X
শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪
৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

বিশ্বব্যাংক ভূমিসেবা সম্মেলন ও বাংলাদেশের অর্জন

শফিকুল ইসলাম
১৮ মে ২০২৪, ২১:০০আপডেট : ১৮ মে ২০২৪, ২১:০০

বিশ্বব্যাংক আয়োজিত পাঁচ দিনব্যাপী মর্যাদাপূর্ণ ‘বিশ্বব্যাংক ভূমি সম্মেলন ২০২৪’-এ বাংলাদেশের স্মার্ট ভূমিসেবার নানা দিক উপস্থাপন করা হয়েছে। ভূমিমন্ত্রী নারায়ন চন্দ্র চন্দ সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে নিয়ে এ সম্মেলনে এসব দিক তুলে ধরেন। গত ১৩ থেকে ১৭ মে যুক্তরাষ্ট্রের রাজধানী ওয়াশিংটন ডিসিতে বিশ্বব্যাংকের সদর দফতরে সম্মেলনটি অনুষ্ঠিত হয়। ভূমি মন্ত্রণালয় সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

ভূমি মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, বিশ্বব্যাংক ভূমি সম্মেলন ২০২৪-এ বাংলাদেশ সক্রিয়ভাবে অংশগ্রহণ করে। এবারই প্রথম বাংলাদেশ এই সম্মেলনে অংশ নেয় এবং স্মার্ট ভূমিসেবা কার্যক্রম তুলে ধরে। এবারের সম্মেলনের প্রতিপাদ্য ছিল, ‘ভূমির দখলিস্বত্ব ও জলবায়ু কার্যক্রমে প্রবেশাধিকার নিশ্চিতকরণ’।

ভূমি মন্ত্রণালয়ের ডিজিটাইজেশন, নলেজ ম্যানেজমেন্ট ও পারফরম্যান্স অনুবিভাগের যুগ্মসচিব ড. জাহিদ হোসেন পনির সম্মেলনের ‘আঞ্চলিক পরিচালন কর্মশালা’ অধিবেশনে বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিশেষ উদ্যোগ ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ’-এর আওতায় গৃহীত স্মার্ট ভূমি ব্যবস্থাপনা কার্যক্রমের ওপর আলোকপাত করেন তিনি। এ বিষয়ে সার্বিক দিকনির্দেশনা দেন ভূমি সচিব খলিলুর রহমান।

সম্মেলনে অংশগ্রহণকারী পৃথিবীর বিভিন্ন দেশ ও অঞ্চলের জন্য পৃথক পৃথক পরিচালন কর্মশালায় বাংলাদেশের ‘স্মার্ট ল্যান্ড সার্ভিস’ কার্যক্রমের কথা তুলে ধরা হয়। বর্তমানে এ কার্যক্রমের মাধ্যমে নাগরিকদের জন্য অনলাইনে ১০টিরও বেশি ভূমি সম্পর্কিত পরিষেবা দেওয়া হয়ে থাকে। ভূমিসেবা ডিজিটালাইজেশন কীভাবে বাংলাদেশের কোটি নাগরিকের ভূমি মালিকানার নিরাপত্তা তথা দখলিস্বত্ব নিশ্চিত করেছে তা বিশ্ববাসীর কাছে ব্যাখ্যা করা হয়।

ভূমি খাতে নাগরিক সেবা ও সচেতনতা বৃদ্ধিতে ভূমি মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগও এতে তুলে ধরা হয়। এসব উদ্যোগের মধ্যে রয়েছে ব্যবহারকারীকেন্দ্রিক নকশা, অত্যাবশ্যকীয় সেবার সঙ্গে নিরবচ্ছিন্ন সমন্বয়, অটোমেশন, দক্ষ কর্মপ্রবাহ ব্যবস্থাপনা, গুরুত্বপূর্ণ বিশ্লেষণ ও প্রতিবেদন, শক্তিশালী ডিজিটাল নিরাপত্তা এবং ওপেন ডেটা গভর্নেন্স নীতিমালার প্রতি অঙ্গীকার।

বাংলাদেশের জমি হাতবদলের পর নিবন্ধন, নামজারি, খতিয়ান ও ম্যাপ প্রস্তুতের সমন্বিত অটোমেশনের ব্যাপারে ভূমি মন্ত্রণালয়ের পরিকল্পনার ব্যাপারেও জানানো হয়েছে। এছাড়া, ভূমিসেবা ডিজিটালাইজেশনের কারণে ভূমি খাতে কয়েকগুণ রাজস্ব বৃদ্ধির বিষয়টি সম্মেলনে ভূয়সী প্রশংসা কুড়ায়।

জলবায়ু সহিষ্ণুতা, সবুজায়ন এবং নগরায়নের ওপর বাংলাদেশের ভূমিসেবা ডিজিটালাইজেশনের ইতিবাচক প্রভাবের বিষয়টি সম্মেলনে অংশগ্রহণকারী বিভিন্ন দেশের প্রতিনিধিদের মাঝে ব্যাপক আগ্রহ সৃষ্টি করে। অন্যদিকে, বাংলাদেশ অন্যান্য দেশের ভূমি ব্যবস্থাপনা বিষয়ক উত্তম চর্চা থেকেও মূল্যবান অভিজ্ঞতা অর্জন করে।

