X
সোমবার, ২৫ অক্টোবর ২০২১, ৯ কার্তিক ১৪২৮

সেকশনস

মেট্রোরেলের আরও ১০ বগি মোংলা বন্দরে

আপডেট : ২০ জুলাই ২০২১, ১৭:৩০

মেট্রোরেলের আরও একটি চালান বাগেরহাটের মোংলা বন্দরে এসে পৌঁছেছে। ১০টি বগি ও দুইটি ইঞ্জিন নিয়ে মঙ্গলবার (২০ জুলাই) বিকাল ৪টায় বন্দরের ৭ নম্বর জেটিতে নোঙর করে পানামা পতাকাবাহী জাহাজ এমভি হরিজন-৯ জাহাজ। 

গত ২ জুলাই জাপানের কোবে বন্দর থেকে ছেড়ে আসা এই জাহাজে মেট্রোরেলের বগি ছাড়াও ৪৩টি প্যাকেজের সরাঞ্জমও এসেছে। মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের হারবার মাস্টার কমান্ডার শেখ ফখর উদ্দিন এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ঈদের ছুটি হওয়ায় মেট্রোরেলের জন্য আনা এসব পণ্য আগামী বৃহস্পতিবার খালাস করা হবে।

মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান রিয়ার অ্যাডমিরাল মোহাম্মদ মুসা বলেন, দেশে আমদানি হওয়া মেট্রোরেলের এসব বগি মোংলা বন্দর দিয়ে খালাস হওয়ার ক্ষেত্রে বন্দরের সক্ষমতার প্রমাণ করেছে।

তিনি আরও বলেন, এর আগে রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের বিভিন্ন মালামাল ও যন্ত্রাংশ মোংলা বন্দর দিয়ে আসে। ২০১৯-২০ সালে বন্দরের আউটার বার ড্রেজিং সম্পন্ন হয়েছে। বর্তমান বন্দরে ইনার বারের ড্রেজিং চলছে। নাব্যতা দূর হওয়াতে এখন বড় বড় জাহাজ আসতে পারছে। সবমিলিয়ে এটা একটা প্রতিফলন যে মোংলা বন্দর একটি গতিশীল বন্দর হিসেবে রূপান্তরিত হয়েছে এবং বন্দরের সক্ষমতা বৃদ্ধি পেয়েছে।

মঙ্গলবার মেট্রোরেলের তৃতীয় চালান এসে পৌঁছানোর আগে গত ৩১ মার্চ ছয়টি বগি নিয়ে ‘এস পি এন ব্যাংকক’ ও ৯ মে ‘ওশান গ্রেস’ জাহাজে করে আসে আরও ছয়টি বগি। এভাবে ২০২২ সালের মধ্যে ২২টি জাহাজে করে আরও ১২০টি মেট্রোরেলের বগি আসবে বলেও জানান বন্দরের চেয়ারম্যান।

বন্দর সূত্র জানায়, রাজধানীতে চলমান মেট্রোরেলের প্রকল্প বাস্তবায়িত হচ্ছে। মেট্রোরেলের লাইন-৬ কন্ট্রাক প্যাকেজ-৮ এর আওতায় ২৪টি যাত্রীবাহী রেল কোচ আমদানি করা হবে। প্রতিটি কোচে ছয়টি বগি থাকবে। 

/এসএইচ/

সম্পর্কিত

দুই মোটরসাইকেলের সংঘর্ষে প্রাণ গেলো ২ যুবকের

দুই মোটরসাইকেলের সংঘর্ষে প্রাণ গেলো ২ যুবকের

নড়াইলে অস্ত্র মামলায় একজনের যাবজ্জীবন

নড়াইলে অস্ত্র মামলায় একজনের যাবজ্জীবন

রূপসার শিয়ালীর মন্দিরে হামলা মামলায় ২৩ আসামি জেলে

রূপসার শিয়ালীর মন্দিরে হামলা মামলায় ২৩ আসামি জেলে

 র‌্যাব পরিচয়ে ব্যবসায়ীর ৮ লাখ টাকা ছিনতাই করে ধরা

 র‌্যাব পরিচয়ে ব্যবসায়ীর ৮ লাখ টাকা ছিনতাই করে ধরা

সিনহা হত্যা মামলা: এসআই আমিনুলসহ ৮ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ

আপডেট : ২৫ অক্টোবর ২০২১, ১৯:২৮

অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খান হত্যা মামলার ষষ্ঠ দফায় পুলিশের এসআই আমিনুল ইসলামসহ আট জনের সাক্ষ্যগ্রহণ সম্পন্ন হয়েছে। সোমবার (২৫ অক্টোবর) সকাল সাড়ে ১০টায় কক্সবাজার জেলা ও দায়রা জজ মোহাম্মদ ইসমাইলের আদালতে এই মামলার সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু হয়ে বিকাল সাড়ে ৫টায় শেষ হয়। এ নিয়ে এই মামলায় মোট ৪৩ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ শেষ হয়েছে।

সোমবার সাক্ষ্য দেওয়া আট জনের মধ্যে রয়েছেন– কনস্টেবল পলাশ ভট্টাচার্য, পুলিশ সদস্য আবু সালাম, হিরো মিয়া ওসালা মারমা, নবী হোসেন, আবুল কালাম ও শহীদ উদ্দিন।

এর আগে সকাল ১০টায় ওসি প্রদীপসহ এই মামলার ১৫ আসামিকে কড়া নিরাপত্তা ব্যবস্থায় আদালতে নিয়ে আসা হয়।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী ও কক্সবাজার জেলা ও দায়রা জজ আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) ফরিদুল আলম জানান, সোমবার মেজর (অব.) সিনহা হত্যা মামলার ষষ্ঠ দফায় সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু হয়েছে। সিনহার মরদেহের সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরি করা পুলিশের এসআই আমিনুল ইসলামের সাক্ষ্যগ্রহণের মধ্য দিয়ে মামলার কার্যক্রম শুরু হয়। এ দিন এসআই আমিনুল ইসলাম ছাড়াও মোট ১৯ জন সাক্ষীকে আদালতে উপস্থাপন করা হয়। 

এস আই আমিনুল ইসলাম আদালতে জবানবন্দিতে জানান, ২০২০ সালের ৩১ জুলাই রাতে ঘটনার দিন তিনি কক্সবাজার সদর থানায় কর্মরত ছিলেন। ওইদিন রাত আনুমানিক সাড়ে ১২টার দিকে তিনি কক্সবাজার সদর হাসপাতালে মর্গে ডিউটিতে যান। সে সময় তার সঙ্গে ছিলেন কনস্টেবল পলাশ ও শুভ। তিনি কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালের ডোম মনু ও ধলার সহযোগিতায় মেজর সিনহার লাশের সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরি করেন। প্রতিবেদন তৈরির সময় মেজর সিনহার ব্যবহৃত দ্রব্য-সামগ্রীর জব্দ তালিকা তৈরি করেন। পরদিন ১ আগস্ট বিকালে রামু ক্যান্টনমেন্টের সার্জেন্ট জিয়াউর রহমান ও আনিসুর রহমানের কাছে মেজর সিনহার লাশ হস্তান্তর করি। মামলার তদন্তকালে আইওর কাছে এ ব্যাপারে জবানবন্দি দিয়েছেন।

গত বছর ৩১ জুলাই রাতে কক্সবাজার-টেকনাফ মেরিন ড্রাইভ সড়কের টেকনাফ উপজেলার বাহারছড়া ইউনিয়নের শামলাপুর চেকপোস্টে পুলিশের গুলিতে নিহত হন সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খান।

