শোলাকিয়ায় বোমা হামলাহামলাকারীরা মুসলমান নয়: ফরীদ উদ্দীন মাসঊদ

Send
চৌধুরী আকবর হোসেন
প্রকাশিত : ১৩:৩৫, জুলাই ০৭, ২০১৬ | সর্বশেষ আপডেট : ১৭:৪৩, জুলাই ০৭, ২০১৬

ফরীদ উদ্দীন মাসঊদশোলাকিয়া ঈদগাহের খতিব মাওলানা ফরীদ উদ্দীন মাসঊদ বলেছেন, ইসলাম এই হামলা সমর্থন করে না। এ হামলার ঘটনায় বোঝা গেলো যারা হামলা করে তারা মুসলমান নয়। বৃহস্পতিবার ঈদের দিন কিশোরগঞ্জ সার্কিট হাউজ থেকে হেলিকপ্টারে ঢাকায় ফিরেই মোবাইলে বাংলা ট্রিবিউনকে তিনি এসব কথা বলেন।
মাওলানা মাসঊদ বলেন, শোলাকিয়ার ঈদগাহে ঈদের নামাজের প্রাক্কালে বোমা হামলার ঘটনায় জাতির ঘাবড়ানোর কিছু নেই বরং সবাইকে ঐক্যবদ্ধ থেকে আরও দৃঢ়ভাবে ঘুরে দাঁড়াতে হবে। কারণ যারা মদীনা শরীফে আক্রমণ করে, ঈদগাহে হামলা করে ইসলামের নামে এরা ইসলামের শত্রু। বিভ্রান্তি সৃষ্টি করে হামলা করা ইসলামের পথ নয়।
যদিও হামলার পর ফরীদ উদ্দীন মাসঊদকে ঈদের জামাতে ইমামতি করা থেকে বিরত থাকেন। পরে অন্য একজন ইমাম নামাজের ইমামতি করেন। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, সার্কিট হাউজে ছিলাম, তখনও নামাজের সময় হয়নি। আমাকে টার্গেট করেছে হয়ত। যেই মুহূর্তে হেলিকপ্টার থেকে ঈদগাহে নামলাম তখনই হামলার ঘটনা ঘটে। যদিও হেলিকপ্টার থেকে দূরে এ ঘটনা ঘটেছে। এখন নিরাপদেই আছি।
ফরীদ উদ্দীন মাসঊদ আরও বলেন, সন্ত্রাসীরা যে প্রয়াসই চালাক না কেন আমাদের সন্ত্রাসীদের সামনে হেরে গেলে চলবে না। যে সমস্ত তরুণ বেহেশতের পথ মনে করে সন্ত্রাসের পথ গ্রহন করেছে তাদেরকে আমি উদার আহ্বান জানাবো, হে তরুণ হামলা করে জান্নাত পাওয়া যায় না। এটা জাহান্নামের পথ। তোমরা তাড়াতাড়ি এ কথা উপলব্ধি করে শান্তির দিকে ফিরে আসো।

মাওলানা মাসঊদ নিহত পুলিশ সদস্যের রুহের মাগফেরাত কামনা করে বলেন, ঈদের দিন জাতিকে নিরাপত্তা দিতে গিয়ে এই পুলিশ সদস্য শাহাদাতের মর্যাদা অর্জন করেছেন। আল্লাহ তার পরিবারকে শোক কাটানোর শক্তি দিন।

সরকারের উদ্দেশে মাওলানা মাসঊদ বলেন, সরকারকে আরও ক্ষিপ্রতা ও সতর্কতার সঙ্গে পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হবে। অস্থির হলে চলবে না। দেশবাসীকে ঐক্যবদ্ধ রেখে এই পরিস্থিতির মোকাবিলা করতে হবে।

কিশোরগঞ্জ থেকে হেলিকপ্টারে করে তার ছেলে সামনূনও ঢাকায় আসেন। মাওলানা মাসঊদের খাদেম কে এম আবদুল্লাহ শাকির জানান, মাওলানা মাসঊদ শোলাকিয়ায় ঈদের নামাজ পড়াননি। পুলিশের পক্ষ থেকে অনুরোধ করায় তিনি ঢাকায় ফিরে আসেন। মাওলানা মাসঊদের সফরসঙ্গীরা নিরাপদে আছেন। মাওলানা মাসঊদ বিশ্রাম নিয়ে সংবাদ সম্মেলন করতে পারেন। এ ব্যাপারে তার সহকারী মাসঊদুল কাদির সবাইকে জানাবেন বলে জানান মাওলানা মাসঊদ।

প্রসঙ্গত, কিশোরগঞ্জের ঐতিহাসিক শোলাকিয়া ঈদগাহ ময়দানের এক কিলোমিটারের মধ্যে বোমা হামলায় এক পুলিশ সদস্যসহ দুইজন নিহত এবং কমপক্ষে ১২ জন আহত হয়েছেন। আহতদের মধ্যে বেশির ভাগই পুলিশ সদস্য। নিহত আরেকজন হামলাকারী হতে পারে বলে ধারণা পুলিশের। বৃহস্পতিবার সকালে ঈদের নামাজ শুরু হওয়ার প্রাক্কালে এ ঘটনা ঘটে।

/এসটিএস/সিএ/এমও/

লাইভ

টপ