কাউন্সিলর পদেও আওয়ামী লীগ সমর্থিতদের জয়জয়কার

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ০০:৫৪, ফেব্রুয়ারি ০৩, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১২:০০, ফেব্রুয়ারি ০৩, ২০২০

ডিএসসিসি

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ৭৫টি ওয়ার্ডের মধ্যে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থীর জয় হয়েছে ৫৬টিতে। দ্বিতীয় অবস্থানেও রয়েছেন আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থীরা। বিদ্রোহীদের মধ্য থেকে ওয়ার্ড কাউন্সিলর হয়েছেন ১৩ জন। বিএনপি সমর্থিত কাউন্সিলর প্রার্থীরা মাত্র পাঁচটি ওয়ার্ডে জয় লাভ করেছেন। অপরদিকে, সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর পদে আওয়ামী লীগ সমর্থিত ১৭ জন, বিএনপি সমর্থিত ৪ জন এবং স্বতন্ত্র প্রার্থী জয় পেয়েছেন ৪টিতে।

সাধারণ ওয়ার্ডে আওয়ামী লীগের জয়ী প্রার্থীরা:

১ নম্বর ওয়ার্ডে মাহবুবু আলম (ঠেলাগাড়ি), ২ নম্বর ওয়ার্ডে আনিসুর রহমান (ঘুড়ি), ৩ নম্বর ওয়ার্ডে সাধারণ ওয়ার্ডে মাকসুদ হেসেন (করাত),  ৪ নম্বর ওয়ার্ডে জাহাঙ্গীর হোসেন (ঠেলাগাড়ি), ৫ নম্বর ওয়ার্ডে চিত্ত রঞ্জন দাস (ঠেলাগাড়ি), ৬ নম্বর ওয়ার্ডে সিরাজুল ইসলাম ভাট্টি (রেডিও), ৮ নম্বর ওয়ার্ডে সুলতান মিয়া (লাটিম), ৯ নম্বর ওয়ার্ডে মোজাম্মেল হক (ঘুড়ি),  ১০ নম্বর ওয়ার্ডে মারুফ আহমেদ মনসুর (ঠেলাগাড়ি),  ১৩ নম্বর ওয়ার্ডে এনামুল হক আবুল (ঘুড়ি), ১৪ নম্বর ওয়ার্ডে ইলিয়াছুর রহমান (রেডিও), ১৫ নম্বর ওয়ার্ডে রফিকুল ইসলাম বাবলা, ১৬ নম্বর ওয়ার্ডে নজরুল ইসলাম (ঘুড়ি), ১৭ নম্বর ওয়ার্ডে মাহবুবুর রহমান (ঘুড়ি), ১৮ নম্বর ওয়ার্ডে আ স ম ফেরদাউস আলম (ঘুড়ি), ১৯ নম্বর ওয়ার্ডে আবুল বাশার (টিফিন ক্যারিয়ার), ২০ নম্বর ওয়ার্ডে ফরিদ উদ্দীন আহমেদ রতন (ঠেলাগাড়ি), ২১ নম্বর ওয়ার্ডে আসাদুজ্জামান (লাটিম), ২২ নম্বর ওয়ার্ডে জিন্নাত আলী ( ঠেলাগাড়ি), ২৩ নম্বর ওয়ার্ডে মো. মকবুল হোসেন (রেডিও), ২৪ নম্বর ওয়ার্ডে মোকাদ্দেছ হোসেন জাহিদ (ঠেলাগাড়ি), ২৫ নম্বর ওয়ার্ডে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় আনোয়ার ইকবাল, ২৬ নম্বর ওয়ার্ডে হাসিবুর রহমান মানিক (রেডিও), ২৭ নম্বর ওয়ার্ডে ওমর বিন আব্দুল আজিজ (মিষ্টি কুমড়া), ২৯ নম্বর ওয়ার্ডে