/এমএএ/

সম্পর্কিত

কোকেন মামলার চার্জ গঠন পেছালো

কোকেন মামলার চার্জ গঠন পেছালো

চট্টগ্রামে পূজামণ্ডপে হামলাচেষ্টা মামলার ১৬ আসামি রিমান্ডে 

চট্টগ্রামে পূজামণ্ডপে হামলাচেষ্টা মামলার ১৬ আসামি রিমান্ডে 

কোকেন মামলার চার্জ গঠন পেছালো

আপডেট : ২৫ অক্টোবর ২০২১, ১৮:৫৬

চট্টগ্রাম বন্দরে কোকেন জব্দের ঘটনায় চোরাচালান আইনে দায়ের করা মামলার চার্জ গঠন পিছিয়েছে। আগামী ১০ নভেম্বর মামলাটির পরবর্তী শুনানির দিন ধার্য করা হয়েছে। সোমবার (২৫ অক্টোবর) দুপুরে অতিরিক্ত চট্টগ্রাম মহানগর দায়রা জজ (তৃতীয়) মো. জসিম উদ্দিন এ আদেশ দেন। 

মহানগর দায়রা জজ আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) মো. ফখরুদ্দিন আহমদ বলেন, ‘কোকেন উদ্ধারের ঘটনায় দায়ের করা চোরাচালান মামলায় আজ আসামিদের বিরুদ্ধে চার্জ গঠনের দিন ধার্য ছিল। শারীরিক অসুস্থ বোধ করায় আজ বিজ্ঞ ম্যাজিস্ট্রেট ফরিদুল আলম সাক্ষ্য প্রদানে অনীহা প্রকাশ করায় আজ শুনানি হয়নি। আদালত আগামী ১০ নভেম্বর মামলাটির পরবর্তী শুনানির দিন ধার্য করেছেন।’

২০১৫ সালের ৬ জুন চট্টগ্রাম নগর গোয়েন্দা পুলিশের তৎকালীন অতিরিক্ত উপকমিশনার এস এম তানভির আরাফাতের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে কোকেন সন্দেহে চট্টগ্রাম বন্দরে সূর্যমুখী তেলের চালান জব্দ করে শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদফতর। এরপর ২৭ জুন তেলের চালানের ১০৭টি ড্রামের মধ্যে একটি ড্রামের নমুনায় কোকেন শনাক্ত হয়। বলিভিয়া থেকে আসা চালানটির প্রতিটি ড্রামে ১৮৫ কেজি করে সূর্যমুখী তেল ছিল। পরে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি), মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরের রাসায়নিক পরীক্ষাগারসহ চারটি পরীক্ষাগারে তেলের চালানের দুটি ড্রামের নমুনায় কোকেন শনাক্ত হয়। পরে এ ঘটনায় চট্টগ্রামের বন্দর থানায় ওই বছরের ২৭ জুন মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা হয়। একই মামলায় চোরাচালান আইনে আরেকটি মামলা দায়ের করা হয়। দীর্ঘ তদন্ত শেষে ২০২০ সালের ২৫ জুন ওই মামলায় চট্টগ্রাম চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের প্রসিকিউশন শাখায় অভিযোগপত্র জমা দেয় মামলার তদন্তকারী সংস্থা র‌্যাব-৭। আজ ওই মামলায় চার্জ গঠনের কথা ছিল।

মামলায় অভিযুক্ত ১০ জন হলেন– আমদানিকারক প্রতিষ্ঠান চট্টগ্রামের খানজাহান আলী লিমিটেডের চেয়ারম্যান নুর মোহাম্মদ ও তার ভাই মোস্তাক আহমদ, কসকো-বাংলাদেশ শিপিং লাইনসের ব্যবস্থাপক এ কে এম আজাদ, সিকিউরিটিজ প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা মেহেদী আলম, সিঅ্যান্ডএফ প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা সাইফুল ইসলাম, আবাসন ব্যবসায়ী মোস্তফা কামাল, প্রাইম হ্যাচারির ব্যবস্থাপক গোলাম মোস্তফা সোহেল, পোশাক রফতানিকারক প্রতিষ্ঠান মণ্ডল গ্রুপের বাণিজ্যিক নির্বাহী আতিকুর রহমান, লন্ডন প্রবাসী চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জের ফজলুর রহমান ও মৌলভীবাজারের বকুল মিয়া।

