X
শুক্রবার, ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪
১০ ফাল্গুন ১৪৩০
ভয়েস অব আমেরিকাকে রানা দাশগুপ্ত

মার্কিন ভিসানীতির ফলে নির্বাচনে সংখ্যালঘুদের ওপর সহিংসতার ঘটনা কমতে পারে

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট 
১৯ অক্টোবর ২০২৩, ০৬:৩৪আপডেট : ১৯ অক্টোবর ২০২৩, ০৭:১৪

যুক্তরাষ্ট্রের ভিসা নিষেধাজ্ঞা সঠিকভাবে প্রয়োগ করা হলে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সংখ্যালঘুদের ওপর সহিংসতার ঘটনা নাও ঘটতে পারে বা ঘটলেও তা কমার সম্ভাবনা রয়েছে বলে মনে করেন বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট রানা দাশগুপ্ত।

ভয়েস অব আমেরিকায় দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি একথা বলেন। সাক্ষাৎকারটি বুধবার (১৮ অক্টোবর) প্রকাশ করা হয়।

অ্যাডভোকেট দাশগুপ্ত সাক্ষাৎকারে জানান, আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে যেন সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের ওপর নিপীড়ন, নির্যাতন ও হামলার ঘটনা না ঘটে; ধর্মীয় সংখ্যালঘুরা যেন নির্বিঘ্নে ভোট দিতে পারে এবং ভোটের ফলাফল যাই হোক না কেন তারা যেন নিরাপদে স্বাভাবিক জীবনযাপন করতে পারে— এটা নিশ্চিত করতে হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের পক্ষ থেকে ইতিমধ্যে কাজী হাবিবুল আউয়ালের নেতৃত্বাধীন নির্বাচন কমিশনকে একটি স্মারকলিপি দেওয়া হয়েছে। এছাড়া, নির্বাচনকে সামনে রেখে যাতে ধর্মীয়-জাতিগত সংখ্যালঘু নাগরিকদের মানবাধিকার কোনভাবেই যাতে লঙ্ঘিত না হয়, সেজন্য জাতীয় মানবাধিকার কমিশনেও পৃথকভাবে স্মারকলিপি দেওয়া হয়েছে বলেও জানান তিনি।

আগামী নির্বাচনে ধর্মীয়-জাতিগত সংখ্যালঘুরা যাতে নির্ভয়ে নির্বিঘ্নে ভোট দিতে পারে— তা নিশ্চিতের জন্যে নির্বাচন কমিশনে ৭ দফা এবং নির্বাচনকে সামনে রেখে যাতে মানবাধিকার লঙ্ঘিত না হয়, সেজন্য মানবাধিকার কমিশনে ৫ দফা প্রস্তাব তারা দিয়েছেন।

গত ১২ অক্টোবর কুমিল্লায় হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের মিছিলে যুবলীগের কর্মীরা ধাওয়া দিয়েছে। এই প্রেক্ষাপটে সরকার ও ক্ষমতাসীন দল দুর্গাপূজার সময় সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে যথেষ্ট আন্তরিক কিনা, এমন এক প্রশ্নের জবাবে রানা দাশগুপ্ত বলেন, ‘কুমিল্লার স্থানীয় সরকারদলীয় এমপি বাহারের দুর্গাপূজা নিয়ে অশালীন উক্তি ও মন্তব্যের প্রতিবাদে গত ১২ অক্টোবর বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের মিছিল করে। সেই মিছিলে হামলার ঘটনায় জড়িতদের মধ্যে দুই যুবলীগ কর্মীকে গত ১৫ অক্টোবর গ্রেফতার করে আদালতে চালান দেওয়া হয়েছে। তারা বর্তমানে কারাগারে আটক রয়েছে। তাছাড়া ছাত্রলীগ ও যুবলীগের দুটি সমাবেশ কুমিল্লায় স্থগিত করা হয়েছে, সরকারি দল ও প্রশাসনের এই উদ্যোগকে তারা ইতিবাচকভাবেই দেখছেন।

তাছাড়া, সম্প্রতি ঢাকায় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামালের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক উচ্চ পর্যায়ের সভায় আসন্ন শারদীয় দুর্গাপূজার সময় সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের নিরাপত্তা নিশ্চিতের দাবি ঐক্য পরিষদের পক্ষ থেকে তুলে ধরা হয়। ২০২১ সালের পূজার সময় সংগঠিত সাম্প্রদায়িক সহিংসতা এবং ২০২২ সালের এই সময়ে শান্তিপূর্ণ সোহার্দ্যপূর্ণ পরিবেশে উৎসব অনুষ্ঠানের প্রাসঙ্গিকতা তুলে ধরে পরিষদের পক্ষ থেকে বলা হয়, সরকার চাইলে শারদীয় দুর্গোৎসব শান্তিপূর্ণ পরিবেশে অনুষ্ঠিত হওয়া সম্ভব।

অ্যাডভোকেট দাশগুপ্ত আরও বলেন, ‘মন্ত্রণালয় ও প্রশাসনের তরফ থেকে এবারের শারদীয় দুর্গাপূজায় নিরাপত্তার পরিবেশ নিশ্চিতে অঙ্গীকার ব্যক্ত করা হয়েছে। আমরা এ অঙ্গীকারের প্রতি আস্থা রাখতে চাই। দুর্গাপূজার সময় সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে (সরকার) যথেষ্ট আন্তরিক কি না তা সময়ই বলে দেবে।’ 

