কর্মস্থলে ফিরতে সরকারের সহযোগিতা চান ছুটিতে আসা মালয়েশিয়া প্রবাসীরা

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১৩:৪১, সেপ্টেম্বর ০৮, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১৩:৪১, সেপ্টেম্বর ০৮, ২০২০

BT-Newদ্রুত কর্মস্থলে ফিরে যেতে সরকারের সহযোগিতা কামনা করেছেন মালয়েশিয়া থেকে ছুটিতে দেশে এসে আটকেপড়া প্রবাসীরা। এ ব্যাপারে কূটনৈতিক তৎপরতা বৃদ্ধি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হস্তক্ষেপ কামনা করেন তারা। মঙ্গলবার (৮ সেপ্টেম্বর) সকালে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে ছুটিতে আসা মালয়েশিয়া প্রবাসীদের আয়োজনে এক মানববন্ধনে এ দাবি জানানো হয়।

মানববন্ধনে শতাধিক মালয়েশিয়া প্রবাসী অংশগ্রহণ করেন। এ সময় তারা মালয়েশিয়ায় ফেরত যাওয়ার ব্যাপারে সরকারের কূটনৈতিক তৎপরতা জোরদারের দাবি জানান। এছাড়া, মালয়েশিয়ায় কর্মস্থলে ফিরতে না পারা পর্যন্ত তাদের আর্থিক সহায়তা দেওয়ার জন্য দাবি তোলা হয় মানববন্ধনে।

নরসিংদী থেকে মানববন্ধনে এসেছেন মো. মোস্তফা। ৫০০ টাকা ধার করে মানবন্ধনে ঢাকায় এসেছেন জানিয়ে তিনি বলেন, ‘৮ মাস পার হয়ে গেলো, এখনও যাওয়ার কোনও আশা দেখছি না। আমরা চাই, সরকার যেন কূটনীতিক উদ্যোগ নিয়ে আমাদের ফেরত পাঠানোর ব্যবস্থা করে। এখন আমাদের চলার মতো আর্থিক সক্ষমতা নেই। আমরা জানি না সামনে কী হবে।’

পপমানববন্ধনে অংশ নেওয়া প্রবাসীরা মালয়েশিয়া থেকে কেউ সাত মাস, কেউ আট মাস আগে ছুটিতে দেশে এসেছিলেন। তিন-চার মাসের ছুটি শেষে আবার ফিরে যাবেন কর্মস্থলে। তবে করোনাভাইরাসের কারণে মালয়েশিয়ায় বিদেশিদের প্রবেশের নিষেধাজ্ঞা থাকায় তাদের আর ফেরা হয়নি। কবে উঠবে নিষেধাজ্ঞা, কবে তারা ফিরতে পারবেন তার কোনও নিশ্চয়তা নেই। এই অনিশ্চয়তায় হতাশা বাড়ছে তাদের।

মানববন্ধন আয়োজনের অন্যতম উদ্যোক্তা রুবেল ভুঁইয়া বলেন, ‘আমরা চাই, মালয়েশিয়া সরকারের সঙ্গে যোগাযোগ করে আমাদের ফিরে যাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করুক সরকার। যাদের ভিসার মেয়াদ শেষ তাদের মেয়াদ বাড়ানোর ব্যবস্থা নেওয়া হোক। তা না হলে অনেকেই কর্মহীন হয়ে পড়বেন। মালয়েশিয়া প্রবেশের অনুমতি আসলে যেন সরকার সবাইকে দ্রুত সময়ে ফিরে যেতে সহায়তা করে এটা আমাদের প্রত্যাশা।’

রুবেল ভুঁইয়া আরও বলেন, ‘প্রবাসীদের ঋণ দেওয়ার কথা বলা হচ্ছে, কিন্তু কঠিন শর্ত দেওয়ার কারণে এই ঋণ তারা পাচ্ছেন না। প্রবাসীদের জন্য ঋণের শর্ত সহজ করতে হবে।’

প্রসঙ্গত, করোনাভাইরাস মহামারির কারণে বাংলাদেশ ও মালয়েশিয়ার আকাশপথে যোগাযোগ বন্ধ হয় মার্চে। পরে জুলাই মাসে শর্ত সাপেক্ষে ট্রানজিট যাত্রী ও মালয়েশিয়ার রেসিডেন্স পারমিটধারী, পেশাজীবী ও শিক্ষার্থীদের প্রবেশের অনুমতি দেওয়া হয়। তবে বাংলাদেশি প্রবাসী শ্রমিকদের মালয়েশিয়ায় যেতে ও দেশে ফেরার সুযোগ দেওয়া হয়নি। কয়েকটি এয়ারলাইন্স ফ্লাইট শুরু করে ঢাকা-মালয়েশিয়া রুটে। তবে ৪ সেপ্টেম্বর ঢাকায় মালয়েশিয়ার হাইকমিশন জানিয়েছে, ৭ সেপ্টেম্বর থেকে বাংলাদেশসহ ২৩ দেশের রেসিডেন্স পারমিটধারী, পেশাজীবী, শিক্ষার্থীদের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়েছে অনির্দিষ্ট সময়ের জন্য। 

ছবি: সাজ্জাদ হোসেন

 

/সিএ/এমএএ/

লাইভ

টপ
X