X
শনিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০ আশ্বিন ১৪২৮

সেকশনস

অক্সিজেন কারখানায় অভিযানে শ্রমিকদের মারধরের অভিযোগ

আপডেট : ২৫ জুলাই ২০২১, ২৩:৫৫

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে এ কে অক্সিজেন লিমিটেড কারখানায় অভিযান চালিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। এ সময় ভ্রাম্যমাণ আদালতের সঙ্গে থাকা আনসার সদস্যরা ওই কারখানার কয়েকজন শ্রমিককে মারধর করেছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। মারধর করায় শ্রমিকরা উৎপাদন কাজ বন্ধ করে দিয়ে সেখানে বিক্ষোভ করেন।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) আতিকুল ইসলামের নেতৃত্বে শনিবার দুপুর ১টায় উপজেলার বরপা এলাকার কারখানাটিতে এই অভিযান পরিচালনা করা হয়।

কারখানায় কর্মরত কয়েকজন শ্রমিক জানান, অভিযানের সময় করোনা হাসপাতালে সরবরাহের জন্য অক্সিজেন উৎপাদনের কথা জানালেও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের উপস্থিতিতেই আনসার বাহিনীর সদস্যরা তাদের ধাওয়া করেন। কয়েকজন শ্রমিককে তারা মারধরও করেন। তাদের মারধরে নজরুল ইসলাম নামে এক শ্রমিক গুরুতর আহত হলে তাকে স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা দেওয়া হয়। এ সময় অন্য শ্রমিকরা উৎপাদন কাজ বন্ধ করে দিয়ে কারখানার ভেতরে বিক্ষোভ শুরু করেন। তখন ভ্রাম্যমাণ আদালত সেখান থেকে দ্রুত চলে যায়। সন্ধ্যা পৌনে ৭টা পর্যন্ত শ্রমিকরা বিক্ষোভ করলে প্রায় ছয় ঘণ্টা অক্সিজেন উৎপাদন বন্ধ থাকে। পরে খবর পেয়ে জেলা প্রশাসন ও উপজেলা প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা কারখানার মালিকপক্ষের সঙ্গে কথা বলে দুঃখ প্রকাশ করলে ৭টার দিকে শ্রমিকরা পুনরায় কাজে যোগ দেন।

এ ব্যাপারে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) আতিকুল ইসলাম বলেন, ‘স্থানীয় লোক মারফত আমরা জানতে পারি বরপা এরাকায় এ কে অক্সিজেন লি. নামের একটি কারখানায় অক্সিজেনের পাশাপাশি লোহার রড উৎপাদন কাজ চলছে। লকডাউনে শিল্প-কারখানা বন্ধ রাখার বিধিনিষেধ অমান্য করে এখানে লোহাজাতীয় সামগ্রী উৎপাদন চলছে শুনে আমরা সেখানে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করি। সেখানে গেলে আমাদের দেখে শ্রমিকরা ভয়ে দৌড়ে পালিয়ে যান। আমরা তখন কারখানার কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা বলি। তাদের কাছ থেকে অক্সিজেন উৎপাদনের বিষয়টি জানতে পেরে আমরা সেখান থেকে চলে আসি।’ তবে আনসার সদস্যরা কোনও শ্রমিককে মারধর করেনি বলে তিনি দাবি করেন।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) শাহ নুসরাত জাহান বলেন, ‘লকডাউন বাস্তবায়নের লক্ষ্যেই বিভিন্ন কারখানায় ভ্রাম্যমাণ আদালত অভিযান পরিচালনা করছেন। এটা উপজেলা প্রশাসনের নিয়মিত কাজের অংশ। তবে সহকারী কমিশনার (ভূমি) ওই কারখানায় গিয়ে অক্সিজেন উৎপাদনের কথা জানতে পেরে চলে আসেন।’

শ্রমিকদের মারধরের অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘এ ব্যাপারে আমরা কোনও প্রমাণ বা অভিযোগ পাইনি। যদি তদন্তে এ রকম কোনও প্রমাণ পাওয়া যায় তাহলে অবশ্যই আমরা ব্যবস্থা নেবো।’

