X
বুধবার, ২৩ জুন ২০২১, ৯ আষাঢ় ১৪২৮

সেকশনস

সু চির দলের ৩ প্রার্থীকে অপহরণ, আরাকান আর্মির দায় স্বীকার

আপডেট : ২০ অক্টোবর ২০২০, ১১:৪৭

মিয়ানমারের পশ্চিমাঞ্চলীয় রাখাইন রাজ্যে অপহরণের শিকার হয়েছেন দেশটির নেতা অং সান সু চির নেতৃত্বাধীন দলের তিন প্রার্থী। আগামী ৮ নভেম্বরের নির্বাচন উপলক্ষে প্রচারণা চালাতে গিয়ে  গত সপ্তাহে অপহরণকারীদের কবলে পড়েন দেশটির ক্ষমতাসীন ন্যাশনাল ডেমোক্র্যাটিক লিগের (এনএলডি) এই প্রার্থীরা।  সোমবার (১৯ অক্টোবর) এই ঘটনার দায় স্বীকার করেছে অঞ্চলটির সশস্ত্র বিদ্রোহী গোষ্ঠী আরাকান আর্মি (এএ)। এই প্রার্থীদের বিনিময়ে  ছাত্র বিক্ষোভের সময় আটককৃতদের মুক্তির দাবি জানিয়েছে গোষ্ঠীটি। ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্সের প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।

নৃতাত্ত্বিক রাখাইন জনগোষ্ঠীর অধিকারের দাবিতে মিয়ানমারের সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে সশস্ত্র লড়াই চালিয়ে আসছে আরাকান আর্মি। গত বছর থেকে অঞ্চলটিতে এই লড়াই তীব্র হয়েছে। এই লড়াইয়ে এনএলডি সরকারের সেনাবাহিনী বেসামরিকদের ওপর সহিংসতা চালিয়েছে বলে অভিযোগ করে আসছে গোষ্ঠীটি।  

সোমবার অনলাইনে পোস্ট করা এক বিবৃতিতে আরাকান আর্মি জানিয়েছে, ক্ষমতাসীন দল এনএলডি’র তিন প্রার্থী-মিন অং, নি নি মে মিয়ান্ট এবং চিট চিট চাওকে তারাই অপহরণ করেছে। ওই বিবৃতিতে গোষ্ঠীটি জানিয়েছে, তারা অপহৃতদের মুক্তি দিতে প্রস্তুত, তবে এর বিনিময়ে সাম্প্রতিক বিক্ষোভের সময় কর্তৃপক্ষের হাতে আটক শিক্ষার্থী এবং নিরীহ মানুষদের মুক্তি দিতে হবে। তবে মিয়ানমারের ক্ষমতাসীন দল এনএলডি’র কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য মিয়ো নুয়ান্ট বলেন, ‘তারা যদি এইভাবে দাবি তুলতে থাকে তাহলে তা মেনে নেওয়া আমাদের জন্য কঠিন হবে।’

উল্লেখ্য, গত ১৪ অক্টোবর রাখাইনের দক্ষিণাঞ্চলীয় তংকুক টাউনশিপে এনএলডি’র এক প্রচার সভায় সশস্ত্র ব্যক্তিরা ঢুকে পড়ে।  ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী ও এনএলডি সমর্থক থান্ট জিন পাইয়ো জানান, ওই সময় তাকে সহ আরও অন্তত দশ জন নারী ও পুরুষকে ‘বিশ্বাসঘাতক’ আখ্যা দিয়ে মারধর করা হয়। পরে সেখান থেকে ওই তিন প্রার্থীকে তারা অপহরণ করে নিয়ে যায় বলেও জানান তিনি।

/জেজে/বিএ/

সম্পর্কিত

তালেবানের ক্রমবর্ধমান প্রভাব নিয়ে সতর্কতা জাতিসংঘ দূতের

তালেবানের ক্রমবর্ধমান প্রভাব নিয়ে সতর্কতা জাতিসংঘ দূতের

ইরানের নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্টকে নিয়ে যা বললো সৌদি আরব

ইরানের নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্টকে নিয়ে যা বললো সৌদি আরব

রাজতন্ত্র অবমাননায় অভিযুক্ত কম্বোডিয়ার ৩ অ্যাক্টিভিস্ট

রাজতন্ত্র অবমাননায় অভিযুক্ত কম্বোডিয়ার ৩ অ্যাক্টিভিস্ট

মিয়ানমারে সেনাবাহিনীর সঙ্গে জান্তাবিরোধীদের সংঘর্ষ, নিহত ৪

মিয়ানমারে সেনাবাহিনীর সঙ্গে জান্তাবিরোধীদের সংঘর্ষ, নিহত ৪

চার বছর পর কাতারে সৌদি রাষ্ট্রদূত

চার বছর পর কাতারে সৌদি রাষ্ট্রদূত

রায়িসির কারণে ভেস্তে যেতে পারে ইরানের পরমাণু আলোচনা?

রায়িসির কারণে ভেস্তে যেতে পারে ইরানের পরমাণু আলোচনা?

