X
বৃহস্পতিবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১ আশ্বিন ১৪২৮

সেকশনস

কওমি মাদ্রাসার শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা টিকা পাবেন কবে?

আপডেট : ২৫ জুলাই ২০২১, ১৯:২২

দেশের পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়সহ কলেজগুলোর শিক্ষার্থীদের করোনা ভাইরাস রোধক টিকা দেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু হলেও কওমি মাদ্রাসার শিক্ষার্থী ও শিক্ষকরা কবে টিকা পাবেন, এ নিয়ে অনিশ্চয়তা সৃষ্টি হয়েছে। আর টিকা দেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু না হওয়ায় কবে থেকে ক্লাস শুরু হবে, তাও জানতে পারছেন না মাদ্রাসার শিক্ষার্থীরা। কোনও কোনও শীর্ষ পর্যায়ের দায়িত্বশীল আলেমরা টিকা গ্রহণ করলেও শিক্ষার্থীদের ক্ষেত্রে কী সিদ্ধান্ত, তা এখনও ঠিক করতে পারেননি তারা।

কওমি মাদ্রাসার কয়েকজন সিনিয়র শিক্ষক ও একাধিক মাদ্রাসার শিক্ষার্থীদের সঙ্গে আলাপকালে জানা গেছে, মাদ্রাসার শিক্ষার্থীদের টিকা দেওয়ার ক্ষেত্রে সমন্বিত কোনও উদ্যোগ নেওয়া হয়নি। এক্ষেত্রে বেফাক ও অন্যান্য আঞ্চলিক বোর্ডগুলোসহ কওমি মাদ্রাসার নিয়ন্ত্রক সংস্থা সরকারি বিধিবদ্ধ প্রতিষ্ঠান ‘আল-হাইআতুল উলয়া লি-জামিআতিল কওমিয়্যাহ’ও এ বিষয়ে কোনও আলোচনা শুরু করেনি।

ঢাকার জামিয়া ইসলামিয়া মাখজানুল উলুম মাদ্রাসার অধ্যক্ষ ও হেফাজতের মহাসচিব মাওলানা নুরুল ইসলাম বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘মাদ্রাসার ছাত্ররা টিকা নেবে কিনা, সেটা মাদ্রাসার কর্তৃপক্ষ ও আল হাইআতুল উলয়া ঠিক করবে। ভ্যাকসিন কী জিনিস, আমি বুঝি না। এ বিষয়ে আমার কোনও অভিজ্ঞতা নেই।’

ঢাকার একটি মাদ্রাসার মেশকাত জামাতের (স্নাতক চূড়ান্ত) একজন শিক্ষার্থী রবিবার বিকালে বাংলা ট্রিবিউনকে জানান, তাদের প্রতিষ্ঠান থেকে টিকা নেওয়ার ব্যাপারে কোনও কিছুই জানানো হয়নি। আর মাদ্রাসাও কবে নাগাদ খোলা হবে, তা অনিশ্চিত।

ঢাকার একটি কওমি মাদ্রাসায় পাঠরত শিক্ষার্থীরা (ফাইল ফটো) সরকারিভাবে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়, কলেজ পর্যায়ে টিকা দেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। ইতোমধ্যে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলো প্রক্রিয়া শুরু করেছে। টিকা কার্যক্রম গুছিয়ে এনেছে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ও। এরইমধ্যে টিকা নেওয়ার ক্ষেত্রে সর্বনিম্ন বয়স ১৮ করা হয়েছে। শিক্ষার্থীদের টিকা দেওয়া শেষ হলেই প্রতিষ্ঠান খুলবে, সরকারের পক্ষ থেকে এমন সম্ভাবনার কথা জানানো হয়েছে।

কওমি মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডের (বেফাক) একাধিক দায়িত্বশীল আলেম জানান, মাদ্রাসার ছাত্রদের টিকা দেওয়ার বিষয়ে কোনও রোডম্যাপ হয়নি। ব্যক্তিগতভাবে শিক্ষার্থীদের স্থানীয় স্বাস্থ্যকেন্দ্রে যোগাযোগ করে টিকা দেওয়ার বিষয়ে উৎসাহ দেওয়া হলেও প্রাতিষ্ঠানিক কোনও নির্দেশনা নেই।