তাদের মধ্যে গোলাম মোস্তফা সোহেল ও আতিকুর রহমান কারাগারে আছেন। জামিনে আছেন– মেহেদী আলম, এ কে এম আজাদ, সাইফুল ইসলাম ও মোস্তফা কামাল। জামিনে গিয়ে পালিয়ে গেছেন নুর মোহাম্মদ। এ ছাড়া মোস্তাক আহমদ, ফজলুর রহমান ও বকুল মিয়া শুরু থেকেই পলাতক আছেন।

/এমএএ/

সম্পর্কিত

চট্টগ্রামে পূজামণ্ডপে হামলাচেষ্টা মামলার ১৬ আসামি রিমান্ডে 

চট্টগ্রামে পূজামণ্ডপে হামলাচেষ্টা মামলার ১৬ আসামি রিমান্ডে 

নোয়াখালীতে হামলা: বিএনপি-জামায়াত নেতাসহ গ্রেফতার ১১

নোয়াখালীতে হামলা: বিএনপি-জামায়াত নেতাসহ গ্রেফতার ১১

অপহরণের ৫ মাসেও খোঁজ মেলেনি নুর উদ্দিনের

অপহরণের ৫ মাসেও খোঁজ মেলেনি নুর উদ্দিনের

চট্টগ্রামে পূজামণ্ডপে হামলাচেষ্টা মামলার ১৬ আসামি রিমান্ডে 

আপডেট : ২৫ অক্টোবর ২০২১, ১৮:১৬

চট্টগ্রামের জেএম সেন হল পূজামণ্ডপে হামলাচেষ্টার ঘটনায় আরও ১৬ জনকে একদিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। সোমবার (২৫ অক্টোবর) চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট হোসেন মোহাম্মদ রেজা শুনানি শেষে এ আদেশ দেন।

কোতোয়ালি থানার ওসি নেজাম উদ্দিন বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘১৬ আসামিকে জিজ্ঞাসাবাদ করতে আমরা সাত দিন করে রিমান্ডের আবেদন করেছিলাম। শুনানি শেষে আদালত প্রত্যেক আসামির এক দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন।’

রিমান্ডপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন- দেলোয়ার হোসেন, মাসুদ পারভেজ, মো. হুমায়ুন, জাবেদুল ইসলাম, ইফতেখার উদ্দিন, তৌহিদুল আলম, খালিদ বিন ওয়ালিদ, সৈয়দ মঈন উদ্দিন, মো. রাসেল, ওমর ফারুক, নুরুল ইসলাম, মো. সোহাগ, আইয়ুব আলী, আমির হোসেন ও খোরশেদ আলম।

কুমিল্লার ঘটনার জের ধরে গত ১৬ অক্টোবর দুপুরে জুমার নামাজের পর একটি মিছিল থেকে ঐতিহাসিক জেএম সেন হলের পূজামণ্ডপে গেটে হামলা হয়। হলের গেটের ব্যানার ও কাপড় ছেঁড়ার পাশাপাশি ওই দিন মিছিল সহকারে আসা যুবকরা মণ্ডপে ঢিল ছোড়ে। পরে এ ঘটনায় ৮৪ জনের নাম উল্লেখ করে কোতোয়ালি থানায় মামলা করা হয়। এসআই আকাশ মাহমুদ ফরিদ বাদী হয়ে বিশেষ ক্ষমতা আইনে মামলাটি করেন। মামলায় অজ্ঞাত আরও অন্তত ৫০০ জনকে আসামি করা হয়েছে। এই মামলায় ইতোমধ্যে ১০০ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

