সেকশনস

সিনেটে ট্রাম্পের বিরুদ্ধে অভিশংসন বিচার বিলম্বিত করার অনুরোধ রিপাবলিকানদের

আপডেট : ২২ জানুয়ারি ২০২১, ১৫:১১
image

সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিরুদ্ধে সিনেটে অভিশংসন বিচার শুরুর ক্ষেত্রে বিলম্ব করার জন্য ডেমোক্র্যাটদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে রিপাবলিকানরা। আত্মপক্ষ সমর্থনে ট্রাম্পকে প্রস্তুতি নেওয়ার জন্য কমপক্ষে দুই সপ্তাহ সময় দেওয়ার অনুরোধ জানানো হয়েছে। বৃহস্পতিবার (২১ জানুয়ারি) নিজেদের মধ্যে এক কনফারেন্স কলে সিনেটের মাইনরিটি লিডার মিচ ম্যাককনেল এ তথ্য জানান।

সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের আইনসভা ক্যাপিটল ভবনে উগ্র ট্রাম্প-সমর্থকদের হামলার পর বিদায়ী প্রেসিডেন্টকে নির্ধারিত সময়ের আগেই পদ থেকে সরাতে ডেমোক্র্যাটরা প্রতিনিধি পরিষদে অভিশংসন প্রস্তাব উত্থাপন করে। ১৩ জানুয়ারি সে প্রস্তাবের পক্ষে বিপক্ষে ভোটাভুটি হয়। ২৩২-১৯৭ ভোটে পাস হয় প্রস্তাবটি। ১০ জন রিপাবলিকানও এতে সমর্থন দেন। এর মধ্য দিয়ে দ্বিতীয়বারের মতো কংগ্রেসের নিম্ন কক্ষে অভিশংসিত হন ট্রাম্প। চূড়ান্ত অভিশংসনের জন্য প্রস্তাবটি সিনেটে পাঠাতে হবে। সেখানে বিচারপ্রক্রিয়ার পর দুই-তৃতীয়াংশ ভোটে পাস করাতে হবে এটি। 

২০ জানুয়ারি নতুন প্রেসিডেন্ট হিসেবে জো বাইডেন দায়িত্ব নেওয়ার পর এবার উচ্চ কক্ষ সিনেটেও ট্রাম্পের বিরুদ্ধে বিচার প্রক্রিয়া শুরু করতে যাচ্ছে ডেমোক্র্যাটরা। কোনও প্রেসিডেন্টের মেয়াদ শেষ হওয়ার পর তার বিরুদ্ধে সিনেটে অভিশংসন বিচার শুরুর ঘটনা এটাই প্রথম। ডেমোক্র্যাটরা কত দ্রুততার সঙ্গে অভিশংসন প্রস্তাবটি সিনেটে প্রেরণ করবেন তা এখনও নিশ্চিত নয়। তবে এ নিয়ে জোর প্রস্তুতি চলছে।

বিবিসির প্রতিবেদন থেকে জানা গেছে, বৃহস্পতিবার রিপাবলিকান সিনেটরদের সঙ্গে টেলিফোন কনফারেন্সে অংশ নেন সিনেট মাইনরিটি লিডার মিচ ম্যাককনেল। তখন তিনি বলেন, আগামী ২৮ জানুয়ারি পর্যন্ত যেন সিনেটে ইম্পিচমেন্ট আর্টিকেল না পাঠানো হয় সে ব্যাপারে হাউজ ডেমোক্র্যাটদের প্রতি অনুরোধ জানিয়েছেন তিনি। সেক্ষেত্রে বিচার পূর্ববর্তী আত্মপক্ষ সমর্থন ও যুক্তি-তর্ক উপস্থাপনের ক্ষেত্রে ১১ ফ্রেব্রুয়ারি পর্যন্ত সময় পাবেন ট্রাম্প। এর মানে হলো, সিনেচে তখন অভিশংসন বিচার প্রক্রিয়া শুরু হতে ফেব্রুয়ারির মাঝামাঝি হয়ে যাবে। এরইমধ্যে সিনেটে সংখ্যাগরিষ্ঠতা হারিয়েছে রিপাবলিকানরা। সেক্ষেত্রে সময় বাড়ানোর ব্যাপারে ডেমোক্র্যাট মেজরিটি লিডার চাক শুমারের সিদ্ধান্তের জন্য অপেক্ষা করতে হবে তাদেরকে।