/এমএএ/

সম্পর্কিত

বঙ্গবন্ধু সাফারি পার্কে জন্ম নেওয়া সিংহ-শাবক মারা গেছে

বঙ্গবন্ধু সাফারি পার্কে জন্ম নেওয়া সিংহ-শাবক মারা গেছে

‘১৭ হাজার কোটি টাকার এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে ২০২৬ সালে চালু’

‘১৭ হাজার কোটি টাকার এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে ২০২৬ সালে চালু’

পদ্মার ১২ কেজির চিতল ১৯ হাজারে বিক্রি

পদ্মার ১২ কেজির চিতল ১৯ হাজারে বিক্রি

নিকলী হাওরে নিখোঁজ পর্যটকের লাশ উদ্ধার

নিকলী হাওরে নিখোঁজ পর্যটকের লাশ উদ্ধার

জাতিসংঘে প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া ভাষণে মুগ্ধ মার্কিন রাষ্ট্রদূত

আপডেট : ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৮:২৫

জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের ৭৬তম অধিবেশনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দেওয়া ভাষণে মুগ্ধ হয়েছেন বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশে নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত আর্ল রবার্ট মিলার।

শনিবার (২৫ সেপ্টেম্বর) সকাল ১০টায় কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের চিকিৎসক ও নার্সদের প্রশিক্ষণকেন্দ্র এবং টিবি রোগ নিরাময়কেন্দ্র উদ্বোধন ও পরিদর্শনকালে তিনি এ কথা জানান। এ সময় উপস্থিত ছিলেন- কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ডা. মহিউদ্দিনের, উপ-পরিচালক সাজেদা খাতুন, আইইডিসিআর কর্মকর্তা ও আমেরিকান দূতাবাসের কর্মকর্তারা।

রাষ্ট্রদূত জলবায়ু পরিবর্তন এবং কোভিড-১৯ পরবর্তী অর্থনীতি পুনরুদ্ধার, খাদ্য নিরাপত্তা, সমতা ও টেকসই উন্নয়নসহ ভাষণে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য তুলে ধরায় প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানান। তিনি বলেন, ‘কোভিড-১৯ নিয়ন্ত্রণে বাংলাদেশ সরকার দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে এগিয়ে আছে।’

এদিকে, বেলা ১১টায় কুমিল্লা সিটি করপোরেশনের মেয়র মো. মনিরুল হক সাক্কুর সঙ্গে এক ঘণ্টা বৈঠক করেন মার্কিন রাষ্ট্রদূত।

হাসপাতাল পরিদর্শনে মার্কিন রাষ্ট্রদূত

বৈঠক শেষে মেয়র বলেন, ‘কুমিল্লা সিটি করপোরেশনের জলাবদ্ধতা দূর করতে ও কীভাবে ময়লা-আবর্জনার বিকল্প ব্যবহার করা যায়, তা নিয়ে কথা হয়েছে। মার্কিন রাষ্ট্রদূত গুরুত্বসহকারে কথা শুনেছেন। পাশাপাশি কুমিল্লা সিটি করপোরেশনের সমস্যা সমাধানে যুক্তরাষ্ট্র সহযোগিতা করতে প্রস্তুত।’

এ সময় উপস্থিত ছিলেন- আমেরিকান চেম্বার অব কমার্সের সাবেক সভাপতি ও বাংলাদেশ ব্যাংকের পরিচালক আফতাবুল ইসলাম মঞ্জু, অতিরিক্ত প্রশাসক মোহাম্মদ শাহাদাত হোসেন, কুমিল্লা সিটি করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ড. সফিকুল ইসলাম, জেলা সিভিল সার্জন মীর মোবারক হোসেন, দৈনিক কুমিল্লার কাগজের সম্পাদক আবুল কাশেম হৃদয় প্রমুখ।