জাহাঙ্গীর আলম বাবুল (ঠেলাগাড়ি),  ৩২ নম্বর ওয়ার্ডে আব্দুল মান্নান (লাটিম), ৩৩ নম্বর ওয়ার্ডে আওয়াল হোসেন (মিষ্টি কুমড়া), ৩৫ নম্বর ওয়ার্ডে আবু সাইদ, ৩৬ নম্বর ওয়ার্ডে রঞ্জন বিশ্বাস, ৩৭ নম্বর ওয়ার্ডে আব্দুর রহমান, ৩৮ নম্বর ওয়ার্ডে আহমেদ ইমতেয়াজ মান্নাফী, ৩৯ নম্বর ওয়ার্ডে রোকন উদ্দীন (ব্যাডমিন্টন), ৪০ নম্বর ওয়ার্ডে আবুল কালাম আজাদ (ঘুড়ি), ৪১ নম্বর ওয়ার্ডে সারোয়ার হাসান আলো (ঝুড়ি),  ৪২ নম্বর ওয়ার্ডে মো. সেলিম (টিফিন ক্যারিয়ার), ৪৩ বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় আরিফ হোসেন, ৪৪ নম্বর ওয়ার্ডে নিজাম উদ্দীন (রেডিও),  ৪৬ নম্বর ওয়ার্ডে শহীদ উল্লাহ (এয়ার কন্ডিশনার),  ৪৮ নম্বর ওয়ার্ডে আবুল কালাম (ঝুড়ি), ৫০ নম্বর ওয়ার্ডে মাসুম মোল্লা (ঠেলাগাড়ি), ৫১ নম্বর ওয়ার্ডে হাবিবুর রহমান হাবু (ঠেলাগাড়ি),  ৫৪ নম্বর ওয়ার্ডে মাসুদ (লাটিম),  ৫৫ নম্বর ওয়ার্ডে নুরে আলম (ঠেলাগাড়ি),  ৫৭ নম্বর ওয়ার্ডে সাইদুল ইসলাম (ঘুড়ি), ৫৮ নম্বর ওয়ার্ডে শফিকুর রহমান (ট্রাক্টর), ৫৯ নম্বর ওয়ার্ডে আকাশ কুমার ভৌমিক (ট্রাক্টর), ৬২ নম্বর ওয়ার্ডে মুসতাক আহমেদ, ৬৩ নম্বর ওয়ার্ডে শফিকুল ইসলাম খান দিলু( ট্রাক্টর), ৬৪ নম্বর ওয়ার্ডে মাসুদ রহমান মোল্লা (লাটিম), ৬৫ নম্বর ওয়ার্ডে শামসুদ্দীন ভূইয়া (ব্যাডমিন্টন),  ৬৮ নম্বর ওয়ার্ডে মাহমুদুল হাসান (লাটিম), ৭০ নম্বর ওয়ার্ডে আতিকুর রহমান (ঘুড়ি), ৭১ নম্বর ওয়ার্ডে খাইরুজ্জাম (রেডিও), ৭২ নম্বর ওয়ার্ডে শফিকুল ইসলাম শামীম (ব্যাডমিন্টন) এবং ৭৩ নম্বর ওয়ার্ডে শফিকুল ইসলাম (করাত)

আওয়ামী লীগের বিজয়ী বিদ্রোহী প্রার্থীরা:

১২ নম্বর ওয়ার্ডে মামুনুর রশিদ শুভ্র (লাটিম), ২৮ নম্বর ওয়ার্ডে কামাল উদ্দীন কাবুল (মিষ্টি কুমড়া), ৩০ নম্বর ওয়ার্ডে ইরফান সেলিম (টিফিন ক্যারিয়ার), ৩১ নম্বর ওয়ার্ডে জুবায়ের আদেল (টিফিন ক্যারিয়ার),  ৪৫ নম্বর ওয়ার্ডে শামসুজ জোহা (ঠেলাগাড়ি),  ৪৭ নম্বর ওয়ার্ডে শাহানা আক্তার (রেডিও), ৫২ নম্বর ওয়ার্ডে রুহুল আমি (ব্যাডমিন্টন), ৫৬ নম্বর ওয়ার্ডে মোহাম্মদ হোসেন (ঘুড়ি), ৬০ নম্বর ওয়ার্ডে আনোয়ার হোসেন মজুমদার (কাটাচামচ), ৬৭ নম্বর ওয়ার্ডে মো. ইব্রাহীম (লাটিম), ৬৯ নম্বর ওয়ার্ডে সালাউদ্দীন আহমেদ (ঘুড়ি) এবং ৭৪ নম্বর ওয়ার্ডে আজিজুল হক (ট্রাক্টর)।

