প্রথম কর্মদিবসে ১০ ঘণ্টা অফিস করলেন বঙ্গবন্ধু

Send
উদিসা ইসলাম
প্রকাশিত : ০৭:৫০, সেপ্টেম্বর ১৫, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ০৭:৫০, সেপ্টেম্বর ১৫, ২০২০

দৈনিক বাংলা(বিভিন্ন সংবাদপত্রে প্রকাশিত তথ্যের ভিত্তিতে ১৯৭২ সালে বঙ্গবন্ধুর সরকারি কর্মকাণ্ড ও তার শাসনামল নিয়ে ধারাবাহিক প্রতিবেদন প্রকাশ করছে বাংলা ট্রিবিউন। আজ পড়ুন ওই বছরের ১৫ সেপ্টেম্বরের ঘটনা।)

দেশে ফেরার পর প্রথম কর্মদিবসে (১৫ সেপ্টেম্বর)  বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ১০ ঘণ্টা অফিস করেন। শারীরিক দুর্বলতা সত্ত্বেও সেদিন দুপুরের খাবারও তিনি ধানমন্ডির বাসভবনে না গিয়ে গণভবনেই খেয়েছিলেন। এইদিন কর্মব্যস্ত সময় পার করেন তিনি। পত্রিকার খবরে বলা হয়, দুর্বল শরীর নিয়ে গণভবনে কাজের মাঝে এতটাই ডুবেছিলেন যে, প্রধানমন্ত্রী গণভবনে দুপুরের খাবার গ্রহণ করেন। এ সময় বঙ্গবন্ধুর পাশে বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিব, কন্যা শেখ হাসিনা ও একমাত্র পৌত্র ছিলেন।

চিকিৎসকের পরামর্শ উপেক্ষা করেই বঙ্গবন্ধু অনেকের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন এবং কয়েকশ’ লোকের সঙ্গে হাত মেলান। দলীয় নেতাকর্মী, বিশিষ্ট নাগরিক,পদস্থ সরকারি কর্মকর্তা ছাড়াও দেশের দূরদূরান্ত থেকে আসা বহু লোক ধানমন্ডির বাসভবন ও গণভবনে প্রিয় নেতার সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে আসেন। প্রধানমন্ত্রী বিদেশ থেকে এসে প্রাথমিক ধাক্কা সামলে ওঠার পরপরই অনেকের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছিলেন।

প্রধানমন্ত্রী সকাল ১০টায় গণভবনে পৌঁছান। সেখানে তিনি সৈয়দ নজরুল ইসলামের সঙ্গে পৃথক বৈঠকে মিলিত হন। এবং ৪০ মিনিট বিভিন্ন বিষয়ে আলাপ করেন। বঙ্গবন্ধু বিদেশে থাকাকালীন সংঘটিত বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ ঘটনা সম্পর্কে অস্থায়ী প্রধানমন্ত্রী তাকে অবহিত করেন।

অক্টোবরে গণপরিষদের অধিবেশন

১৯৭২ সালের অক্টোবর মাসের দ্বিতীয় সপ্তাহের প্রথম দিকে গণপরিষদের অধিবেশন শুরু হবে বলে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। শুক্রবার নির্ভরযোগ্য সূত্রের বরাত দিয়ে পত্রিকার খবরে জানানো হয়, বঙ্গবন্ধু মন্ত্রিপরিষদের সদস্য, নির্বাচনি কমিশনের প্রধান ও সেনাবাহিনীর চিফ অব স্টাফের সঙ্গে পৃথক বৈঠকে মিলিত হন। পরে জানানো হয়, খুব শিগগিরই শাসনতন্ত্র জনসাধারণের সামনে পেশ করা হবে। আইন ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী কামাল হোসেন বলেন, ‘গণপরিষদে পেশ করার জন্য ইতোমধ্যে শাসনতন্ত্র চূড়ান্ত করা হয়েছে।’

