X
সোমবার, ২৭ মে ২০২৪
১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

অ্যাওয়ার্ড লাগবে, অ্যাওয়ার্ড?

উদিসা ইসলাম
৩১ মে ২০২৩, ১০:০০আপডেট : ৩১ মে ২০২৩, ১০:০০

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে হঠাৎই বেশকিছু অ্যাওয়ার্ডের বিজ্ঞাপন নজরে আসে। ‘মহাত্মা গান্ধী পিস অ্যাওয়ার্ড’, ‘সাউথ এশিয়ান বিজনেস ও লিডারশিপ অ্যাওয়ার্ড’ ও ‘নেপাল-বাংলাদেশ ফ্রেন্ডশিপ অ্যাওয়ার্ড’। এসব অ্যাওয়ার্ডের (পদক) নাম ভিন্ন হলেও দাতা প্রতিষ্ঠান একই— এশিয়ান বিজনেস পার্টনারশিপ সামিট। আবার একই অ্যাওয়ার্ড বছরে একাধিকবারও দেয় তারা। সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তারা কোনও তথ্য দিতে অস্বীকৃতি জানায়। তবে ফেসবুক পেজের পোস্ট ধরে এগিয়ে যেতেই কেঁচো খুঁড়তে বেরিয়ে আসে সাপ।

ফেসবুকের বিজ্ঞাপন অনুযায়ী, ‘এশিয়ান বিজনেস অ্যান্ড লিডারশিপ অ্যাওয়ার্ড-২০২৩’ এর ফরম পূরণের শেষ তারিখ ছিল গত ২০ মে। সেই বিজ্ঞাপনে দেওয়া হোয়াটসঅ্যাপ নম্বরে গত ২৩ মে যোগাযোগ করে অ্যাওয়ার্ড প্রদান প্রক্রিয়া জানতে চাইলে কল রিসিভকারী নিজের নাম মারুফ দাবি করে বলেন, ‘আমরা আমাদের কাছে আসা ফরমগুলো যাচাই-বাছাই করে অ্যাওয়ার্ড দিয়ে থাকি। আমাদের জুরি আছে।’

সময় শেষ হয়ে গেলেও প্রতিবেদক নিজের জন্য ফরম পূরণ করতে পারবেন কিনা প্রশ্নে তিনি বলেন, ‘এখনও বিশেষ বিবেচনায় আবেদন নেওয়া যাবে। অনুষ্ঠান ৬ জুন কলকাতায় অনুষ্ঠিত হবে।’ এ পর্যন্ত কত জনকে অ্যাওয়ার্ড দিয়েছেন বা বছরে কত জনকে দেওয়া হয় জানতে চাইলে কল রিসিভকারী জানান, তিনি পরবর্তী সময়ে কাগজ দেখে বিষয়গুলো জানাতে পারবেন। কিন্তু পরে আরও কয়েকদফা যোগাযোগ করে, কল করে বা হোয়াটসঅ্যাপে বার্তা পাঠিয়েও তার সঙ্গে যোগাযোগ সম্ভব হয়নি।

ফেসবুকে পদক প্রদানের আরেকটি বিজ্ঞাপন তাই বলে মহাত্মা গান্ধী পিস অ্যাওয়ার্ড?

এ বছর দ্বিতীয় দফায় ‘মহাত্মা গান্ধী পিস অ্যাওয়ার্ড’ দেওয়া হবে আগামী ৯ জুন, কলকাতায়। ২০২৩ সালের ফেব্রুয়ারির ২৮ তারিখেই এই অ্যাওয়ার্ড এক দফা দেওয়া হয়েছে। সে সময়কার অ্যাওয়ার্ড-প্রাপ্তদের মধ্যে একটি সংগঠন হলো ‘চান্দখালী ব্লাড ফাউন্ডেশন’। দাতা প্রতিষ্ঠানের দেওয়া ছবিতে সনদও দেখা যায়। অ্যাওয়ার্ড-প্রাপ্ত সংগঠন চান্দখালী ব্লাড ফাউন্ডেশন ২০২০ সালে তাদের কার্যক্রম শুরু করেই এই পুরস্কার পায়। বিষয়টি নিয়ে জানতে যোগাযোগ করা হলে শুরুতে কেউই খোলাসা করে কথা বলতে চাননি।