ঢাকার একটি মাদ্রাসার শিক্ষক বলেন, টিকা নেওয়ার বিষয়ে শুরুতে বিভ্রান্তি থাকলেও এখন টিকা নেওয়ার পক্ষে সবাই। সুস্থ থাকতে টিকার বিকল্প নেই, এ কথাটিও ছাত্রদের কাছে তুলে ধরা হচ্ছে বিভিন্ন উপায়ে। যদিও মাদ্রাসা বন্ধ থাকায় অধিকাংশ শিক্ষার্থী টিকার ব্যাপারে অন্ধকারে আছে।

জামিয়া আরাবিয়া দারুল উলুম নতুনবাগ, রামপুরা মাদ্রাসার হাদিসের শিক্ষক মাওলানা ইমরানুল বারী সিরাজী বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘আমাদের বেফাক বা হাইআ বা কোনও বোর্ড থেকেই কিছু জানানো হয়নি। কোনও ঘোষণাও আসেনি টিকার বিষয়ে। এখনও মাদ্রাসা বন্ধ থাকায় বোর্ডই ঠিক করবে করণীয়।’

ইমরানুল বারী জানান, মাদ্রাসার শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা টিকাগ্রহণে ইতিবাচক। তবে, কী প্রক্রিয়ায় টিকা দেওয়া হবে সেজন্য অপেক্ষা করছে সবাই।

জানতে চাইলে বেফাক ও আল-হাইআতুল উলয়া লি-জামিআতিল কওমিয়্যাহ’র সদস্য মাওলানা মুসলেহ উদ্দিন রাজু বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘মাদ্রাসার শিক্ষার্থীরা, শিক্ষকরা কীভাবে টিকা পাবেন, এ নিয়ে বোর্ডগুলো এখনও কোনও সিদ্ধান্ত নেয়নি। হাইআতুল উলয়ার দায়িত্বশীলরা এ বিষয়ে আলোচনা শুরু করেছেন। তবে কোনও সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি।’

আল হাইআতুল উলয়া’র স্থায়ী কমিটির সদস্য ও জাতীয় দ্বীনী মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডের সহসভাপতি মাওলানা ইয়াহইয়া মাহমূদ বলেন, ‘টিকার বিষয়ে এখনও সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি। তবে আমরা একটা গাইডলাইন করছি, চেষ্টা করছি। আমরা নিজেরা পরামর্শ করে গাইডলাইন তৈরি করেছি।’

সরকারের কাছে কোনও প্রস্তাব দেওয়া হবে কিনা, এমন প্রশ্নে ইয়াহইয়া মাহমূদ বলেন, ‘এটা হাইয়ার মুরুব্বিরা সরকারের সঙ্গে আলোচনা করবেন। আমরা আমাদের মতো চেষ্টা করছি।’

টিকা নিয়েছেন হাইআতুল উলয়ার চেয়ারম্যান মাহমুদুল হাসান

সাধারণ শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের টিকা দেওয়ার বিষয়ে এখনও সিদ্ধান্ত না হলেও কওমি মাদ্রাসার নিয়ন্ত্রক সংস্থা সরকারি বিধিবদ্ধ প্রতিষ্ঠান ‘আল-হাইআতুল উলয়া লি-জামিআতিল কওমিয়্যাহ’ চেয়ারম্যান মাওলানা মাহমুদুল হাসান টিকা নিয়েছেন। আল-হাইআতুল উলয়া’র একজন কর্মকর্তা বাংলা ট্রিবিউনকে এ কথা জানান।

এই কর্মকর্তা আরও জানান, সিনিয়র আলেমদের মধ্যে অনেকেই নিবন্ধন করেছেন। তারা নিজ উদ্যোগে টিকা নিচ্ছেন।

কওমি মাদ্রাসায় পাঠরত শিক্ষার্থীরা (ফাইল ফটো) মাদ্রাসা খুলবে কবে?

