X
শুক্রবার, ০৬ আগস্ট ২০২১, ২১ শ্রাবণ ১৪২৮

সেকশনস

কোষ্ঠকাঠিন্যমুক্ত ঈদ কাটাতে যা করবেন

আপডেট : ১৭ জুলাই ২০২১, ২০:১১

কোরবানির ঈদে একটু বেশিই মাংস খাওয়া হয় সবার। তাই অনেকেই ভোগেন সাময়িক কোষ্ঠকাঠিন্যের সমস্যায়। এ নিয়ে রইলো বিস্তারিত আলোচনা।

 

কোষ্ঠকাঠিন্য দুই ধরনের

১। অ্যাকিউট কনস্টিপেশন বা সাময়িক কোষ্ঠকাঠিন্য

২। ক্রনিক কনস্টিপেশন বা দীর্ঘস্থায়ী কোষ্ঠকাঠিন্য

 

সাময়িক কোষ্ঠকাঠিন্য

যদি অল্প কয়েকদিনের জন্য কোষ্ঠকাঠিন্যের উপসর্গ দেখা দেয়, অথবা কোষ্ঠকাঠিন্যের সময় যদি তিন মাসের কম হয়, তবে তা সাময়িক। যেমন তিনবেলা মাংস, মাছ, ডিম খাচ্ছেন। কিন্তু নিয়মিত মলত্যাগ হচ্ছে না। হলেও তা বেশ শক্ত। এ সমস্যার মেয়াদ তিন মাসের কম হলে তা সাময়িক কোষ্ঠকাঠিন্য। আবার সারা বছর সুস্থ, শুধু কোরবানির ঈদের কয়েকদিন পর দেখা গেলো পেট ফুলে যাচ্ছে, পেটে ব্যথা হচ্ছে ও মলত্যাগ ঠিকঠাক হচ্ছে না- তবে এই অবস্থাকে অ্যাকিউট কনস্টিপেশন বা সাময়িক কোষ্ঠকাঠিন্য বলা যায়।

 

সাময়িক কোষ্ঠকাঠিন্যের উপসর্গ

  • মলত্যাগের সাধারণ রুটিন বদলে যাবে।
  • শক্ত মলত্যাগ হবে।
  • মলত্যাগের সময় মলাশয়ে ব্যথা হবে।
  • মলত্যাগ অল্প অল্প হতে পারে।
  • পেট ফুলে যেতে পারে।
  • পেটে ব্যথা হতে পারে।
  • কিছুক্ষন পরপর বায়ু ত্যাগ হতে পারে।
  • খাওয়ার রুচি কমে যাবে।
  • দুশ্চিন্তা ও অবসাদগ্রস্ত মনে হতে পারে।

 

জটিলতা

  • পায়ুপথের আশেপাশের রক্তনালীগুলোতে প্রদাহ হতে পারে এবং মলত্যাগ করার সময় পায়ুপথে রক্ত যেতে পারে। এমনকি পায়ুপথে চুলকানিও দেখা দিতে পারে।
  • এনাল ফিস্টুলা দেখা দিতে পারে।
  • ইউরিনারি ইনকনসিস্টেন্স বা প্রস্রাবে অনিয়ম দেখা দিতে পারে।

 

কোষ্ঠকাঠিন্য যেসব কারণে হয়

  • সাময়িক কোষ্ঠকাঠিন্য মূলত অস্বাভাবিক লাইফস্টাইলের কারণেই হয়। যেমন-
  • আঁশযুক্ত খাবার বা শাক-সবজি কম খাওয়া।
  • নিয়মিত মলত্যাগ না করা, বেগ আটকে রেখে কাজকর্ম চালিয়ে যাওয়া।
  • নিয়মিত খাবার না খাওয়া।
  • পরিমিত মাত্রায় না ঘুমানো, চিন্তিত বা অবসাদগ্রস্ত থাকা।
  • আইবিএস এর সমস্যা থাকা।
  • অত্যাধিক পরিমাণ প্রোটিন খাওয়া।
  • আবার কিছু ওষুধের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াতেও এটি হতে পারে। যেমন- ক্যালসিয়াম চ্যানেল ব্লকার, অ্যান্টি স্পাজমোডিক, অ্যান্টি ডায়েরিয়াল ড্রাগস, আয়রন ট্যাবলেট, অ্যালুমিনিয়াম যুক্ত অ্যান্টাসিড ইত্যাদি।

 

দিনে কতটুকু প্রোটিন?

