X
সোমবার, ১০ মে ২০২১, ২৬ বৈশাখ ১৪২৮

সেকশনস

ম্যাক্রোঁর মানসিক চিকিৎসা দরকার: এরদোয়ান

আপডেট : ২৫ অক্টোবর ২০২০, ১৩:৪৯

মুসলমান ও ইসলাম ধর্মের প্রতি মনোভাবের জন্য ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁর মানসিক চিকিৎসা দরকার বলে মন্তব্য করেছেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যেপ এরদোয়ান। শনিবার কায়সারি শহরে নিজ দল একে পার্টির এক প্রাদেশিক সমাবেশে ফরাসি প্রেসিডেন্টের উদ্দেশে একথা বলেন এরদোয়ান। ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্সের প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা গেছে। গত মাসে টেলিফোন আলাপের পরও ম্যাঁক্রনকে আক্রমণ করা অব্যাহত রেখেছেন এরদোয়ান

মতপ্রকাশের স্বাধীনতার ক্লাসে কার্টুন প্রদর্শনের জেরে এক ইসলামপন্থী উগ্রবাদী কর্তৃক একজন ইতিহাস শিক্ষককে হত্যার পর থেকেই উত্তপ্ত হয়ে আছে ফ্রান্স। ওই ঘটনার পর ইসলামিক বিচ্ছিন্নতাবাদের বিরুদ্ধে লড়াই চালিয়ে যাওয়ার প্রতিশ্রুতি পুনর্ব্যক্ত করেন ফরাসি প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাঁক্রন। তিনি বলেন, এই বিচ্ছিন্নতাবাদ ফ্রান্সের মুসলমান সম্প্রদায়গুলোতে নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠা করতে চাইছে। ফরাসি প্রেসিডেন্টের এই বক্তব্যের তীব্র সমালোচনা করেন তুর্কি প্রেসিডেন্ট এরদোয়ান।

একে পার্টির এক সম্মেলনে তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যেপ এরদোয়ান বলেন, ‘ম্যাঁক্রন নামের এই লোকটির ইসলাম ও মুসলমানদের নিয়ে সমস্যা কী? মানসিক পর্যায়ে ম্যাঁক্রনের চিকিৎসা দরকার।‘ তিনি বলেন, ‘যা বলা যেতে পারে তা হলো একজন রাষ্ট্রপ্রধান বিশ্বাসের স্বাধীনতা বুঝতে পারছেন না আর তিনি তার দেশে ভিন্ন বিশ্বাস নিয়ে বসবাস করা লাখ লাখ মানুষের সঙ্গে সেই ভাবে আচরণ করছেন।‘

রিসেপ তাইয়্যেপ এরদোয়ান একজন মুসলমান ধর্মাবলম্বী। আর তার দল একে পার্টি ২০০২ সালে ক্ষমতায় আসার পর থেকেই তুরস্কের মূলধারার রাজনীতিতে শক্ত অবস্থান করে নিয়েছে ইসলাম। মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ দেশটি তার নেতৃত্বে ধর্মনিরপেক্ষ পরিচয় থেকে ইসলামপন্থী হিসেবে পরিচিত হয়ে উঠতে চাইছে।

তুরস্ক ও ফ্রান্স উভয়েই পশ্চিমা সামরিক জোট ন্যাটোর সদস্য। তবে দেশ দুটির মধ্যে বিভিন্ন আন্তর্জাতিক ইস্যুতে পরস্পর বিরোধী অবস্থান রয়েছে। এসব ইস্যুর মধ্যে রয়েছে সিরিয়া, লিবিয়া, পূর্ব ভূমধ্যসাগরের কর্তৃত্ব এবং নাগোরনো-কারাবাখ অঞ্চলের বিরোধ।

গত মাসে এক টেলিফোন আলাপে নিজেদের সম্পর্ক উন্নয়ন এবং যোগাযোগ অব্যাহত রাখার বিষয়ে একমত পোষণ করেন এরদোয়ান ও ম্যাঁক্রন।

/জেজে/বিএ/

সম্পর্কিত

দ্বিতীয় দফায় লন্ডনের মেয়র নির্বাচিত হলেন সাদিক খান

দ্বিতীয় দফায় লন্ডনের মেয়র নির্বাচিত হলেন সাদিক খান

কোভিড শনাক্ত করবে মৌমাছি!

কোভিড শনাক্ত করবে মৌমাছি!

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার অনুমোদন পেলো চীনা সিনোফার্মের ভ্যাকসিন

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার অনুমোদন পেলো চীনা সিনোফার্মের ভ্যাকসিন

রাশিয়ান ভ্যাকসিন একে-৪৭ এর মতোই নির্ভরযোগ্য: পুতিন

রাশিয়ান ভ্যাকসিন একে-৪৭ এর মতোই নির্ভরযোগ্য: পুতিন

ফ্রান্সের সীমানা সাড়ে ৭ ফুট কমিয়ে দিলেন এক চাষী!

ফ্রান্সের সীমানা সাড়ে ৭ ফুট কমিয়ে দিলেন এক চাষী!

অর্ধকোটি টাকায় বিক্রি হলো ডায়ানার সাইকেল

অর্ধকোটি টাকায় বিক্রি হলো ডায়ানার সাইকেল

ফ্যাশনের কোনও বয়স আছে নাকি!

ফ্যাশনের কোনও বয়স আছে নাকি!

