X
বুধবার, ২৯ মে ২০২৪
১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

আদালত থেকে বেরিয়ে সাংবাদিকদের উদ্দেশে যা বললেন ড. ইউনূস

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
১৬ এপ্রিল ২০২৪, ১৯:৩৯আপডেট : ১৬ এপ্রিল ২০২৪, ১৯:৩৯

গ্রামীণ টেলিকমের চেয়ারম্যান এবং নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদ প্রফেসর ড. মুহাম্মদ ইউনূসসহ চার জনের বিরুদ্ধে শ্রম আইন লঙ্ঘনের অভিযোগে দায়ের করা মামলায় স্থায়ী জামিনের আবেদন নামঞ্জুর করেছেন আদালত।

মঙ্গলবার (১৬ এপ্রিল) শ্রম অ্যাপিলেট ট্রাইব্যুনালের বিচারক এম. এ আউয়ালের আদালতে ড. মুহাম্মদ ইউনূসসহ চার আসামি হাজির হয়ে আইনজীবীর মাধ্যমে স্থায়ী জামিনের আবেদন করেন। শুনানি শেষে আদালত স্থায়ী জামিনের আবেদন নামঞ্জুর করে আগামী ২৩ মে পর্যন্ত জামিন বহাল রেখেছেন।

অপর আসামিরা হলেন— গ্রামীণ টেলিকমের এমডি মো. আশরাফুল হাসান, পরিচালক নুরজাহান বেগম এবং মো. শাহজাহান।

এদিকে আদালত থেকে বেরিয়ে সাংবাদিকদের উদ্দেশ করে ড. ইউনূস বলেন, ‘দেশবাসীকে নববর্ষের শুভেচ্ছা। এই নতুন বছর যাতে শান্তিপূর্ণ হয়। এই নতুন বছরে আমরা নিজেদের যেন নতুন করে আবিষ্কার করতে পারি। নতুন বছরে তরুণ সম্প্রদায়কে যাতে সুন্দর ভবিষ্যৎ গড়ার স্বপ্ন দেখাতে পারি। আমরা শান্তিময় পরিবেশে বসবাস করতে পারি। আমরা সব জাতিকে সামনে নিয়ে এগিয়ে যেতে পারি, সেটার জন্য সবাই মিলে একত্রে চেষ্টা করি। এটাই দেশবাসীর প্রতি আমার আবেদন। আমরা সুন্দর দেশ গড়ে তুলি, সুন্দরভাবে বাস করি, কেউ যাতে নিরাপত্তাহীনতায় না থাকি, শঙ্কার মধ্যে না থাকি। শঙ্কামুক্তভাবে জীবনযাপন করি, আইনের শাসনের মধ্যে জীবনযাপন করি। আমরা এসব স্বপ্ন বাস্তবায়ন করতে চাই, যার যার মতো করে বিশেষ করে তরুণদের জীবনে যে স্বপ্ন আছে এবং আরও স্বপ্ন দেখবে।’

এদিন ড. ইউনূসসহ চার জনের পক্ষে স্থায়ী জামিন শুনানিতে অংশ নেন ব্যারিস্টার মো. আব্দুল্লাহ আল মামুন। তিনি বাংলা ট্রিবিউনকে জানান, সরকার উদ্দেশ্য প্রণোদিতভাবে টার্গেট করে নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদ ড. মুহাম্মদ ইউনূসকে হয়রানি করার জন্য এই মামলা দায়ের করেছে। একই ঘটনায় আরেক মামলায় এক আসামির ৬ মাসের জামিন পর্যন্ত হয়েছে। সেই আসামিকে আদালতে উপস্থিত হয়ে ট্রায়াল পর্যন্ত ফেস করা লাগেনি। অথচ ড. ইউনূসের বিষয়ে এলে ভিন্ন ঘটনা ঘটে। ড. ইউনূস এমন কোনও দাগী আসামি না যে, তাকে স্থায়ী জামিন দিলে পলাতক হবেন।

তিনি আরও বলেন, আমরা আদালতের বিভিন্ন নথি পর্যালোচনা করে দেখেছি— আপিল অ্যাডমিট হলে আসামির আদালত প্রথমে অস্থায়ী জামিন দেন, পরবর্তী তারিখে জামিন স্থায়ী হয়। অথচ ড. ইউনূসের ক্ষেত্রে এসে পরবর্তী ধার্য তারিখ পর্যন্ত জামিন দিলেন আদালত।

রাষ্ট্রপক্ষে ড. ইউনূসের স্থায়ী জামিনের বিরোধিতা করার কোনও গ্রাউন্ড নেই উল্লেখ করে এই আইনজীবী বলেন, কী গ্রাউন্ডে তারা ড. ইউনূসের স্থায়ী জামিনের বিরোধিতা করছেন, তা সঠিক করে উল্লেখ করেননি। ড. ইউনূস তো প্রতি মাসে বিদেশ যাচ্ছেন, অন্যান্য মামলার ধার্য তারিখের আগেই দেশে ফিরে আসছেন। প্রতিটি ধার্য তারিখে ড. ইউনূস আদালতে উপস্থিত থাকছেন। অথচ একই ধরনের মামলায় অন্যান্য আসামিরা ঠিক মতো আদালতে উপস্থিত পর্যন্ত হন না, তারাও স্থায়ী জামিন পাচ্ছেন। এখানে স্পষ্ট রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে হয়রানির করার জন্য এসব করা হচ্ছে বলে তিনি অভিযোগ করেন। 