চলতি বছরে দুর্গাপূজা শুরু হওয়ার অন্তত ১ মাস আগে থেকে দেশের নানান মন্দিরে বিগ্রহ ভাংচুর ও আক্রমণের ঘটনা তাদের সামনের পরিস্থিতি নিয়ে অধিকতর উদ্বেগ তৈরি করেছে বলেও তিনি জানান।

সংখ্যালঘুদের দাবিগুলো বাস্তবায়ন করতে হলে দেশের প্রধান রাজনৈতিক দল ও পক্ষগুলোর মধ্যে একটি ঐকমত্য প্রয়োজন বলে তিনি মনে করেন কিনা এবং সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের নিরাপত্তা ও উন্নতির লক্ষ্য অর্জনের জন্য যে সামাজিক চুক্তি প্রয়োজন সে আলোচনায় বিএনপি ও সমমনা দলগুলোকে অন্তর্ভুক্ত করার বিষয়ে জানতে চাইলে রানা দাশগুপ্ত ইতিবাচক জবাব দেন। তিনি বলেন, ‘সংখ্যালঘুদের দাবিগুলো বাস্তবায়ন করতে হলে দেশের প্রধান রাজনৈতিক দল ও পক্ষগুলোর মধ্যে একটি ঐকমত্য প্রয়োজন। ইতোমধ্যে এ ব্যাপারে তারা উদ্যোগ নিয়েছেন।’

তিনি বলেন, ‘নির্বাচন এখনও প্রায় ৩ মাস বাকি। রাজনৈতিক দলগুলোর সাথে আলোচনা আমরা শুরু করেছি। ইতোমধ্যে সরকারি দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের, আওয়ামী লীগের নির্বাচন পরিচালনা কমিটির কো-চেয়ারম্যান কবির বিন আনোয়ার, ১৪ দলীয় জোটের শরীক বাংলাদেশের ওয়াকার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের সভাপতি হাসানুল হক ইনু ও সাধারণ সম্পাদক শিরিন আক্তার, সংসদের বিরোধী দল জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান জি এম কাদের, লিবারেল ইসলামিক জোটের সাথে বৈঠক হয়েছে। বিএনপিসহ অন্যান্য দলের সঙ্গেও আলোচনার চিন্তাভাবনা আমাদের আছে। আমরা মনে করি, সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের নিরাপত্তা ও উন্নতির লক্ষ্য ও তা অর্জনের জন্যে সামাজিক চুক্তি প্রয়োজন যা বিএনপি ও সমমনা দলগুলোকে আলোচনার বাইরে রেখে করা সম্ভব নয়।’

/ইউএস/
সম্পর্কিত
স্বাস্থ্য খাতে দুর্নীতি বন্ধ করা আমার জন্য বড় চ্যালেঞ্জ: সামন্ত লাল সেন
জাতীয় পার্টি নিয়ে অনেকে অনেক ডিস্টার্ব করছে: জিএম কাদের
কলড্রপ শতভাগ বন্ধ করা কারিগরিভাবে সম্ভব নয়: বিটিআরসির চেয়ারম্যান
সর্বশেষ খবর
সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখছেন প্রধানমন্ত্রী
সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখছেন প্রধানমন্ত্রী
কুমিল্লা সিটি উপনির্বাচনে প্রতীক পেলেন চার মেয়রপ্রার্থী
কুমিল্লা সিটি উপনির্বাচনে প্রতীক পেলেন চার মেয়রপ্রার্থী
নৌকায় বিদ্যালয়, হলো সূর্যোদয়
নৌকায় বিদ্যালয়, হলো সূর্যোদয়
ইউক্রেন যুদ্ধের দুই বছর: সংঘাত, ক্রোধ আর ক্লান্তি
ইউক্রেন যুদ্ধের দুই বছর: সংঘাত, ক্রোধ আর ক্লান্তি
সর্বাধিক পঠিত
বাড়িওয়ালাদের তালিকা ধরে অভিযান চালাবে এনবিআর
বাড়িওয়ালাদের তালিকা ধরে অভিযান চালাবে এনবিআর
৫ লাখ শিক্ষক-কর্মচারীকে অবসর সুবিধা দিতে হাইকোর্টের রায়
এমপিওভুক্ত বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান৫ লাখ শিক্ষক-কর্মচারীকে অবসর সুবিধা দিতে হাইকোর্টের রায়
ইউরোপে মানবপাচারে জড়িত বিমানবন্দরের কর্তারা: ডিবির হারুন
ইউরোপে মানবপাচারে জড়িত বিমানবন্দরের কর্তারা: ডিবির হারুন
বইমেলা থেকে বের করে দেওয়ায় ডিবি কার্যালয়ে গেলেন হিরো আলম
বইমেলা থেকে বের করে দেওয়ায় ডিবি কার্যালয়ে গেলেন হিরো আলম
চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় আরভিঅ্যান্ডএফ কোরের সদস্যদের প্রস্তুত থাকতে বলেছেন সেনাপ্রধান
চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় আরভিঅ্যান্ডএফ কোরের সদস্যদের প্রস্তুত থাকতে বলেছেন সেনাপ্রধান