পরে ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি মোহাম্মদ এ আর বাবু বলেন, ‘দাতা প্রতিষ্ঠানটি যোগাযোগ করে আমাদের কাজের বিষয়ে জানতে চায়। পরে কলকাতা থেকে আমাদের প্রতিনিধি সেটা সংগ্রহ করেন। তারাও দাতা প্রতিষ্ঠানের বিষয়ে বিস্তারিত কিছু জানেন না। অনলাইনেই পুরো প্রক্রিয়াটি সম্পাদন হয়।’

ভারতের জাতির জনক মোহনদাস করমচাঁদ গান্ধীর নামানুসারে দেশটিতে বেশ কয়েকটি পুরস্কার দেওয়া হয়। তার একটি ‘গান্ধী পিস প্রাইজ’ দেয় খোদ ভারত সরকার, যার সম্মানী কোটি রুপি। ১৯৯৫ সাল থেকে শুরু হওয়া এই অ্যাওয়ার্ডটি পেয়েছেন বিশ্বের অসংখ্য নামি ব্যক্তিত্বরা। আর ‘গান্ধী পিস অ্যাওয়ার্ড’-এর ঐতিহ্য আরও  পুরনো। ১৯৬০ সাল থেকে এই সম্মাননা দেওয়া হচ্ছে।

তবে নামের মিল থাকলেও বাংলাদেশে ‘এশিয়ান বিজনেস পার্টনারশিপ সামিট’ নামে দেশি প্রতিষ্ঠানটির দেওয়া ‘মহাত্মা গান্ধী পিস অ্যাওয়ার্ড’-এর সঙ্গে সেসব পুরস্কারের কোনও সংযোগ নেই। চান্দখালী ব্লাড ফাউন্ডেশনের সনদটিতে ‘এশিয়ান বিজনেস পার্টনারশিপ সামিট’-এর পাশাপাশি কলকাতার একটি সংগঠন ‘সিপিডিআর’-এর নাম উল্লেখ আছে। সংগঠনটির সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক বিপ্লব ঘোষের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে বাংলা ট্রিবিউনকে তিনি বলেন, ‘এই নামে আমাদের সংগঠনটি মানবাধিকার নিয়ে কাজ করছে। কিন্তু কোনও অ্যাওয়ার্ডের সঙ্গে যুক্ত নয়। তারা কাদের নাম ব্যবহার করেছে বুঝতে পারছি না। তবে বেশকিছু নাম ভাঙানো সংগঠন অ্যাওয়ার্ড দেওয়ার কাজটি করে, সেখানে ঘাপলা থাকা বিস্ময়ের নয়। মহাত্মা গান্ধীর নামে অ্যাওয়ার্ড কলকাতায় বসে দিচ্ছে ঠিকই, কিন্তু এর সঙ্গে ভারত সরকার জড়িত নয়।’

এই অ্যাওয়ার্ড পাচ্ছেন কারা?

