X
বৃহস্পতিবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২২
১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৯

বিদেশে চাকরি দেওয়ার নামে ৩ কোটি টাকা আত্মসাৎ

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
০৭ অক্টোবর ২০২২, ১৮:৩৫আপডেট : ০৭ অক্টোবর ২০২২, ১৮:৩৫

ইউরোপ ও মধ্যপ্রাচ্যসহ বিভিন্ন দেশে উচ্চ বেতনে চাকরি দেওয়ার মিথ্যা প্রলোভন দেখিয়ে পাঁচ শতাধিক লোকের কাছ থেকে প্রায় তিন কোটি টাকা আত্মসাৎ করেছে একটি চক্র। বিদেশে পাঠানোর নামে এই প্রতারণার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে দুই জনকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব।

বৃহস্পতিবার (৬ অক্টোবর) রাতে শান্তিনগর এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয়। র‌্যাব বলছে, গ্রেফতার দুই জনের মধ্যে মাহবুব উল হাসান (৫০) মানবপাচার ও প্রতারক চক্রের মূলহোতা। অপরজন তার সহযোগী মাহমুদ করিম (৩৬)। 

শুক্রবার (৭ অক্টোবর) রাজধানীর কাওরান বাজারে র‌্যাবের মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান র‌্যাব-৩ এর অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল আরিফ মহিউদ্দিন।

তিনি জানান, গ্রেফতার দুই জনের কাছ থেকে ৫২১টি পাসপোর্ট উদ্ধার করা হয়েছে। এছাড়াও বিদেশে চাকরির জন্য তৈরি করা বিভিন্ন কোর্সের ৬৫টি ভুয়া সনদ, ভুয়া মেডিক্যাল সার্টিফিকেট ৩০০টি, ভুয়া কোভিড ভ্যাক্সিনেশন সার্টিফিকেট ২২৫টি, সৌদি, ইরাক, কুয়েত, দুবাই, রোমানিয়া, কানাডা এবং কম্বোডিয়ায় চাকরির ভুয়া চুক্তিপত্র, ভুয়া মেডিক্যাল সার্টিফিকেট, টাকা গ্রহণ রেজিস্টার তিনটি, পুলিশ ক্লিয়ারেন্স ১৫টি, রোমানিয়ান জাল ভিসা সাতটি, জাল কাগজ তৈরির কাজে ব্যবহৃত কম্পিউটার, স্ক্যানার এবং প্রিন্টারও জব্দ করা হয়েছে। 

চক্রটি বিভিন্ন অসহায় দরিদ্র লোকের কাছ থেকে কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছে উল্লেখ করে র‌্যাবের এই কর্মকর্তা বলেন, ‘চক্রের মূলহোতা মাহবুব উল হাসান এবং তার প্রধান সহযোগী মাহমুদ করিম। তারা বাংলাদেশে বিভিন্ন অঞ্চলে দালালের মাধ্যমে ইউরোপ ও মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন দেশে গমনে ইচ্ছুক লোকজনের পাসপোর্ট সংগ্রহ করে। এভাবে তারা গত দুই বছরে ৫২১টি পাসপোর্ট সংগ্রহ করেছে। এর মধ্যে যারা মধ্যেপ্রাচ্যে যেতে ইচ্ছুক তাদের নিকট হতে সে ২ থেকে ৩ লাখ টাকা করে এবং যারা ইউরোপে যেতে ইচ্ছুক তাদের কাছ থেকে ৬ থেকে ৭ লাখ টাকা করে জমা নেয়। 

বিদেশে বিভিন্ন কোম্পানির চাকরির ভুয়া নিয়োগপত্র, ভুয়া মেডিক্যাল সার্টিফিকেটসহ নিজস্ব কম্পিউটারে তৈরি বিভিন্ন ভুয়া কাগজপত্র দেখিয়ে তাদের বিদেশে পাঠানোর বিষয়ে চক্রটি নিশ্চয়তা দিতো বলেও জানান এই র‌্যাব কর্মকর্তা। তিনি বলেন, ‘পরে বিদেশে যেতে না পারলে কিংবা তাদের কার্যক্রমে অগ্রগতি না দেখে টাকা ফেরত দিতে তাগাদা দেন ভুক্তভোগীরা। কিন্তু তারা এখন পর্যন্ত কাউকেই টাকা ফেরত দেয়নি। গত দুই বছরে পাসপোর্ট এবং অর্থ জমাদানকারী কোনও ভিকটিমকে তারা বিদেশে পাঠাতে পারেনি।’

চক্রের গ্রেফতার দুই সদস্য

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, প্রথমেই বিদেশে যেতে ইচ্ছুক ব্যক্তি এবং তাদের অভিভাবকদের বিদেশ থেকে তাদের বিভিন্ন দালালের সঙ্গে কথা বলিয়ে দেওয়া হয়। কথিত সেই প্রবাসীরাও আশ্বস্ত করে বলেন, তারা এই আসামিদের মাধ্যমেই বিদেশে গেছেন। তারা এখন খুব ভালো আছেন এবং অনেক অর্থ উপার্জন করে ভাগ্যবদল করতে সক্ষম হয়েছেন। বিদেশ থেকে ফোনে কথা বলার পর ভিকটিম এবং তাদের অভিভাবকরা আরও আগ্রহী হয়ে ওঠেন। এই সুযোগকে কাজে লাগিয়ে আসামিরা ধাপে ধাপে ভিকটিমদের কাছ থেকে টাকা আত্মসাৎ করতে থাকে।

অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল আরিফ মহিউদ্দিন আহমেদ বলেন, চক্রটির ট্রাভেল এজেন্সি বা রিক্রুটিং এজেন্সি পরিচালনার কোনও লাইসেন্স নাই। স্বল্প সময়ে, বিনাশ্রমে অধিক লাভ বা অর্থ উপার্জনই তাদের একমাত্র লক্ষ্য।

/আরটি/ইউএস/
ডিসেম্বরজুড়ে বিটিভিতে বর্ণাঢ্য আয়োজন
ডিসেম্বরজুড়ে বিটিভিতে বর্ণাঢ্য আয়োজন
মাসটি বিজয়ের
মাসটি বিজয়ের
ফ্রান্সকে হারিয়েও তিউনেশিয়ার বিদায়
ফ্রান্সকে হারিয়েও তিউনেশিয়ার বিদায়
১৮ কোটি টাকা বিদ্যুৎ বিল বকেয়া দিনাজপুর পৌরসভার
১৮ কোটি টাকা বিদ্যুৎ বিল বকেয়া দিনাজপুর পৌরসভার
সর্বাধিক পঠিত
লুট হওয়া ১১ অস্ত্র মিয়ানমার থেকে ফেরত পাওয়ার আশা বিজিবির
লুট হওয়া ১১ অস্ত্র মিয়ানমার থেকে ফেরত পাওয়ার আশা বিজিবির
রিট করার পরামর্শ দিয়েছেন হাইকোর্ট
ইসলামী ব্যাংকের ৩০ হাজার কোটি টাকা ঋণরিট করার পরামর্শ দিয়েছেন হাইকোর্ট
তিনি সাধারণ শিক্ষার্থীদের নেতা
তিনি সাধারণ শিক্ষার্থীদের নেতা
৪ ডিসেম্বর থেকে ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ ট্রেন চলাচল বন্ধ
৪ ডিসেম্বর থেকে ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ ট্রেন চলাচল বন্ধ
তুরস্কের প্রতি সংহতি ন্যাটোর
তুরস্কের প্রতি সংহতি ন্যাটোর