X
সোমবার, ১৫ এপ্রিল ২০২৪
২ বৈশাখ ১৪৩১

সেই বাশারের বিরুদ্ধে ঢামেকে সহকর্মীদের বিক্ষোভ

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
১৯ মার্চ ২০২৩, ০১:৩০আপডেট : ১৯ মার্চ ২০২৩, ০১:৪২

ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের ওয়ার্ড মাস্টার বাশারের বিরুদ্ধে স্বেচ্ছাচারিতা, দুর্নীতি ও অনিয়মের অভিযোগ এনে বিক্ষোভ করেছে হাসপাতালের কর্মচারীরা।

শনিবার (১৮ মার্চ) সকালে প্রশাসনিক ভবনে পরিচালকের কার্যালয়ের সামনে এ বিক্ষোভ ও প্রতিবাদ  করেন কর্মচারীরা।

হাসপাতালে চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারী সমিতির সভাপতি ও স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা মো. রমিজ বলেন, আমরা হাসপাতাল পরিচালকের কাছে বাশারের অপকর্মের বিষয়ে সব জানিয়েছি। তার বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থার দাবি করেছি।

তিনি বলেন, হাসপাতাল পরিচালক বিষয়টি দেখে ব্যবস্থা নেবেন বলে আমাদের আশ্বস্ত করেছেন। আমরা কিছুদিন দেখবো, যদি তার বিরুদ্ধে কোনও ব্যবস্থা না নেওয়া হয়, সে ক্ষেত্রে পরবর্তীতে কঠিন পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

প্রতিবাদকারীদের মধ্যে ওয়ার্ড মাস্টার মো. জিল্লুর বলেন, সে চলতি দায়িত্বে ওয়ার্ড মাস্টার হিসাবে কাজ করছেন। বাশার এখনও চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারী। সে হাসপাতালের ও আমাদের সুনাম ক্ষুণ্ণ করছেন। আমরা তার বিচার চেয়েছি।

এছাড়াও প্রতিবাদকারীদের অনেকেই জানান, কথিত ওয়ার্ড মাস্টার বাশার বহির্বিভাগে একচেটিয়া রাজত্ব করতো।  সরকারি কর্মচারীদের কাজে না লাগিয়ে দৈনিকভিত্তিক কর্মচারীদের কাজে লাগিয়ে অপকর্ম করতো। চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারী হলেও তদবির করে  বাশার অতিরিক্ত দায়িত্ব পেয়ে যা ইচ্ছা তাই করতো।  তারা বলেন, এসব কারণে হাসপাতাল পরিচালক  স্যার  সম্প্রতি তাকে বহির্বিভাগ থেকে অপসারণ করে পুরাতন ভবনের কেবিন ব্লকে দিয়েছেন।

তিনি প্রশাসনিক আদেশ অমান্য করে জোর করেই বহির্বিভাগে  ছিলেন। পরে কর্তৃপক্ষের চাপে বাধ্য হয়ে প্রায় একমাস পর দায়িত্ব বুঝিয়ে দেন। নিজেও দায়িত্ব বুঝে নেন।

এ ব্যাপারে ওয়ার্ড মাস্টার এসএম বাশার সিকদারের কাছে জানতে চাওয়া হলে তিনি বলেন, আমি আজ হাসপাতালে ছিলাম না। তবে শুনেছি, কিছু কর্মচারী  আমার বিরুদ্ধে পরিচালকের কাছে অভিযোগ নিয়ে  গিয়েছিল। তার বিরুদ্ধে হাসপাতালের  কর্মচারী নেতাকর্মীদের আনীত অভিযোগকে মিথ্যা দাবি করে তিনি বলেন, এসব উদ্দেশ্যপ্রণোদিত।

তিনি বলেন, আমি চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারী সঠিক, বর্তমানে চলতি দায়িত্বে ওয়ার্ড মাস্টার হিসাবে আছি। এ দায়িত্ব দিয়ে গেছেন  সাবেক পরিচালক বিগ্রেডিয়ার জেনারেল নাসির উদ্দিন। আমাকেসহ অনেককে রদবদল করেছেন কর্তৃপক্ষ। আমাকে বদলি করে  কেবিন ব্লকে দিয়েছেন। আমি সে দায়িত্ব বুঝে নিয়েছি। আমার দায়িত্ব বুঝিয়ে দিয়েছি।

হাসপাতাল পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল নাজমুল হক বলেন, আমার কাছে কর্মচারী নেতা কর্মীরা এসেছিলেন। ৮ ওয়ার্ড মাস্টার রদবদল ও কর্মচারীদের  নিয়ে একটি অনলাইন পোর্টাল উল্টাপাল্টা নিউজ করেছে, এতে হাসপাতালের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ণ হয়েছে। এগুলো করিয়েছেন বাশার—এমনটাই তাদের ধারনা।  বিষয়টি খতিয়ে দেখা হবে বলে আমরা জানিয়েছি।

/এআইবি/আরটি/এমএস/
সম্পর্কিত
রাজধানীতে ট্রাকের ধাক্কায় রিকশাচালকের মৃত্যু
মদপানে কলেজশিক্ষার্থীর মৃত্যু
তিন সাংবাদিককে লাঞ্ছিত, চেয়ারম্যান আটক
সর্বশেষ খবর
গ্রাহকের আড়াই কোটি টাকা নিয়ে ব্যাংক কর্মকর্তা ‘উধাও’
গ্রাহকের আড়াই কোটি টাকা নিয়ে ব্যাংক কর্মকর্তা ‘উধাও’
‘নিত্যপণ্যের বাজারে সিন্ডিকেট নয়, আছে সুবিধাবাদী’
‘নিত্যপণ্যের বাজারে সিন্ডিকেট নয়, আছে সুবিধাবাদী’
অ্যান্টিবায়োটিক রেজিস্ট্যান্স স্বাস্থ্য খাতের নতুন অশনি সংকেত: স্বাস্থ্যমন্ত্রী
অ্যান্টিবায়োটিক রেজিস্ট্যান্স স্বাস্থ্য খাতের নতুন অশনি সংকেত: স্বাস্থ্যমন্ত্রী
চালের বস্তা নিয়ে সরকারি সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন হয়নি
চালের বস্তা নিয়ে সরকারি সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন হয়নি
সর্বাধিক পঠিত
কেন প্রতিরক্ষা সহযোগিতা বাড়াতে চায় বাংলাদেশ?
কেন প্রতিরক্ষা সহযোগিতা বাড়াতে চায় বাংলাদেশ?
কিছু আরব দেশ কেন ইসরায়েলকে সাহায্য করছে?
কিছু আরব দেশ কেন ইসরায়েলকে সাহায্য করছে?
বান্দরবা‌নে বম পাড়া জনশূ‌ন্য, অন্যদিকে উৎসব
বান্দরবা‌নে বম পাড়া জনশূ‌ন্য, অন্যদিকে উৎসব
মোস্তাফিজের খরুচে বোলিং ছাপিয়ে চেন্নাইয়ের জয়
মোস্তাফিজের খরুচে বোলিং ছাপিয়ে চেন্নাইয়ের জয়
সরকারি চাকরির বড় নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি, আবেদন শেষ ১৮ এপ্রিল
সরকারি চাকরির বড় নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি, আবেদন শেষ ১৮ এপ্রিল