X
রবিবার, ২৫ জুলাই ২০২১, ১০ শ্রাবণ ১৪২৮

সেকশনস

কাবুল বিমানবন্দরে তুরস্কের উপস্থিতি গুরুত্বপূর্ণ: আফগান কর্মকর্তা

আপডেট : ২০ জুন ২০২১, ২৩:১৯

আফগানিস্তানের হাই কাউন্সিল ফর ন্যাশনাল রিকনসিলিয়েশন-এর প্রধান আব্দুল্লাহ আব্দুল্লাহ বলেছেন, বিদেশি সেনা প্রত্যাহারে যে শূন্যতা তৈরি সেটির ফায়দা নিতে চাইছে তালেবান। তাই কাবুল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে তুরস্কের উপস্থিতি গুরুত্বপূর্ণ। শনিবার তুরস্কের রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা আনাদোলু এজেন্সিকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি এই মন্তব্য করেছেন।

১১ সেপ্টেম্বর আফগানিস্তান থেকে মার্কিন ও ন্যাটো সেনারা চলে যাওয়ার পর কাবুলের পরিস্থিতি কী দাঁড়াবে সেটি নিয়ে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের উদ্বেগ তৈরি হয়েছে। বিশেষ করে বিমানবন্দর ও বিদেশি দূতাবাসগুলোর নিরাপত্তা নিয়ে উদ্বেগ বাড়ছে। এরইমধ্যে অস্ট্রেলিয়া কাবুলে তাদের দূতাবাস বন্ধ করে দিয়েছে। অন্যদিকে কাবুল বিমানবন্দরের নিরাপত্তা ও পরিচালনার দায়িত্ব নেওয়ার আনুষ্ঠানিক প্রস্তাব দিয়েছে তুরস্ক। এ ব্যাপারে যুক্তরাষ্ট্রেরও সায় আছে বলে জানা গেছে। তবে এক বিবৃতিতে তালেবান তুরস্কের প্রস্তাবের বিরোধিতা করেছে। তারা বলেছে,  মার্কিন ও ন্যাটো বাহিনী প্রত্যাহারের পর আফগানিস্তানে সামরিক উপস্থিতি বজায় রাখার ‘কোনও আশা’ রাখা উচিত নয়। দূতাবাস ও বিমানবন্দরগুলোর নিরাপত্তা নিশ্চিত করা আফগানদেরই দায়িত্ব।

আনতালিয়া কূটনৈতিক ফোরামের আলোচনায় যোগ দেওয়া আফগান কর্মকর্তা আব্দুল্লাহ আব্দুল্লাহ বলেন, কাবুল বিমানবন্দর নিয়ে এখন আমরা যে কথা বলছি  তা হলো- যুক্তরাষ্ট্র ও ন্যাটো সেনা প্রত্যাহারের পর এর নিরাপত্তা নিয়ে তুরস্কের সরকারের সঙ্গে বিভিন্ন পর্যায়ে আলোচনা চলছে।

তিনি বলেন, পাকিস্তান সরকারের কাছেও বিষয়টি তুলে ধরা হয়েছে। তারাও বিষয়টিতে সম্মতি দিয়েছে। যদিও তুরস্ক ও পাকিস্তান সরকারের মধ্যে বিষয়টির বিস্তারিত নির্দিষ্ট হয়নি। ব্যক্তিগতভাবে আফগান নাগরিক হিসেবে আমি মনে করি কাবুল বিমানবন্দরের দায়িত্ব যদি তুরস্ক নেয় তা হবে গুরুত্বপূর্ণ।

এর আগে আফগানিস্তানকে বিশ্বের প্রবেশ পথ উল্লেখ করে তুরস্কের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মেভলুত চাভুসোগলু রবিবার বলেছেন, বিমানবন্দরটির নিরাপত্তা ও কার্যক্রম আফগানিস্তানের জন্য খুব গুরুত্বপূর্ণ। শুধু আফগানিস্তানের জন্য নয়, তুরস্কসহ সেখানকার কূটনৈতিক মিশনগুলোর জন্যও গুরুত্বপূর্ণ।