এক বিবৃতিতে ম্যাককনেল বলেন, ‘সিনেট রিপাবলিকানরা এ নীতিতে দৃঢ়ভাবে ঐক্যবদ্ধ যে সিনেটের ইন্সটিটিউশন, প্রেসিডেন্টের কার্যালয় এবং সাবেক প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প নিজেও একটি পূর্ণাঙ্গ ও স্বচ্ছ প্রক্রিয়ার দাবিদার। যা তার অধিকার এবং গুরুতর বাস্তব, আইনি ও সংকটে থাকা সাংবিধানিক প্রশ্নগুলোর প্রতি শ্রদ্ধাশীল থাকবে।’

/এফইউ/

সম্পর্কিত

মিয়ানমারের সব পক্ষের সঙ্গে আলোচনায় বসতে রাজি চীন

মিয়ানমারের সব পক্ষের সঙ্গে আলোচনায় বসতে রাজি চীন

‘মিয়ানমারের  অনেক নাগরিক ভারতে আশ্রয় চাইছে’

‘মিয়ানমারের  অনেক নাগরিক ভারতে আশ্রয় চাইছে’

নতুন কৃষি আইন সংশোধনে প্রস্তুত আছে সরকার: ভারতের কৃষিমন্ত্রী

নতুন কৃষি আইন সংশোধনে প্রস্তুত আছে সরকার: ভারতের কৃষিমন্ত্রী

হংকং-এ স্থিতিশীলতার জন্য নির্বাচন ব্যবস্থায় সংস্কার জরুরি: চীন

হংকং-এ স্থিতিশীলতার জন্য নির্বাচন ব্যবস্থায় সংস্কার জরুরি: চীন

রিপাবলিকান তহবিল সংগ্রহে নিজের নামের ব্যবহার চান না ট্রাম্প

রিপাবলিকান তহবিল সংগ্রহে নিজের নামের ব্যবহার চান না ট্রাম্প

হুথিদের ৫টি ড্রোন ধ্বংসের দাবি সৌদি জোটের

হুথিদের ৫টি ড্রোন ধ্বংসের দাবি সৌদি জোটের

নিজে টিকা নিয়ে অন্যদেরও নিতে বললেন দালাইলামা

নিজে টিকা নিয়ে অন্যদেরও নিতে বললেন দালাইলামা

শেষ পর্যন্ত বিজেপিতে যোগ দিচ্ছেন মিঠুন চক্রবর্তী?

শেষ পর্যন্ত বিজেপিতে যোগ দিচ্ছেন মিঠুন চক্রবর্তী?

পালিয়ে যাওয়া পুলিশ কর্মকর্তাদের ফেরত চেয়ে ভারতকে মিয়ানমারের চিঠি

পালিয়ে যাওয়া পুলিশ কর্মকর্তাদের ফেরত চেয়ে ভারতকে মিয়ানমারের চিঠি

ফাইজার ও মডার্না ভ্যাকসিনের এক ডোজ যথেষ্ট নয়

ফাইজার ও মডার্না ভ্যাকসিনের এক ডোজ যথেষ্ট নয়

সিনেটে বাইডেনের কোভিড বিল পাস

সিনেটে বাইডেনের কোভিড বিল পাস

সর্বশেষ

মিয়ানমারের সব পক্ষের সঙ্গে আলোচনায় বসতে রাজি চীন

মিয়ানমারের সব পক্ষের সঙ্গে আলোচনায় বসতে রাজি চীন

দেবীগঞ্জে ট্রাক্টরের ধাক্কায় মোটরসাইকেল আরোহী নিহত

দেবীগঞ্জে ট্রাক্টরের ধাক্কায় মোটরসাইকেল আরোহী নিহত

মটোরোলা নিয়ে এলো ‘হ্যালো স্বাধীনতা’ অফার

মটোরোলা নিয়ে এলো ‘হ্যালো স্বাধীনতা’ অফার

দুই কারারক্ষী বরখাস্ত, দুই জেলার প্রত্যাহার

কারাগার থেকে কয়েদি নিখোঁজদুই কারারক্ষী বরখাস্ত, দুই জেলার প্রত্যাহার

‘সবাই ঐক্যবদ্ধ থাকলে ষড়যন্ত্রকারীরা সফল হতে পারবে না’