এরপর মার্কিন রাষ্ট্রদূত আর্ল রবার্ট মিলার কুমিল্লা লাকসাম উপজেলার পশ্চিমগাঁও অবস্থিত নবাব ফয়জুন্নেছা চৌধুরানীর বাড়ি পরিদর্শন করেন। তখন লাকসাম উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাসহ স্থানীয় রাজনৈতিক এবং প্রশাসনিক কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। বিকাল ৫টায় মার্কিন রাষ্ট্রদূত ব্র্যাকের একটি কর্মসূচিতে যোগদানের কথা রয়েছে।

/এফআর/

সম্পর্কিত

ছাত্রীকে ধর্ষণ করে ভিডিও ধারণের অভিযোগে প্রধান শিক্ষক গ্রেফতার

ছাত্রীকে ধর্ষণ করে ভিডিও ধারণের অভিযোগে প্রধান শিক্ষক গ্রেফতার

ক্যাম্পের পাহাড়ি ছড়ায় আরও এক বুনো হাতির মৃতদেহ

ক্যাম্পের পাহাড়ি ছড়ায় আরও এক বুনো হাতির মৃতদেহ

‘মিটারগেজ রেলপথকে ব্রডগেজে রূপান্তর করা হবে’

‘মিটারগেজ রেলপথকে ব্রডগেজে রূপান্তর করা হবে’

অগ্রসর হচ্ছে নিম্নচাপ ‘গুলাব’, সতর্ক অবস্থানে স্বেচ্ছাসেবকরা

আপডেট : ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৮:২২

উপকূলে ধেয়ে আসছে গভীর নিম্নচাপ গুলাব মোকাবিলায় খুলনা জেলা প্রশাসন প্রস্তুতি নিতে শুরু করেছে। বিভিন্ন উপজেলায় স্বেচ্ছাসেবকরা সতর্ক অবস্থানে রয়েছেন। জেলা প্রশাসন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটির মিটিং করার প্রস্তুতি নিচ্ছে।

খুলনা জেলা প্রশাসক মো. মনিরুজ্জামান তালুকদার জানান, খুলনার উপকূলে যেকোনও ধরনের দুর্যোগ মোকাবিলায় দুর্যোগ প্রস্তুতি কমিটি ও স্বেচ্ছাসেবকরা সতর্ক অবস্থায় থাকেন। খুলনা সব সময় দুর্যোগপ্রবণ এলাকা। এ কারণে খুলনা জেলা প্রশাসনের প্রস্তুতি সব সময়ই থাকে। সতর্কতায় কোনও ঘাটতি নেই। আশ্রয় কেন্দ্রগুলো পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন ও সক্রিয় অবস্থায় রাখা হয়। স্বেচ্ছাসেবকরা এগুলো সার্বক্ষণিক দেখভাল করে থাকেন। গভীর নিম্নচাপ গুলাব এগিয়ে আসার সঙ্গে সঙ্গে স্বেচ্ছাসেবকরা প্রস্তুতি নিতে শুরু করেছেন। জেলা প্রশাসন থেকে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটির মিটিং ডেকে এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় দিক-নির্দেশনা দেওয়া হবে।

জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, খুলনার ৩৪৯টি আশ্রয় কেন্দ্রের মধ্যে রয়েছে– সরকারি (সাধারণ) ২৫০টি, সরকারি (মাল্টিপারপাস) ২৪টি, বেসরকারি ৭৫টি। এ সব আশ্রয় কেন্দ্রের মধ্যে দাকোপ উপজেলায় ৮৯টি আশ্রয়কেন্দ্রে ৬২ হাজার ২৫০ জন, বটিয়াঘাটা উপজেলায় সাতাশটি আশ্রয় কেন্দ্রে ১৫ হাজার জন, পাইকগাছা উপজেলায় ৩২টি আশ্রয় কেন্দ্রে ২৬ হাজার ২৫০ জন, কয়রা উপজেলায় ১২১টি আশ্রয় কেন্দ্রে ৮৭ হাজার, ডুমুরিয়া উপজেলায় ২৯টি আশ্রয়কেন্দ্রে ১২ হাজার ৭৫০ জন, রূপসা উপজেলায় ২৯টি আশ্রয় কেন্দ্রে ২০ হাজার ৩০০ জন এবং তেরখাদা উপজেলায় ২২টি আশ্রয় কেন্দ্রে ১৫ হাজার ৪০০ জন অবস্থান নিতে পারবে। এ সব উপজেলার মধ্যে দাকোপে এক হাজার ৩৬৫ জন এবং কয়রায় এক হাজার ৯৫ জন স্বেচ্ছাসেবক সজাগ দৃষ্টি রেখেছেন। আরও এক হাজার ১০০ স্বেচ্ছাসেবক তৎপর রয়েছেন।

