X
শুক্রবার, ১২ আগস্ট ২০২২
২৮ শ্রাবণ ১৪২৯

বাসা-মেসে বন্যার পানি, বিপাকে শাবির শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা

শাবি প্রতিনিধি
১৯ মে ২০২২, ২১:০২আপডেট : ১৯ মে ২০২২, ২১:০২

কয়েকদিনের টানা ভারী বর্ষণ ও উজানের ঢলে সিলেট নগরীর বিভিন্ন এলাকা প্লাবিত হয়েছে। এতে দুর্ভোগে পড়েছেন নগরীর লাখো মানুষ। বিপাকে পড়েছেন নগরীর বিভিন্ন আবাসিক এলাকায় বসবাসকারী শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরাও।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, বিশ্ববিদ্যালয়টিতে পর্যাপ্ত আবাসন ব্যবস্থা না থাকায় অধিকাংশ শিক্ষক ও শিক্ষার্থীকে ক্যাম্পাসের বাইরে থাকতে হয়। বিশ্বববিদ্যালয়ের মূল ফটক সংলগ্ন এলাকা, তপোবন আবাসিক এলাকা, সুরমা আবাসিক এলাকা, নেহারিপাড়া, আখালিয়া, টুকেরবাজারসহ সিলেট নগরীর বিভিন্ন জায়গাতে শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা ভাড়া ফ্ল্যাটে থাকেন। বন্যার কারণে সুরমা নদীর পানি বাড়ায় নগরীর বিভিন্ন এলাকা প্লাবিত হয়েছে। বাসা-বাড়িতে প্রবেশ করেছে নোংরা পানি। এতে সেখানে অবস্থান ও প্রয়োজনে যাতায়াত করতে অনেককেই বিপাকে পড়তে হচ্ছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের পার্শ্ববর্তী সুরমা ও তপোবন আবাসিক এলাকায় হাঁটু থেকে কোমর পর্যন্ত পানি রয়েছে। এ কারণে ওই সব এলাকায় অবস্থানকারী শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা চরম দুর্ভোগ পোহাচ্ছেন। 

এদিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের সব বিভাগে সেমিস্টার ফাইনাল পরীক্ষা চলছে। শিক্ষার্থীরা পরীক্ষা কেন্দ্রিক ব্যস্ত সময় পার করছেন। তবে বন্যা দুর্গত এলাকায় অবস্থানকারী শিক্ষার্থীরা পরীক্ষা দিতে সমস্যার সম্মুখিন হচ্ছেন।  

তপোবন আবাসিক এলাকায় মেসে থাকেন লোক প্রশাসন বিভাগের শিক্ষার্থী আফসারুল করিম। সেখানে তাদের বাড়িতে পানি ঢুকে যাওয়ায় বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিক হলে বন্ধুর রুমে উঠেছেন তিনি। 

ভোগান্তির বিষয়ে আফসারুল বলেন, নদী থেকে সিলেট সুনামগঞ্জ রোড পর্যন্ত পানি উঠে গেছে। বাসার সামনে কোমর সমান পানি। যাতায়াত, টয়লেট ও খাবার রান্না করায় বেশ ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে। এরমধ্যে চলছে সেমিস্টার ফাইনাল পরীক্ষা। তাই মেসে অবস্থান করা সম্ভব হচ্ছিল না। এ অবস্থায় হলে বন্ধুর রুমে এসে উঠেছি। 

বিশ্ববিদ্যালয়ের হাজারো শিক্ষার্থী এমন সমস্যার সম্মুখিন হয়েছেন বলে জানান তিনি। 

 ওইসব এলাকায় থাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকেরাও পড়েছেন চরম দুর্ভোগে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষক বলেন, বাড়ির নিচতলায় আমার বাসা। বন্যার পানি বাসার ভেতরে ঢুকে গেছে। পরিবার নিয়ে বিপাকে পড়েছি।  

