েছেন তার বর্তমান স্ত্রী। মঙ্গলবার প্রতিবেশি দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে ফিরে ফার্স্ট লেডি মায়েসিয়া থাবানে পুলিশের কাছে আত্মসমর্পণ করেছেন। ওই হত্যাকাণ্ড নিয়ে প্রধানমন্ত্রী থমাস থাবানেকেও জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে।

২০১৭ সালে থমাস থাবানে লেসোথোর প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব নেওয়ার দুই দিন আগে নিজ বাড়ির বাইরে গুলিবিদ্ধ হয়ে নিহত হন তার তৎকালীন স্ত্রী লিপোলেলো থাবানে। ওই সময়ে তাদের মধ্যে ডিভোর্সের আলোচনা চলছিল। ওই সময়ে হত্যাকাণ্ডের জন্য অজ্ঞাত বন্দুকধারীদের দায়ী করা হয়। তবে সম্প্রতি পুলিশ কমিশনার হলোমো মোলিবেলির আদালতে দাখিল করা নথিপত্রে নতুন করে বেশ কিছু প্রশ্ন উত্থাপিত হয়। এরপরই দেশ ছাড়েন মায়েসিয়া থাবানে।

গত দশ জানুয়ারি ৪২ বছর বয়সী এই নারীর বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করা হয়। দেশটির পুলিশের মুখপাত্র এমপিতি মোপেলি জানিয়েছেন, পুলিশ ও আইনজীবীদের মধ্যে সমঝোতার পর মায়েসিয়া থাবানেকে দক্ষিণ আফ্রিকার সীমান্ত থেকে তুলে আনা হয়। তাকে পুলিশ হেফাজতে রাখা হয়েছে জানিয়ে পুলিশ কমিশনার হলোমো মোলিবেলি বলেন, বুধবার তার বিরুদ্ধে আনুষ্ঠানিক অভিযোগ গঠন করা হবে।

ফরাসি বার্তা সংস্থা এফপির হাতে পাওয়া এক নথিতে দেখা গেছে, গত ২৩ ডিসেম্বর পুলিশ প্রধান প্রধানমন্ত্রী থমাস থাবানেকে একটি চিঠি লেখেন। ওই চিঠিতে লেখা হয়, ‘তদন্তে দেখা গেছে হত্যাকাণ্ডের স্থান থেকে অপর একটি ফোনে যোগাযোগ করা হয়। আর সে ফোন নাম্বারটি আপনার’।

/জেজে/বিএ/

লাইভ

টপ