  • ইনস্টিটিউট অব মেডিসিন ইউএসএ-এর তথ্য অনুযায়ী একজন প্রাপ্তবয়স্ক মানুষের দিনে প্রোটিন দরকার ১ গ্রাম/কেজি বডি ওয়েট। অর্থাৎ একজন মানুষের ওজন যদি ৬০ কেজি হয়, আর তিনি যদি ভারী কোনও কাজ না করেন, তা হলে দিনে প্রোটিন দরকার ৬০ গ্রাম। ভারী কাজ বা শরীরচর্চা করলে আরও ৩০ গ্রাম বাড়নো যায়।
  • তবে একজন সুস্থ মানুষ কোনও পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া ছাড়া দিনে সর্বোচ্চ ২ গ্রাম/কেজি প্রোটিন গ্রহণ করতে পারবেন। সেই হিসাবে ৬০ কেজি ওজনের কেউ দিনে সর্বোচ্চ ১২০ গ্রাম প্রোটিন খেতে পারবেন। এর বেশি খেলেই হজমে গোলযোগ বা কোষ্ঠকাঠিন্য দেখা দিতে পারে।
  • আমেরিকার ইন্সটিটিউট অব মেডিসিনের তথ্য অনুযায়ী, ২৬ গ্রাম প্রোটিন পেতে ১০০ গ্রাম রান্না করা মাংসের প্রয়োজন। অর্থাৎ প্রতি ১ গ্রাম প্রোটিনের জন্য ৪ গ্রাম মাংস দরকার। সুতরাং কেউ যদি মাংস থেকেই সমস্ত প্রোটিন নিতে চায় তবে দিনে ২৪০ গ্রাম মাংসই যথেষ্ট।
  • সেই হিসেবে তার দিনে মাংস গ্রহণের সীমা হলো সর্বোচ্চ ৪৮০ গ্রাম। যা তিন বেলায় ভাগ করে গ্রহণ করতে হবে। এরচেয়ে বেশি হলেই ম্যাল-অ্যাবসরবশন সিনড্রোম তথা কোষ্ঠকাঠিন্য দেখা দেবে। হজমশক্তি বিবেচনায় অনেকের আবার ২০০ গ্রামের বেশি মাংস খেলেই দেখা দেবে এ সমস্যা।

 

কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করতে যা করবেন

লাইফস্টাইল পরিবর্তন করার মাধ্যমে কোষ্ঠকাঠিন্য প্রতিরোধ করা যায়। যেমন-

  • প্রতিদিন পর্যাপ্ত শাকসবজি খেতে হবে।
  • পর্যাপ্ত পানি পান করতে হবে।
  • ফাস্টফুড জাতীয় খাবার বাদ দিতে হবে।
  • অতিরিক্ত তৈলাক্ত খাবার পরিহার করতে হবে।
  • অত্যাধিক মাংস খাওয়া যাবে না। দিনে ১০০-১৫০ গ্রামের বেশি না খাওয়াই উত্তম।
  • নিয়মিত ইসবগুলের শরবত খেতে হবে।
  • সম্ভব হলে প্রতিদিন একটি আপেল খেতে হবে। আপেলে পর্যাপ্ত ফাইবার রয়েছে।
  • নিয়মিত ব্যায়াম করতে হবে এবং পর্যাপ্ত ঘুমাতে হবে।
  • যেদিন বেশি মাংস খাওয়া হবে, সেদিন সঙ্গে শাক-সবজি, গাজর, শসা এসবও মেনুতে রাখবেন।
  • সকাল, দুপুর ও রাতে এক গ্লাস পানিতে দুই টেবিল চামচ ইসবগুলের ভূষির শরবত খেতে পারেন। এতে কোলনের মধ্যে কিছু পরিমাণ পানি রিটেনশন হবে এবং মল তরল থাকবে। যারা নিয়মিত ইসবগুলের শরবত খায়, তাদের কোষ্ঠকাঠিন্যের প্রবণতা ৯০ শতাংশ কমে যায়।

 

লেখক: চিকিৎসক, ঢাকা কমিউনিটি মেডিকেল কলেজ। সিইও,সেন্টার ফর ক্লিনিক্যাল এক্সিলেন্স এন্ড রিসার্চ, বাংলাদেশ

/এফএ/

সম্পর্কিত

রেসিপি : আলুর পাকোড়া

রেসিপি : আলুর পাকোড়া

ঘি কিন্তু ওজনও কমায়!