ভূমি মন্ত্রণালয় সূত্র জানিয়েছে, সম্মেলনে পৃথিবীর বিভিন্ন দেশ ও অঞ্চলের জন্য পৃথক পৃথক পারিচালন কর্মশালায় কারিগরি সাফল্য, চ্যালেঞ্জ এবং নতুন উদ্ভাবনগুলোর সঙ্গে পরিচিত হওয়ার সুযোগ ছিল। বিশ্বব্যাংক সদর দফতরে মেইন কমপ্লেক্স সি টু হলে সম্মেলনের শেষ দিন, ১৭ মে ‘প্রতিবন্ধকতা দূরীকরণ: ভূমি অধিকার, দারিদ্র্য বিমোচন ও জলবায়ু সহনশীলতা’ শীর্ষক দিনব্যাপী কর্মশালায় বাংলাদেশসহ পূর্ব এশিয়া, প্রশান্ত মহাসাগরীয় এবং দক্ষিণ এশিয়া অঞ্চলের বিভিন্ন দেশ অংশগ্রহণ করে।

বিশ্বব্যাংক ভূমি সম্মেলন ২০২৪-এর একটি দৃশ্য। (ছবি: সংগৃহীত)

ভূমি মন্ত্রণালয় ইতোমধ্যে ই-নামজারি ব্যবস্থার জন্য ইউনাইটেড নেশনস পাবলিক সার্ভিস অ্যাওয়ার্ড ২০২০ এবং ডিজিটাল ভূমি উন্নয়ন কর ব্যবস্থার জন্য ২০২২ সালে আইটিইউ ডব্লিউএসআইএস পুরস্কারে ভূষিত হওয়ার মাধ্যমে আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি অর্জন করেছে- এসব তথ্য সম্মেলনে উপস্থাপন করা হয়েছে।

ভূমি মন্ত্রণালয়ের শীর্ষ কর্মকর্তারা মনে করেন, এই সম্মেলনে অংশগ্রহণের অর্জিত অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগিয়ে ভবিষ্যতে বাংলাদেশ থেকে আরও উচ্চ পর্যায়ের প্রতিনিধি পাঠানোর সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে। কারণ, সাধারণত ভূমি খাতে বিনিয়োগে নির্দেশনা ও অবহিতকরণ, বহুপক্ষীয় অংশীজনের আলোচনা ও সহযোগিতাকে সহজতর করা এবং এগিয়ে নেওয়া, প্রমাণভিত্তিক নীতি প্রণয়নে উৎসাহ প্রদান এবং উদীয়মান উত্তম চর্চা ও উদ্ভাবনী গবেষণার ওপর জ্ঞান ও তথ্য বিনিময়ের একটি আন্তর্জাতিক মঞ্চ হিসেবে বিশ্বব্যাংক ভূমি সম্মেলন আয়োজন করে থাকে। এবারের সম্মেলনে বিশ্বব্যাংক এ লক্ষ্যে ভূমি মালিকানা নিশ্চিতকরণের জন্য কার্যকর কৌশল এবং জলবায়ু পরিবর্তন প্রশমন এবং অভিযোজনের প্রবেশাধিকার নিশ্চিতকরণের উপায়গুলো তুলে ধরার ওপর জোর দেয়।

সম্মেলনে বিশ্ব ব্যাংক, উন্নয়ন অংশীদার, নাগরিক সমাজ এবং অন্যান্য অংশীদারদের অংশগ্রহণে আয়োজিত বিভিন্ন কর্মসূচির মধ্যে ছিল- উচ্চ পর্যায়ের উদ্বোধনী ও সমাপনী সেশন, বিষয়ভিত্তিক সেশন, গবেষণা সেশন, আঞ্চলিক পরিচালন কর্মশালা, বিশ্বব্যাপী ভূমি বিষয়ক উদ্যোগ এবং নতুন উদ্ভাবন প্রদর্শনী।

ভূমি মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, উল্লিখিত আঞ্চলিক পরিচালন কর্মশালা অধিবেশনটি আঞ্চলিক কারিগরি সাফল্য, চ্যালেঞ্জ এবং নতুন উদ্ভাবনগুলোর পর্যালোচনা করা এবং সাউথ-সাউথ কোঅপারেশনভুক্ত দেশগুলোর মধ্যে জ্ঞান ও তথ্য বিনিময়ের উদ্দেশ্যে আয়োজন করা হয়েছিল। ভারত, ভুটান, নেপাল, পাকিস্তান, ফিলিপাইন, লাওস, শ্রীলঙ্কা, ইন্দোনেশিয়া, চীন, দক্ষিণ কোরিয়া, ভানুয়াতু, সলোমন দ্বীপপুঞ্জ, টোঙ্গা প্রমুখ দেশের প্রতিনিধিরা সম্মেলনের অধিবেশনে অংশ নেন।

