‘নগদ’-এর কর্মী করোনা আক্রান্ত হলে চিকিৎসা সহায়তায় ৫ লাখ টাকা

Send
বাংলা ট্রিবিউন ডেস্ক
প্রকাশিত : ২১:৩৭, এপ্রিল ২৫, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ২১:৪০, এপ্রিল ২৫, ২০২০

বাংলাদেশ ডাক বিভাগের আর্থিক লেনদেন সেবা ‘নগদ’ বিশ্বাস করে ‘মানুষ বাঁচলে দেশ বাঁচবে’। তাই উদ্যোক্তা, পরিবেশক, বিক্রয়কর্মীসহ নগদ পরিবারের প্রায় ২ লাখ সদস্যের পাশে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। ‘নগদ’-এর সঙ্গে সরাসরি সম্পৃক্ত কেউ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হলে তার চিকিৎসার জন্য ৫ লাখ টাকা পর্যন্ত আর্থিক সহায়তা দেবে কর্তৃপক্ষ।
নিবেদিত কর্মী ও তাদের পরিবারের পাশে থাকার প্রয়াস ও কৃতজ্ঞতা থেকেই নগদ এই উদ্যোগ নিয়েছে। এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে প্রণোদনার তথ্য জানানো হয়।
মানুষের পাশে থাকার প্রত্যয় থেকে করোনা মহামারিতে সবার ভোগান্তি কমাতে এবং আর্থিক সেবা পৌঁছে দিতে উদ্যোক্তা, পরিবেশক, বিক্রয়কর্মীসহ প্রতিষ্ঠানটির কর্মীরা নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন।
‘নগদ’ তার কর্মীদের নিরাপত্তা নিয়ে শুরু থেকে অনেক সচেতন। এ কারণে ২৫ মার্চ থেকে তারা ঘরে বসে অফিস করছেন। কেউ যেন এই দুর্যোগের সময় আতঙ্কিত না হন, সেজন্য নিয়মিত যোগাযোগ রাখছে কর্তৃপক্ষ। এছাড়া মাঠপর্যায়ে যারা মানুষের সেবার সঙ্গে সরাসরি সম্পৃক্ত, তাদের নিরাপত্তা নিয়ে কাজ করছে সরকারি প্রতিষ্ঠানটি।

দেশের এই সংকটময় পরিস্থিতিতে ‘নগদ’ মানুষ ও দেশের প্রতি ভালোবাসা থেকে মার্চেন্ট টু মার্চেন্ট খরচ ৬ টাকায় নামিয়ে এনেছে। এছাড়া নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য ও ওষুধের ক্ষেত্রে মাশুল না নেওয়া এবং মাসে প্রথম এক হাজার টাকা ক্যাশ আউটে চার্জ না নেওয়ার মতো সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন করেছে ডাক বিভাগের এই অংশ।

‘নগদ’ কর্তৃপক্ষ মনে করে মানবিকভাবে একে অপরের পাশে দাঁড়ানোর এটাই শ্রেষ্ঠ সময়।

/জেএইচ/
টপ