ঘি কিন্তু ওজনও কমায়!

শিশুর চোখে ঘুম আনবে যে খাবার

শিশুর চোখে ঘুম আনবে যে খাবার

পরীমনিকে যেভাবে প্রীতিলতা বানালেন বিপ্লব সাহা

পরীমনিকে যেভাবে প্রীতিলতা বানালেন বিপ্লব সাহা

রেসিপি : আলুর পাকোড়া

আপডেট : ০৫ আগস্ট ২০২১, ১৬:২৭

রোজ রোজ এক খাবার টিফিনে নিতে শিশুদের ভালো লাগে না। আবার হুট করে অতিথি চলে এলেও বিপদে পড়েন অনেকে। মুখরোচক কিছু না থাকলেই নয়। সবসময় কিচেনে থাকে এমন কিছু উপকরণ দিয়েই বানিয়ে ফেলা যায় আলুর পাকোড়া।

 

উপকরণ

  • ৩ টেবিল চামচ ময়দা
  • ৪ কাপ খোসা ছাড়ানো আলু কুচি (আলু ভাজার জন্য যেভাবে কাটা হয়)
  • ১টা ডিম
  • ১টা পেঁয়াজ কুচি
  • ১টা কাঁচা মরিচ
  • ১/২ চা চামচ গুঁড়া মরিচ
  • স্বাদমতো লবণ
  • পরিমাণমতো তেল
  • জিরা, ধনিয়া পাতা, হলুদ গুঁড়া, গোলমরিচ বা কারি পাউডারও যোগ করা যায় চাইলে।

 

প্রস্তুত প্রণালী

  • প্রথমেই আলুর কুচিগুলো ভালো করে ধুয়ে পাঁচ মিনিট পানিতে ভিজিয়ে রাখুন। এরপর পানি পুরোপুরি ছেঁকে নিন।
  • একটা বড় বোলে আলুর মধ্যে পেঁয়াজ কুচি, কাঁচামরিচ কুচি, গুঁড়া মরিচ, লবণ, ময়দা মেখে নিন।
  • ব্যাটার তথা মিশ্রণটির মধ্যে ডিম ভালোমতো মেখে নিন।
  • জিরা, ধনিয়া পাতা, হলুদ গুঁড়া, গোলমরিচ বা কারি পাউডার দিন।
  • সব মিশিয়ে পরিমাণমতো পানি দিয়ে গুলে নিন।
  • এবার প্যানে এক চামচ তেল (কিংবা স্বাদ বাড়াতে চাইলে মাখন দিন) ঢেলে চারপাশে ভালো করে মাখিয়ে নিন।
  • তেল গরম হলে এক চামচ করে মিশ্রণ কড়াইতে ছাড়ুন। কম আঁচে ভাজতে হবে। না হয় পুড়ে যাবে।
  • একপাশ বাদামি হয়ে এলে উল্টে দিন। এভাবে এপিঠ-ওপিঠ ভেজে নামিয়ে ফেলুন।
  • পরিবেশন করুন সস বা মেয়োনিজ দিয়ে।
/এফএ/

সম্পর্কিত

ঘি কিন্তু ওজনও কমায়!

ঘি কিন্তু ওজনও কমায়!

শিশুর চোখে ঘুম আনবে যে খাবার

শিশুর চোখে ঘুম আনবে যে খাবার

পরীমনিকে যেভাবে প্রীতিলতা বানালেন বিপ্লব সাহা

পরীমনিকে যেভাবে প্রীতিলতা বানালেন বিপ্লব সাহা

১৫ মিনিট হেঁটেই দেখুন

১৫ মিনিট হেঁটেই দেখুন

ঘি কিন্তু ওজনও কমায়!