আফগানিস্তান থেকে সামরিক উপস্থিতি প্রত্যাহার নিয়ে যা বললো পেন্টাগন

আফগানিস্তান থেকে সামরিক উপস্থিতি প্রত্যাহার নিয়ে যা বললো পেন্টাগন

টিকা না নিলে জেলে পাঠানোর হুমকি

টিকা না নিলে জেলে পাঠানোর হুমকি

৮৩ বছরের বৃদ্ধা যখন ফিটনেস আইকন

৮৩ বছরের বৃদ্ধা যখন ফিটনেস আইকন

আফগানিস্তানে যুক্তরাষ্ট্র ব্যর্থ হয়েছে: হামিদ কারজাই

আফগানিস্তানে যুক্তরাষ্ট্র ব্যর্থ হয়েছে: হামিদ কারজাই

৮০০ কেজি গোবর চুরি, তদন্তে পুলিশ

৮০০ কেজি গোবর চুরি, তদন্তে পুলিশ

মস্কোয় মিয়ানমারের জান্তাপ্রধান

মস্কোয় মিয়ানমারের জান্তাপ্রধান

সর্বশেষ

নও মুসলিম ফারুক হত্যা বিচার চাইলো ইমাম সমাজ

নও মুসলিম ফারুক হত্যা বিচার চাইলো ইমাম সমাজ

বিভাগের তিন হাসপাতালে ১৩ মৃত্যু, ৮ জনই খুলনার

বিভাগের তিন হাসপাতালে ১৩ মৃত্যু, ৮ জনই খুলনার

প্রগতির পথিক

সিরাজুল ইসলাম চৌধুরীপ্রগতির পথিক

ঝিনাইদহ জেলা পরিবার পরিকল্পনা কার্যালয়ে চাকরি

ঝিনাইদহ জেলা পরিবার পরিকল্পনা কার্যালয়ে চাকরি

বাংলাদেশ-জিম্বাবুয়ে সিরিজের সূচি দেখে নিন

বাংলাদেশ-জিম্বাবুয়ে সিরিজের সূচি দেখে নিন

‘কবে একটা সেতু হবে, ঘুষ ছাড়া ভাতা পাবো?’

গ্রামবাসীর প্রশ্ন প্রশাসনের উত্তর‘কবে একটা সেতু হবে, ঘুষ ছাড়া ভাতা পাবো?’

পাকিস্তানে হস্তক্ষেপ করলে কিসিঞ্জারের সফরের জন্য গুরুতর অপরাধ হয়ে যেত

ফেসবুক লাইভে নম চমস্কিপাকিস্তানে হস্তক্ষেপ করলে কিসিঞ্জারের সফরের জন্য গুরুতর অপরাধ হয়ে যেত

খালের সুফল পেতে আর কত অপেক্ষা?

খালের সুফল পেতে আর কত অপেক্ষা?

প্রেমিকার নামে ‘ফেক অ্যাকাউন্ট’ খুলে কারাগারে যুবক 

প্রেমিকার নামে ‘ফেক অ্যাকাউন্ট’ খুলে কারাগারে যুবক 

গাবতলী টার্মিনালে বাস কাউন্টার বন্ধ

গাবতলী টার্মিনালে বাস কাউন্টার বন্ধ

জাভি-ইনিয়েস্তাদের দেশে প্রথমবার হতে যাচ্ছে ওয়ানডে ক্রিকেট

জাভি-ইনিয়েস্তাদের দেশে প্রথমবার হতে যাচ্ছে ওয়ানডে ক্রিকেট

ঠিকাদার কাটতে চান শতবর্ষী গাছ, রক্ষার দাবি এলাকাবাসীর

ঠিকাদার কাটতে চান শতবর্ষী গাছ, রক্ষার দাবি এলাকাবাসীর

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

তালেবানের ক্রমবর্ধমান প্রভাব নিয়ে সতর্কতা জাতিসংঘ দূতের

তালেবানের ক্রমবর্ধমান প্রভাব নিয়ে সতর্কতা জাতিসংঘ দূতের

ইরানের নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্টকে নিয়ে যা বললো সৌদি আরব

ইরানের নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্টকে নিয়ে যা বললো সৌদি আরব

রাজতন্ত্র অবমাননায় অভিযুক্ত কম্বোডিয়ার ৩ অ্যাক্টিভিস্ট

রাজতন্ত্র অবমাননায় অভিযুক্ত কম্বোডিয়ার ৩ অ্যাক্টিভিস্ট

মিয়ানমারে সেনাবাহিনীর সঙ্গে জান্তাবিরোধীদের সংঘর্ষ, নিহত ৪

মিয়ানমারে সেনাবাহিনীর সঙ্গে জান্তাবিরোধীদের সংঘর্ষ, নিহত ৪

চার বছর পর কাতারে সৌদি রাষ্ট্রদূত

চার বছর পর কাতারে সৌদি রাষ্ট্রদূত

রায়িসির কারণে ভেস্তে যেতে পারে ইরানের পরমাণু আলোচনা?

রায়িসির কারণে ভেস্তে যেতে পারে ইরানের পরমাণু আলোচনা?

আফগানিস্তান থেকে সামরিক উপস্থিতি প্রত্যাহার নিয়ে যা বললো পেন্টাগন

আফগানিস্তান থেকে সামরিক উপস্থিতি প্রত্যাহার নিয়ে যা বললো পেন্টাগন

টিকা না নিলে জেলে পাঠানোর হুমকি

টিকা না নিলে জেলে পাঠানোর হুমকি

৮৩ বছরের বৃদ্ধা যখন ফিটনেস আইকন

৮৩ বছরের বৃদ্ধা যখন ফিটনেস আইকন

আফগানিস্তানে যুক্তরাষ্ট্র ব্যর্থ হয়েছে: হামিদ কারজাই

আফগানিস্তানে যুক্তরাষ্ট্র ব্যর্থ হয়েছে: হামিদ কারজাই

© 2021 Bangla Tribune