শনিবার বেলা ২টা পর্যন্ত আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, পূর্ব-মধ্য বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন এলাকায় তৈরি গভীর নিম্নচাপটি আরও ঘনীভূত হয়ে উত্তর-পশ্চিম দিকে অগ্রসর হচ্ছে। বর্তমানে এটি উত্তর মধ্য বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন এলাকায় অবস্থান করছে। এটি আরও ঘনীভূত হয়ে আগামী ২৬ সেপ্টেম্বর নাগাদ ভারতের মধ্যে উড়িষ্যা উপকূল অতিক্রম করতে পারে। মধ্য বঙ্গোপসাগর উত্তাল রয়েছে এবং উত্তর বঙ্গোপসাগর উত্তাল হতে চলেছে। এ সময় সাগর ভ্রমণে যাওয়া একেবারে নিরাপদ নয়। তাই সতর্ক থাকার জন্য বলা হয়েছে।

এ নিম্নচাপের প্রভাবে ইতোমধ্যে ঢাকা, টাঙ্গাইল, ব্রাহ্মণবাড়িয়া, গাজীপুর, মুন্সীগঞ্জ, কুমিল্লা ও কুড়িগ্রামের কিছু স্থানে বৃষ্টি হচ্ছে বা হতে চলেছে। পরবর্তী সময়ে ধীরে ধীরে দেশে বৃষ্টিপাতের মাত্রা বৃদ্ধি পাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

 

/এমএএ/

সম্পর্কিত

ব্রেক করলেই উঠে যাচ্ছে ৩২১ কোটি টাকার সড়কের কার্পেটিং

ব্রেক করলেই উঠে যাচ্ছে ৩২১ কোটি টাকার সড়কের কার্পেটিং

ইমামের বক্তব্য নিয়ে জুমা শেষে সংঘর্ষ, হাসপাতালে ২১

ইমামের বক্তব্য নিয়ে জুমা শেষে সংঘর্ষ, হাসপাতালে ২১

ধাক্কা দেওয়া সিএনজির ওপর একই ট্রাকের চাপা, নিহত ৪

ধাক্কা দেওয়া সিএনজির ওপর একই ট্রাকের চাপা, নিহত ৪

নির্বাচনের আগেই খুলনায় পূর্ণাঙ্গভাবে চালু হবে বিটিভি: তথ্যমন্ত্রী

নির্বাচনের আগেই খুলনায় পূর্ণাঙ্গভাবে চালু হবে বিটিভি: তথ্যমন্ত্রী

ট্রেনে ডাকাতি-খুনের ঘটনায় মামলা, আটক ১

আপডেট : ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৮:০৪

ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা দেওয়ানগঞ্জগামী কমিউটার এক্সপ্রেস ট্রেনের ছাদে ডাকাতি ও খুনের ঘটনায় ময়মনসিংহ রেলওয়ে থানায় মামলা হয়েছে। এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত সন্দেহভাজন একজনকে আটক করা হয়েছে।

শনিবার (২৫ সেপ্টেম্বর) দুপুরে ময়মনসিংহ রেলওয়ে থানার এসআই মো. আকবর হোসেন জানান, শুক্রবার (২৪ সেপ্টেম্বর) রাতে মামলাটি করেন এ ঘটনায় নিহত মো. সাগরের মা হনুফা বেগম। মামলায় অজ্ঞাত কয়েকজনকে আসামি করা হয়েছে। তিনি জামালপুর পৌর শহরের বাগেরহাট বটতলা এলাকার বাসিন্দা। মামলার তদন্তের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে ময়মনসিংহ রেলওয়ে থানার ওসি মো. মামুন রহমানকে। এ ঘটনায় পুলিশি অভিযানে সন্দেহভাজন একজনকে আটক করা হয়েছে।

ওসি মামুন রহমান জানান, ‘ডাকাতির ঘটনায় শুক্রবার রাতেই একটি মামলা দায়ের করা হয়। আমরা বিষয়টি গুরুত্বের সঙ্গে তদন্ত করছি। ইতোমধ্যেই সন্দেহভাজন একজনকে আটক করা হয়েছে। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। আশা করছি, খুব শিগগিরিই জড়িতদের আইনের আওতায় আনতে পারবো।

উল্লেখ্য, গত বৃহস্পতিবার (২৩ সেপ্টেম্বর) বিকালে ঢাকার কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশন থেকে ছেড়ে আসা দেওয়ানগঞ্জগামী ৫১নং কমিউটার ট্রেনটি গফরগাঁও রেলওয়ে স্টেশন ছেড়ে এলে সংঘবদ্ধ ডাকাত দলের সদস্যরা ছাদে ভ্রমণরত যাত্রীদের ওপর হামলা চালায়। এ ঘটনায় জামালপুর পৌরশহরের বাগেরহাট বটতলা এলাকার মো. সাগর (২৫) ও দেওয়ানগঞ্জ উপজেলার সানন্দবাড়ী মিতালী বাজার এলাকার মো. রুবেল (২৫) নামের
দুই যাত্রী নিহত হন।

/এফআর/

সম্পর্কিত

ট্রেনে ডাকাতির সময় হত্যার ঘটনায় মামলা

ট্রেনে ডাকাতির সময় হত্যার ঘটনায় মামলা

ময়মনসিংহ মেডিক্যালে বেড়েছে মৃত্যু  

ময়মনসিংহ মেডিক্যালে বেড়েছে মৃত্যু  

বিকল ট্রাকে পিকআপভ্যানের ধাক্কায় নিহত ৩

বিকল ট্রাকে পিকআপভ্যানের ধাক্কায় নিহত ৩

মেয়ের জামাইকে গাছের সঙ্গে বেঁধে পেটালেন শ্বশুর-শাশুড়ি!

মেয়ের জামাইকে গাছের সঙ্গে বেঁধে পেটালেন শ্বশুর-শাশুড়ি!

৭০ বছর পর মায়ের সন্ধান পেলেন কুদ্দুস

আপডেট : ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৭:৪৫

মনে আছে? বাংলা সিনেমার সেই পরিচিত গল্পের কথা। ছোটবেলায় হারিয়ে যাওয়া, এরপর নানা চড়াই-উতরাই শেষে পরিবারকে খুঁজে পাওয়া। নির্ধারিত দৃশ্যপটে এমন কাহিনি অনেকবার দেখা হলেও এবার বাস্তবেও যেন সেই সিনেমার গল্প সামনে এলো। মাত্র ১০ বছর বয়সে হারিয়ে যান ব্রাহ্মণবাড়িয়া নবীনগর উপজেলার বাড্ডা গ্রামের আব্দুল কুদ্দুস মুন্সী। তখনকার কিশোর কুদ্দুস জানতেন না তার বাড়ি কোথায়। শুধু জানতেন, গ্রামের নাম। এরপর কেটে গেছে ৭০ বছর। তবে এর সূত্র ধরে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকের কল্যাণে ৭০ বছর পর বাড়ির ঠিকানাসহ প্রিয়জনদের খুঁজে পেয়েছেন কুদ্দুস। ফিরেছেন মায়ের কাছে। তবে মাঝে কেটে গেছে ৭০ বছর। সে দিনের কিশোর কুদ্দুস এখন ৮০ বছরের বৃদ্ধ। প্রায় ছয় যুগ ছেলের অপেক্ষায় থাকা মা মঙ্গলেমা বিবির বয়স ১১০।

হারিয়ে যাওয়ার পর আব্দুল কুদ্দুস মুন্সী রাজশাহীর বাগমারা উপজেলার বারুইপাড়া গ্রামের বাসিন্দা বনে যান। শনিবার (২৫ সেপ্টেম্বর) বেলা সাড়ে ১১টায় বাহ্মণবাড়িয়ার বাঞ্ছারামপুর উপজেলার আশ্রাফবাদ গ্রামে ঝরনা বেগমের বাড়িতে মা ছেলের দেখা হয়।

হারিয়ে যাওয়ার প্রসঙ্গে কুদ্দুস বলেন, ‘আমি আমার চাচার সঙ্গে বাগমারা (রাজশাহী) থানায় বেড়াতে আসি। চাচা ছিলেন থানার দারোগা। তিন দিন চাচার সঙ্গে ছিলাম। সেখানে ভালো লাগছিল না। এ জন্য বেড়াতে বের হয়ে হারিয়ে যাই। হাঁটতে হাঁটতে চলে যাই আত্রাইয়ের সিংসাড়া গ্রামে। ওই গ্রামের সাদেক আলীর বাড়িতে আশ্রয় পাই এবং সেখানেই বড় হই। পরে বাগমারা বারুইপাড়া গ্রামে বিয়ে করে সেখানে সংসার শুরু করি।’

তার স্বজনরা জানান, খোঁজ পাওয়ার পরই মায়ের সঙ্গে ভিডিও কলে কথাও বলেছেন কুদ্দুস। এত বছর পর নিজের পরিবার খুঁজে পাওয়ায় খুশি কুদ্দুসের স্ত্রী-সন্তানরাও।

হারিয়ে যাওয়া আব্দুল কুদ্দুস মুন্সী

কুদ্দুসের চাচাতো ভাইয়ের নাতি শফিকুল ইসলাম বলেন, ‘গত ১২ এপ্রিল কুদ্দুস মুন্সীর বর্তমান ঠিকানার পাশের গ্রামের (বাগমারা উপজেলার) আইয়ুব আলী নামের এক ব্যক্তি ফেসবুকে তাকে নিয়ে একটি পোস্ট দেন। সেখানে শুধু কুদ্দুসের বাবা-মা ও বাড্ডা গ্রামের নাম ছিল। এরপর আমরা আইয়ুব আলীর সঙ্গে যোগাযোগ করে কুদ্দুসকে খুঁজে পাই। কুদ্দুস মুন্সীর ভাগ্নেসহ আমরা চারজন গত ২১ সেপ্টেম্বর (মঙ্গলবার) তার রাজশাহীর বাড়িতে আসি।’

শফিকুল ইসলাম আরও বলেন, ‘তারা তিন ভাইবোন ছিলেন। তার মায়ের নাম মঙ্গলেমা বিবি। ২১ সেপ্টেম্বর মায়ের সঙ্গে ভিডিও কলে কথা বলেছেন কুদ্দুস।’

কুদ্দুস বলেন, ‘মায়ের সঙ্গে যখন ভিডিও কলে প্রথম কথা বলি, তখন আমার মা আমাকে বলেন, তুই আমার হারিয়ে যাওয়া কুদ্দুস, বাবা। তোর ছোটবেলায় হাত কেটে গিয়েছিল। মায়ের মুখে এ কথা শোনার পর আমি বলি, মা তোর কুদ্দুসের কোন হাত কেটে গিয়েছিল? তখন মা বলে, বাম হাতের বুড়ো আঙুল কেটে গিয়েছিল। তখন আমি বুঝতে পারি যে তিনিই আমার মা।’

বর্তমানে কুদ্দুসের তিন ছেলে ও পাঁচ মেয়ে রয়েছে। মেয়েদের বিয়ে হয়েছে। দুই ছেলে থাকেন বিদেশে। আর এক ছেলে বাড়িতে আছেন বলে জানান কুদ্দুস।

আইয়ুব আলী বলেন, ‘বারুইপাড়া বাজারের মোড়ে এক চায়ের দোকানে বসে ৭০ বছর আগে হারিয়ে যাওয়ার গল্প বলছিলেন আব্দুল কুদ্দুস মুন্সী। তার গল্পটি মোবাইল ফোনে ধারণ করে গত ১২ এপ্রিল আমার ফেসবুক পেজে আপলোড করি। লিখেছিলাম, ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নবীনগর থানার এই বৃদ্ধ আজ থেকে প্রায় ৭০ বছর আগে হারিয়ে যাওয়ার পর মা-বাবা থেকে বিচ্ছিন্ন।’