তিনি আরও বলেন, আফগান প্রশাসনও চায় তুরস্ক থাকুক। আমরা সব সময় বলে আসছি যে, যতক্ষণ তাদের প্রয়োজন হবে আমরা আফগানিস্তানে থাকব। সূত্র: ডেইলি সাবাহ

/এএ/

সম্পর্কিত

ইরাকের মাটিতে মার্কিন সেনার প্রয়োজন নেই: প্রধানমন্ত্রী আল-খাদিমি

ইরাকের মাটিতে মার্কিন সেনার প্রয়োজন নেই: প্রধানমন্ত্রী আল-খাদিমি

সিরিয়ায় হামলায় তুর্কি সেনা নিহত, আঙ্কারার হুঁশিয়ারি

সিরিয়ায় হামলায় তুর্কি সেনা নিহত, আঙ্কারার হুঁশিয়ারি

তালেবানের উত্থান, আফগানিস্তানে কারফিউ জারি

তালেবানের উত্থান, আফগানিস্তানে কারফিউ জারি

তিন মাসে ২ বার করোনা আক্রান্ত, হতাশায় দম্পতির আত্মহত্যা

তিন মাসে ২ বার করোনা আক্রান্ত, হতাশায় দম্পতির আত্মহত্যা

যুক্তরাজ্যে করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট শনাক্ত

আপডেট : ২৫ জুলাই ২০২১, ১৭:৩৯

যুক্তরাজ্যে করোনাভাইরাসের নতুন একটি ভ্যারিয়েন্ট শনাক্ত হয়েছে। দেশটির পাবলিক হেলথ ইংল্যান্ড (পিএইচই) জানায়, ভ্যারিয়েন্টটিতে অন্তত ১৬ জন আক্রান্ত হওয়ার পর এটি নিয়ে তদন্ত শুরু হয়েছে। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম দ্য ইন্ডিপেন্ডেন্ট এখবর জানিয়েছে।

নতুন এই ভ্যারিয়েন্টটি বি.১.৬২১ নামে পরিচিত। কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, করোনার এই ভ্যারিয়েন্টটি সম্পর্কে বিস্তারিত জানা যায়নি। তবে বুধবার পিএইচই এটিকে আন্ডার ইনভেস্টিগেশন হিসেবে তালিকাভুক্ত করেছে।

ব্রিটিশ কর্তৃপক্ষ আরও জানায়, এটি টিকার কার্যকারিতা কমিয়ে দেয় কিংবা গুরুতর রোগ সৃষ্টি করে এমন কোনও প্রমাণ এখন পর্যন্ত পাওয়া যায়নি।

খবরে বলা হয়েছে, ব্রিটেনে বি.১.৬২১ নতুন হলেও বিশ্বে একেবারে নতুন নয়। জানুয়ারিতে কলম্বিয়ায় এটি প্রথম শনাক্ত হয়। ব্রিটেনে এই ভ্যারিয়েন্টে আক্রান্তদের বেশিরভাগের বিদেশ সফরের ইতিহাস রয়েছে এবং যুক্তরাজ্যে স্থানীয়ভাবে সংক্রমণ ছড়ানোর কোনও প্রমাণ এখন পর্যন্ত নেই।

গত কয়েক সপ্তাহে যুক্তরাজ্যের কোভিড পরিস্থিতির অবনতি হয়েছে। বিশেষ করে অতি সংক্রামক ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টে মানুষ সংক্রমিত হচ্ছে। আক্রান্তের সংখ্যা বাড়তে থাকলেও এই সপ্তাহে যুক্তরাজ্য করোনার বিধিনিষেধ প্রত্যাহার করেছে। শুক্রবার ব্রিটেনে নতুন আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছেন ৩১ হাজার ৭৯৪ জন।

