X
সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৪
১৩ ফাল্গুন ১৪৩০

মানসিক ভারসাম্য হারানো কিশোর ভারত থেকে দেশে ফিরলো

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
৩০ নভেম্বর ২০২৩, ২১:৫০আপডেট : ৩০ নভেম্বর ২০২৩, ২২:০৬

মানসিক ভারসাম্যহীন অবস্থায় হারিয়ে যাওয়া বাংলাদেশি কিশোর লিল চন্দ শিল (১৭) ভারত থেকে দেশে ফিরে এসেছে। বৃহস্পতিবার (৩০ নভেম্বর) ভারতের মেঘালয় রাজ্যের ডাউকি থেকে বাংলাদেশের তামাবিল সীমান্ত চেকপোস্ট হয়ে সে দেশে ফিরেছে।

বেসরকারি সংস্থা ব্র্যাকের মাইগ্রেশন প্রোগ্রাম, ভারতের ইমপালস এনজিও নেটওয়ার্ক ও গৌহাটিতে অবস্থিত বাংলাদেশ ডেপুটি হাইকমিশনের উদ্যোগে তাকে ফিরিয়ে আনা হয়েছে।

এ সময় ছেলেকে পেয়ে কান্নায় ভেঙে পড়েন লিল চন্দের বাবা সিপন চন্দ। পরিবারের কাছে হস্তান্তরের সময় ব্র্যাক মাইগ্রেশন প্রোগ্রামের পক্ষ থেকে লিল চন্দকে জরুরি সহায়তা হিসেবে খাবার, জরুরি কাউন্সেলিং সেবা ও অর্থ সহায়তা দেওয়া হয়। হস্তান্তর প্রক্রিয়ার সময় তামাবিল ইমিগ্রেশন পুলিশ চেকপোস্টের ইনচার্জ রনু মিয়া, ব্র্যাক মাইগ্রেশন প্রোগ্রামের সিলেটের সমন্বয়ক শুভাশীষ দেবনাথ ও ইমপালস এনজিও নেটওয়ার্কের কর্মকর্তা জোনাথান ও নিউ শিলং বয়েজ অবজারভেশন হোমের কর্মকর্তা জোসেফাইন সুমার উপস্থিত ছিলেন।

লিল চন্দের বাবা সিপন চন্দ জানান, আমার ছেলে দুই-তিন বছর ধরে মানসিকভাবে অসুস্থ। তাকে পায়ে শিকল দিয়ে বেঁধে রাখতে হয়। না হয় সে পালিয়ে যায়। গত জুলাই মাসে পায়ের শিকল খুলে সে পালিয়ে যায়। অনেক খোঁজাখুঁজি করেও তাকে পাওয়া যায়নি। ১৭-১৮ দিন পর একটা অপরিচিত নম্বর থেকে ফোন দিয়ে বলা হয়—আমার ছেলে ভারতের  মেঘালয়ে আছে।

লিলের পরিবার ও ভারত সূত্রে জানা গেছে, জাফলং জিরো পয়েন্ট দিয়ে ভারতের আসামের উদ্দেশে রওনা হয়েছিল লিল। বৈধ কাগজপত্র না থাকায় সে অনুপ্রবেশকারী হিসেবে ভারতে আটক হয়। কিন্তু বয়স ১৮ বছরের কম হওয়ায় লিলকে আদালতের নির্দেশে নিউ শিলং বয়েজ অবজারভেশন হোমে আটক রাখা হয়। পরে ভারতের বেসরকারি সংস্থা ইমপালস এনজিও নেটওয়ার্ক ও ব্র্যাক তাকে দেশে ফিরিয়ে আনতে কাজ করে।

নিউ শিলং বয়েজ অবজারভেশন হোমের কর্মকর্তা জোসেফাইন সুমার জানান, লিল চন্দ শিল মানসিকভাবে সুস্থ না। সে আমাদের কেন্দ্র থেকেও একবার পালিয়ে গিয়েছিল। আদালতের নির্দেশে তাকে বাংলাদেশে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হলো।

সিপন চন্দ জানান, তিনি পেশায় নাপিত। ছেলে হারিয়ে যাওয়ার পর গত তিন-চার মাস কাঁচিতে হাত দিতে পারছিলেন না। বাসায় রান্না হয়নি ঠিকমতো। উচ্চ রক্তচাপে ভোগা লিলের মা সবসময় ছেলের শোকে কাতর। ছেলেকে পেয়ে এখন তারা খুশি।

/এসও/এপিএইচ/এমওএফ/
সম্পর্কিত
দিনে গ্যাসের ঘাটতি ১০০০ মিলিয়ন ঘনফুট: সংসদে জ্বালানি প্রতিমন্ত্রী
এজলাসে বসে বাংলাদেশের বিচারকাজ পর্যবেক্ষণ করলেন ভারতের প্রধান বিচারপতি
বাংলাদেশ-ভারত সম্পর্ক প্রতিবেশী কূটনীতির রোল মডেল: নানক
সর্বশেষ খবর
গণপিটুনিতে রেনু হত্যা: চার বছরেও শেষ হয়নি বিচার
গণপিটুনিতে রেনু হত্যা: চার বছরেও শেষ হয়নি বিচার
ফজল হাসানের সম্পাদনায় ‘বেন ওকরির শ্রেষ্ঠগল্প’
অমর একুশে গ্রন্থমেলা ২০২৪ফজল হাসানের সম্পাদনায় ‘বেন ওকরির শ্রেষ্ঠগল্প’
নিউইয়র্ক আন্তর্জাতিক বাংলা বইমেলা শুরু ২৪ মে
নিউইয়র্ক আন্তর্জাতিক বাংলা বইমেলা শুরু ২৪ মে
জাতিসংঘ পরিবেশ সম্মেলনে যোগ দিতে কেনিয়া যাচ্ছেন সাবের হোসেন চৌধুরী
জাতিসংঘ পরিবেশ সম্মেলনে যোগ দিতে কেনিয়া যাচ্ছেন সাবের হোসেন চৌধুরী
সর্বাধিক পঠিত
১০ রাষ্ট্রদূতকে ডেকে পাঠানোর সিদ্ধান্ত
১০ রাষ্ট্রদূতকে ডেকে পাঠানোর সিদ্ধান্ত
আইন অনুযায়ী ট্রান্সকমের মালিকদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে চায় পুলিশ
সম্পত্তি নিয়ে বিরোধআইন অনুযায়ী ট্রান্সকমের মালিকদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে চায় পুলিশ
গণিত পরীক্ষায় নিজ স্কুলের শিক্ষার্থীদের নকল সরবরাহ করায় শিক্ষক গ্রেফতার
গণিত পরীক্ষায় নিজ স্কুলের শিক্ষার্থীদের নকল সরবরাহ করায় শিক্ষক গ্রেফতার
‘শবে বরাত’ কী, এই রাতের কেন এত মর্যাদা?
‘শবে বরাত’ কী, এই রাতের কেন এত মর্যাদা?
টাউট কারা
টাউট কারা