বহু মানুষ সেই পোস্টটি শেয়ার করেন জানিয়ে আইয়ুব বলেন, ‘কিছু প্রবাসী আমার ফ্রেন্ড লিস্টে আছেন। তারা দেখেন সেটা। তারপর ওই এলাকার মানুষ ফেসবুকে আব্দুল কুদ্দুসের ভিডিও দেখে যোগাযোগ করেন।’

/এফআর/

সম্পর্কিত

আমি আপনাদের বেতনভুক্ত চাকর: পলক

আমি আপনাদের বেতনভুক্ত চাকর: পলক

মাতব্বরদের ভয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন মাথা ন্যাড়া করে দেওয়া বাউল

মাতব্বরদের ভয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন মাথা ন্যাড়া করে দেওয়া বাউল

মেসে ফ্রিতে থাকতে পারবেন রাবি ভর্তি পরীক্ষার্থীরা

মেসে ফ্রিতে থাকতে পারবেন রাবি ভর্তি পরীক্ষার্থীরা

ছাত্রীদের অনলাইন ক্লাসে ঢুকে ‘নাগিন ড্যান্স’

ছাত্রীদের অনলাইন ক্লাসে ঢুকে ‘নাগিন ড্যান্স’

আমি আপনাদের বেতনভুক্ত চাকর: পলক

আপডেট : ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৭:১৪

সাধারণ জনতার উদ্দেশে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট জুনাইদ আহমেদ পলক বলেছেন, ‘আমি আপনাদের বেতনভুক্ত চাকর। আপনাদের ট্যাক্সের টাকায় আমার সংসার চলে। তাই আপনাদের সেবা করাই আমার কাজ।’ শনিবার (২৫ সেপ্টেম্বর) সকাল ১০টায় নাটোরের সিংড়া উপজেলায় বন্যার্তদের মাঝে ত্রাণসামগ্রী বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

জনগণের সেবায় তথ্যপ্রযুক্তিকে কাজে লাগাতে দিন-রাত শ্রম দিচ্ছেন উল্লেখ করে পলক বলেন, ‘এখন কোথাও আগুন লাগলে, চুরি-ডাকাতি হলে, মাদক ব্যবসা করলে, অ্যাম্বুলেন্স প্রয়োজন হলে ৯৯৯-এ ফোন করলেই সেবা পেয়ে যান জনগণ। আর এ সবকিছুই সম্ভব হয়েছে প্রযুক্তির সহায়তায়। শুধু তাই নয়, করোনাকালে স্কুল-কলেজ বন্ধ থাকলেও অনলাইন শিক্ষা চালু ছিল; যা সম্ভব করেছেন ডিজিটাল বাংলাদেশের স্থপতি সজীব ওয়াজেদ জয়।’

তিনি আরও বলেন, ‘করোনার সময়ে মামলার জট কমাতে চালু ছিল ভার্চুয়াল আদালত। যার ফলে দেড় লাখ মামলার শুনানি হয়েছে। এ ছাড়া প্রযুক্তির সহায়তায় ডিজিটাল কুরবানির হাট চালু ছিল। যার ফলে করোনায় অর্থনীতির চাকা ছিল সচল।’

জনসেবায় প্রধানমন্ত্রীর কর্মদক্ষতার উদাহরণ এনে পলক বলেন, ‘বিশ্বের সব রাষ্ট্র যাতে করোনার ভ্যাকসিন পায় সেজন্য প্রধানমন্ত্রী জাতিসংঘে জোর দাবি জানান। এ জন্য আজ সারাবিশ্ব করোনার ভ্যাকসিন পাওয়ার নিশ্চয়তায় এসেছে।’

সিংড়া পৌর মেয়র (ভারপ্রাপ্ত) সঞ্জয় কুমার সাহার সভাপতিত্বে এ সময় বক্তব্য রাখেন– উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এম এম সামিরুল ইসলাম, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট ওহিদুর রহমান শেখ, হুয়াওয়ে টেকনোলজি বাংলাদেশের প্রেসিডেন্ট জর্জ লিন, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান কামরুল হাসান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক মাওলানা রুহুল আমিন।