আপডেট : ০৪ আগস্ট ২০২১, ২০:০৪

ঘিতে থাকে ফ্যাট, যার অর্ধেকটাই স্যাচুরেটেড। তারওপর আছে কোলেস্টেরলও। এরপরও ঘি ওজন কমাতে পারে, এমনটা বিশ্বাস করা কঠিন। তবে সেন্টার ফর ডিজিজ কন্ট্রোল-এর বিজ্ঞানীরা বললেন সম্ভব।

তারা জানালেন, সারা দিনে যত ক্যালরি খাওয়া উচিত তার ২০-৩০ শতাংশ আসে কিছু প্রয়োজন চর্বি থেকে। এর মধ্যে ১০ শতাংশের কম স্যাচুরেটেড ফ্যাট থেকে এলে ক্ষতি নেই, বরং উপকার আছে।

  • ঘিতে থাকা শর্ট চেইন ফ্যাটি অ্যাসিডস (এসসিএফএ) হজমের গতি বাড়ায়। আর হজমের গতি বাড়লে ওজনও কমবে দ্রুত।
  • ঘিতে থাকা ওমেগা-৩ এবং ওমেগা-৬ ফ্যাটি অ্যাসিড। যা শরীরের চর্বির মাত্রা কমায় এবং দেহের আকারে পরিবর্তনে আনতে সাহায্য করে।
  • ঘিতে থাকা অ্যামাইনো অ্যাসিডের কারণে চর্বির কোষগুলো সংকুচিত হয়ে যায়।
  • ঘি ভিটামিন ডি’কে আরও ভালোভাবে কাজে লাগায়। যা থাইরয়েডকে ভালো রেখে ওজন কমায়।
  • ঘিয়ের স্মোক পয়েন্ট ৪৮৫ ডিগ্রি ফারেনহাইট। অর্থাৎ উচ্চতাপে রান্না হলেও এটি ক্ষতিকর রাসায়নিক তৈরি করে না।
  • তবে উপকার যতই হোক, পরিমিত মাত্রার বাইরে গেলেই কিন্তু ঘটবে এর উল্টোটা।

 

/এফএ/

সম্পর্কিত

রেসিপি : আলুর পাকোড়া

রেসিপি : আলুর পাকোড়া

শিশুর চোখে ঘুম আনবে যে খাবার

শিশুর চোখে ঘুম আনবে যে খাবার

পরীমনিকে যেভাবে প্রীতিলতা বানালেন বিপ্লব সাহা

পরীমনিকে যেভাবে প্রীতিলতা বানালেন বিপ্লব সাহা

১৫ মিনিট হেঁটেই দেখুন

১৫ মিনিট হেঁটেই দেখুন

শিশুর চোখে ঘুম আনবে যে খাবার

আপডেট : ০৪ আগস্ট ২০২১, ১৬:৪১

রাত বাড়তে থাকলেই শিশুর ঘুম নিয়ে অনেক বাবা-মা পড়ে যান আতঙ্কে। শিশুর সুস্বাস্থ্য বজায় রাখতে পুষ্টিকর খাবারের পাশাপাশি পর্যাপ্ত ঘুমও জরুরি। স্বাস্থ্যকর, ও হজমে সহজ এমন খাবারই শিশুকে ঘুমাতে সাহায্য করবে।

 

ডিম

ডিম শুধু উচ্চমানের প্রোটিনের উৎসই নয়। ডিমে আছে ট্রিপটোফ্যান। যা এক ধরনের অ্যামাইনো অ্যাসিড। ডিমের এ উপাদানটি সেরোটোনিন হরমোন তৈরিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে। আর এটিই শিশুর ঘুমের সময়সীমা নিয়ন্ত্রণে সহায়তা করে। 

 

দুধ

রাতে শোয়ানোর আগে শিশুকে একগ্লাস হালকা গরম দুধ দিন। ঘুম আনতে এটিও বেশ কার্যকর। দুধেও থাকে ট্রিপটোফ্যান।

 

খেজুর

শিশু যদি মিষ্টি কিছু খেতে ভালোবাসে, তবে তাকে ঘুমানোর আগে খেজুর খাওয়ার অভ্যাস করাতে পারেন। খেজুরের ভিটামিন বি-৬ ও পটাশিয়াম ঘুম আনে ভালো।

 