কওমি মাদ্রাসা কবে নাগাদ ক্লাস শুরু করতে পারবে, এ নিয়ে এখনও অন্ধকারে বোর্ড ও দায়িত্বশীল আলেমরা। শিক্ষার্থীরাও বলছেন, তারা মাদ্রাসা খোলা বা ক্লাস শুরু হওয়া নিয়ে কোনও সিদ্ধান্ত জানতে পারছেন না।

সিলেটের একটি মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মাওলানা মুসলেহ উদ্দিন রাজু বলেন, ‘মুরুব্বিরা চেষ্টা করছেন আগে মক্তব বিভাগ ও হেফজ বিভাগ (কোরআন শিক্ষা কার্যক্রম) চালু করতে। এরপর সরকারের অনুমতি সাপেক্ষে অন্য ক্লাসগুলো শুরু হবে।’

দায়িত্বশীল একাধিক আলেম বাংলা ট্রিবিউনকে জানান, করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ নয়, বরং সরকারের ক্ষোভের কারণে প্রতিষ্ঠানগুলো বন্ধ রয়েছে।

তারা জানান, হেফাজত ইস্যুতে সরকার মাদ্রাসাগুলোকে বন্ধ রেখেছে। কওমি মাদ্রাসার সংশ্লিষ্ট হেফাজত নেতাদের মুজিববর্ষের অনুষ্ঠানে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির আগমনবিরোধী অবস্থানের কারণে মাদ্রাসার প্রতি বিরূপ মনোভাব তৈরি হয়েছে সরকারের। আর এই ক্ষোভ উপশমে চেষ্টা করা প্রয়োজন বলে মনে করেন কোনও কোনও আলেম। এই অংশের অনেকেই মনে করেন, মাদ্রাসার ছাত্র- শিক্ষকদের বর্তমান পরিস্থিতিতে ভ্যাকসিন দেওয়া প্রয়োজন।

মাওলানা ইয়াহইয়া মাহমূদ বলেন, ‘ক্ষোভটা তো সকলেরই জানা। করোনা ভাইরাসজনিত ও লকডাউন পরিস্থিতিতে কওমি মাদ্রাসা বন্ধ ছিল। কিন্তু এবার প্রজ্ঞাপন দিয়ে কওমি মাদ্রাসা বন্ধ করা হয়েছে। কেন বন্ধ হলো, সেটা সকলের জানা। কওমি মাদ্রাসাগুলোকে সরাসরি প্রজ্ঞাপন দিয়ে বন্ধ করা হয়েছে বিশেষ কারণে। কারণ আর উল্লেখ করার দরকার নাই। এই ক্ষোভ আমরা চাচ্ছি প্রশমন করতে। সরকারকে আস্থায় নিয়ে মাদ্রাসা খোলা দরকার।’

জানতে চাইলে হেফাজতের মহাসচিব ও ঢাকার একটি মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মাওলানা নুরুল ইসলাম বলেন, ‘ এখনও তো লকডাউন চলছে। এই মুহূর্তে মাদ্রাসা খোলা সম্ভব না। লকডাউন শেষ হলে পরিস্থিতি বুঝে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।’

আরও পড়ুন:

‘ঐতিহাসিক’ পদ্ধতিতে শিক্ষা দিচ্ছে কওমি মাদ্রাসা

সরকারি স্বীকৃতির তিন বছর: কতটা বদলেছে কওমি মাদ্রাসা?

/এপিএইচ/

সম্পর্কিত

স্কুল গেটে অভিভাবকদের জটলা, স্বাস্থ্যবিধিতে অনীহা!

স্কুল গেটে অভিভাবকদের জটলা, স্বাস্থ্যবিধিতে অনীহা!