গ্রেফতার আসামিদের মধ্যে প্রথম দফায় শুক্রবার (২২ অক্টোবর) সাত জনকে একদিনের রিমান্ডে পাঠিয়েছিলেন আদালত। এই সাত আসামি বাংলাদেশ যুব পরিষদের মহানগর শাখার বিভিন্ন দায়িত্বে ছিলেন। তাদের মধ্যে একজন শনিবার (২৩ অক্টোবর) আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন।

রিমান্ডে নেওয়া সাত আসামি হলেন- যুব অধিকার পরিষদের চট্টগ্রাম মহানগর শাখার আহ্বায়ক মো. নাছির, সদস্য সচিব মিজানুর রহমান, বায়েজিদ থানার আহ্বায়ক মো. রাসেল, কর্মী ইয়াসিন আরাফাত, হাবিবুল্লাহ মিজান, ইমন ও ইমরান হোসেন।

/এফআর/

সম্পর্কিত

কোকেন মামলার চার্জ গঠন পেছালো

কোকেন মামলার চার্জ গঠন পেছালো

নোয়াখালীতে হামলা: বিএনপি-জামায়াত নেতাসহ গ্রেফতার ১১

নোয়াখালীতে হামলা: বিএনপি-জামায়াত নেতাসহ গ্রেফতার ১১

অপহরণের ৫ মাসেও খোঁজ মেলেনি নুর উদ্দিনের

অপহরণের ৫ মাসেও খোঁজ মেলেনি নুর উদ্দিনের

অবৈধভাবে ভারত থেকে প্রবেশকালে বাংলাদেশি আটক

আপডেট : ২৫ অক্টোবর ২০২১, ১৮:১১

দিনাজপুরের হিলি সীমান্ত এলাকা দিয়ে অবৈধপথে ভারত থেকে দেশে অনুপ্রবেশকালে শ্রী নেপাল চন্দ্র সরকার (৩৩) নামে এক বাংলাদেশিকে আটক করা হয়েছে।

সোমবার (২৫ অক্টোবর) বিকালে হিলি সীমান্তের ২৮৫ নম্বর মেইন পিলারের ৭ নম্বর সাবপিলার সংলগ্ন বালুরচড় নামক এলাকা থেকে তাকে আটক করে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)। তিনি পার্বতীপুর উপজেলার তেরআনিয়া গ্রামের শ্রী নিতাই চন্দ্র সরকারের ছেলে।

বিজিবির হিলি আইসিপি ক্যাম্প কমান্ডার সুবেদার সাইদুর রহমান বাংলা ট্রিবিউনকে জানান, হিলি সীমান্তের বালুরচড় নামক এলাকা দিয়ে প্রাচীর টপকে অনুপ্রবেশ করেন নেপাল চন্দ্র। এ সময় কর্তব্যরত বিজিবি সদস্য তাকে আটক করেন। 

তিনি চিকিৎসার জন্য কিছুদিন আগে ভারতে গিয়েছিলেন। এরপর পাসপোর্টের মেয়াদ শেষ হওয়ায় অবৈধপথে ভারত থেকে বাংলাদেশে আসছিলেন তিনি। এ ঘটনায় তার বিরুদ্ধে অবৈধ অনুপ্রবেশের অপরাধে মামলা করে  হাকিমপুর থানায় সোপর্দের প্রক্রিয়া চলছে।

/এসএইচ/

সম্পর্কিত

পীরগঞ্জে হামলা: আরও ২ জন গ্রেফতার, রিমান্ডে ১৩

পীরগঞ্জে হামলা: আরও ২ জন গ্রেফতার, রিমান্ডে ১৩

অপহরণের নামে ৮ বছর আত্মগোপনে, অবশেষে কারাগারে বৃদ্ধ

অপহরণের নামে ৮ বছর আত্মগোপনে, অবশেষে কারাগারে বৃদ্ধ

নিম-মেহগনি বীজের তেলে মরছে ফসলের ক্ষতিকর পোকা

নিম-মেহগনি বীজের তেলে মরছে ফসলের ক্ষতিকর পোকা

১০ বছর যুদ্ধাহত বীর মুক্তিযোদ্ধার ভাতা তুলেছেন রাজাকার

আপডেট : ২৫ অক্টোবর ২০২১, ১৭:৫৫

দীর্ঘদিন ধরে ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলার আঠারবাড়ির রায়ের বাজার এলাকার তারা মিয়াকে স্থানীয়রা বীর মুক্তিযোদ্ধা হিসেবেই জানতেন। পেতেন যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধার ভাতা। সারাক্ষণই বসে থাকতেন হুইল চেয়ারে। তবে হঠাৎ মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় তিনি গ্রেফতার হওয়ায় অবাক এলাকাবাসী। যেন বহুদিন পর তাদের ঘোর ভেঙেছে। জেনেছেন নতুন সত্য।

জানা গেছে, যুদ্ধাপরাধ মামলায় গ্রেফতার তারা মিয়া গত ১০ বছর ধরে যুদ্ধাহত বীর মুক্তিযোদ্ধার ভাতা উত্তোলন করে আসছেন। এর মধ্যে গত পাঁচ বছর ধরে ৩০ হাজার টাকা করে মাসিক ভাতা উত্তোলন করছেন। এর আগে প্রতি মাসে ২০ হাজার টাকা করে পেয়েছিলেন। এ ১০ বছরে তিনি মুক্তিযোদ্ধার ভাতা হিসেবে প্রায় ৩০ লাখ টাকা উত্তোলন করেছেন। ১০ বছর আগে ময়মনসিংহের গৌরীপুর উপজেলার শাহ নেওয়াজের পুত্র মুক্তিযোদ্ধা তারা মিয়ার (মুক্তিযুদ্ধ নাম্বার ৯৭৯৩) নাম ব্যবহার করে গ্রেফতার শমসের আলীর পুত্র তারা মিয়া মুক্তিযোদ্ধা কল্যাণ ট্রাস্টের মাধ্যমে প্রতারণা করে যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা সেজে এই ভাতা উত্তোলন করে আসছেন। সর্বশেষ মুক্তিযোদ্ধা যাচাই-বাছাই করতে গিয়ে গ্রেফতার তারা মিয়ার প্রতারণা ফাঁস হয়ে যায়। এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলার আঠারোবাড়ী ইউনিয়নের মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার রঞ্জন ঘোষ রানা। 

রায়ের বাজার এলাকার বাসিন্দা কামাল হোসেন বলেন, ‘তাকে আমরা মুক্তিযোদ্ধা হিসেবেই জানতাম। সারাক্ষণ হুইলচেয়ারে বসে থাকতেন। সব সরকারি অনুষ্ঠানেই তাকে ডেকে সম্মান দেওয়া হয়েছে। এখন গ্রেফতার হওয়ার পর মানুষ অবাক। কীভাবে একজন যুদ্ধাপরাধী মুক্তিযোদ্ধা তালিকায় নাম লেখালেন, আর কীভাবেই যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে ভাতা পাচ্ছেন, এটা স্থানীয়দের প্রশ্ন।’

স্থানীয় স্কুলশিক্ষক কলিম উদ্দিনের অভিযোগ, তারা মিয়া শুধু মানুষকে না, প্রশাসন এবং সরকারকে ধোঁকা দিয়েছে। এরকম তারা মিয়া মুক্তিযোদ্ধা তালিকায় আরও আছে কি-না তা খতিয়ে দেখার সময় এসেছে। এ ধরনের প্রতারককে খুঁজে বের করে শাস্তির আওতায় আনার দাবি জানান তিনি।

স্থানীয় মুক্তিযোদ্ধা জামাল উদ্দিন বলেন, ‘তারা মিয়া পাশের উপজেলা গৌরীপুরের ঠিকানা ব্যবহার করে তালিকাভুক্ত মুক্তিযোদ্ধা হয়েছেন। তার ভারতীয় প্রামাণ্য দলিল নম্বর ৯৭৯৩। লাল মুক্তিবার্তা নম্বর ০১১৫১১০২৪৩। তিনি যুদ্ধ না করেও প্রতারণার মাধ্যমে গৌরীপুরে গিয়ে মুক্তিযোদ্ধা তালিকায় নাম উঠিয়েছেন। গৌরীপুরের মুক্তিযোদ্ধা সংসদের নেতারা সহায়তা করেছেন। স্থানীয় মুক্তিযোদ্ধারা বারবার কেন্দ্রীয় মুক্তিযোদ্ধা  সংসদে তারা মিয়ার বিরুদ্ধে অভিযোগ আনলেও এ বিষয়ে কোনও ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি। সরষের মধ্যে ভূত থাকলে, সেই ভূত তাড়ানো কখনও সম্ভব না।’

গৌরীপুর উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কমান্ডার ও পৌর মেয়র আব্দুস সাত্তার বলেন, ‘গ্রেফতার তারা মিয়া স্থানীয় মুক্তিযোদ্ধা ও প্রশাসনকে প্রভাবিত করে নিজে মুক্তিযোদ্ধা সেজেছেন এবং ভাতা নিয়েছেন। তিনি ছোটবেলা থেকেই ঈশ্বরগঞ্জের পৈতৃক বাড়িতে না থেকে নানার বাড়ি গৌরীপুরে থাকতেন। দেশ স্বাধীন হওয়ার পর ধোঁকা দিয়ে মুক্তিযোদ্ধার তালিকায় নাম লিখিয়েছেন। সেজেছেন যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা। এ ধরনের ঘটনা আমাদের জন্য লজ্জাজনক।’

জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ড কাউন্সিলের সাবেক কমান্ডার আব্দুর রব বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘পাপ বাপকেও ছাড়ে না। তারা মিয়া একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধে পাকিস্তান বাহিনীর দোসর ছিলেন। মানবতাবিরোধী অপরাধের সঙ্গে জড়িত থেকে অনেক পাপ করেছেন। দীর্ঘদিন পর হলেও আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করায় তারা মিয়া গ্রেফতার হয়েছেন। এটাই আমাদের মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য স্বস্তির বিষয়। তবে এ ধরনের তারা মিয়া মুক্তিযোদ্ধা তালিকায় অনেক আছে। এদেরকে খুঁজে বের করা এখন সময়ের দাবি।’

তবে তারা মিয়ার স্ত্রী রাবেয়া খাতুনের দাবি, তার স্বামী গৌরীপুরে নানার বাড়িতে থেকে বড় হয়েছেন এবং মুক্তিযুদ্ধের সময় ভারতে গিয়ে ট্রেনিং নিয়ে যুদ্ধ করেছেন। যুদ্ধ করার সময় গুলিতে আহত হয়েছেন বলেই যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধার ভাতা পাচ্ছেন। বিয়ের পর থেকেই তিনি শুনে আসছেন, তার স্বামী মুক্তিযোদ্ধা ছিলেন। তার স্বামী কখনও যুদ্ধাপরাধের সঙ্গে জড়িত এ ধরনের তথ্য তার কাছে নেই।

ঈশ্বরগঞ্জ থানার ওসি আব্দুল কাদের জানান, মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় তদন্ত শেষে গত বৃহস্পতিবার (২১ অক্টোবর) আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল ১২ জনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন। সেটি আমলে নিয়ে অভিযুক্ত তারা মিয়াকে গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