যুক্তরাজ্যে করোনাভাইরাসের আর রেট ১.২ ও ১.৪। এর অর্থ হলো, একজন আক্রান্ত মানুষ একজনের বেশি মানুষকে আক্রান্ত করতে পারেন।

/এএ/

সম্পর্কিত

দেশে দেশে লকডাউন বিরোধী বিক্ষোভ

দেশে দেশে লকডাউন বিরোধী বিক্ষোভ

শীতে করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট আসবে! আশঙ্কা ফরাসি বিশেষজ্ঞের

শীতে করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট আসবে! আশঙ্কা ফরাসি বিশেষজ্ঞের

ব্রিটে‌নে জা‌লিয়া‌তির দা‌য়ে বাংলা‌দেশি সমকামীর কার‌াদণ্ড

ব্রিটে‌নে জা‌লিয়া‌তির দা‌য়ে বাংলা‌দেশি সমকামীর কার‌াদণ্ড

ইরাকের মাটিতে মার্কিন সেনার প্রয়োজন নেই: প্রধানমন্ত্রী আল-খাদিমি

আপডেট : ২৫ জুলাই ২০২১, ১৭:১৬

ইরাকের প্রধানমন্ত্রী মুস্তাফা আল-খাদিমি বলেছেন, তার দেশে ইসলামিক স্টেট (আইএস)-এর বিরুদ্ধে লড়াইয়ের জন্য মার্কিন সেনাদের কোনও প্রয়োজন নেই। তবে তিনি বলেছেন, এসব বিদেশি সেনাদের পুনরায় মোতায়েনের বিষয়টি নির্ভর করছে এই সপ্তাহে মার্কিন কর্মকর্তাদের সঙ্গে আলোচনার ওপর। মার্কিন বার্তা সংস্থা এসোসিয়েটেড প্রেস (এপি)-কে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে ইরাকে প্রধানমন্ত্রী এসব কথা বলেছেন। রবিবার সাক্ষাৎকারটি প্রকাশিত হয়েছে।

মুস্তাফা আল-খাদিমি বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্রকে প্রশিক্ষণ ও সামরিক গোয়েন্দা তথ্য সংগ্রহের জন্য আহ্বান জানাবে ইরাক। কিন্তু যুদ্ধের সেনাদের আনুষ্ঠানিকভাবে প্রত্যাহারের একটি সময়সীমা চাওয়া হবে। এপ্রিলে ওয়াশিংটন ও বাগদাদে আলোচনায় মার্কিন সেনাদের প্রত্যাহারের বিষয়ে সিদ্ধান্ত হয়েছিল।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ইরাকের মাটিতে বিদেশি সেনাদের কোনও প্রয়োজন নেই। আইএসবিরোধী যুদ্ধ ও আমাদের সেনাদের প্রস্তুতির বিষয়ের জন্য একটি বিশেষ সময়সীমার প্রয়োজন। ওয়াশিংটনে আলোচনার ওপর তা নির্ভর করছে।

সোমবার মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের সঙ্গে বৈঠক করবেন ইরাকের প্রধানমন্ত্রী। দুই দেশের মধ্যে এটি চতুর্থ ধাপের কৌশলগত আলোচনা। দেশে শিয়া সম্প্রদায়ের পক্ষ থেকে মার্কিন ভূমিকা কমানোর চাপের মুখে হোয়াইট সফরে যাচ্ছেন আল-খাদিমি।

আল-খাদিমি বলেন, ইরাকের সেনাবাহিনীকে প্রশিক্ষণ দেওয়া, তাদের কার্যকারিতা ও সামর্থ্য বৃদ্ধির জন্য আমরা মার্কিন উপস্থিতি চাই। ইরাকে অনেক আমেরিকান অস্ত্র রয়েছে। এগুলো রক্ষণাবেক্ষণ ও প্রশিক্ষণের প্রয়োজন। আমাদের সেনাদের সহযোগিতা ও সামর্থ্য বৃদ্ধিতে মার্কিন পক্ষের কাছে আমরা সহযোগিতা অব্যাহত রাখতে বলব।

