‘সিরিয়ায় প্রবেশকারী বিদেশি সেনাদের কফিনে করে ফেরত পাঠানো হবে’

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ১৯:০৬, ফেব্রুয়ারি ০৭, ২০১৬ | সর্বশেষ আপডেট : ১৯:১১, ফেব্রুয়ারি ০৭, ২০১৬

সিরিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়ালিদ আল মোয়াল্লেম হুঁশিয়ার করেছেন, সৌদি আরব কিংবা অন্য কোনও দেশের বিদেশি সেনা স্থল অভিযান পরিচালনা করতে তার দেশে প্রবেশ করলে তাদের কাঠের কফিনে করে দেশে ফেরত পাঠানো হবে। তিনি দাবি করেছেন, বিদ্রোহীদের নিয়ন্ত্রিত এলাকায় সরকারি বাহিনীর সাম্প্রতিক অভিযানে অগ্রগতির মধ্য দিয়ে সিরিয়ার ৫ বছরের গৃহযুদ্ধের অবসান হতে চলেছে।
সম্প্রতি জাতিসংঘের মধ্যস্থতায় জেনেভায় শান্তি আলোচনা ভেস্তে যাওয়ার পর আলেপ্পোতে রুশ বিমান হামলা ও সিরীয় সরকারের অভিযান জোরালো হয়। সৌদি সরকারও স্থলসেনা পাঠাতে প্রস্তুত থাকার ঘোষণা দেয়। 

সিরিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়ালিদ আল মোয়াল্লেম

এই প্রেক্ষাপটে শনিবার এক সংবাদ সম্মেলনে রুশ বাহিনীর সহায়তায় নিজেদের জয়ের ইঙ্গিত দেন মোয়াল্লেম। তিনি বলেন, ‘আমাদের সশস্ত্র বাহিনী যে অর্জন করেছে তাতে বলা যায় আমাদের সংঘাত শেষের দিকে। আপনারা পছন্দ করুন কিংবা না করুন, যুদ্ধক্ষেত্রে আমাদের যতটুকু অর্জন হয়েছে তাতে মনে হচ্ছে আমরা সংকটের অবসানের দিকে যাচ্ছি।’

সিরিয়ার সরকারি বাহিনীর সদস্যরা উল্লাস করছেন

 

সিরিয়ায় স্থলসেনা প্রবেশের সম্ভাবনা নিয়ে জানতে চাওয়া হলে মোয়াল্লেম বলেন, ‘যৌক্তিকতার বিচারে এ ধরনের সম্ভাবনা নেই। তবে সিরিয়ার সরকারের অনুমতি ছাড়া কোনও ধরনের স্থল অভিযান চালানো হলে তা আগ্রাসন বলে বিবেচনা করা হবে। তা সিরিয়ার জনগণই প্রতিহত করবে। তাদের পরিণতির কথা বলতে খারাপ লাগছে যে, তারা কাঠের কফিনে করে বাড়ি ফেরত যাবে।’
এক ঘণ্টার সংবাদ সম্মেলনে শেষ বাক্যটি তিনি তিনবার উচ্চারণ করেছেন।
সিরিয়ার বন্ধুরাষ্ট্র বিবেচিত ইরানও চিরবৈরী সৌদি অভিযানের সম্ভাবনা উড়িয়ে দিয়েছে। ইরান রিভোল্যুশনারি গার্ডের কমান্ডার জেনারেল মোহাম্মদ আলী জাফরিকে উদ্ধৃত করে ফারস নিউজ এজেন্সি জানায়, সিরিয়ায় স্থলসেনা পাঠানোর মতো যথেষ্ট সাহস সৌদি আরবের আছে বলে তিনি মনে করেন না। জাফরি বলেন, ‘যদি তারা অভিযান চালিয়েও থাকে তবে তা খুব একটা খারাপ হবে না। কারণ তারা নিশ্চিতভাবে পরাজিত হবে।’ সূত্র: টাইমস অব ইন্ডিয়া, এপি
/এফইউ/বিএ/

লাইভ

টপ
X