সম্মেলনে ভূমিমন্ত্রী নারায়ন চন্দ্র চন্দ বলেন, “এই সম্মেলনে বাংলাদেশের উপস্থিতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ‘স্মার্ট ভূমি ব্যবস্থাপনা’ এবং ‘বাংলাদেশ ডিজিটাল জরিপ’-এর মাধ্যমে ভূমি সংস্কারে আমাদের অবিচল অঙ্গীকারের প্রতিফলন ঘটেছে। বাংলাদেশের নাগরিকদের কল্যাণ ও টেকসই উন্নয়নে ভূমি প্রশাসনে স্মার্ট উদ্ভাবনকে কাজে লাগিয়ে নাগরিক ভূমিসেবা প্রদানের মাধ্যমে স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণে আমরা কাজ করে যাবো।”

সম্মেলনে অংশ নেওয়া ভূমি মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব জাহিদ হোসেন জানান, এই কর্মশালায় বাংলাদেশের ‘স্মার্ট ল্যান্ড সার্ভিস’ কার্যক্রমের কথা তুলে ধরা হয়েছে। বর্তমানে এ কার্যক্রমের মাধ্যমে নাগরিকদের জন্য অনলাইনে ১০টিরও বেশি ভূমি সম্পর্কিত পরিষেবা দেওয়া হচ্ছে বলেও জানান তিনি। ভূমিসেবা ডিজিটালাইজেশন কীভাবে বাংলাদেশের কোটি নাগরিকের ভূমি মালিকানার নিরাপত্তা তথা দখলিস্বত্ব নিশ্চিত করেছে তা আমরা বিশ্ববাসীর কাছে ব্যাখ্যা করেছি।

উল্লেখ্য, গত ১৩ থেকে ১৭ মে যুক্তরাষ্ট্রের রাজধানী ওয়াশিংটন ডিসিতে বিশ্বব্যাংকের সদর দফতরে পাঁচ দিনব্যাপী মর্যাদাপূর্ণ এই সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। সম্মেলনে বিভিন্ন দেশ থেকে আগত ভূমি খাত সংক্রান্ত প্রায় ১৫০০ জন সরকারি ও বেসরকারি এবং আন্তর্জাতিক সংস্থার প্রতিনিধি, একাডেমিয়া, সুশীল সমাজ ও অংশীজন অংশগ্রহণ করেন। তারা ভূমি মালিকানা, ভূমি সংশ্লিষ্ট আইন-কানুন, ভূমি প্রশাসন ও নাগরিক ভূমিসেবা নিয়ে আলোচনা করেন এবং নিজেদের অভিজ্ঞতা, তথ্য ও জ্ঞান বিনিময় করেন।

/আরআইজে/
সম্পর্কিত
জুয়েলারি শিল্পে কারিগরি প্রশিক্ষণে অর্থায়ন করবে বিশ্বব্যাংক
ন্যায্যতার ভিত্তিতে ভূমিসেবা দিতে এসিল্যান্ডদের নির্দেশ মন্ত্রীর
তিন বিষয়ে সমন্বয় চায় ভূমি মন্ত্রণালয়
সর্বশেষ খবর
কোরবানির বর্জ্য অপসারণে নিয়ন্ত্রণ কক্ষ খুলেছে ঢাকা দক্ষিণ সিটি
কোরবানির বর্জ্য অপসারণে নিয়ন্ত্রণ কক্ষ খুলেছে ঢাকা দক্ষিণ সিটি
রাতে উত্তরের মহাসড়কে যানবাহনের চাপ আরও বেড়েছে
রাতে উত্তরের মহাসড়কে যানবাহনের চাপ আরও বেড়েছে
ঈদে চামড়া ব্যবসায়ীদের নজরদারিতে রাখবে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী
ঈদে চামড়া ব্যবসায়ীদের নজরদারিতে রাখবে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী
ফুটপাতে নিম্ন আয়ের মানুষের ঈদের আমেজ
ফুটপাতে নিম্ন আয়ের মানুষের ঈদের আমেজ
সর্বাধিক পঠিত
ষষ্ঠ থেকে নবম শ্রেণিতে মূল্যায়ন হবে যেভাবে
ষষ্ঠ থেকে নবম শ্রেণিতে মূল্যায়ন হবে যেভাবে
শ্রমিকদের অবরোধে বন্ধ ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক
শ্রমিকদের অবরোধে বন্ধ ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক
শেবাগের সমালোচনার জবাবে যা বললেন সাকিব
শেবাগের সমালোচনার জবাবে যা বললেন সাকিব
১৯ বল ব্যাট করে ওমানকে হারালো ইংল্যান্ড
১৯ বল ব্যাট করে ওমানকে হারালো ইংল্যান্ড
সেন্টমার্টিনে খাদ্যসংকট, কক্সবাজার থেকে গেলো পণ্যবোঝাই জাহাজ
সেন্টমার্টিনে খাদ্যসংকট, কক্সবাজার থেকে গেলো পণ্যবোঝাই জাহাজ