X
রবিবার, ১৪ আগস্ট ২০২২
৩০ শ্রাবণ ১৪২৯

‘বঙ্গবন্ধুর পলাতক খুনিদের দুয়েকজনকে শিগগির দেশে আনা হবে’

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম 
০৫ আগস্ট ২০২২, ২২:০১আপডেট : ০৫ আগস্ট ২০২২, ২২:০১

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, ‘বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত অনেককেই আইনের আওতায় আনা হয়েছে। যারা এখনও পলাতক রয়েছে, তাদের মধ্যে দুয়েকজন খুনিকে শিগগিরই দেশে ফিরিয়ে আনা হবে।’

শুক্রবার (৫ আগস্ট) বিকাল ৩টায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৭তম শাহাদাতবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন চত্বরে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য তিনি এ কথা বলেন। বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ চট্টগ্রাম মহানগর ও জেলা ইউনিট কমান্ডের যৌথ উদ্যোগে এই সভার আয়োজন করা হয়।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধুর পরিবারের সবাইকে হত্যার চেষ্টা হয়েছিল, কারণ তারা ভালো করেই জানতো, বঙ্গবন্ধুর রক্ত যাদের ধমনিতে প্রবাহিত হচ্ছে তাদের কেউ বেঁচে থাকলে খুনিদের বিচার একদিন হবে। বঙ্গবন্ধু বেঁচে থাকলে বাংলাদেশ অনেক আগেই উন্নয়নের দ্বারপ্রান্তে পৌঁছে যেত। কিন্তু ষড়যন্ত্রকারীরা তা হতে দেয়নি। তারই সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বঙ্গবন্ধুর সেই পরিকল্পনা বাস্তবায়নে কাজ করে যাচ্ছেন।’

তিনি বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু কন্যা মুক্তিযোদ্ধাদের সরকারি ভাতাসহ নানা সুযোগ-সুবিধা দিয়ে যাচ্ছেন। শেখ হাসিনা সবসময় প্রমাণ করেছেন, তিনি বঙ্গবন্ধুর কন্যা। নানা ধরনের ষড়যন্ত্র শেখ হাসিনা মোকাবিলা করছেন। ২১ আগস্টের বোমা হামলা আপনারা দেখেছেন, সেই দিনের হত্যাকাণ্ডের দৃশ্য। কিন্তু বঙ্গবন্ধু কন্যাকে মহান রাব্বুল আলামিন বাঁচিয়েছেন, বাঁচার কোনও উপায় ছিল না। বঙ্গবন্ধুর মুক্তিযোদ্ধারা এখনও বেঁচে আছেন, যেকোনও ষড়যন্ত্র মোকাবিলা করতে তারা প্রস্তুত।’

আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুর ডাকে নিরস্ত্র বাঙালি সশস্ত্র যুদ্ধ করে দেশ স্বাধীন করেছি। আবার বঙ্গবন্ধু কন্যার ডাকে আজকে উন্নত বাংলাদেশ বিনির্মাণে সবধরনের সহযোগিতা করছি।’

মন্ত্রী বলেন, ‘আমরা অনেক দৃশ্য দেখেছি। বঙ্গবন্ধুকে হত্যার দৃশ্য কোনও দিন ভুলতে পারবো না। ১৫ আগস্টের কথা কোনও দিন ভুলবো না। কী অপরাধ করেছিল বঙ্গবন্ধুর পরিবারের সদস্যরা। এসব কিছুর আজকে হিসাব-নিকাশের সময় এসেছে।’

অনুষ্ঠানে উদ্বোধকের বক্তব্যে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী বীর মুক্তিযোদ্ধা আ ক ম মোজাম্মেল হক বলেন, ‘বীর মুক্তিযোদ্ধারা জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান। ১৯৭১ সালে হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ডাকে সাড়া দিয়ে বীর মুক্তিযোদ্ধারা জীবনবাজি রেখে মহান মুক্তিযুদ্ধে অংশ নিয়ে আমাদেরকে স্বাধীন বাংলাদেশ উপহার দিয়েছেন। তার জন্ম না হলে না হলে আমরা আজ স্বাধীন দেশ দেশ পেতাম না। স্বাধীনতা বিরোধীরা বঙ্গবন্ধুর কণ্ঠরোধ করতে চেয়েছিল। খুনি জিয়া-মোশতাকসহ বাংলাদেশের স্বাধীনতাকে যারা সহ্য করেনি তারাই ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট জাতির পিতাকে সপরিবারে হত্যা করেছে। এর মধ্য দিয়ে বাঙালি জাতির ইতিহাসে এক কলঙ্কময় অধ্যায় যুক্ত হয়েছিল। যারা স্বাধীনতা বিরোধী ও বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারের হত্যার মদত দিয়েছে তাদেরকেও খুঁজে বের করতে হবে।’

এর আগে, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী জাতীয়, শোক ও সাংগঠনিক পতাকা উত্তোলন এবং মোমবাতি প্রজ্বালনের মাধ্যমে ৫-১০ আগস্ট পর্যন্ত ছয় দিনব্যাপী শোক দিবসের কর্মসূচির উদ্বোধন করেন। এরপর সাহাবউদ্দিন মজুমদার রচিত ‘বাঙালা হতে বাংলাদেশ’ বিষয়ক মুক্তিযুদ্ধ ভিত্তিক আলোকচিত্র প্রদর্শনী ঘুরে দেখেন মন্ত্রী।

/এফআর/
বাংলা ট্রিবিউনের সর্বশেষ
স্ট্রিমিং-এর অনলাইন স্টোর নিয়ে ভাবছে ইউটিউব
স্ট্রিমিং-এর অনলাইন স্টোর নিয়ে ভাবছে ইউটিউব
ঘাতক ট্যাংকের পথে আলোর মিছিল
ঘাতক ট্যাংকের পথে আলোর মিছিল
আমার বাড়িতে সিবিআই গেলে কী করবেন, প্রশ্ন মমতার
আমার বাড়িতে সিবিআই গেলে কী করবেন, প্রশ্ন মমতার
এ বিভাগের সর্বশেষ
বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করলেও তাঁর স্বপ্নের মৃত্যু ঘটাতে পারেনি: প্রধানমন্ত্রী
বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করলেও তাঁর স্বপ্নের মৃত্যু ঘটাতে পারেনি: প্রধানমন্ত্রী
কিছু মানুষ খামোখা জিনিসপত্রের দাম বাড়ায়: প্রধানমন্ত্রী
কিছু মানুষ খামোখা জিনিসপত্রের দাম বাড়ায়: প্রধানমন্ত্রী
বিরোধীরা আন্দোলন করুক, কাউকে যেন গ্রেফতার করা না হয়: প্রধানমন্ত্রী
বিরোধীরা আন্দোলন করুক, কাউকে যেন গ্রেফতার করা না হয়: প্রধানমন্ত্রী
বঙ্গবন্ধু তার মেয়েদের দেখে রাখতে বলেছিলেন
বঙ্গবন্ধু তার মেয়েদের দেখে রাখতে বলেছিলেন
বঙ্গবন্ধুর স্মৃতি নিদর্শন জাতির অমূল্য সম্পদ: সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী
বঙ্গবন্ধুর স্মৃতি নিদর্শন জাতির অমূল্য সম্পদ: সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী