X
বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪
৪ বৈশাখ ১৪৩১

কওমি মাদ্রাসায় মাতৃভাষা চর্চা

বেলায়েত হুসাইন
২১ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৫:৩৮আপডেট : ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৬:১৪

ইসলামে মাতৃভাষার গুরুত্ব অপরিসীম। মহান আল্লাহতায়ালা পৃথিবীতে প্রত্যেক নবী-রাসুল (আ.)-কে স্বজাতির ভাষাভাষী করে পাঠিয়েছেন। পবিত্র কোরআনে কারিমে এসেছে, ‘আমি প্রত্যেক রাসুলকেই তার স্বজাতির ভাষাভাষী (মাতৃভাষী) করে পাঠিয়েছি, তাদের কাছে পরিষ্কারভাবে ব্যাখ্যা করার জন্য।’ (সুরা ইবরাহিম, আয়াত : ৪)।

এজন্য সুদীর্ঘ ইসলামি ইতিহাসের প্রতিটি যুগের আলেমরাও তাদের মাতৃভাষা চর্চায় সাধারণ শিক্ষিতদের চেয়ে এগিয়ে ছিলেন। আরবি-ফার্সি-উর্দু মুসলিমদের বৃহৎ এই তিনটি ভাষার দিকে তাকালেই ভাষা-সাহিত্যে আলেমদের অসামান্য অবদান চোখে পড়ে। কিন্তু এক্ষেত্রে কিছুটা পিছিয়ে বাংলা ভাষাভাষী আলেমরা, বিশেষত বাংলাদেশের কওমি মাদ্রাসাগুলোতে পড়েন যেসব আলেম, তারা। একথা বললে অসত্য হবে না যে, বাংলা ভাষা ও সাহিত্য চর্চার মূলধারায় তারা সেভাবে নিজেদের অবস্থান তৈরি করতে পারেননি।

তবে আশার কথা হলো— অনেক দেরিতে হলেও আমাদের দেশের কওমি পড়ুয়া আলেমরা এখন মাতৃভাষা চর্চায় জোর দিচ্ছেন এবং আগের যেকোনও সময়ের চেয়ে বাংলা ভাষা চর্চার প্রতি বেশি মনোযোগী হয়েছেন। বিগত দিনগুলোতে এ অঙ্গনের কয়েকজন আলেমের প্রচেষ্টায় দেশের কওমি মাদ্রাসাগুলোতেও এখন মাতৃভাষা বাংলা চর্চা দিন দিন উন্নতি হচ্ছে।

কওমি মাদ্রাসায় মাতৃভাষা চর্চা কীভাবে হচ্ছে, সে বিষয়ে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, বোর্ডভুক্ত (বেফাক ইত্যাদি) মাদ্রাসাগুলোতে নির্দিষ্ট শ্রেণি পর্যন্ত বাংলা, অঙ্ক, ইংরেজি, ভুগোল, সমাজ বিজ্ঞান ইত্যাদি বিষয়ে বাধ্যতামূলক পাঠদান করা হয়। পাশাপাশি বড় বড় মাদ্রাসায় বাংলা ভাষা চর্চার জন্য দেয়াল পত্রিকা, পাঠাগার ও ছাত্রদের সাহিত্য কাফেলাও আছে। দেশের ইসলামি অঙ্গনে কওমি পড়ুয়া যেসব লেখক আছেন, তাদের বেশিরভাগই মাদ্রাসার এসব নিয়মিত কার্যক্রমে অংশ নিয়ে বাংলা শিখেছেন। পাশাপাশি তাদের লেখক হওয়ার পেছনে নিজেদের ঐকান্তিক ইচ্ছা ও প্রচেষ্টার অবদানটাই অবশ্য বেশি।

আমরা দেশের চার প্রান্তের চারটি বৃহৎ কওমি মাদ্রাসায় বাংলা চর্চায় কী কী কার্যক্রম রয়েছে, সে বিষয়ে খোঁজ নিয়েছি। রাজধানীর জামিয়া হোসাইনিয়া ইসলামিয়া আরজাবাদের মুহতামিম মাওলানা বাহাউদ্দীন জাকারিয়া বলেছেন, ‘একজন আলেমের গুরু দায়িত্ব হলো— তার অর্জিত ইলম অন্যের কাছে পৌঁছে দেওয়া। আর এজন্য ভালো করে মাতৃভাষা শেখাটা খুব জরুরি। তাই আমরা শুরু থেকেই এখানের সিলেবাসে দশম শ্রেণি পর্যন্ত বাংলা ভাষা অন্তর্ভুক্ত করেছি। পাশাপাশি আমাদের মাদ্রাসায় মাতৃভাষায় সাপ্তাহিক বক্তৃতা প্রশিক্ষণ ও নিয়মিত দেয়ালিকা প্রকাশ করা হয় এবং মাঝেমধ্যে বক্তৃতা, প্রবন্ধ ও কবিতা রচনা-আবৃত্তির প্রতিযোগিতারও আয়োজন করা হয়।’

আরজাবাদ মাদ্রাসার শিক্ষার্থীদের করা দেয়ালিকা (ছবি: সংগৃহীত)

দেশের অন্যান্য অনেক মাদ্রাসার চেয়ে আরজাবাদ মাদ্রাসায় বাংলা চর্চা প্রশংসনীয়। আর এজন্য মাওলানা বাহাউদ্দীন জাকারিয়া তার মরহুম পিতা মুজাহিদে মিল্লাত শামছুদ্দীন কাসেমী (রহ.)-এর অবদানের কথা শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করেন। কারণ, মাদ্রাসাটির প্রতিষ্ঠাতা মরহুম কাসেমী-ই (রহ.) মাতৃভাষা বাংলা চর্চার এই ধারাটি সেখানে সর্বপ্রথম চালু করেছিলেন।

এ বিষয়ে কথা হয় জামিয়া কাসিমুল উলুম দরগাহে হজরত শাহজালাল (রহ.) বা সিলেট দরগাহ মাদ্রাসার শিক্ষাসচিব ও বাইতুল মোকাররমের সাবেক খতিব মাওলানা ওবায়দুল হক (রহ.)-এর ছেলে মাওলানা আতাউল হক জালালাবাদীর সঙ্গে। তিনি জানালেন, ‘তাদের প্রতিষ্ঠানে অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত অন্যান্য সাধারণ বিষয়ের পাশাপাশি মাতৃভাষা বাংলাও গুরুত্ব সহকারে পাঠদান করা হয়। এছাড়া শিক্ষার্থীদের বাংলা চর্চার জন্য এখানে আছে একটি সমৃদ্ধ পাঠাগারও।’

দক্ষিণাঞ্চলের সর্ববৃহৎ কওমি মাদ্রাসা গোপালগঞ্জের টুঙ্গীপাড়ায় অবস্থিত জামিআ ইসলামিয়া দারুল উলুম খাদিমুল ইসলাম (গওহরডাঙ্গা মাদ্রাসা)। এখানেও মাতৃভাষা বাংলা চর্চায় নানা কার্যক্রম চালু রয়েছে। প্রতিষ্ঠানটির সিনিয়র শিক্ষক ও জনপ্রিয় ইসলামি বক্তা মাওলানা সৈয়দ মাকসূদুল হক জানান, মুজাহিদে আজম আল্লামা শামছুল হক ফরিদপুরী (রহ.) প্রতিষ্ঠিত ঐতিহ্যবাহী এ প্রতিষ্ঠানে মাতৃভাষা বাংলা চর্চায় নিয়মিত সাপ্তাহিক বক্তৃতা অনুষ্ঠান, বক্তৃতা প্রশিক্ষণ ও ভাষা শিক্ষা কোর্স, বছরে অন্তত ১৫টি বাংলা দেয়ালিকা প্রকাশ, মাদ্রাসার মুখপত্র মাসিক আল আশরাফ প্রকাশ, বার্ষিক আল গওহর সংখ্যা প্রকাশ ও প্রবন্ধ প্রতিযোগিতা ইত্যাদির আয়োজন করা হয়। এছাড়া গওহরডাঙ্গা মাদ্রাসায় বিভিন্ন সময়ে নানা উপলক্ষে ভাষা শিক্ষা ও সাহিত্য চর্চার প্রতি যথেষ্ট গুরুত্ব দিয়ে রকমারি কার্যক্রমের আয়োজন থাকে আলহামদুলিল্লাহ।

