X
সকল বিভাগ
সেকশনস
সকল বিভাগ

সেট-টপ বক্স কতদূর?

আপডেট : ০৬ নভেম্বর ২০২১, ০৯:০১

ক্যাবল টিভি দেখতে সেট-টপ বক্স বাস্তবায়ন করতে সময় বেঁধে দিয়েছে সরকার। এর মধ্যে ক্যাবল টিভির গ্রাহককে সেট-টপ বক্স ব্যবহার করতে হবে। কিন্তু ক্যাবল অপারেটররা এ সিদ্ধান্ত কীভাবে বাস্তবায়ন করবেন তা এখনও পরিষ্কার নয়। পরিকল্পনার কাজ চলছে, কিন্তু বাস্তবায়নের রূপরেখা এখনও চূড়ান্ত হয়নি বলে জানিয়েছেন ক্যাবল অপারেটর অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (কোয়াব)-এর সভাপতি এস এম আনোয়ার পারভেজ।

প্রসঙ্গত, সেট-টপ বক্স হলো এমন এক রিসিভার যা ক্যাবল টিভির গ্রাহক প্রান্তে থাকে। এই রিসিভার অ্যানালগ সিগন্যালকে ডিজিটালে রূপান্তর করে। এতে গ্রাহক ঝকঝকে ছবি ও ভালোমানের শব্দ উপভোগ করতে পারেন।    

সেট-টপ বক্স বিষয়ে তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী হাছান মাহমুদ জানিয়েছেন, ঢাকা ও চট্টগ্রাম শহরে ৩০ নভেম্বরের মধ্যে এবং গাজীপুর, নারায়ণগঞ্জসহ সব বড় জেলা শহরে ৩১ ডিসেম্বরের মধ্যে ক্যাবল টিভি নেটওয়ার্ক ডিজিটালে রূপান্তর হবে। গত ৩১ অক্টোবর সচিবালয়ে এক অনুষ্ঠানে অ্যাসোসিয়েশন অব টেলিভিশন চ্যানেল ওনার্স (অ্যাটকো), চ্যানেল ডিস্ট্রিবিউটর ও ক্যাবল অপারেটরগুলোর প্রতিনিধিদের সিদ্ধান্তের পরিপ্রেক্ষিতে মন্ত্রী এ তথ্য জানান। তিনি উল্লেখ করেন, ক্যাবল নেটওয়ার্ক ডিজিটাল পদ্ধতিতে রূপান্তরের সর্বসম্মত সিদ্ধান্ত হওয়ায় এসব শহরের গ্রাহককে সেট-টপ বক্স ব্যবহার করতে হবে। নয়তো স্যাটেলাইট টেলিভিশন দেখায় সমস্যা হবে।

ক্যাবল অপারেটরদের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, অপারেটররা তাদের প্রান্তে ডিজিটাল হেড স্থাপন করেছেন। এখন গ্রাহকদের সেট-টপ বক্স নিতে হবে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে কোয়াব সভাপতি আনোয়ার পারভেজ বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, সেট-টপ বক্সের বিষয়টি চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়িয়েছে। কীভাবে বাস্তবায়ন করা হবে সে বিষয়ে এখনও পরিকল্পনা করা হয়নি। সরকার কী পলিসি দেয়—সেদিকে তাকিয়ে আছি আমরা।

অন্যদিকে গ্রাহকদের কিস্তিতে সেট-টপ বক্স দেওয়ার কথাও বলেছেন তথ্যমন্ত্রী। এ প্রসঙ্গে আনোয়ার পারভেজ বলেন, ‘আমরা অনেক ধরনের পরিকল্পনা করছি। কিন্তু এখনও সমুদ্রের মাঝে আছি। কিনারা পাচ্ছি না। কিছুই চূড়ান্ত করতে পারিনি।’

তিনি আরও বলেন, ‘গ্রাহকদের কিস্তিতে সেট-টপ বক্স দিতে গেলে ৩-৪ হাজার কোটি টাকার প্রয়োজন। এটা মুখের কথা নয়। কাজটা কীভাবে করা হবে সেটাও ঠিক করা যায়নি।’

বাজারে দেড় হাজার থেকে চার হাজার টাকায় সেট-টপ বক্স পাওয়া যায়। এগুলো শুধু কোয়াব সদস্যদের কাছ থেকে নিতে হবে, নাকি বাজার থেকেও কেনা যাবে সে বিষয়েও চিন্তা-ভাবনা চলছে বলে তিনি জানান। তবে বাজার থেকে কেনার ব্যবস্থা রাখা হলে গ্রাহকদের জন্য সুবিধাজনক হবে বলে মনে করেন কোয়াব সভাপতি।

সংশ্লিষ্টরা জানান, যারা ডিটিএইচ (ডাইরেক্ট টু হোম) সেবা ব্যবহার করেন তাদের আলাদা করে সেট-টপ বক্স কেনার প্রয়োজন নেই। জানা গেছে, দেশে বর্তমানে সাড়ে তিন লাখেরও বেশি আকাশ ডিটিএইচ ব্যবহারকারী রয়েছেন।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, বর্তমানে দুটি প্রতিষ্ঠানের ডিটিএইচ সেবাদানের অনুমতি আছে। বায়ার মিডিয়া লিমিটেড অনুমতি পেলেও সেবাটি এখনও চালু করেনি।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, বাজারে বর্তমানে ডিজিটাল সেট-টপ বক্সের সংকট রয়েছে। বড় ক্যাবল অপারেটররা কিছু সংযোগে ডিজিটাল সেট-টপ বক্স দিয়েছে। বেশ কয়েক বছর ধরে তারা সেবাও দিচ্ছে।

/এফএ/
বাংলা ট্রিবিউনের সর্বশেষ
বাংলাদেশে বসবাসরত অস্ট্রেলিয়ান নাগরিক আরনল্ডের পাশে পুনাক সভানেত্রী
বাংলাদেশে বসবাসরত অস্ট্রেলিয়ান নাগরিক আরনল্ডের পাশে পুনাক সভানেত্রী
নদীতে অপরিকল্পিত ড্রেজিং করতে দেওয়া হবে না: নৌ প্রতিমন্ত্রী
নদীতে অপরিকল্পিত ড্রেজিং করতে দেওয়া হবে না: নৌ প্রতিমন্ত্রী
স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থীর প্রচারণায় হামলার অভিযোগ, আহত ১২
স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থীর প্রচারণায় হামলার অভিযোগ, আহত ১২
চা পাতার নির্যাসে আঁকা ছবি নিয়ে প্রদর্শনী ‘দাগ’
চা পাতার নির্যাসে আঁকা ছবি নিয়ে প্রদর্শনী ‘দাগ’
এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত