X
বৃহস্পতিবার, ১৮ আগস্ট ২০২২
৩ ভাদ্র ১৪২৯

পলাতক জোবায়দা রহমানের মামলা শুনে হাইকোর্ট ভুল করেছে: আপিল বিভাগ

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
০১ জুন ২০২২, ২১:২৫আপডেট : ০১ জুন ২০২২, ২২:০৪

আইনের দৃষ্টিতে পলাতক হওয়ায় বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের স্ত্রী ডা. জোবায়দা রহমানের দুর্নীতির মামলা বাতিলের আবেদন শুনে ও আদেশ দিয়ে হাইকোর্ট আইন অনুযায়ী ভুল করেছে বলে পর্যবেক্ষণ দিয়েছেন সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ। 

বুধবার (১ জুন) ‘ডা. জোবায়দা রহমান বনাম রাষ্ট্র ও অন্যান্য’ মামলার পূর্ণাঙ্গ রায়ে এমন পর্যবেক্ষণ দিয়েছেন প্রধান বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকীর নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগের চার সদস্যের বেঞ্চ। রায়টি লিখেছেন বিচারপতি বোরহানউদ্দিন। রায়ে একমত পোষণ করেছেন প্রধান বিচারপতিসহ আপিল বিভাগের অপর সদস্য বিচারপতি মো. নূরুজ্জামান ও বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিম।

রায়ে বলা হয়েছে, দুর্নীতির মামলায় জোবায়দা রহমানের বিরুদ্ধে অভিযোগ আমলে নেয়নি বিচারিক আদালত। যেখানে অভিযোগ আমলে নেয়নি সেখানে কি করে উনি (জোবায়দা) মামলা বাতিল চেয়ে ৫৬১ক ধারায় আবেদন করেছেন। আর যখন আবেদনটি করেছেন (হাইকোর্টে) তখন আইনের দৃষ্টিতে তিনি (জোবায়দা রহমান) পলাতক। আইনের দৃষ্টিতে একজন পলাতক ব্যক্তির করা ওই আবেদন শুনে মামলার বিচারকাজ স্থগিতের পাশাপাশি রুল জারি করেছে হাইকোর্টের একটি দ্বৈত বেঞ্চ। আমরা মনে করি, হাইকোর্টের এ ধরনের আদেশ প্রদান আইন অনুযায়ী সঠিক ছিল না। কারণ, আইনের দৃষ্টিতে পলাতক ব্যক্তির আইনি প্রতিকার চাওয়ার কোনও সুযোগ নেই।

আপিল বিভাগ তার রায়ে আরও বলেছেন, সংবিধানের ২৭ অনুচ্ছেদ অনুযায়ী সকল নাগরিক আইনের দৃষ্টিতে সমান এবং আইনের সমান আশ্রয় লাভের অধিকারী। দেশের সর্বোচ্চ আদালতের বিচারকরা ভয়ভীতির ঊর্ধ্বে ওঠে ও পক্ষপাতিত্বের আশ্রয় না নিয়ে বিচারকাজ পরিচালনার শপথ নিয়েছেন। যেকোনও পরিস্থিতিতে বিচার বিভাগ এই নীতিতে অবশ্যই অটল থাকবে। বিচার বিভাগ এমন কোনও নজির সৃষ্টি করবে না, যা সবার ক্ষেত্রে প্রযোজ্য নয়।

রায়ে আপিল বিভাগ বলেছে, প্রত্যেক নাগরিকের আদালত থেকে সমান বিচার পাওয়ার অধিকার রয়েছে। কারণ, আইনের দৃষ্টিতে কেউ বড় বা ছোট নয়, সকলেই সমান।

এর আগে, জ্ঞাত আয়বহির্ভূত ৪ কোটি ৮১ লাখ ৫৩ হাজার ৫৬১ টাকার মালিক হওয়া ও সম্পদের তথ্য গোপনের অভিযোগে ২০০৭ সালের ২৬ সেপ্টেম্বর রাজধানীর কাফরুল থানায় এ মামলা করে দুদক। মামলায় তারেক রহমান, ডা. জোবায়দা রহমান ও তার মা ইকবাল মান্দ বানুকে আসামি করা হয়। পরে জোবায়দা রহমানের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে মামলার কার্যক্রম স্থগিত করে রুল জারি করে হাইকোর্ট। ওই রুলের শুনানি শেষে ২০১৭ সালের ১২ এপ্রিল রায় দেন হাইকোর্ট। রায়ে মামলা বাতিলে জারি করা রুল হাইকোর্ট খারিজ করে দেন। একইসঙ্গে জোবায়দা রহমানকে আট সপ্তাহের মধ্যে বিচারিক আদালতে আত্মসমর্পণেরও নির্দেশ দেওয়া হয়। ওই রায়ের বিরুদ্ধে আপিল বিভাগে আবেদন করেন তিনি। ওই আবেদনের ওপর গত ১৩ এপ্রিল রায় দেয় আপিল বিভাগ। সেই রায়ের পূর্ণাঙ্গ অনুলিপিতে এই পর্যবেক্ষণ উঠে আসে।

/বিআই/এমএস/এমওএফ/
বাংলা ট্রিবিউনের সর্বশেষ
দুই প্রতিষ্ঠানের টানাহেঁচড়া, পান্থকুঞ্জ এখন অপরাধের স্বর্গরাজ্য
দুই প্রতিষ্ঠানের টানাহেঁচড়া, পান্থকুঞ্জ এখন অপরাধের স্বর্গরাজ্য
দেশে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি রক্ষায় সরকার বদ্ধপরিকর: প্রধানমন্ত্রী
দেশে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি রক্ষায় সরকার বদ্ধপরিকর: প্রধানমন্ত্রী
জন্মাষ্টমী আজ
জন্মাষ্টমী আজ
কাবুলে নামাজের সময় মসজিদে হামলা, ইমামসহ একাধিক নিহত
কাবুলে নামাজের সময় মসজিদে হামলা, ইমামসহ একাধিক নিহত
এ বিভাগের সর্বশেষ
এ যেন এক দেশে দুই নীতি: হাইকোর্ট
প্রসঙ্গ ওয়াসার এমডির বেতনএ যেন এক দেশে দুই নীতি: হাইকোর্ট
মামলার আদেশে পোশাক নিয়ে কিছুই লেখা হয়নি: হাইকোর্ট
নরসিংদী রেলস্টেশনে তরুণীকে হেনস্তামামলার আদেশে পোশাক নিয়ে কিছুই লেখা হয়নি: হাইকোর্ট
ড. ইউনূসের বিরুদ্ধে মামলা চলবে
ড. ইউনূসের বিরুদ্ধে মামলা চলবে
ওয়াসার এমডির বেতন-ভাতার সব তথ্য চেয়েছেন হাইকোর্ট
ওয়াসার এমডির বেতন-ভাতার সব তথ্য চেয়েছেন হাইকোর্ট
খালেদা জিয়ার ২ মামলায় অভিযোগ গঠনের শুনানি পেছালো
খালেদা জিয়ার ২ মামলায় অভিযোগ গঠনের শুনানি পেছালো