কমপক্ষে এক ডোজ টিকা নেওয়ার শর্তে ঢাবির হল  খুলে দেওয়ার সুপারিশ 

কমপক্ষে এক ডোজ টিকা নেওয়ার শর্তে ঢাবির হল খুলে দেওয়ার সুপারিশ 

শিক্ষক দিবসে ঐচ্ছিক ছুটির দাবি

শিক্ষক দিবসে ঐচ্ছিক ছুটির দাবি

এইচএসসির ফরম পূরণের সময় বাড়লো

এইচএসসির ফরম পূরণের সময় বাড়লো

এনজিওদের পারিবারিক বিরোধ নিষ্পত্তির বৈধতা চ্যালেঞ্জ করা রিট খারিজ

আপডেট : ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৩:৩০

পারিবারিক আদালতকে পাশ কাটিয়ে বিরোধ নিষ্পত্তির জন্য বাংলাদেশ জাতীয় মহিলা আইনজীবী সমিতির দেওয়া নোটিশের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করা রিট খারিজ করে দিয়েছেন হাইকোর্ট। 

বৃহস্পতিবার (১৬ সেপ্টেম্বর) বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

আদালতে রিটের পক্ষে শুনানিতে ছিলেন অ্যাডভোকেট মো. খুরশীদ আলম খান ও টাইটাস হিল্লোল রেমা।

এর আগে পারিবারিক আদালতকে পাশ কাটিয়ে বিরোধ নিষ্পত্তির জন্য বাংলাদেশ জাতীয় মহিলা আইনজীবী সমিতির দেওয়া নোটিশের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করা হাইকোর্টে রিট দায়ের করা হয়েছিল। রিটে মহিলা আইনজীবী সমিতিসহ এ ধরণের এনজিওদের বিরোধ নিষ্পত্তির ক্ষমতার বৈধতাও চ্যালেঞ্জ করা হয়েছিল।

রাজধানীর প্রতিষ্ঠিত ব্যবসায়ী মোহাম্মদ নুরুল আকরামের পক্ষে অ্যাডভোকেট টাইটাস হিল্লোল রেমা এ রিট দায়ের করেন।

এর আগে গত ২২ আগস্ট বাংলাদেশ জাতীয় মহিলা আইনজীবী সমিতি থেকে মোহাম্মদ নুরুল আকরামকে তাদের পারিবারিক বিরোধ নিষ্পত্তির নোটিশ দেওয়া হয়। তার স্ত্রীর অভিযোগের ভিত্তিতে বিষয়টি মীমাংসার জন্য মহিলা সমিতির অফিসে ডাকা হয়। তাই আইনত সুযোগ না থাকায় সে বিষয়ে হাইকোর্টে রিট দায়ের করা হয়।

/বিআই/এনএইচ/ 

সম্পর্কিত

স্ত্রীসহ ইভ্যালির রাসেলের বিরুদ্ধে গুলশান থানায় মামলা

স্ত্রীসহ ইভ্যালির রাসেলের বিরুদ্ধে গুলশান থানায় মামলা

রাজধানীতে মাদকসহ গ্রেফতার ৫৭ 

রাজধানীতে মাদকসহ গ্রেফতার ৫৭ 

রাজারবাগ দরবার শরীফের সব সম্পদের তথ্য চেয়ে হাইকোর্টে রিট

রাজারবাগ দরবার শরীফের সব সম্পদের তথ্য চেয়ে হাইকোর্টে রিট

এনজিওদের পারিবারিক বিরোধ নিষ্পত্তির বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে রিট

এনজিওদের পারিবারিক বিরোধ নিষ্পত্তির বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে রিট

স্ত্রীসহ ইভ্যালির রাসেলের বিরুদ্ধে গুলশান থানায় মামলা

আপডেট : ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৩:০০

ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান ইভ্যালির প্রধান নির্বাহী মো. রাসেল এবং তার স্ত্রী ও প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান শামীমা নাসরিনের বিরুদ্ধে গুলশান থানায় অর্থ আত্মসাৎ ও প্রাণনাশের হুমকির অভিযোগে মামলা করেছেন একজন ভুক্তভোগী।

বৃহস্পতিবার (১৬ সেপ্টেম্বর) সকালে গুলশান থানার ডিউটি অফিসার উপ-পরিদর্শক (এসআই) অনিন্দ্য বাংলা ট্রিবিউনকে মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, গতকাল রাতে আরিফ বাকের নামে একজন ভুক্তভোগী মামলাটি করেছেন। মামলা নম্বর ১৯। মামলায় অর্থ আত্মসাৎ ও ভয়ভীতি দেখানোর অভিযোগ করা হয়েছে।