/এএ/

সম্পর্কিত

তালেবানের উত্থান, আফগানিস্তানে কারফিউ জারি

তালেবানের উত্থান, আফগানিস্তানে কারফিউ জারি

তিন মাসে ২ বার করোনা আক্রান্ত, হতাশায় দম্পতির আত্মহত্যা

তিন মাসে ২ বার করোনা আক্রান্ত, হতাশায় দম্পতির আত্মহত্যা

মহারাষ্ট্রে টানা ভারী বৃষ্টিতে বন্যা-ভূমিধস, জীবিতদের খোঁজে অভিযান

মহারাষ্ট্রে টানা ভারী বৃষ্টিতে বন্যা-ভূমিধস, জীবিতদের খোঁজে অভিযান

যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন সংস্থার বিরুদ্ধে চীনের পাল্টা নিষেধাজ্ঞা

যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন সংস্থার বিরুদ্ধে চীনের পাল্টা নিষেধাজ্ঞা

মৃত্যুদণ্ড বাতিল করছে সিয়েরা লিওন

আপডেট : ২৫ জুলাই ২০২১, ০৭:৪৯

আফ্রিকার দেশ সিয়েরা লিওনে মৃত্যুদণ্ডের সাজা বাতিলের পক্ষে ভোট দিয়েছেন দেশটির আইনপ্রণেতারা। এই মহাদেশটির ২৩ তম দেশ হিসেবে মৃত্যুদণ্ড বাতিলের পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে। সিয়েরা লিওনের পার্লামেন্টের এ সিদ্ধান্তে স্বাগত জানিয়েছে বিভিন্ন মানবাধিকার সংগঠন।

শুক্রবার পার্লামেন্টের অধিকাংশ সদস্য মৃত্যুদণ্ডের সাজা বাতিলের বিপক্ষে ভোট দেয়। সিয়েরা লিওনের প্রেসিডেন্ট জুলিয়াস মাদা বাও শিগগিরই এই বিলে স্বাক্ষর করবেন বলে আশা করা যাচ্ছে। প্রেসিডেন্টের স্বাক্ষরের পর বিলটি আইনে পরিণত হবে।

সিয়েরা লিওনে সর্বশেষ মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হয় প্রায় ২০ বছর আগে। দেশটিতে ১৯৯৮ সালে সর্বশেষ মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়েছিল। উপনিবেশিক আমলের আইনে এতদিন মৃত্যুদণ্ডের মতো শাস্তি কার্যকর ছিল। 

সিয়েরা লিওনের প্রেসিডেন্ট, অ্যাটর্নি জেনারেল পার্লামেন্ট ও সুশীল সমাজকে ধন্যবাদ জানান দেশটির ইনস্টিটিউট ফর লিগ্যাল রিসার্চ অ্যান্ড এডভোকেসি ফর জাস্টিস (আইএলআরএজে)-এর প্রতিষ্ঠাতা বাসিতা মাইকেল। মূলত, মানবাধিকার কর্মীদের সমালোচনার মুখেই এই শাস্তি বাতিল হতে যাচ্ছে।

এর আগে আফ্রিকার আরও দুটি দেশ মৃত্যুদণ্ড আইন বাতিল করে। গত এপ্রিলে দক্ষিণ-পূর্ব আফ্রিকার মালাভি মৃত্যুদণ্ড আইন বিলুপ্তর ঘোষণা দেয়। মধ্য আফ্রিকার দেশ চাদও একই ধরনের সিদ্ধান্ত নেয়।
আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থা অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালের তথ্যমতে, ২০২০ সাল পর্যন্ত বিশ্বের অন্তত ১০৮টি দেশে মৃত্যুদণ্ড আইন বিলুপ্ত হয়েছে।

