X
মঙ্গলবার, ২৯ নভেম্বর ২০২২
১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৯

ধর্ষক গ্রেফতার, কিশোরীর পুনর্বাসন কি হবে?

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
১৩ মে ২০২১, ১৭:১০আপডেট : ১৩ মে ২০২১, ১৭:৩৫

মা মারা গেছেন ছোটবেলায়। বাবা আবারও বিয়ে করেছেন। সেখানে ঠাঁই হয়নি মেয়েটির। বয়স ষোল-সতেরো। থাকে দাদির সঙ্গে। বাড়ি ময়মনসিংহের মুক্তাগাছায়। দাদিকে নিয়ে অনেক কষ্টে চলে সংসার। মেয়েটির এক বান্ধবী থাকে সিরাজগঞ্জের রায়পুরে। সে বলেছে একটা চাকরির ব্যবস্থা করে দেবে। এরপর চাকরির খোঁজে বেরিয়ে পড়ে মেয়েটি।

করোনা মহামারির কারণে যাতায়াতের ভালো ব্যবস্থা নেই। ভেঙে ভেঙে তাই সিরাজগঞ্জের উদ্দেশে যেতে হচ্ছে তাকে। যাত্রাপথে টাঙ্গাইলের কালিহাতি পর্যন্ত আসতেই সন্ধ্যা হয়ে যায়। একাকী কী করবে, কোথায় যাবে ভেবে পাচ্ছিল না মেয়েটি। রেল স্টেশনে একা দাঁড়িয়ে থাকে। খুঁজতে থাকে সিরাজগঞ্জে যাওয়ার উপায়, অথবা নিরাপদে রাতটা পার করার কোনও আশ্রয়।

এ সময় স্টেশনের পাশে এক লেগুনাচালক এগিয়ে আসে তার দিকে। তাকে সিরাজগঞ্জে পৌঁছে দেওয়ার আশ্বাস দেয়। পথিমধ্যে এই চালকের সঙ্গে যোগ দেয় আরও কয়েকজন যুবক। তারা মেয়েটিকে নিয়ে হাতিয়া ও সল্লার মাঝামাঝি ছোট বটতলা গ্রামের দিকে চলে যায়। সেখানে তাকে গাড়ি থেকে নামিয়ে একটি ধানক্ষেতে নিয়ে যায় টেনেহিঁচড়ে। বুনো পশুর মতো মেয়েটির ওপরে ঝাঁপিয়ে পড়ে তারা। তাকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ করে, রক্তাক্ত করে। ভোরের দিকে মেয়েটিকে তাড়িয়ে দেয় তারা। অসুস্থ শরীরে মেয়েটি চলে অন্য কোথাও।

পথিমধ্যে মেয়েটির কাছ থেকে এমনটাই জেনেছেন কোনও এক ভদ্রলোক। মেয়েটি তখন ভয়ে কাঁপছিল। কারও কাছে সাহায্য চাওয়ারও মানসিকতা ছিল না তার। তার ধারণা, পশুগুলো আবারও তাকে খুঁজে বের করবে। তার ওপর নির্যাতন করবে। মেয়েটিকে দীর্ঘক্ষণ অনুসরণ করতে পারেননি ওই ভদ্রলোক।

ঘটনাটি চলতি মে মাসের ৬ তারিখের। বিষয়টি হয়তো ওখানেই শেষ হতো। জানতো না কেউ কোনোদিন। নিপীড়নের যাতনা আর ভয় একাকী বয়ে বেড়াতো মেয়েটি। কিন্তু, কী মনে করে ওই ভদ্রলোক বুধবার (১২ মে) পুলিশকে বার্তা পাঠালেন। লিখলেন, বাংলাদেশ পুলিশের মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশন্স উইং পরিচালিত বাংলাদেশ পুলিশের অফিসিয়াল ফেসবুক পেজের ইনবক্সে।