অনুসন্ধানে জানা যায়, চেনা-অচেনা ব্যক্তি ও সংগঠনকে এসব অ্যাওয়ার্ড দেওয়া হয়ে থাকে। তবে ভুইফোঁড় ও অল্প পরিচিতদের সংখ্যাই বেশি। ফেসবুকেই খোঁজ মেলে এমন একাধিক ব্যক্তির, যারা দাবি করছেন— তারা নিজেরাই জানেন না কীভাবে এই আয়োজকরা তাদের কাছে পৌঁছালো। কুড়িগ্রামের এক ব্যক্তি এ বছর ‘এশিয়ান বিজনেস পার্টনারশিপ সামিট’ এর তিনটি অ্যাওয়ার্ড পেয়েছেন। আগামী জুলাইতে আরেকটি পাবেন বলে তাকে জানানো হয়েছে। তার সঙ্গে হোয়াটসঅ্যাপে যোগাযোগ করা হলে তিনি এসব তথ্য জানান। কীভাবে দাতা প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে তার যোগাযোগ হলো— প্রশ্নে নাম প্রকাশ না করে তিনি বলেন, ‘এ বিষয়ে আমার জানা নেই। আমি কুড়িগ্রামের সর্বোচ্চ করদাতা তিন জনের একজন। তারা কেন, কীভাবে আমাকে পেলো আমি জানি না।’

ফেসবুকের পোস্টেই জানা যায়, পরিচিত মুখের মধ্যে ‘মহাত্মা গান্ধী পিস অ্যাওয়ার্ড’টি পেয়েছেন ড. জাহাঙ্গীর আলম খান নামে এক ব্যক্তি। ফেসবুকে পদক-উত্তরীয়সহ তার একটি ছবিও পাওয়া যায়। তার সঙ্গে টেলিফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ‘আমাকে তারা কীভাবে তালিকাভুক্ত করেছে আমি জানি না। আমাকে যোগাযোগ করে অ্যাওয়ার্ড নিতে কলকাতায় যেতে বলা হলেও আমি যাইনি। পরে তারা আমাকে বাসায় এসে পদক, উত্তরীয় ও সার্টিফিকেট দিয়ে গেছে। তবে এরা কারা আমি খোঁজ নিইনি।’

মহাত্মা গান্ধী পিস অ্যাওয়ার্ডস ২০২৩- এর সার্টিফিকেট প্রদত্ত ঠিকানায় কেউ নেই

ফেসবুকে দেওয়া অ্যাওয়ার্ড ফরমে উল্লেখ করা এশিয়ান বিজনেস পার্টনারশিপ সামিট অফিসের ঠিকানায় (নোয়াখালী টাওয়ার,১২ তলা, পুরানা পল্টন, ঢাকা) সরেজমিনে দেখা যায়, ১১, ১২, ১৩ তলায় কয়েকটি অফিস রয়েছে। ট্রাভেল এজেন্সি, পত্রিকা, ইসলামিক ল’ রিসার্চ ও লিগ্যাল এইড সেন্টারের মতো আরও কিছু অফিসের বাইরে সেখানে সামিটের অফিসের অস্তিত্ব পাওয়া যায়নি। পাশের অফিসগুলোতে তাদের সম্পর্কে জানতে চাইলে তারাও কিছু বলতে পারেননি।

অ্যাওয়ার্ডের বিষয়ে কথা বলতে সরাসরি অফিসে যাওয়ার বিষয়ে এশিয়ান বিজনেস পার্টনারশিপ সামিটের  টেলিফোনে যোগাযোগ করা হলে গোলাম ফারুক নামে একজন ব্যক্তি বলেন, ‘অ্যাওয়ার্ডের আবেদন ফরম পূরণ করে হোয়াটসঅ্যাপে পাঠিয়ে দিন। অফিসে আসার আগে কল দিয়েন।’

অ্যাওয়ার্ড নিয়ে যে অনলাইন প্রচারণা সেটির বিষয়ে কোনও অভিযোগ উত্থাপিত হয়েছে কিনা, বা আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারীবাহিনী নিজে থেকে মনিটরিং করতে পারে কিনা, এমন প্রশ্নে সিআইডির সাইবার ইউনিটের ‍বিশেষ পুলিশ সুপার রেজাউল মাসুদ বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘যদি ডিজিটাল অপরাধ হয়, নিজের মিথ্যা পরিচয় দিয়ে যদি কেউ প্রতারণা করে, তবে থানা পুলিশ নিজ উদ্যোগে ব্যবস্থা নিতে পারে। আর  যদি সাইবার জগতের সিভিল ম্যাটার হয়, তবে ভুক্তভোগী সাইবার আদালতে গিয়ে অভিযোগ করতে পারেন।’