মামলার এজাহার থেকে জানা গেছে, গত মে মাসে ইভ্যালির চমকপ্রদ বিজ্ঞাপনে আকৃষ্ট হয়ে আরিফ বাকের তার বন্ধুদের নিয়ে কিছু পণ্য অর্ডার করেন। যার (ইনভয়েস) নম্বর ১। এ ছাড়া পণ্যের অর্ডার বাবদ সকল মূল্য বিকাশ, নগদ ও সিটি ব্যাংকের কার্ড‘র মাধ্যমে সম্পূর্ণ পরিশোধ করেন। 

আরিফ অভিযোগ করেন, পণ্যগুলো ৭-৪৫ কার্যদিবসের মধ্যে সরবরাহে ব্যর্থ হলে উক্ত প্রতিষ্ঠান সমুদয় টাকা ফেরত দিতে অঙ্গীকারবদ্ধ ছিল। কিন্তু ওই সময়ের মধ্যে তারা পণ্য সরবরাহ করেনি।  আমি বহুবার ইভ্যালির কাস্টমার কেয়ার‘র প্রতিনিধির নম্বর ফোন করি। প্রতিবার তারা আমার পণ্যগুলো শিগগিরই দিচ্ছে বলে আশ্বস্ত করে যাচ্ছিল। এক পর্যায়ে ইভ্যালি পণ্য অথবা টাকা প্রদানে ব্যর্থ হওয়ার পর আমি তাদের অফিসে যাই। তখন প্রতিষ্ঠানটির নির্বাহী কর্মকর্তা (সিও) মো. রাসেলের সঙ্গে দেখা করতে চাইলে বাধাপ্রাপ্ত হয়েছি। 

এজাহারে আরিফ জানান, গত ১০ সেপ্টেম্বর তিনিসহ তার বন্ধুরা ইভ্যালি অফিসে গিয়ে পণ্যের অর্ডার সম্পর্কে কথা বলতে চাইলে তারা উত্তেজিত হয়ে চিৎকার-চেঁচামেচি করে। এক পর্যায়ে অফিসের অভ্যন্তরে থাকা ইভ্যালির সিইও রাসেল উত্তেজিত হয়ে তার রুম থেকে বেরিয়ে আরিফকে ভয়-ভীতি প্রদর্শন করে এবং পণ্য অথবা টাকা দিতে অস্বীকৃতি জানায়। এক পর্যায়ে প্রাণনাশের হুমকিও দেয় বলেও অভিযোগ করেছেন আরিফ। 

পণ্য না পাওয়ায় আর্থিক ও মানসিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন জানিয়ে আরিফ বলেন, ইভ্যালি পণ্য বিক্রয়ের নামে নানা প্রতারণার আশ্রয় নিয়ে আমার মত বাংলাদেশের বিভিন্ন প্রান্তের অসংখ্য গ্রাহকের নিকট থেকে আনুমানিক ৭০০/৮০০ কোটি টাকা আত্মসাৎ করেছে।

/এআরআর/এনএইচ/

সম্পর্কিত

এনজিওদের পারিবারিক বিরোধ নিষ্পত্তির বৈধতা চ্যালেঞ্জ করা রিট খারিজ

এনজিওদের পারিবারিক বিরোধ নিষ্পত্তির বৈধতা চ্যালেঞ্জ করা রিট খারিজ

রাজধানীতে মাদকসহ গ্রেফতার ৫৭ 

রাজধানীতে মাদকসহ গ্রেফতার ৫৭ 

রাজারবাগ দরবার শরীফের সব সম্পদের তথ্য চেয়ে হাইকোর্টে রিট

রাজারবাগ দরবার শরীফের সব সম্পদের তথ্য চেয়ে হাইকোর্টে রিট

এনজিওদের পারিবারিক বিরোধ নিষ্পত্তির বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে রিট