‘সবাই ঐক্যবদ্ধ থাকলে ষড়যন্ত্রকারীরা সফল হতে পারবে না’

ঢাকায় আসছেন দক্ষিণ এশিয়ার চার শীর্ষ নেতা

ঢাকায় আসছেন দক্ষিণ এশিয়ার চার শীর্ষ নেতা

করোনার বিরূপ প্রভাব মোকাবিলায় নারী নেতৃত্ব গুরুত্বপূর্ণ: স্পিকার

করোনার বিরূপ প্রভাব মোকাবিলায় নারী নেতৃত্ব গুরুত্বপূর্ণ: স্পিকার

আপন জুয়েলার্সের মালিকের বিরুদ্ধে করা রমনা থানার মামলাটি বিচারের জন্য প্রস্তুত

আপন জুয়েলার্সের মালিকের বিরুদ্ধে করা রমনা থানার মামলাটি বিচারের জন্য প্রস্তুত

আপন জুয়েলার্সের মালিকের বিরুদ্ধে করা রমনা থানার মামলাটি বিচারের জন্য প্রস্তুত

আপন জুয়েলার্সের মালিকের বিরুদ্ধে করা রমনা থানার মামলাটি বিচারের জন্য প্রস্তুত

‘মিয়ানমারের  অনেক নাগরিক ভারতে আশ্রয় চাইছে’

‘মিয়ানমারের  অনেক নাগরিক ভারতে আশ্রয় চাইছে’

শাহীন আফ্রিদির শ্বশুর হচ্ছেন শহীদ আফ্রিদি

শাহীন আফ্রিদির শ্বশুর হচ্ছেন শহীদ আফ্রিদি

নতুন কৃষি আইন সংশোধনে প্রস্তুত আছে সরকার: ভারতের কৃষিমন্ত্রী

নতুন কৃষি আইন সংশোধনে প্রস্তুত আছে সরকার: ভারতের কৃষিমন্ত্রী

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মিয়ানমারের সব পক্ষের সঙ্গে আলোচনায় বসতে রাজি চীন

মিয়ানমারের সব পক্ষের সঙ্গে আলোচনায় বসতে রাজি চীন

‘মিয়ানমারের  অনেক নাগরিক ভারতে আশ্রয় চাইছে’

‘মিয়ানমারের  অনেক নাগরিক ভারতে আশ্রয় চাইছে’

নতুন কৃষি আইন সংশোধনে প্রস্তুত আছে সরকার: ভারতের কৃষিমন্ত্রী

নতুন কৃষি আইন সংশোধনে প্রস্তুত আছে সরকার: ভারতের কৃষিমন্ত্রী

হংকং-এ স্থিতিশীলতার জন্য নির্বাচন ব্যবস্থায় সংস্কার জরুরি: চীন

হংকং-এ স্থিতিশীলতার জন্য নির্বাচন ব্যবস্থায় সংস্কার জরুরি: চীন

রিপাবলিকান তহবিল সংগ্রহে নিজের নামের ব্যবহার চান না ট্রাম্প

রিপাবলিকান তহবিল সংগ্রহে নিজের নামের ব্যবহার চান না ট্রাম্প

হুথিদের ৫টি ড্রোন ধ্বংসের দাবি সৌদি জোটের

হুথিদের ৫টি ড্রোন ধ্বংসের দাবি সৌদি জোটের

নিজে টিকা নিয়ে অন্যদেরও নিতে বললেন দালাইলামা

নিজে টিকা নিয়ে অন্যদেরও নিতে বললেন দালাইলামা

শেষ পর্যন্ত বিজেপিতে যোগ দিচ্ছেন মিঠুন চক্রবর্তী?

শেষ পর্যন্ত বিজেপিতে যোগ দিচ্ছেন মিঠুন চক্রবর্তী?

পালিয়ে যাওয়া পুলিশ কর্মকর্তাদের ফেরত চেয়ে ভারতকে মিয়ানমারের চিঠি

পালিয়ে যাওয়া পুলিশ কর্মকর্তাদের ফেরত চেয়ে ভারতকে মিয়ানমারের চিঠি


[email protected]
© 2021 Bangla Tribune
Bangla Tribune is one of the most revered online newspapers in Bangladesh, due to its reputation of neutral coverage and incisive analysis.