এই দিনে জাতীয় গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মন্ত্রিসভায় দীর্ঘ আলোচনা করেন। দেশের সার্বিক রাজনৈতিক পরিস্থিতি আলোচনা ছাড়াও মন্ত্রিপরিষদের সদস্যদের সঙ্গে বঙ্গবন্ধু পরিষদের আগামী অধিবেশনের সম্ভাব্য তারিখ, নির্বাচনি কর্মসূচি চূড়ান্ত পর্যায় নিয়ে আলোচনা করেন। এছাড়া শাসনতন্ত্রের বিষয় ছাড়া খাদ্য সরবরাহ পরিস্থিতি এবং অত্যাবশ্যকীয় জিনিসপত্র সরবরাহের বিষয়ে আলোচনা হয় বলে এনা পরিবেশিত খবরে উল্লেখ করা হয়।

ইত্তেফাক, ১৬ সেপ্টেম্বরবাংলাদেশকে স্বীকৃতি দিতে পাকিস্তানি যুদ্ধবন্দিদের পরিবারের আহ্বান

পাকিস্তানি যুদ্ধবন্দিদের ছেলেমেয়েরা বাংলাদেশকে স্বীকৃতি প্রদান এবং ভারতে আটক যুদ্ধবন্দিদের ফিরিয়ে আনার দাবি জানান। বিবিসি থেকে প্রচারিত এক সংবাদে বলা হয় যে, ইসলামাবাদে জাতীয় পরিষদ ভবনের বাইরে পুলিশ নারীদের বিক্ষোভ প্রদর্শন থেকে বিরত রাখে। রাওয়ালপিন্ডি থেকে নিজস্ব সংবাদদাতার বরাত দিয়ে বেতারে আরও উল্লেখ করা হয়, গত ছয় মাসে প্রথম বিক্ষোভ প্রদর্শনের চেষ্টার মধ্য দিয়ে এই কথা প্রমাণিত হয় যে, যুদ্ধবন্দিদের স্বদেশ প্রত্যাবর্তনকে কেন্দ্র করে পাকিস্তানে অসন্তোষ বিরাজ করছে।

ভোটার তালিকা প্রণয়ন সংক্রান্ত ঘোষণা স্থগিত

প্রধান নির্বাচন কমিশনার বিচারপতি মোহাম্মদ ইদ্রিস বলেন, ‘দেশের প্রথম সাধারণ নির্বাচনের জন্য ভোটার তালিকা প্রদান সংক্রান্ত ঘোষণা স্থগিত রাখা হয়েছে।’ ১৯৭২ সালের এইদিনে রাত আটটায় বাংলাদেশ বেতার থেকে ঘোষণা দেওয়া হয়। এর আগে প্রধান নির্বাচন কমিশনার গণভবনে প্রধানমন্ত্রী শেখ মুজিবুর রহমানের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন। তারা পরস্পর নির্বাচন অনুষ্ঠান সম্পর্কে আলোচনা করেন বলে অনুমান করা হয়।

বাংলাদেশ অবজারভারকেরোসিনের বাড়তি দাম দেবেন না

কেরোসিনের মূল্যবৃদ্ধির যুক্তি নেই বিধায় বেশি দাম না দিতে ক্রেতাদের প্রেসনোটের মাধ্যমে নির্দেশ দেওয়া হয়। যেসব অসৎ ব্যবসায়ী কৃত্রিম উপায়ে কেরোসিন তেলের মূল্যবৃদ্ধি করে যাচ্ছে, সরকার তাদের প্রতি কঠোর সতর্কবাণী উচ্চারণ করে নির্ধারিত দামের অতিরিক্ত দাম না নিতে উপদেশ দেন। এইদিন প্রকাশিত এক প্রেসনোটে দৃঢ়তার সঙ্গে উল্লেখ করা হয় যে, কেরোসিন তেল সরবরাহে কোনোরকম ব্যাঘাত না থাকায়, তার মূল্য বৃদ্ধির পেছনে কোনও কারণ নেই।

/এপিএইচ/এমওএফ/আপ-এনএস/

লাইভ

টপ