/এলকে/

সম্পর্কিত

উইঘুর মুসলিম নির্যাতন, চীনের বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রের কঠোর পদক্ষেপ

উইঘুর মুসলিম নির্যাতন, চীনের বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রের কঠোর পদক্ষেপ

নারীর বিরুদ্ধে সহিংসতা প্রতিরোধের চুক্তি থেকে বেরিয়ে গেলো তুরস্ক

নারীর বিরুদ্ধে সহিংসতা প্রতিরোধের চুক্তি থেকে বেরিয়ে গেলো তুরস্ক

রাজতন্ত্রবিরোধী আন্দোলনের দায়ে সেই কিশোরকে মৃত্যুদণ্ড দিলো সৌদি

রাজতন্ত্রবিরোধী আন্দোলনের দায়ে সেই কিশোরকে মৃত্যুদণ্ড দিলো সৌদি

চীনে আগুনে পুড়ে ১৪ জনের মৃত্যু

আপডেট : ২৫ জুলাই ২০২১, ০৬:২৫

চীনের জিলিন প্রদেশের একটি গুদামে অগ্নিকাণ্ডে কমপক্ষে ১৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। এতে গুরুতর আহত হন অন্তত ১২ জন। রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যমের বরাতে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা এএফপি।

স্থানীয় সময় শনিবার বিকালে চীনের উত্তর পূর্বাঞ্চলীয় প্রদেশটির শহর চাংচুনের একটি গুদামে ভয়াবহ আগুন লাগে। কালো ধোঁয়ায় ছেয়ে যায় আকাশ। খবর পেয়েই দ্রুত ঘটনাস্থলে ছুটে আসে দমলকল বাহিনীর সদস্যরা। দীর্ঘক্ষণের চেষ্টায় পরিস্থিতি কিছুটা নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়।

আগুনে পুড়ে এখন পর্যন্ত ১৪ জনের মৃত্যুর খবর জানিয়েছে রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যাম সিনহুয়া। গুরুতর দগ্ধদের হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তাদের অবস্থা আশঙ্কাজনক জানিয়েছেন চিকিৎসকরা। অগ্নিকাণ্ডের কারণ জানা না গেলেও তদন্ত নেমেছে কর্তৃপক্ষ। 

গত জুনে একটি মার্শাল আর্ট স্কুলে অগ্নিকাণ্ডে কমপক্ষে ১৮ জন নিহত হন। নিহতদের মধ্যে বেশির ভাগই ছিল শিক্ষার্থী। 

/এলকে/

সম্পর্কিত

১৫৫ কিলোমিটার বেগে চীনে আঘাত হানছে টাইফুন 'ইন-ফা'

১৫৫ কিলোমিটার বেগে চীনে আঘাত হানছে টাইফুন 'ইন-ফা'

যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন সংস্থার বিরুদ্ধে চীনের পাল্টা নিষেধাজ্ঞা

যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন সংস্থার বিরুদ্ধে চীনের পাল্টা নিষেধাজ্ঞা

চীনকে মাথায় রেখে ভারত আসছেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী

চীনকে মাথায় রেখে ভারত আসছেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী

বৌদ্ধ অধ্যুষিত তিব্বতে চীনের প্রেসিডেন্ট!

বৌদ্ধ অধ্যুষিত তিব্বতে চীনের প্রেসিডেন্ট!