মুসলমানদের ইফতারের জন্য উন্মুক্ত বার্সেলোনার গির্জা

মুসলমানদের ইফতারের জন্য উন্মুক্ত বার্সেলোনার গির্জা

মাস্ক পরা খরগোশের পর এবার চকলেট সিরিঞ্জ

মাস্ক পরা খরগোশের পর এবার চকলেট সিরিঞ্জ

শিশুদের জন্যে ভ্যাকসিনের অনুমোদন চাইলো ফাইজার-বায়োএনটেক

শিশুদের জন্যে ভ্যাকসিনের অনুমোদন চাইলো ফাইজার-বায়োএনটেক

বিশ্বের বৃহত্তম কয়েন তৈরি করলো রয়্যাল মিন্ট

বিশ্বের বৃহত্তম কয়েন তৈরি করলো রয়্যাল মিন্ট

গাছটি বিক্রি হলো ১ লাখ ৮৭ হাজার টাকায়

গাছটি বিক্রি হলো ১ লাখ ৮৭ হাজার টাকায়

সর্বশেষ

সেভিয়ার সঙ্গে শেষ মুহূর্তে হার এড়ালো রিয়াল মাদ্রিদ

সেভিয়ার সঙ্গে শেষ মুহূর্তে হার এড়ালো রিয়াল মাদ্রিদ

বান্ধবীসহ ডেকে নিয়ে বন্ধুকে খুন

বান্ধবীসহ ডেকে নিয়ে বন্ধুকে খুন

দারাজে এক পণ্যের অর্ডারে আরেক পণ্য, ক্ষুব্ধ ক্রেতারা

দারাজে এক পণ্যের অর্ডারে আরেক পণ্য, ক্ষুব্ধ ক্রেতারা

মহিমান্বিত রাতে প্রার্থনারত মুসল্লিরা

মহিমান্বিত রাতে প্রার্থনারত মুসল্লিরা

ধর্ষণ-নির্যাতনের ঘটনায় মহিলা আইনজীবী সমিতির ৫ সুপারিশ

ধর্ষণ-নির্যাতনের ঘটনায় মহিলা আইনজীবী সমিতির ৫ সুপারিশ

কর্নেল শহীদের পদোন্নতিসহ অবসর সুবিধা বাতিল

কর্নেল শহীদের পদোন্নতিসহ অবসর সুবিধা বাতিল

গাছের নিচে আশ্রয় নিয়ে বজ্রপাতে নিহত

গাছের নিচে আশ্রয় নিয়ে বজ্রপাতে নিহত

কলেজ শিক্ষার্থীর মৃত্যু নিয়ে রহস্য

কলেজ শিক্ষার্থীর মৃত্যু নিয়ে রহস্য

বাসচাপায়  দুই মোটরবাইক আরোহী নিহত

বাসচাপায় দুই মোটরবাইক আরোহী নিহত

সন্ধ্যায় বন্ধ ঘোষণা করে রাতে ফেরি চালু

সন্ধ্যায় বন্ধ ঘোষণা করে রাতে ফেরি চালু

করোনায় মৃতের সৎকার, বললেই হাজির তাবলিগ জামাত

করোনায় মৃতের সৎকার, বললেই হাজির তাবলিগ জামাত

ভাইরাল হওয়ার আশায় গাঁজা সেবনের ভিডিও ফেসবুকে, যুবক কারাগারে

ভাইরাল হওয়ার আশায় গাঁজা সেবনের ভিডিও ফেসবুকে, যুবক কারাগারে

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

দ্বিতীয় দফায় লন্ডনের মেয়র নির্বাচিত হলেন সাদিক খান

দ্বিতীয় দফায় লন্ডনের মেয়র নির্বাচিত হলেন সাদিক খান

কোভিড শনাক্ত করবে মৌমাছি!

কোভিড শনাক্ত করবে মৌমাছি!

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার অনুমোদন পেলো চীনা সিনোফার্মের ভ্যাকসিন

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার অনুমোদন পেলো চীনা সিনোফার্মের ভ্যাকসিন

রাশিয়ান ভ্যাকসিন একে-৪৭ এর মতোই নির্ভরযোগ্য: পুতিন

রাশিয়ান ভ্যাকসিন একে-৪৭ এর মতোই নির্ভরযোগ্য: পুতিন

ফ্রান্সের সীমানা সাড়ে ৭ ফুট কমিয়ে দিলেন এক চাষী!

ফ্রান্সের সীমানা সাড়ে ৭ ফুট কমিয়ে দিলেন এক চাষী!

অর্ধকোটি টাকায় বিক্রি হলো ডায়ানার সাইকেল

অর্ধকোটি টাকায় বিক্রি হলো ডায়ানার সাইকেল

ফ্যাশনের কোনও বয়স আছে নাকি!

ফ্যাশনের কোনও বয়স আছে নাকি!

মুসলমানদের ইফতারের জন্য উন্মুক্ত বার্সেলোনার গির্জা

মুসলমানদের ইফতারের জন্য উন্মুক্ত বার্সেলোনার গির্জা

মাস্ক পরা খরগোশের পর এবার চকলেট সিরিঞ্জ

মাস্ক পরা খরগোশের পর এবার চকলেট সিরিঞ্জ

শিশুদের জন্যে ভ্যাকসিনের অনুমোদন চাইলো ফাইজার-বায়োএনটেক

শিশুদের জন্যে ভ্যাকসিনের অনুমোদন চাইলো ফাইজার-বায়োএনটেক

© 2021 Bangla Tribune