২০২০ সালে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের একটি দেয়ালিকা (ছবি: সংগৃহীত)

মাতৃভাষা ও সাহিত্য চর্চা নিয়ে বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় ও অন্যতম প্রাচীন ইসলামী শিক্ষাকেন্দ্র দারুল উলূম হাটহাজারী মাদ্রাসার ভূমিকা প্রসঙ্গে কথা হয় প্রতিষ্ঠানটির নিয়মিত প্রকাশনা ‘মাসিক মুঈনুল ইসলাম’-এর সম্পাদক মাওলানা মুনির আহমদের সঙ্গে। তিনি বলেন, বাংলা ভাষা ও সাহিত্য চর্চায় দারুল উলূম হাটহাজারী মাদ্রাসার সমৃদ্ধ ইতিহাস রয়েছে। এই প্রতিষ্ঠান থেকে ১৯৩৪ সাল থেকে ‘ইসলাম প্রচার’ নামে বাংলা ভাষায় একটি মাসিক পত্রিকার প্রকাশ শুরু হয়। সে সময় চট্টগ্রামে ছাপাখানা না থাকায় সমুদ্রপথে সুদূর রেঙ্গুন থেকে পত্রিকাটি ছাপিয়ে আনা হতো। পরবর্তী সময়ে ১৯৪৮ সালে এই ‘ইসলাম প্রচার’ নামের পরিবর্তন করে ‘মাসিক মুঈনুল ইসলাম’ নামকরণ করা হয়— যা এ যাবত নিয়মিত প্রকাশিত হয়ে আসছে। ইসলামের বিধিবিধান, মানবিক, সামাজিক, আর্থিক ও ন্যায়-ইনসাফ এবং নীতি-দর্শনের বাংলা ভাষায় প্রচার-প্রসারে দেশের সবচেয়ে প্রাচীন ইসলামী পত্রিকা হিসেবে এর খ্যাতি রয়েছে।

তিনি বলেন, প্রতিষ্ঠানালগ্ন থেকেই দারুল উলূম হাটহাজারী মাদ্রাসায় মাতৃভাষা বাংলার চর্চাকে গুরুত্ব দেওয়া হয়। এই প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক ও ছাত্রদের লিখিত সহস্রাধিক বই রয়েছে বাংলা ভাষায়। এই প্রতিষ্ঠানের ফতোয়া বিভাগ থেকে ইসলামের বিভিন্ন বিধিবিধান নিয়ে যেসব ফতোয়া লেখা হয়, তাও বাংলাতেই লেখা হয়। একই বিভাগ থেকে ‘দুরুসুল ফিকহ’ নামে বাংলা ভাষায় গবেষণা স্তরের এক সিরিজ ফতোয়া গ্রন্থ প্রকাশিত হয়।