একই প্রতিষ্ঠান এক বছরে এক ব্যক্তিকে চারটি ভিন্ন ক্যাটাগরির অ্যাওয়ার্ড দিচ্ছে, এতে কোনও বিনিময় মূল্য থাকতে পারে কিনা প্রশ্নে তিনি বলেন, ‘এটি বেশ আশ্চর্যের। আমরা অবহিত হলাম, এখন মনিটরিং টিমকে বিষয়টি খতিয়ে দেখতে বলা হবে।’

সাইবার বিশ্লেষক তানভীর হাসান জোহা মনে করেন, ওপেন সোর্স ইন্টেলিজেন্স সফটওয়ার দিয়ে এসব কর্মকাণ্ড মনিটরিংয়ের আওতায় আনা দরকার। মনিটরিং সফটওয়্যার দিয়ে এদের ডিটেক্ট করাও সম্ভব।

 

/ইউএস/এপিএইচ/
সম্পর্কিত
মণিপুরে সেনাবাহিনী কিছুই করতে পারবে না: আসামের মুখ্যমন্ত্রী
মোদির বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রস্তাবের আগে পার্লামেন্টে ফিরছেন রাহুল
‘বঙ্গবন্ধু, গান্ধী, রবীন্দ্রনাথ যখন যাকে দরকার তুলে এনেছে ভারত বিচিত্রা’
সর্বশেষ খবর
পানি সরে যাওয়ার পথ নেই, পলিথিন-প্লাস্টিকে পরিপূর্ণ নর্দমা
পানি সরে যাওয়ার পথ নেই, পলিথিন-প্লাস্টিকে পরিপূর্ণ নর্দমা
টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে রিশাদ যে অবস্থানে থাকতে চান
টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে রিশাদ যে অবস্থানে থাকতে চান
রাজধানীর বিভিন্ন সড়কে ভেঙে পড়েছে গাছ, যান চলাচল বন্ধ
রাজধানীর বিভিন্ন সড়কে ভেঙে পড়েছে গাছ, যান চলাচল বন্ধ
‘দেশ যখন দুর্যোগে তখনও সরকারের কাজ হচ্ছে তারেক রহমানের বিচার’
‘দেশ যখন দুর্যোগে তখনও সরকারের কাজ হচ্ছে তারেক রহমানের বিচার’
সর্বাধিক পঠিত
দখলমুক্ত হলো তেজগাঁও মেয়র আনিসুল হক সড়ক, কমবে ভোগান্তি
দখলমুক্ত হলো তেজগাঁও মেয়র আনিসুল হক সড়ক, কমবে ভোগান্তি
সহজে ওজন কমাতে চাইছেন? জেনে নিন ৯ পরামর্শ
সহজে ওজন কমাতে চাইছেন? জেনে নিন ৯ পরামর্শ
প্রায় ২ ঘণ্টা বন্ধের পর মেট্রোরেল চলাচল স্বাভাবিক
প্রায় ২ ঘণ্টা বন্ধের পর মেট্রোরেল চলাচল স্বাভাবিক
উপকূল অতিক্রম করে ঘূর্ণিঝড় ‘রিমাল’ এখন খুলনায়
ঢাকাসহ বেশিরভাগ অঞ্চলে ভারী বৃষ্টিউপকূল অতিক্রম করে ঘূর্ণিঝড় ‘রিমাল’ এখন খুলনায়
জমেছে রাজশাহীর আমের হাট, কেজি ৭০ টাকা
জমেছে রাজশাহীর আমের হাট, কেজি ৭০ টাকা