এদিকে বন্যায় সিলেটের বিভিন্ন এলাকা প্লাবিত হওয়ায় শিক্ষার্থীদের কথা বিবেচনা করে কয়েকটি বিভাগের সেমিস্টার ফাইনাল পরীক্ষা পেছানো হয়েছে। খোঁজ নিয়ে জানা যায়, বৃহস্পতিবারের ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষের একটি পরীক্ষা পিছিয়েছে গণিত বিভাগ। এছাড়া ফুড ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড টি টেকনোলজি বিভাগের দ্বিতীয় ও তৃতীয় বর্ষের পরীক্ষাও পেছানো হয়েছে। 

শিক্ষার্থীদের ভোগান্তির বিষয় চিন্তা করে বিভিন্ন বিভাগে পরীক্ষা সংক্রান্ত মিটিং আহ্বান করা হয়েছে বলেও জানা গেছে।
 
গণিত বিভাগের বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক ড. মো. মাহবুবুর রশিদ বলেন, বিভাগে সেমিস্টার ফাইনাল চলছে। বন্যার কারণে শিক্ষার্থীদের কথা চিন্তা করে আগামীকালের তৃতীয় বর্ষের পরীক্ষা পেছানো হয়েছে। এছাড়া বন্যার কারণে তিনি নিজেও ভোগান্তিতে আছেন বলে জানান তিনি।  

বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র উপদেশ ও নির্দেশনা পরিচালক অধ্যাপক আমিনা পারভীন বলেন, বন্যায় সিলেটে অনেককেই ভোগান্তিতে পড়েছেন। আমরা খোঁজ খবর নিচ্ছি। ছাত্রদের থেকেও আমরা তথ্য নিচ্ছি। এছাড়া সার্বিকভাবে সবার সুবিধার্থে সম্মিলিত সিদ্ধান্ত নেওয়ার বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের সঙ্গে কথা হবে বলে জানান তিনি।  

 

/টিটি/
বাংলা ট্রিবিউনের সর্বশেষ
কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের হলে চুরির সময় আটক ৩
কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের হলে চুরির সময় আটক ৩
বাড়ির পাশে ছুরিকাঘাতে যুবক নিহত
বাড়ির পাশে ছুরিকাঘাতে যুবক নিহত
বঙ্গবন্ধুর ঘাতকরা যে পরিকল্পনা করেছিল
বঙ্গবন্ধুর ঘাতকরা যে পরিকল্পনা করেছিল
ডুবন্ত ডাকঘরকে জাগ্রত করতে কাজ করছি: মন্ত্রী
ডুবন্ত ডাকঘরকে জাগ্রত করতে কাজ করছি: মন্ত্রী
এ বিভাগের সর্বশেষ
বিদ্যুৎ সাশ্রয়ে শাবিতে সপ্তাহে একদিন অনলাইন ক্লাস 
বিদ্যুৎ সাশ্রয়ে শাবিতে সপ্তাহে একদিন অনলাইন ক্লাস 
মোটরসাইকেল থেকে ছিটকে পড়া শাবি শিক্ষার্থী আইসিইউতে
মোটরসাইকেল থেকে ছিটকে পড়া শাবি শিক্ষার্থী আইসিইউতে
‘আমার বুলবুল ঝালমুড়ি বিক্রি করলে কি মার্ডার হতো?’
শাবি শিক্ষার্থী হত্যা‘আমার বুলবুল ঝালমুড়ি বিক্রি করলে কি মার্ডার হতো?’
বুলবুল হত্যার দায় স্বীকার করে আদালতে আসামির স্বীকারোক্তি
বুলবুল হত্যার দায় স্বীকার করে আদালতে আসামির স্বীকারোক্তি
‘ছিনতাইকারীরা হত্যা করেছে বুলবুলকে, সংশ্লিষ্টতা নেই বান্ধবীর’
‘ছিনতাইকারীরা হত্যা করেছে বুলবুলকে, সংশ্লিষ্টতা নেই বান্ধবীর’