সিরিয়ায় হামলায় তুর্কি সেনা নিহত, আঙ্কারার হুঁশিয়ারি

আপডেট : ২৫ জুলাই ২০২১, ১৭:২২

সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলে অতর্কিত হামলায় দুই তুর্কি সেনা নিহত হয়েছেন। সেখানে থাকা তুরস্কের সাঁজোয়া যান লক্ষ্য করে হামলা হলে আরও দুই সেনা গুরুতর আহত হন। শনিবার দেশটির প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় হতাহতের ঘটনা নিশ্চিত করেছে।

আবারও উত্তপ্ত সিরিয়ার উত্তরাঞ্চল। তুরস্কের সীমান্তবর্তী এলাকাগুলোতে সম্প্রতি হামলার ঘটনা বেড়েছে। ধারণা করা হচ্ছে, বিদ্রোহী গোষ্ঠীদের হামলায় প্রাণ হারিয়েছেন দুই তুর্কি সেনা। হামলার পর তাৎক্ষণিকভাবে গুলি ছুড়ে জবাব দিয়েছে সেনারা। এক টুইট বার্তায় তুরস্কের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় হুঁশিয়ারি দিয়ে জানিয়েছে, ‘সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে আমাদের অভিযান অব্যাহত থাকবে’।

স্থানীয় সংবাদমাধ্যমে বলা হয়েছে, আল-বাব এলাকায় তাদের ওপর হামলা হয়। তুরস্ক এ ঘটনার জন্য কুর্দি বিদ্রোহীদের সন্দেহ করছে। এদের শত্রু ভেবে থাকে আঙ্কারা। সিরিয়ার অভ্যন্তরে এমন ঘটনায় আসাদ সরকারের কোনও প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি। হামলার কোনও গোষ্ঠী দায় স্বীকার করেনি।

সিরিয়ার উত্তরাংশ, ইরাকের উত্তরাংশ ও ইরানের উত্তরাংশ এই তিন রাষ্ট্রের উত্তরাংশ সংলগ্ন তুরস্কের বিস্তীর্ণ এলাকায় কুর্দিদের আবাসস্থল। কুর্দিরা পৃথক একটি জাতি। তবে চার রাষ্ট্রের ভেতরেই তাদের আবাসভূমির অবস্থান। যে কারণে ৭৫ বছর ধরে সংগ্রাম করার পরও তারা পৃথক জাতিসত্তা নিয়ে একটা রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠা করতে পারেনি। কারণ তুরস্ক, ইরান, ইরাক ও সিরিয়া তাদের চেয়ে শক্তিশালী রাষ্ট্র।

/এলকে/এমওএফ/

সম্পর্কিত

ওয়াশিংটন শর্ত মানলেই কাবুল বিমানবন্দর চালাবে তুরস্ক

ওয়াশিংটন শর্ত মানলেই কাবুল বিমানবন্দর চালাবে তুরস্ক

তালেবানের উচিত আফগানিস্তানে দখলদারিত্ব বন্ধ করা: এরদোয়ান

তালেবানের উচিত আফগানিস্তানে দখলদারিত্ব বন্ধ করা: এরদোয়ান

তুরস্কের প্রতি হুঁশিয়ারি তালেবানের

তুরস্কের প্রতি হুঁশিয়ারি তালেবানের

উইঘুর ইস্যুতে এরদোয়ান-শি জিনপিং ফোনালাপ

উইঘুর ইস্যুতে এরদোয়ান-শি জিনপিং ফোনালাপ

সর্বশেষ

করোনায় মারা গেছেন নির্বাচন কর্মকর্তা ইসরাইল হোসেন

করোনায় মারা গেছেন নির্বাচন কর্মকর্তা ইসরাইল হোসেন

যুক্তরাজ্যে করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট শনাক্ত

যুক্তরাজ্যে করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট শনাক্ত

মৃত্যু বেড়ে ২২৮, আক্রান্ত ১১ হাজার ২৯১

মৃত্যু বেড়ে ২২৮, আক্রান্ত ১১ হাজার ২৯১

নাসুমকে তিন ছক্কা মারা চাকাভাকে ফেরালেন সৌম্য 

নাসুমকে তিন ছক্কা মারা চাকাভাকে ফেরালেন সৌম্য 

বিয়ের আসর থেকে বরের পলায়ন, কনের মায়ের জরিমানা

বিয়ের আসর থেকে বরের পলায়ন, কনের মায়ের জরিমানা

চিকিৎসকসহ ৮৮৯০ স্বাস্থ্যকর্মী করোনায় আক্রান্ত

চিকিৎসকসহ ৮৮৯০ স্বাস্থ্যকর্মী করোনায় আক্রান্ত

কওমি মাদ্রাসার শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা টিকা পাবেন কবে?