ছোলা

ছোলাও অ্যামাইনো অ্যাসিড ট্রিপটোফ্যান সমৃদ্ধ। এতেও প্রাকৃতিক মেলোটোনিন থাকে। ছোলায় থাকা ভিটামিন বি৬-ও শিশুর ঘুমের জন্য সহায়ক।

 

আখরোট

আখরোট মেলোটোনিন হরমোনের একটি দুর্দান্ত উৎস, এ ছাড়াও এতে স্বাস্থ্যকর ফ্যাট, ফাইবার এবং উদ্ভিজ্জ প্রোটিন থাকে যা ঘুম আনবেই।

 

কলা

কলা ট্রিপটোফ্যান এবং ম্যাগনেশিয়ামের দুর্দান্ত উৎস। ম্যাগনেশিয়ামের ঘাটতির কারণে ঘুমের সমস্যা দেখা দিতে পারে। শিশু কলা খেতে পছন্দ না করলে তাকে ম্যাগনেশিয়ামের অন্যান্য উৎস যেমন- বিভিন্ন ধরনের বাদাম, পালং শাক এসব দিতে পারেন।

/এফএ/

সম্পর্কিত

রেসিপি : আলুর পাকোড়া

রেসিপি : আলুর পাকোড়া

ঘি কিন্তু ওজনও কমায়!

ঘি কিন্তু ওজনও কমায়!

পরীমনিকে যেভাবে প্রীতিলতা বানালেন বিপ্লব সাহা

পরীমনিকে যেভাবে প্রীতিলতা বানালেন বিপ্লব সাহা

১৫ মিনিট হেঁটেই দেখুন

১৫ মিনিট হেঁটেই দেখুন

পরীমনিকে যেভাবে প্রীতিলতা বানালেন বিপ্লব সাহা

আপডেট : ০৩ আগস্ট ২০২১, ১৪:৫৮

অগ্নিকন‍্যা প্রীতিলতাকে নিয়ে তৈরি হয়েছে বিভিন্ন চলচ্চিত্র। ১৯৮০ সালে কলকাতার নির্মল চৌধুরী প্রথম বানালেন ‘চট্টগ্রাম অস্ত্রাগার লুণ্ঠন’। ওতে প্রীতিলতা হয়েছিলেন বনানী চৌধুরী। ২০১০ সালে বলিউডের ‘খেলে হাম জি জাঁ সে’ চলচ্চিত্রে প্রীতিলতা রূপে দেখা যায় বিশাখা সিংকে। বাংলাদেশে এ প্রথম এ বিপ্লবীকে নিয়ে তৈরি হচ্ছে চলচ্চিত্র ‘প্রীতিলতা’। গোলাম রাব্বানীর চিত্রনাট্যে সিনেমাটির পরিচালনা করছেন তরুণ নির্মাতা রাশিদ পলাশ। আর এ ছবিতে গ্ল্যামারগার্ল পরীমনিকে প্রীতিলতা রূপে ফুটিয়ে তুলে প্রশংসার জোয়ারে ভাসছেন বিশ্বরঙ-এর প্রতিষ্ঠাতা জনপ্রিয় ফ‍্যাশন ডিজাইনার ও কোরিওগ্রাফার বিপ্লব সাহা।

গত ১৯ জুলাই প্রীতিলতার লুক সেট ও লুক টেস্টের আয়োজন করেছিল সিনেমাটির নির্মাতা প্রতিষ্ঠান ইউফরসি। ক‍্যারেকটার প্রেজেন্টেশন, আর্ট ডিরেকশন, স্টাইলিং ও কোরিওগ্রাফিতে ছিলেন বিপ্লব সাহা। ক‍্যানভাস স্টুডিওতে ফটোশুট করেন ফটোগ্রাফার অনিক চন্দ।

প্রীতিলতা ছবির পোস্টার

পরীমনি বলেন, ‘দাদার (বিপ্লব সাহা) হাতে জাদু আছে। নিজেকে দেখে নিজেই চিনতে পারছিলাম না। শুটের আগে কিছুটা টেনশনে ছিলাম। এখন মনে হচ্ছে আমি এক বিপ্লবীকে নিজের মধ্যে ধারণ করে ঘুরে বেড়াচ্ছি।’

দেশনন্দিত ফ‍্যানশ ডিজাইনার ও কোরিওগ্রাফার বিপ্লব সাহার মুখেই শোনা যাক পরীমনিকে প্রীতিলতা বানানোর গল্পটা-

‘যতটুকু মনে পড়ে ২০১৫ সালের কথা। সাংবাদিক রঞ্জু হঠাৎ ফোন করে প্রীতিলতা ছায়াছবিতে কস্টিউম নিয়ে কাজ করার কথা বললো আমাকে। তখন ব্যক্তিগত কিছু ঝামেলা ও ব্যস্ততার কারণে অপারগতা জানাই। এ পাঁচ বছরে এ নিয়ে আর কিছুই জানতাম না। হঠাৎ আবার রঞ্জু ফোন করে প্রীতিলতা মুভির পোস্টার করার কথা বলে। দুই বছরে করোনার কারণে কোনও কাজ ভালোমতো করা হয়ে ওঠেনি। সৃষ্টিশীল যেকোনও কাজে মানসিক প্রশান্তিটা জরুরি। কিন্তু প্রীতিলতা টিম নাছোড়বান্দা। কাজটা করতেই হবে। প্রীতিলতা এত সিরিয়াস একটা বিষয় যে, কোনোভাবেই নতুন কাজের চাপ নিতে চাচ্ছিলাম না। একদিকে প্রীতিলতা, অন্যদিকে পরীমনি। দুজনের কাউকেই সামনাসামনি দেখিনি। এদিকে ঈদের শেষ কয়টা দিন বিশ্বরঙে অনেক ব্যস্ততা থাকে। গল্পটাও আবার প্রায় এক শ’ বছর আগের। সাজ পোশাক ও এক্সপ্রেশন নিয়ে ভাবার আছে অনেক কিছু।

শেষপর্যন্ত  ফটোশুটের তারিখ ঠিক হলো। রেফারেন্স ছবি দিয়ে প্রীতিলতা টিম বললো- ছবির মতো হুবহু চাই। মাত্র দু’দিনে প্রায় শত বছর আগের শাড়ি-ব্লাউজ, গয়না কোথা থেকে জোগাড় করবো! অনেক কষ্টে সব সংগ্রহ করা হলো।’

বিপ্লব সাহা আরও বললেন, ‘আমি এমনিতে দেশীয় ইতিহাস, ঐতিহ্য, সংস্কৃতি নিয়ে কাজ করতে পছন্দ করি। শেষ ২৫ বছরে অনেক বিশিষ্ট ব্যক্তির ক্যারেকটার প্রেজেন্টেশনের অনেক কাজ করেছি। এ জন্য এ কাজটা কিছুটা সহজ হয়েছে। কিন্তু প্রীতিলতার মতো সাহসী শক্তিমান বলিষ্ঠ মুখমণ্ডলকে বর্তমান চলচ্চিত্রের গ্ল্যামার-মুখ পরীমনির মধ্যে থেকে বের করে আনতে হবে। এ যেন আরেক অগ্নিপরীক্ষা। এমনিতে নতুন প্রজন্মের কাউকে নিয়ে কাজ করতে কেন যেন খুব একটা আরাম বোধ করি না। কিন্তু মিরপুর পারসোনাতে পৌঁছার পর পর্যন্ত নতুন এক পরীমনিকে আবিষ্কার করেছি। একজন পরিচালক হয়তো এমনই শিল্পী খোঁজেন সবসময়। সকল শঙ্কা দূর হয়ে গেল।’

পরীমনিকে প্রীতিলতা বানানোর কৌশলের খুঁটিনাটি নিয়েও ধারণা দিয়েছেন বিপ্লব সাহা-

‘এ কাজে প্রথমেই চোখের ভ্রূ নিয়ে কাজ করতে হয়েছে। এরপর চোখজোড়াকে আরও ডার্ক করতে হয়েছে। চোখকে যেন আরেকটু বড় দেখায় সে কাজটাও করতে হয়েছে। প্রীতিলতার সঙ্গে মিল রেখে পরীমনির নিচের ঠোঁটটাকেও আরও ভারী করতে হয়েছে। আবার পরীমনির নাক একটু শার্প, সেটা নিয়েও কাজ করতে হয়েছে। মুখে ফোলা ফোলা ভাবটা আনতে হয়েছে।

চোখজোড়া করতে হয়েছে আরও ডার্ক

পারসোনা পরিবারের সহযোগিতা ছাড়া একার পক্ষে কাজটি করা সম্ভব ছিল না। প্রীতিলতা টিমের প্রত্যেকের আন্তরিকতাও সুন্দর একটা স্মৃতি রয়ে গেল এই পোস্টারের সঙ্গে।’

 

/এফএএন/এফএ/

সম্পর্কিত

রেসিপি : আলুর পাকোড়া

রেসিপি : আলুর পাকোড়া

ঘি কিন্তু ওজনও কমায়!