অপরদিকে মামলার বাদী পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী মো. খুরশীদ আলম খান, তার সঙ্গে ছিলেন আইনজীবী সৈয়দ হায়দার আলী। আইনজীবী মো. খুরশীদ আলম খান বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, রাষ্ট্রপক্ষ থেকে জামিনের কোনও বিরোধিতা করা হয়নি। স্থায়ী বা অস্থায়ী জামিনের বিষয়টি সম্পূর্ণ আদালতের এখতিয়ার। আদালত যেটা ভালো বোঝেন, সেই আদেশ দিয়েছেন।

এর আগে গত ১ জানুয়ারি শ্রম আইন লঙ্ঘনের মামলায় ড. মুহাম্মদ ইউনূসসহ চার জনকে ৬ মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড, ৩০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড করেন আদালত। তবে আপিল করার শর্তে আসামিদের এক মাসের জামিন দেওয়া হয়। ঢাকার শ্রম আদালতের বিচারক শেখ মেরিনা সুলতানা এ রায় দেন। কারাদণ্ডপ্রাপ্ত অপর তিন আসামি হলেন— গ্রামীণ টেলিকমের এমডি মো. আশরাফুল হাসান, পরিচালক নুরজাহান বেগম এবং মো. শাহজাহান।

জানা যায়, ২০২১ সালের ৯ সেপ্টেম্বর ঢাকার তৃতীয় শ্রম আদালতে কল-কারখানা ও প্রতিষ্ঠান অধিদফতরের শ্রম পরিদর্শক আরিফুজ্জামান বাদী হয়ে ড. ইউনূসসহ চার জনের বিরুদ্ধে ওই মামলা করেন।

মামলায় শ্রমিক কল্যাণ ফাউন্ডেশনে নির্দিষ্ট লভ্যাংশ জমা না দেওয়া, শ্রমিকদের চাকরি স্থায়ী না করা, গণছুটি নগদায়ন না করায় শ্রম আইনের ৪-এর ৭, ৮, ১১৭ ও ২৩৪ ধারায় অভিযোগ আনা হয়েছে।

আরও পড়ুন:

স্থায়ী জামিন পেলেন না ড. ইউনূস

ড. ইউনূসের ছয় মাসের সাজা বহাল থাকবে

আদালতে নিজেকে নির্দোষ দাবি করলেন ড. মুহাম্মদ ইউনূস

ড. ইউনূসের বিরুদ্ধে বিচারাধীন যত মামলা

ড. ইউনূসের ৬ মাসের কারাদণ্ড

যে কারণে জেলে যেতে হচ্ছে না ড. ইউনূসকে

যে দোষ করিনি সে দোষে শাস্তি পেলাম: ড. মুহাম্মদ ইউনূস

ইউনেস্কো’র পুরস্কার নিয়ে ‘মিথ্যাচার’ করছেন ড. ইউনূস

/এআই/এপিএইচ/
সম্পর্কিত
উপস্থাপিকা মৌসুমী মৌ’র যৌতুক মামলায় জামিন পেলেন স্বামী
এএসপি আনিস হত্যা মামলায় বাবার সাক্ষ্য গ্রহণ শেষ
ট্রান্সকম গ্রুপের সিইও সিমিন রহমানসহ ৪ জনের রিমান্ড নামঞ্জুর
সর্বশেষ খবর
বগুড়ায় দুই প্রিসাইডিং অফিসার প্রত্যাহার
বগুড়ায় দুই প্রিসাইডিং অফিসার প্রত্যাহার
বার্সেলোনার নতুন কোচ ফ্লিক
বার্সেলোনার নতুন কোচ ফ্লিক
র‍্যাংগস ই-মার্টের ঈদ ক্যাম্পেইনে ২৪ শতাংশ পর্যন্ত ছাড়
র‍্যাংগস ই-মার্টের ঈদ ক্যাম্পেইনে ২৪ শতাংশ পর্যন্ত ছাড়
‘এভারেস্টে বাংলাদেশের পতাকা ওড়ানোর পর সব কষ্ট ভুলে গেছি’
‘এভারেস্টে বাংলাদেশের পতাকা ওড়ানোর পর সব কষ্ট ভুলে গেছি’
সর্বাধিক পঠিত
আরেক পুলিশ কর্মকর্তা ও তার স্ত্রীর বিরুদ্ধে দুদকের মামলা
আরেক পুলিশ কর্মকর্তা ও তার স্ত্রীর বিরুদ্ধে দুদকের মামলা
আ.লীগের ১১ এমপি খুন, বিদেশে প্রথম আনার
আ.লীগের ১১ এমপি খুন, বিদেশে প্রথম আনার
ব্যাংক বাড়ায় সুদ, টাকা যায় মানুষের পকেটে!
ব্যাংক বাড়ায় সুদ, টাকা যায় মানুষের পকেটে!
ট্রান্সকম গ্রুপের সিইও সিমিন রহমানসহ ৪ জনের রিমান্ড নামঞ্জুর
ট্রান্সকম গ্রুপের সিইও সিমিন রহমানসহ ৪ জনের রিমান্ড নামঞ্জুর
শান্তি সম্মেলনে বাইডেনের অনুপস্থিতিতে হাততালি দেবেন পুতিন: জেলেনস্কি
শান্তি সম্মেলনে বাইডেনের অনুপস্থিতিতে হাততালি দেবেন পুতিন: জেলেনস্কি