কওমি মাদ্রাসার শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা টিকা পাবেন কবে?

শ্রেষ্ঠত্ব আর থাকছে না মারের

অলিম্পিক টেনিসশ্রেষ্ঠত্ব আর থাকছে না মারের

সাইফউদ্দিন উইকেট নিলেও জিম্বাবুয়ের আগ্রাসী ব্যাটিং

সাইফউদ্দিন উইকেট নিলেও জিম্বাবুয়ের আগ্রাসী ব্যাটিং

চট্টগ্রামে করোনায় মৃত অধিকাংশের বয়স ষাটোর্ধ্ব

চট্টগ্রামে করোনায় মৃত অধিকাংশের বয়স ষাটোর্ধ্ব

ইরাকের মাটিতে মার্কিন সেনার প্রয়োজন নেই: প্রধানমন্ত্রী আল-খাদিমি

ইরাকের মাটিতে মার্কিন সেনার প্রয়োজন নেই: প্রধানমন্ত্রী আল-খাদিমি

নতুন যেসব সুবিধা পাচ্ছেন ইউনিলিভারের কর্মীরা

নতুন যেসব সুবিধা পাচ্ছেন ইউনিলিভারের কর্মীরা

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

ইরাকের মাটিতে মার্কিন সেনার প্রয়োজন নেই: প্রধানমন্ত্রী আল-খাদিমি

ইরাকের মাটিতে মার্কিন সেনার প্রয়োজন নেই: প্রধানমন্ত্রী আল-খাদিমি

সিরিয়ায় হামলায় তুর্কি সেনা নিহত, আঙ্কারার হুঁশিয়ারি

সিরিয়ায় হামলায় তুর্কি সেনা নিহত, আঙ্কারার হুঁশিয়ারি

তালেবানের উত্থান, আফগানিস্তানে কারফিউ জারি

তালেবানের উত্থান, আফগানিস্তানে কারফিউ জারি

তিন মাসে ২ বার করোনা আক্রান্ত, হতাশায় দম্পতির আত্মহত্যা

তিন মাসে ২ বার করোনা আক্রান্ত, হতাশায় দম্পতির আত্মহত্যা

মহারাষ্ট্রে টানা ভারী বৃষ্টিতে বন্যা-ভূমিধস, জীবিতদের খোঁজে অভিযান

মহারাষ্ট্রে টানা ভারী বৃষ্টিতে বন্যা-ভূমিধস, জীবিতদের খোঁজে অভিযান

যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন সংস্থার বিরুদ্ধে চীনের পাল্টা নিষেধাজ্ঞা

যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন সংস্থার বিরুদ্ধে চীনের পাল্টা নিষেধাজ্ঞা

শান্তিচুক্তির বিরোধিতাকারী তালেবান যোদ্ধাদের দলে ভেড়াচ্ছে আইএস!

শান্তিচুক্তির বিরোধিতাকারী তালেবান যোদ্ধাদের দলে ভেড়াচ্ছে আইএস!

চীনকে মাথায় রেখে ভারত আসছেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী

চীনকে মাথায় রেখে ভারত আসছেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী

হেরাতে তালেবান ঠেকানোর লড়াইয়ের নেতৃত্বে সাবেক মুজাহিদিন কমান্ডার

হেরাতে তালেবান ঠেকানোর লড়াইয়ের নেতৃত্বে সাবেক মুজাহিদিন কমান্ডার

© 2021 Bangla Tribune