পতাকার দর্জি ও ফেরিওয়ালারা (ভিডিও)

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ২০:০২, ডিসেম্বর ১৫, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ২০:১৬, ডিসেম্বর ১৫, ২০১৯

লাল-সবুজ পতাকা শুধু এক টুকরো কাপড় নয়। একটি পতাকা মানে একটি সম্মান। সবুজের বুকে লাল হলো স্বাধীনতার প্রতীক, বিজয়ের প্রতীক।
রাজধানীতে পতাকা সেলাই ও বিক্রি করেন বিভিন্ন প্রজন্মের দর্জি ও বিক্রেতারা। গুলিস্তানের সিটি ভবনে আছে একটি পতাকা তৈরির কারখানা। প্রতিদিন ৪০০-৫০০টি পতাকা তৈরি হয় এতে। এখানে ৮-১০ জন দর্জি কাজ করেন। এসব পতাকা সরবরাহ করা হয় সারাদেশে। স্কুল-কলেজ, অফিস-আদালত, থানা-ফাঁড়িসহ বিভিন্ন জায়গায় পতাকাগুলো ওড়ে।
কারখানাটির মূল কারিগর কামাল। সবাই তাকে ‘পতাকা কামাল’ নামে চেনে। ১৬-১৭ বছর ধরে পতাকা বিক্রির ব্যবসায় আছেন তিনি।
এদিকে ১০-১১ বছর ধরে পতাকা সেলাইয়ের কাজ করছেন রাশেদ আলম। প্রতিদিন বিভিন্ন আকারের ১৫০-২০০টি পতাকা সেলাই করেন এই তরুণ। পতাকা বানানোকে সম্মানজনক হিসেবে দেখেন তিনি।
বিভিন্ন কারখানা থেকে পতাকা নিয়ে রাজধানীর পথে পথে বিক্রি করেন অনেকে। লাঠিতে ঝোলানো থাকে বিভিন্ন দামের নানান আকৃতির পতাকা।

বিজয়ের মাসেই পতাকা কেনাবেচা হয়ে থাকে বেশি। সাধ্যমতো পতাকা কিনে কেউ মাথায় বেঁধে, কেউবা হাতে রেখে কিংবা গাড়ি-বাড়িতে টানিয়ে দেশের তরে ভালোবাসার জানান দেন। 

 

ভিডিও প্রতিবেদন: সাজ্জাদ হোসেন, সম্পাদনা: মুন্না

/জেএইচ/এনএ/

লাইভ

টপ