বিএনপি সমর্থিত জয়ী কাউন্সিল যারা:

৭ নম্বর ওয়ার্ডে শামসুল হুদা কাজল (ঠেলাগাড়ি),  ১১ নম্বর ওয়ার্ডে মির্জা আসলাম আসিফ (ঘুড়ি), ৩৪ নম্বর ওয়ার্ডে মোহাম্মদ মামুন (ঝুড়ি),  ৪৯ নম্বর ওয়ার্ডে বাদল সরদার (ঘুড়ি),  ৫৩ নম্বর ওয়ার্ডে মীর হুসেন মিরু (ঠেলাগাড়ি), ৬১ জুম্মন মিয়া (ঝুড়ি) এবং ৭৫ নম্বর ওয়ার্ডে আকবর হোসেন (ঘুড়ি)।

এছাড়াও জেপি (পার্থ) সমর্থিত কাউন্সিলর নির্বাচিত হয়েছেন ৬৬ নম্বর ওয়ার্ডে আব্দুল মতিন সাউদ (লাটিম)।

সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর পদে আওয়ামী লীগ সমর্থিত জয়ী প্রার্থীরা হলেন:

ফারজানা ইসলাম বিপ্লবী (২, ৩, ৪), মাকসুদা শমসের (৫, ৬, ৭), মিনু রহমান (৮, ৯, ১০), সৈয়দা রোকসানা ইসলাম চামেলী (১৩, ১৯, ২০), বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নারগিছ মাহতাব (১৬, ১৭, ১৮), বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নিলুফা রহমান (২২, ২৩, ২৬), সাবিনা পারভীন (২৪, ২৫, ২৬), শাহিনুর বেগম (৩৪, ৩৮, ৪১), লাভলী চৌধুরী (৩৯, ৪০, ৪৯), নাজমা বেগম (৪৮, ৫০, ৫১), নাসিমা আহমেদ (৪২, ৪৩, ৪৪), সাথী আক্তার (৪৫, ৪৬, ৪৭), শেফালী আক্তার (৫৫, ৫৬, ৫৭), ফারহানা ইয়াসমিন কুয়াশা (৬১, ৬২, ৬৩) এবং সাহিদা বেগম (৫৮, ৫৯, ৬০)

সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর পদে বিএনপি সমর্থিত জয়ী প্রার্থীরা:

সামসুন নাহার ভূঁইয়া (২৭, ২৮, ৩০), নাসরিন রশিদ পুতুল (৩১, ৩২, ৩৩), সুরাইয়া বেগম (৩৫, ৩৬, ৩৭), খালেদা আলম (৫২, ৫৩, ৫৪),

সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর পদে জয়ী স্বতন্ত্র প্রার্থী যারা:

নাছরিন আহমেদ (৭৩, ৭৪, ৭৫), সেলিনা খান (৭০, ৭১, ৭২), মাহাফুজা আক্তার (৬৭, ৬৮,৬৯) এবং নিলুফা ইয়াসমিন (৬৪,৬৫,৬৬)।

প্রসঙ্গত, ১ ফেব্রুয়ারি ঢাকার দুই সিটি করপোরেশন নির্বাচনে মেয়র পদে উত্তরে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী আতিকুল ইসলাম এবং দক্ষিণে শেখ মোহাম্মদ ফজলে নূর তাপস বিপুল ভোটে জয় লাভ করেন। দুই সিটি করপোরেশনেই আওয়ামী লীগ সমর্থিত কাউন্সিলর প্রার্থীরা বেশিরভাগ ওয়ার্ডে জয় লাভ করেছেন। 

 

/এআরআর/ এএইচ/

লাইভ

টপ