এনজিওদের পারিবারিক বিরোধ নিষ্পত্তির বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে রিট

রাজধানীতে মাদকসহ গ্রেফতার ৫৭ 

আপডেট : ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১১:৩৩

হেরোইন, ইয়াবা, ফেনসিডিল ও গাঁজাসহ রাজধানীতে ৫৭ জনকে গ্রেফতার করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ ডিএমপি। ডিএমপির বিভিন্ন এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

ডিএমপির গণমাধ্যম শাখার উপ-পুলিশ কমিশনার ফারুক হোসেন বলেন, বুধবার (১৫ সেপ্টেম্বর) সকাল ছয়টা থেকে আজ (বৃহস্পতিবার, ১৬ সেপ্টেম্বর) সকাল ছয়টা পর্যন্ত ডিএমপি এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে ৫৭ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

তিনি বলেন, অভিযান পরিচালনার সময় তাদের কাছ থেকে ৭ হাজার ৫৫৫ পিস ইয়াবা, ১২১ গ্রাম ১৭০ পুরিয়া হেরোইন, ৪ কেজি ১০০ গ্রাম গাঁজা ও ২৭ বোতল ফেনসিডিল জব্দ করা হয়েছে। 

সংশ্লিষ্ট থানায় মাদকদ্রব্য আইনে গ্রেফতারকৃতদের বিরুদ্ধে চল্লিশটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

/আরটি/এনএইচ/

সম্পর্কিত

এনজিওদের পারিবারিক বিরোধ নিষ্পত্তির বৈধতা চ্যালেঞ্জ করা রিট খারিজ

এনজিওদের পারিবারিক বিরোধ নিষ্পত্তির বৈধতা চ্যালেঞ্জ করা রিট খারিজ

স্ত্রীসহ ইভ্যালির রাসেলের বিরুদ্ধে গুলশান থানায় মামলা

স্ত্রীসহ ইভ্যালির রাসেলের বিরুদ্ধে গুলশান থানায় মামলা

রাজারবাগ দরবার শরীফের সব সম্পদের তথ্য চেয়ে হাইকোর্টে রিট

রাজারবাগ দরবার শরীফের সব সম্পদের তথ্য চেয়ে হাইকোর্টে রিট

এনজিওদের পারিবারিক বিরোধ নিষ্পত্তির বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে রিট

এনজিওদের পারিবারিক বিরোধ নিষ্পত্তির বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে রিট

রাজারবাগ দরবার শরীফের সব সম্পদের তথ্য চেয়ে হাইকোর্টে রিট

আপডেট : ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১১:২৮

রাজারবাগ দরবার শরীফের সব সম্পদের তথ্য বিবরণী দাখিলের নির্দেশনা চেয়ে হাইকোর্টে রিট দায়ের করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (১৬ সেপ্টেম্বর) ভুক্তভোগী ৮ জন ব্যক্তির পক্ষে অ্যাডভোকেট শিশির মনির হাইকোর্টে এ রিট দায়ের করেন।

রিটকারীদের মধ্যে শিশু, মহিলা, মুক্তিযোদ্ধার সন্তান, মাদরাসার শিক্ষক ও ব্যবসায়ী রয়েছেন। তাদের প্রত্যেকে রাজারবাগ দরবার শরীফের পীর ও তাদের মুরিদদের হয়রানিমূলক মামলার শিকার।

রিট আবেদনটির ওপর বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চে রিট আবেদনটির শুনানি হতে পারে।

রিট আবেদনে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের জ্যৈষ্ঠ সচিব ও আইজিপিসহ মোট ২০ জনকে বিবাদী করা হয়েছে।

