ফয়জুলের পরিবার দিরাই থেকে সিলেটে আসে ১৫ বছর আগে

Send
আমানুর রহমান রনি
প্রকাশিত : ০৪:১৪, মার্চ ০৪, ২০১৮ | সর্বশেষ আপডেট : ১৩:১৬, মার্চ ০৪, ২০১৮

হামলাকারী ফয়জুর রহমান ওরফে ফয়জুলড. মহম্মদ জাফর ইকবালের ওপর হামলাকারী ফয়জুর রহমান ওরফে ফয়জুলের পরিবার প্রায় ১৫ বছর আগে সুনামগঞ্জের দিরাই থেকে সিলেট চলে আসে। গ্রামের বাড়িতে তার এক চাচা থাকেন। তবে সেখানে তাদের নিজেদের কোনও ঘর নেই। দিরাইয়ের বাড়িতে এই পরিবারটির যাতায়াত নেই বলেও জানিয়েছে স্থানীয় থানা পুলিশ।

শনিবার রাতেই সুনামগঞ্জের দিরাই উপজেলার জগদল কালিদারকাপন এলাকায় ফয়জুলদের বাড়িতে যায় পুলিশ। সেখানে তার এক চাচা ছাড়া আর কাউকে পাওয়া যায়নি।

দিরাই থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এবিএম দেলোয়ার হোসেন বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘আমরা ওই বাড়িতে কাউকে পাইনি। প্রায় ১৫/২০ বছর আগে তারা গ্রাম ছেড়ে সিলেটে চলে যায়। এলাকায় তারা আসতো না। ফয়জুলের বাবা আতিকুর রহমানের এক ভাই এলাকায় থাকেন। তিনিই পুলিশকে এ তথ্য জানিয়েছেন। ফয়জুলের বিষয়ে তার চাচার কাছে কোনও তথ্য পাওয়া যায়নি। ঘটনার পর ফয়জুলের পরিবারের কেউ দিরাইয়ের বাড়িতেও যায়নি।’

উল্লেখ্য, শনিবার (৩ মার্চ) বিকালে শাবিপ্রবি’র মুক্তমঞ্চে একটি অনুষ্ঠান চলার সময় ড. মুহম্মদ জাফর ইকবালকে পেছন থেকে ছুরি দিয়ে হামলা চালায় ফয়জুল। এ সময় শিক্ষার্থীরা এক তরুণকে গণপিটুনি দিয়ে পুলিশে দেয়। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, আটক ওই তরুণই জাফর ইকবালের ওপর হামলাকারী। তার নাম ফয়জুর রহমান ফয়জুল।

ঘটনার পর পুলিশ ও র‌্যাব ফয়জুলকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানতে পারে, বিশ্ববিদ্যালয়ের পাশে টুকেরবাজার এলাকায় পরিবারের সঙ্গে থাকতো সে। তার বাবা আতিকুর রহমান একটি মহিলা মাদ্রাসায় শিক্ষকতা করেন। ঘটনার পর পরিবারের সদস্যরা পলাতক রয়েছেন।

সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের (এসএমপি) কমিশনার গোলাম কিবরিয়া বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘ঘটনার পর আমরা বিভিন্ন জায়গায় অভিযান চালিয়েছি। আরও খোঁজ-খবর নেওয়া হচ্ছে। এ পর্যন্ত পাওয়া তথ্য যাচাই-বাছাই করছি।’

উল্লেখ্য, শনিবার বিকাল ৫টা ৪০ মিনিটে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (শাবিপ্রবি) ক্যাম্পাসে অনুষ্ঠান চলাকালে ড. মুহম্মদ জাফর ইকবালকে পেছন থেকে মাথায় ছুরিকাঘাত করে ফয়জুর রহমান ফয়জুল (২৫) নামের ওই এক তরুণ।  এরপর জাফর ইকবালকে  সিলেটের ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে অস্ত্রোপচার শেষে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য রাতেই হেলিকপ্টারে করে ঢাকায় আনা হয়। রাত ১১টা ৫৮ মিনিটে তাকে ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বর্তমানে তিনি শঙ্কামুক্ত। আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদফতরের (আইএসপিআর) পরিচালক লেফটেন্যান্ট কর্নেল মোহাম্মদ রাশিদুল হাসান রাতে এ তথ্য জানিয়েছেন।

এদিকে আইএসপিআর জানায়, পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর রবিবার (৪ মার্চ) সকাল ১১টায় জাফর ইকবালের শারীরিক অবস্থা সম্পর্কে বিস্তারিত জানানো হবে।

এর আগে শনিবার রাতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান বাংলা ট্রিবিউনকে জানান, বিশিষ্ট লেখক ড. জাফর ইকবালকে উন্নত চিকিৎসার জন্য হেলিকপ্টারে করে ঢাকায় আনা হয়েছে।

 

/এআরআর/ এপিএইচ/চেক-এমওএফ/

লাইভ

টপ