বার্তাটি  কালিহাতি থানার ওসি সওগাতুল আলমকে পাঠিয়ে দ্রুত তদন্ত করে মেয়েটি ও তার ধর্ষকদের খুঁজে বের করে ব্যবস্থা নিতে নির্দেশনা দেয় মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশন্স উইং। কালিহাতির ওসির নির্দেশে পরিদর্শক (তদন্ত) রাহেদুল ইসলামের নেতৃত্বে এসআই রাজু আহমেদ এবং এএসআই তৈয়ব আলীসহ পুলিশের একটি টিম এ বিষয়ে তদন্তে নামে। অভিযোগের প্রাথমিক সত্যতা খুঁজে পায় তারা।

ঘটনার কোনও প্রত্যক্ষদর্শী ও বিশেষ কোনও ক্লু না থাকায় প্রথমে বেগ পেতে হয়েছে পুলিশকে। কিন্তু, অত্যন্ত দক্ষতার সঙ্গে তারা অল্প সময়ের মধ্যেই মেয়েটিকে শনাক্ত করে। তার দাদির ঠিকানা খুঁজে পায় পু‌লিশ। সেখানেই পাওয়া যায় তা‌কে। সেখান থেকে ভাড়া গাড়িতে করে তাকে কালিহাতি আনা হয়। মেয়েটিকে অভয় দেওয়া হয়। আশ্বাস দেওয়া হয় অপরাধীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থার।

মেয়েটির দেওয়া তথ্যমতে আসামিদের শনাক্ত করা হয়। বুধবার রাতেই বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে প্রধান আসামিসহ দুই ধর্ষককে গ্রেফতার করে পুলিশ। বাকিদের গ্রেফতারে অভিযান চলছে। মামলা হয়েছে। মেয়েটি বর্তমানে পুলিশের হেফাজতে চিকিৎসাধীন। মেয়েটিকে পুনর্বাসনের চেষ্টাও করছে পুলিশ।

আসামিরা হলো মো. লালন (২০), মো. রাসেল, মো. সুমন ও মো. রিপন। এদের বাড়ি টাঙ্গাইল জেলার কালিহাতি থানার সল্লা গ্রামে।

 

/এআরআর/এপিএইচ/এমওএফ/
বাল্যবিয়ের প্রভাব, এসএসসিতে বিদ্যালয়টির একজনও পাস করেনি
বাল্যবিয়ের প্রভাব, এসএসসিতে বিদ্যালয়টির একজনও পাস করেনি
ত্রিপাঠির সঙ্গে হিন্দি ছবি, যদিও জয়া বলছেন ‘না না...’
ত্রিপাঠির সঙ্গে হিন্দি ছবি, যদিও জয়া বলছেন ‘না না...’
‘নেইমার ব্রাজিল তোমাকে ভালোবাসে’
‘নেইমার ব্রাজিল তোমাকে ভালোবাসে’
আমাদের দুর্বলতার ফাঁকফোকর দিয়ে জঙ্গিরা বেরিয়ে গেছে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
আমাদের দুর্বলতার ফাঁকফোকর দিয়ে জঙ্গিরা বেরিয়ে গেছে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
সর্বাধিক পঠিত
পাসপোর্ট অফিসে দেড় ঘণ্টা বসে থেকে পরিচ্ছন্নতাকর্মীকে আটক করলো দুদকের টিম
পাসপোর্ট অফিসে দেড় ঘণ্টা বসে থেকে পরিচ্ছন্নতাকর্মীকে আটক করলো দুদকের টিম
মঙ্গলবার বাজারে আসছে দুই ও পাঁচ টাকার নতুন নোট
মঙ্গলবার বাজারে আসছে দুই ও পাঁচ টাকার নতুন নোট
বিনা জরিমানায় রিটার্ন জমা দেওয়া যাবে দুই দিন
বিনা জরিমানায় রিটার্ন জমা দেওয়া যাবে দুই দিন
রওশন এরশাদের সঙ্গে জাতীয় পার্টির নেতাদের বসার সুযোগ নেই: মহাসচিব
রওশন এরশাদের সঙ্গে জাতীয় পার্টির নেতাদের বসার সুযোগ নেই: মহাসচিব
মিছিল নিয়ে জেলা আ.লীগের সম্মেলনে ডা. মুরাদ হাসান
মিছিল নিয়ে জেলা আ.লীগের সম্মেলনে ডা. মুরাদ হাসান