/বিআই/এনএইচ/

সম্পর্কিত

এনজিওদের পারিবারিক বিরোধ নিষ্পত্তির বৈধতা চ্যালেঞ্জ করা রিট খারিজ

এনজিওদের পারিবারিক বিরোধ নিষ্পত্তির বৈধতা চ্যালেঞ্জ করা রিট খারিজ

স্ত্রীসহ ইভ্যালির রাসেলের বিরুদ্ধে গুলশান থানায় মামলা

স্ত্রীসহ ইভ্যালির রাসেলের বিরুদ্ধে গুলশান থানায় মামলা

রাজধানীতে মাদকসহ গ্রেফতার ৫৭ 

রাজধানীতে মাদকসহ গ্রেফতার ৫৭ 

এনজিওদের পারিবারিক বিরোধ নিষ্পত্তির বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে রিট

এনজিওদের পারিবারিক বিরোধ নিষ্পত্তির বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে রিট

স্কুল গেটে অভিভাবকদের জটলা, স্বাস্থ্যবিধিতে অনীহা!

আপডেট : ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১১:২০

স্বাস্থ্যবিধি পালনে উদাসীনতা দেখা গেছে অভিভাবকদের। সকালে শিশু শিক্ষার্থীদের স্কুলে প্রবেশ করে দেওয়ার পর স্কুল গেটগুলোতে তাদের তাদের ভিড় দেখা দেয়। এ সময় অভিভাবকদের মাঝে সামাজিক দূরত্ব পালনে উদাসীনতা দেখা যায়। বৃহস্পতিবার (১৬ সেপ্টেম্বর) সকালে রাজধানীর ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজ এবং মতিঝিল আইডিয়াল স্কুলের সামনে এমন চিত্র দেখা গেছে।

সিদ্ধেশ্বরীতে অবস্থিত ভিকারুন্নেসা নুন স্কুল অ্যান্ড কলেজের সামনে গিয়ে দেখা গেছে, যাত্রী ছাউনিগুলোতে অভিভাবকরা অপেক্ষা করছেন। কিন্তু তাদের মাঝে কোনও সামাজিক দূরত্ব নেই। অনেকের মুখেও ছিল না মাস্ক। জটলা বেঁধে তারা কেউ কেউ সেলফি তুলছেন। আবার কেউ দাঁড়িয়ে আছেন। তবে শিশু শিক্ষার্থীদের যথেষ্ট স্বাস্থ্যবিধি পালন করতে দেখা গেছে।

একজন অভিভাবক বলেন, যে পরিমাণ শিক্ষার্থী-অভিভাবক রয়েছে সে পরিমাণ তাদের অবস্থান করার জায়গা নেই। তাছাড়া রাস্তায় বিপুল সংখ্যক যানবাহন চলাচল করে। এদের মাঝে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা খুব কঠিন হয়ে যায়। স্কুলের সামনের সড়কগুলোতে যদি যানবাহন একটু কমিয়ে দেওয়া হয় তাহলে অভিভাবকদের জন্য ভালো হয়।

একই চিত্র দেখা গেছে মতিঝিল আইডিয়াল স্কুলের সামনে। ভোর থেকেই অভিভাবকরা এসে এখানে অবস্থান করছেন। স্কুলের সামনে অভিভাবকদের এমন ভিড় করোনাকে আরও বাড়িয়ে দেবে বলে মনে করছেন অনেকেই।

আরাফাতুন্নেছা নামে একজন অভিভাবক বলেন, বাচ্চাদেরকে নিয়েই প্রতিদিন স্কুলে আসতে হয়। কিন্তু স্কুলের সামনে আমাদের বসার মতো এমন ভালো কোনও জায়গা নেই। যতদূর সম্ভব আমরা যত এড়িয়ে চলার চেষ্টা করি। কিন্তু এরপরেও হয়ে উঠে না।

