X
বুধবার, ২৯ জুন ২০২২
১৫ আষাঢ় ১৪২৯

এসডিজি’র বিষয়বস্তু যুক্ত করে ঢাবিতে পাঠ্যক্রম পুনর্গঠন ও বিশেষ গবেষণা প্রকল্প

আপডেট : ১৯ জানুয়ারি ২০২২, ১৭:৪১

টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রার (এসডিজি) বিষয়বস্তু বিবেচনায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) পাঠ্যক্রম পুনর্গঠন ও বিশেষ গবেষণা প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে। বুধবার (১৯ জানুয়ারি) বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ দফতরে পরিচালক মাহমুদ আলম স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য জানানো হয়।

জানা গেছে, মঙ্গলবার (১৮ জানুয়ারি) দি ইউএন সাসটেনেবল ডেভেলপমেন্ট সল্যুশন্স নেটওয়ার্কের (এসডিএসএন) উদ্যোগে এশিয়া, ইউরোপ ও মধ্যপ্রাচ্যের শীর্ষ ৮০টি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রেসিডেন্ট/উপাচার্যদের বিশেষ ভার্চুয়াল সভায় অংশ নেন ঢাবি উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান। তিনি বলেন, ‘শতবর্ষী মাল্টিডিসিপ্লিনারি ঐতিহ্যবাহী বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জন এবং প্যারিস জলবায়ু চুক্তি বাস্তবায়নে বিশেষ ভূমিকা পালন করবে। ১৭টি টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রার বিভিন্ন ক্ষেত্রে বিশেষজ্ঞ, শিক্ষক ও গবেষক এই বিশ্ববিদ্যালয়ে কর্মরত আছেন। স্নাতক, স্নাতকোত্তর ও উচ্চতর গবেষণাসহ বিভিন্ন একাডেমিক কর্মসূচি পরিচালনায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিশেষ সক্ষমতা রয়েছে। টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রার বিষয়বস্তু বিবেচনায় বিশ্ববিদ্যালয়ের পাঠ্যক্রম পুনর্গঠন ও বিশেষ গবেষণা প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে। ইতোমধ্যে বিশ্ববিদ্যালয়ে এ বিষয়ক বিশেষ সমন্বয় সেল গঠন করা হয়েছে।’

উপাচার্য উল্লেখ করেন, টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে জনসচেতনতা বৃদ্ধি ও অনুকূল পরিবেশ তৈরির ক্ষেত্রে অসাধারণ ভূমিকার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ইতোমধ্যে বিভিন্ন আন্তর্জাতিক ফোরামে বিশেষ স্বীকৃতি পেয়েছেন। 

ভার্চুয়াল সভায় বক্তারা জ্ঞানের গণতন্ত্রায়ন ও পাঠ্যক্রমে আন্তঃবিষয়ভিত্তিক ধারণাগুলো সংযুক্তির ওপর গুরুত্বারোপ করে বলেন, ‘অন্তর্ভুক্তিমূলক, দক্ষতাভিত্তিক ও গুণগত মানসম্পন্ন জীবনব্যাপী শিক্ষার সুযোগ তৈরি করতে হবে। টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে শিক্ষক, গবেষক ও শিক্ষার্থীরা আন্তরিক ও নিরপেক্ষভাবে কাজ করে থাকেন। সেই অর্থে শিক্ষক, গবেষক ও শিক্ষার্থীরাই মূলত বৈশ্বিক নাগরিক।’

সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন এসডিএসএন সভাপতি অধ্যাপক জেফরি সাস। উদ্বোধনী বক্তৃতা দিয়েছেন গ্রিসের শিক্ষা ও ধর্মমন্ত্রী নিকি কেরামাস। অন্যদের মধ্যে প্যানেল আলোচক ছিলেন ইউনেস্কোর শিক্ষা বিষয়ক সহকারী মহাপরিচালক স্টেফেনিয়া গিয়ানিনি, এলএসএইচটিএম-এর জলবায়ু পরিবর্তন ও জনস্বাস্থ্য বিভাগের অধ্যাপক আন্দ্রে হেইন্স, জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের সাবেক সভাপতি ভুক জেরেমিক এবং রাশিয়ার প্রেসিডেন্সিয়াল একাডেমি অব ন্যাশনাল ইকনোমি অ্যান্ড পাবলিক অ্যাডমিনিস্ট্রেশনের রেক্টর ভ্লাদিমির এ মাও।

/জেএইচ/
বাংলা ট্রিবিউনের সর্বশেষ
কুড়িগ্রামে আবারও বন্যার শঙ্কা 
কুড়িগ্রামে আবারও বন্যার শঙ্কা 
ডেমরায় বাসা থেকে দম্পতির লাশ উদ্ধার
ডেমরায় বাসা থেকে দম্পতির লাশ উদ্ধার
পদ্মা সেতু দিয়ে যান চলছে স্বাভাবিকভাবে
পদ্মা সেতু দিয়ে যান চলছে স্বাভাবিকভাবে
নির্মল রঞ্জন গুহের মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রীর শোক
নির্মল রঞ্জন গুহের মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রীর শোক
এ বিভাগের সর্বশেষ
শিক্ষক হেনস্তায় জড়িতদের বিচার দাবি ঢাবি শিক্ষার্থীদের
শিক্ষক হেনস্তায় জড়িতদের বিচার দাবি ঢাবি শিক্ষার্থীদের
বন্যার কবলে স্কুল-কলেজের ৫ লাখ ৮৪ হাজার শিক্ষার্থী
বন্যার কবলে স্কুল-কলেজের ৫ লাখ ৮৪ হাজার শিক্ষার্থী
চতুর্থ ঢেউ ঠেকাতে মাস্ক পরার বিকল্প নেই: ডা. এবিএম আব্দুল্লাহ
চতুর্থ ঢেউ ঠেকাতে মাস্ক পরার বিকল্প নেই: ডা. এবিএম আব্দুল্লাহ
বন্যাদুর্গতের সহায়তায় ঢাবি শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের সমন্বিত উদ্যোগ
বন্যাদুর্গতের সহায়তায় ঢাবি শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের সমন্বিত উদ্যোগ
ব্রিজ স্কুলের শিক্ষার্থীরা প্রতিবেশী দেশের তুলনায় এগিয়ে: গবেষণা
ব্রিজ স্কুলের শিক্ষার্থীরা প্রতিবেশী দেশের তুলনায় এগিয়ে: গবেষণা