ঘি কিন্তু ওজনও কমায়!

শিশুর চোখে ঘুম আনবে যে খাবার

শিশুর চোখে ঘুম আনবে যে খাবার

১৫ মিনিট হেঁটেই দেখুন

১৫ মিনিট হেঁটেই দেখুন

১৫ মিনিট হেঁটেই দেখুন

আপডেট : ০৩ আগস্ট ২০২১, ১১:২০

শারীরিক শক্তিবৃদ্ধি থেকে শুরু করে মন ভালো রাখার কাজও করতে পারে খানিক্ষণ হাঁটাহাঁটি। আর যারা হাঁটার একদমই সময় পান না, তারা দিনের একটা সময় বের করে ১৫ মিনিট হাঁটলেই পাবেন দারুণ কিছু উপকার।

 

ফুরফুরে মন

বাইরে ১৫ মিনিট হাঁটলেই মনের ভেতর লুকিয়ে থাকা অবসাদ কেটে যাবে। অকারণের বিষাদ কেটে গেলেই দেখবেন একটা কিছু করার আগ্রহ আবার জাঁকিয়ে বসবে। এমনটা জানিয়েছে আমেরিকান জার্নাল অব প্রিভেনশন মেডিসিন।

 

অ্যাজমায় সমস্যা নেই

ব্যায়ামের সঙ্গে যাদের অ্যাজমার সম্পর্ক আছে, তারাও ১৫ মিনিট হেঁটে নিতে পারেন। ধীরেসুস্থে ১৫ মিনিট হাঁটা বা মিনিট দশেক সাঁতার কাটলে সেটা আপনার শ্বাসপ্রশ্বাসে বাধা হয়ে দাঁড়াবে না।

 

বিপাকক্রিয়া

নাইজেরিয়ান মেডিক্যাল জার্নালের প্রকাশিত এক গবেষণা প্রতিবেদনে দেখা গেছে প্রতিদিন একনাগাড়ে ১৫ মিনিট হাঁটলেই হজমের সমস্যা প্রায় ৩০ শতাংশ দূর হয়।

 

ভালো ঘুম

দিনের একটা সময় খানিকটা দ্রুতগতিতে ১৫-২০ মিনিট হেঁটে দেখুন। রাত হলে আর ফোনের পর্দায় আর চোখ দুটো রাখতে ইচ্ছে করবে না। ঘুমে জড়িয়ে আসবেই।

 

মগজের উপকার

মাটিতে পায়ের পাতার চাপে গোটা শরীরে ছড়িয়ে পড়ে স্পন্দন। যা কিনা ধমনীতেও প্রভাব ফেলে। রক্ত সঞ্চালন বাড়ে মস্তিষ্কে। এতে করে পরে বয়সের সঙ্গে সঙ্গে ভুলে যাওয়া কিংবা কগনিটিভ রোগের হাত থেকে বেঁচে যাবেন।

 

পেইনকিলার

পা ও কোমর ব্যথার মতো কিছু ব্যথা আছে শরীরে সারাক্ষণ লেগেই থাকে। দিনে নিয়ম করে কিছুক্ষণ হাঁটাহাঁটি করলে পরে আর পেইনকিলার খেতে হবে না। বিশেষ করে লোয়ার ব্যাক পেইনের রোগীদের জন্য হাঁটার বিকল্প নেই।

 

চোখের জন্য

রেটিনাল ডিজেনারেশনের ঝুঁকি কমায় হাঁটাহাঁটি। যারা নিয়মিত হাঁটেন, দেখা যায় বুড়ো হয়ে গেলেও তাদের চোখে চশমা পরতে হচ্ছে না।

 

/এফএ/

সম্পর্কিত

রেসিপি : আলুর পাকোড়া

রেসিপি : আলুর পাকোড়া

ঘি কিন্তু ওজনও কমায়!