/এসএস/এনএইচ/

সম্পর্কিত

কমপক্ষে এক ডোজ টিকা নেওয়ার শর্তে ঢাবির হল  খুলে দেওয়ার সুপারিশ 

কমপক্ষে এক ডোজ টিকা নেওয়ার শর্তে ঢাবির হল খুলে দেওয়ার সুপারিশ 

বিমানবন্দরে পিসিআর ল্যাব স্থাপনের অনুমোদন পেয়েছে বিতর্কিতরাও

বিমানবন্দরে পিসিআর ল্যাব স্থাপনের অনুমোদন পেয়েছে বিতর্কিতরাও

৭ প্রতিষ্ঠানকে বিমানবন্দরে আরটি-পিসিআর ল্যাব বসাতে অনুমোদন

৭ প্রতিষ্ঠানকে বিমানবন্দরে আরটি-পিসিআর ল্যাব বসাতে অনুমোদন

সেজান জুস কারাখানায় অগ্নিকাণ্ড, এখনও মর্গে অজ্ঞাত ৭ মরদেহ

সেজান জুস কারাখানায় অগ্নিকাণ্ড, এখনও মর্গে অজ্ঞাত ৭ মরদেহ

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

স্কুল গেটে অভিভাবকদের জটলা, স্বাস্থ্যবিধিতে অনীহা!

স্কুল গেটে অভিভাবকদের জটলা, স্বাস্থ্যবিধিতে অনীহা!

কমপক্ষে এক ডোজ টিকা নেওয়ার শর্তে ঢাবির হল  খুলে দেওয়ার সুপারিশ 

কমপক্ষে এক ডোজ টিকা নেওয়ার শর্তে ঢাবির হল খুলে দেওয়ার সুপারিশ 

শিক্ষক দিবসে ঐচ্ছিক ছুটির দাবি

শিক্ষক দিবসে ঐচ্ছিক ছুটির দাবি

এইচএসসির ফরম পূরণের সময় বাড়লো

এইচএসসির ফরম পূরণের সময় বাড়লো

গেটের বাইরে শিক্ষার্থী-অভিভাবকদের ভিড় কমাতে নেই উদ্যোগ 

গেটের বাইরে শিক্ষার্থী-অভিভাবকদের ভিড় কমাতে নেই উদ্যোগ 

স্কুলের সামনের হকার উচ্ছেদ করবে কে?

স্কুলের সামনের হকার উচ্ছেদ করবে কে?

পরীমণির রিমান্ডের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করা মামলার শুনানি বুধবার

পরীমণির রিমান্ডের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করা মামলার শুনানি বুধবার

পূর্বাচলে পানি সরবরাহ প্রকল্পের উদ্বোধন

পূর্বাচলে পানি সরবরাহ প্রকল্পের উদ্বোধন

লালমাটিয়ায় অবৈধ ভিওআইপি, ৩০ লাখ টাকার সরঞ্জাম জব্দ

লালমাটিয়ায় অবৈধ ভিওআইপি, ৩০ লাখ টাকার সরঞ্জাম জব্দ

করোনা এড়াতে হেঁটে-সাইকেলে স্কুলে যাতায়াতের প্রত্যয় শিক্ষার্থীদের

করোনা এড়াতে হেঁটে-সাইকেলে স্কুলে যাতায়াতের প্রত্যয় শিক্ষার্থীদের

সর্বশেষ

শেষ হলো সংসদ অধিবেশন

শেষ হলো সংসদ অধিবেশন

গৃহহীনদের ঘরের ‘দুর্নীতি তদন্ত’ দুদক বন্ধ করবে কেন, প্রশ্ন প্রধানমন্ত্রীর

গৃহহীনদের ঘরের ‘দুর্নীতি তদন্ত’ দুদক বন্ধ করবে কেন, প্রশ্ন প্রধানমন্ত্রীর

খালেদা জিয়ার মুক্তির মেয়াদ বাড়ানোর প্রক্রিয়া চলছে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

খালেদা জিয়ার মুক্তির মেয়াদ বাড়ানোর প্রক্রিয়া চলছে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

সাংবাদিক নেতাদের ব্যাংক হিসাব তলবের বিষয়টি জানার চেষ্টা করছি: তথ্যমন্ত্রী

সাংবাদিক নেতাদের ব্যাংক হিসাব তলবের বিষয়টি জানার চেষ্টা করছি: তথ্যমন্ত্রী

মিথিলার বিরুদ্ধে এন্তার অভিযোগ, মুখ খুলছে ‘অমানুষ’ টিম

মিথিলার বিরুদ্ধে এন্তার অভিযোগ, মুখ খুলছে ‘অমানুষ’ টিম

© 2021 Bangla Tribune