/এফআর/

সম্পর্কিত

এক জেলায় ১০ মাসে সড়কে ঝরলো ১৩৬ প্রাণ

এক জেলায় ১০ মাসে সড়কে ঝরলো ১৩৬ প্রাণ

নৌকার জনসভায় বিদ্রোহী প্রার্থীর সমর্থকদের হামলার অভিযোগ

নৌকার জনসভায় বিদ্রোহী প্রার্থীর সমর্থকদের হামলার অভিযোগ

ময়মনসিংহ মেডিক্যালে করোনা উপসর্গে ৪ জনের মৃত্যু

ময়মনসিংহ মেডিক্যালে করোনা উপসর্গে ৪ জনের মৃত্যু

ওবায়দুল কাদেরের স্বাক্ষর জাল, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান কারাগারে

ওবায়দুল কাদেরের স্বাক্ষর জাল, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান কারাগারে

সর্বশেষসর্বাধিক
quiz

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

দুই মোটরসাইকেলের সংঘর্ষে প্রাণ গেলো ২ যুবকের

দুই মোটরসাইকেলের সংঘর্ষে প্রাণ গেলো ২ যুবকের

নড়াইলে অস্ত্র মামলায় একজনের যাবজ্জীবন

নড়াইলে অস্ত্র মামলায় একজনের যাবজ্জীবন

রূপসার শিয়ালীর মন্দিরে হামলা মামলায় ২৩ আসামি জেলে

রূপসার শিয়ালীর মন্দিরে হামলা মামলায় ২৩ আসামি জেলে

 র‌্যাব পরিচয়ে ব্যবসায়ীর ৮ লাখ টাকা ছিনতাই করে ধরা

 র‌্যাব পরিচয়ে ব্যবসায়ীর ৮ লাখ টাকা ছিনতাই করে ধরা

বাঁশ কাটায় প্রতিবেশীকে কুপিয়ে হত্যা

বাঁশ কাটায় প্রতিবেশীকে কুপিয়ে হত্যা

ট্রাকচাপায় প্রাণ গেলো দুই স্কুলছাত্রের

ট্রাকচাপায় প্রাণ গেলো দুই স্কুলছাত্রের

ভাইয়ের মৃত্যুর দোয়া অনুষ্ঠান শেষে ফেরা হলো না বোনের

ভাইয়ের মৃত্যুর দোয়া অনুষ্ঠান শেষে ফেরা হলো না বোনের

জানাজায় যাওয়ার পথে প্রাণ গেলো বৃদ্ধের

জানাজায় যাওয়ার পথে প্রাণ গেলো বৃদ্ধের

নৌকা পেলেন ‘রাজাকার পরিবারের’ দুই সন্তান, মুক্তিযোদ্ধাদের ক্ষোভ

নৌকা পেলেন ‘রাজাকার পরিবারের’ দুই সন্তান, মুক্তিযোদ্ধাদের ক্ষোভ

সর্বশেষ

জয়শঙ্করকে চিঠি দিলেন মোমেন

জয়শঙ্করকে চিঠি দিলেন মোমেন

সিনহা হত্যা মামলা: এসআই আমিনুলসহ ৮ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ

সিনহা হত্যা মামলা: এসআই আমিনুলসহ ৮ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ

অনিবন্ধিত ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান বন্ধ হবে: বাণিজ্যমন্ত্রী

অনিবন্ধিত ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান বন্ধ হবে: বাণিজ্যমন্ত্রী

সুদানের প্রধানমন্ত্রীকে অবিলম্বে মুক্তির আহ্বান জাতিসংঘের

সুদানের প্রধানমন্ত্রীকে অবিলম্বে মুক্তির আহ্বান জাতিসংঘের

রিমান্ড শেষে আরজে নীরব কারাগারে 

রিমান্ড শেষে আরজে নীরব কারাগারে 

© 2021 Bangla Tribune