ঘি কিন্তু ওজনও কমায়!

শিশুর চোখে ঘুম আনবে যে খাবার

শিশুর চোখে ঘুম আনবে যে খাবার

পরীমনিকে যেভাবে প্রীতিলতা বানালেন বিপ্লব সাহা

পরীমনিকে যেভাবে প্রীতিলতা বানালেন বিপ্লব সাহা

সর্বশেষ

ত্রিপুরার পর আসাম-কেরালাকে টার্গেট তৃণমূলের

ত্রিপুরার পর আসাম-কেরালাকে টার্গেট তৃণমূলের

বাংলাদেশের রাব্বি পেলেন রূপা

বাংলাদেশের রাব্বি পেলেন রূপা

গাজীপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি মাসুদ সম্পাদক রাহিম

গাজীপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি মাসুদ সম্পাদক রাহিম

সিটি করপোরেশন এলাকায় ৭-৯ আগস্ট ভ্যাকসিন ক্যাম্পেইন চালানো যাবে

সিটি করপোরেশন এলাকায় ৭-৯ আগস্ট ভ্যাকসিন ক্যাম্পেইন চালানো যাবে

কওমি মাদ্রাসা খোলার ঘোষণা সত্য নয়: বেফাক

কওমি মাদ্রাসা খোলার ঘোষণা সত্য নয়: বেফাক

রবীন্দ্রনাথের পারস্য মুগ্ধতা

রবীন্দ্রনাথের পারস্য মুগ্ধতা

বার্সেলোনার ঘোষণা, মেসি থাকছেন না

বার্সেলোনার ঘোষণা, মেসি থাকছেন না

পরীমণির সঙ্গে আমার পবিত্র সম্পর্ক: চয়নিকা চৌধুরী

পরীমণির সঙ্গে আমার পবিত্র সম্পর্ক: চয়নিকা চৌধুরী

মরদেহ সংরক্ষণে দুর্ভোগে ঢামেক

মরদেহ সংরক্ষণে দুর্ভোগে ঢামেক

রবীন্দ্র প্রয়াণ দিবসে ‘পয়লা নম্বর’

রবীন্দ্র প্রয়াণ দিবসে ‘পয়লা নম্বর’

যাত্রাবাড়ীতে ৭০ কেজি গাঁজাসহ দুজন গ্রেফতার

যাত্রাবাড়ীতে ৭০ কেজি গাঁজাসহ দুজন গ্রেফতার

নাটকে প্রতিবন্ধীদের নিয়ে ভিত্তিহীন মন্তব্য: মানবাধিকার কমিশনের ক্ষোভ

নাটকে প্রতিবন্ধীদের নিয়ে ভিত্তিহীন মন্তব্য: মানবাধিকার কমিশনের ক্ষোভ

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

রেসিপি : আলুর পাকোড়া

রেসিপি : আলুর পাকোড়া

ঘি কিন্তু ওজনও কমায়!

ঘি কিন্তু ওজনও কমায়!

শিশুর চোখে ঘুম আনবে যে খাবার

শিশুর চোখে ঘুম আনবে যে খাবার

পরীমনিকে যেভাবে প্রীতিলতা বানালেন বিপ্লব সাহা

পরীমনিকে যেভাবে প্রীতিলতা বানালেন বিপ্লব সাহা

১৫ মিনিট হেঁটেই দেখুন

১৫ মিনিট হেঁটেই দেখুন

শিশুর মুখের স্বাস্থ্যে বুকের দুধ

মাতৃদুগ্ধ সপ্তাহশিশুর মুখের স্বাস্থ্যে বুকের দুধ

ত্বকের যত্নে পুদিনার গুণগুলো জানতেন কি?

ত্বকের যত্নে পুদিনার গুণগুলো জানতেন কি?

রেসিপি : আরব দেশের খাবসা

রেসিপি : আরব দেশের খাবসা

বন্ধু আছে কতপ্রকার!

বন্ধু আছে কতপ্রকার!

ঘরে বসেই দেদার আড্ডা

আজ বন্ধু দিবসঘরে বসেই দেদার আড্ডা

© 2021 Bangla Tribune