মাওলানা মুনির আহমদ বলেন, উম্মুল মাদারিস বা কওমি মাদ্রাসা জননী খ্যাত বাংলাদেশের বড় এই ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানে প্রাথমিক থেকে নিম্নমাধ্যমিক স্তর পর্যন্ত বাংলা ভাষা শিক্ষা দেওয়া হয়। ‘বাংলা ভাষা ও সাহিত্য বিভাগ’ নামে স্নাতকোত্তর শিক্ষার্থীদের জন্য একটি পৃথক বিভাগও রয়েছে এখানে। যেখানে ৬ জন শিক্ষকের তত্ত্বাবধানে বাংলা সাহিত্যের ওপর স্নাতকোত্তর তরুণ আলেমদের উচ্চতর বাংলা ভাষা পাঠ ও সাহিত্য চর্চার পাঠ দেওয়া হয়।

তিনি আরও বলেন, এছাড়া লেখালেখির চর্চা এবং আরবি, উর্দু ও ফার্সি থেকে বাংলা ভাষায় অনুবাদের ওপর প্রশিক্ষণ দিতে হাটহাজারী মাদ্রাসায় ‘শুবায়ে তাসনিফাত’ বা  লেখালেখির চর্চার ওপর পৃথক আরও একটি স্নাতকোত্তর বিভাগ রয়েছে। এই বিভাগের তত্ত্বাবধানে বাংলা ভাষায় সিরিজ ফতোয়া গ্রন্থ প্রকাশ করা হয়।

লেখক: গণমাধ্যমকর্মী, শিক্ষক, মারকাযুদ দিরাসাহ আল ইসলামিয়্যাহ, ঢাকা

/এপিএইচ/
সম্পর্কিত
‘দুর্নীতিবাজ’ সেই মাদ্রাসা শিক্ষকের বিরুদ্ধে তদন্ত হচ্ছে
ডিপ্লোমাধারীদের বিএসসির মর্যাদা দিতে কমিটি
আগুনে বিলীন ২৫০ মাদ্রাসাশিক্ষার্থীর পাঠকেন্দ্র
সর্বশেষ খবর
চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নির্বাচন: কোন পদে লড়ছেন কে
চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নির্বাচন: কোন পদে লড়ছেন কে
মেট্রোরেল চলাচলে আসতে পারে নতুন সূচি
মেট্রোরেল চলাচলে আসতে পারে নতুন সূচি
দাঁড়িয়ে থাকা ট্রাকে ধাক্কা লেগে মোটরসাইকেল আরোহী মামা-ভাগনে নিহত
দাঁড়িয়ে থাকা ট্রাকে ধাক্কা লেগে মোটরসাইকেল আরোহী মামা-ভাগনে নিহত
বৈশাখী মেলা বসানো নিয়ে দুই ‘কিশোর গ্যাংয়ের’ সংঘর্ষে যুবক নিহত
বৈশাখী মেলা বসানো নিয়ে দুই ‘কিশোর গ্যাংয়ের’ সংঘর্ষে যুবক নিহত
সর্বাধিক পঠিত
‘ভুয়া ৮ হাজার জনকে মুক্তিযোদ্ধার তালিকা থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে’
‘ভুয়া ৮ হাজার জনকে মুক্তিযোদ্ধার তালিকা থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে’
হজ নিয়ে শঙ্কা, ধর্ম মন্ত্রণালয়কে ‍দুষছে হাব
হজ নিয়ে শঙ্কা, ধর্ম মন্ত্রণালয়কে ‍দুষছে হাব
এএসপি বললেন ‌‘মদ নয়, রাতের খাবার খেতে গিয়েছিলাম’
রেস্তোরাঁয় ‘মদ না পেয়ে’ হামলার অভিযোগএএসপি বললেন ‌‘মদ নয়, রাতের খাবার খেতে গিয়েছিলাম’
এবার নায়িকার দেশে ‘রাজকুমার’ 
এবার নায়িকার দেশে ‘রাজকুমার’ 
‘আমি এএসপির বউ, মদ না দিলে রেস্তোরাঁ বন্ধ করে দেবো’ বলে হামলা, আহত ৫
‘আমি এএসপির বউ, মদ না দিলে রেস্তোরাঁ বন্ধ করে দেবো’ বলে হামলা, আহত ৫