/এমএএ/

সম্পর্কিত

৭০ বছর পর মায়ের সন্ধান পেলেন কুদ্দুস

৭০ বছর পর মায়ের সন্ধান পেলেন কুদ্দুস

মাতব্বরদের ভয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন মাথা ন্যাড়া করে দেওয়া বাউল

মাতব্বরদের ভয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন মাথা ন্যাড়া করে দেওয়া বাউল

মেসে ফ্রিতে থাকতে পারবেন রাবি ভর্তি পরীক্ষার্থীরা

মেসে ফ্রিতে থাকতে পারবেন রাবি ভর্তি পরীক্ষার্থীরা

ছাত্রীদের অনলাইন ক্লাসে ঢুকে ‘নাগিন ড্যান্স’

ছাত্রীদের অনলাইন ক্লাসে ঢুকে ‘নাগিন ড্যান্স’

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

বঙ্গবন্ধু সাফারি পার্কে জন্ম নেওয়া সিংহ-শাবক মারা গেছে

বঙ্গবন্ধু সাফারি পার্কে জন্ম নেওয়া সিংহ-শাবক মারা গেছে

‘১৭ হাজার কোটি টাকার এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে ২০২৬ সালে চালু’

‘১৭ হাজার কোটি টাকার এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে ২০২৬ সালে চালু’

পদ্মার ১২ কেজির চিতল ১৯ হাজারে বিক্রি

পদ্মার ১২ কেজির চিতল ১৯ হাজারে বিক্রি

নিকলী হাওরে নিখোঁজ পর্যটকের লাশ উদ্ধার

নিকলী হাওরে নিখোঁজ পর্যটকের লাশ উদ্ধার

নিকলীর হাওরে গোসল নেমে ২ পর্যটক নিখোঁজ

নিকলীর হাওরে গোসল নেমে ২ পর্যটক নিখোঁজ

একই ব্যানারে গাজীপুরে আ.লীগের পাল্টাপাল্টি সমাবেশ

একই ব্যানারে গাজীপুরে আ.লীগের পাল্টাপাল্টি সমাবেশ

টাকা নিয়ে দ্বন্দ্ব, মারধরের ৮ দিন পর ছাত্রলীগকর্মীর মৃত্যু

টাকা নিয়ে দ্বন্দ্ব, মারধরের ৮ দিন পর ছাত্রলীগকর্মীর মৃত্যু

গাজীপুরের মেয়রের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ, অগ্নিসংযোগ

গাজীপুরের মেয়রের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ, অগ্নিসংযোগ

প্রবাসীর স্ত্রীকে ৭ দিন আটকে রেখে ধর্ষণের অভিযোগ

প্রবাসীর স্ত্রীকে ৭ দিন আটকে রেখে ধর্ষণের অভিযোগ

সর্বশেষ

থানার ওসি চাইলেই হ্যামিলনের বাঁশিওয়ালা হতে পারেন‌: আইজিপি

থানার ওসি চাইলেই হ্যামিলনের বাঁশিওয়ালা হতে পারেন‌: আইজিপি

জাতিসংঘে প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া ভাষণে মুগ্ধ মার্কিন রাষ্ট্রদূত

জাতিসংঘে প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া ভাষণে মুগ্ধ মার্কিন রাষ্ট্রদূত

অগ্রসর হচ্ছে নিম্নচাপ ‘গুলাব’, সতর্ক অবস্থানে স্বেচ্ছাসেবকরা

অগ্রসর হচ্ছে নিম্নচাপ ‘গুলাব’, সতর্ক অবস্থানে স্বেচ্ছাসেবকরা

ইবি লেকের দুঃখগাথা

ইবি লেকের দুঃখগাথা

জাতিসংঘ অধিবেশনে ভাষণের সুযোগ পাচ্ছেন না তালেবান প্রতিনিধি

জাতিসংঘ অধিবেশনে ভাষণের সুযোগ পাচ্ছেন না তালেবান প্রতিনিধি

© 2021 Bangla Tribune