X
শুক্রবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১ আশ্বিন ১৪২৮

সেকশনস

বাগদাদে মার্কিন দূতাবাসের কাছে রকেট হামলা

আপডেট : ২৯ জুলাই ২০২১, ২১:০০
image

ইরাকের রাজধানী বাগদাদের সুরক্ষিত গ্রিন জোনে মার্কিন দূতাবাসের কাছে রকেট হামলা হয়েছে। বৃহস্পতিবার ভোরে এই হামলা চালানো হয়। তবে এতে কেউ হতাহত বা কোনও ক্ষয়ক্ষতি হয়নি। ফরাসি বার্তা সংস্থা এএফপি জানিয়েছে, ইরাকি প্রধানমন্ত্রী মুস্তফা আল-খাদিমি ওয়াশিংটন সফর থেকে ফেরার দিনেই এই হামলার ঘটনা ঘটলো।

গত সোমবার মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের সঙ্গে হোয়াইট হাউজে সাক্ষাৎ করেন ইরাকের প্রধানমন্ত্রী মুস্তফা আল-খাদিমি। ওই বৈঠকে ইরাক থেকে মার্কিন সেনা প্রত্যাহারের প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন বাইডেন।

গত কয়েক মাস ধরে নিয়মিতভাবে ইরাকে মার্কিন স্বার্থে হামলা অব্যাহত রয়েছে। এসব হামলার জন্য ইরান সমর্থিত বিভিন্ন গোষ্ঠীকে দায়ী করে আসছে নিরাপত্তা সংস্থাগুলো। তবে আল-খাদেমির ওয়াশিংটন সফরের আগে এসব হামলার পরিমাণ কমে আসে।

ইরাকের এক ঊর্ধ্বতস নিরাপত্তা কর্মকর্তা জানিয়েছেন, বৃহস্পতিবার চালানো হামলায় রকেট দুইটি বাগদাদের পূর্বাঞ্চলের শিয়া অধ্যুষিত একটি এলাকা থেকে ছোড়া হয়েছে। প্রাথমিক তদন্তে মনে হচ্ছে এগুলো যুক্তরাষ্ট্রের দূতাবাস লক্ষ্য করে ছোড়া হয়েছিল, তবে ‘টার্গেটে’ পৌঁছাতে পারেনি। একটি রকেট গ্রিন জোনের ভেতরের পার্কিং লটে আঘাত হেনেছে, অন্যটি পড়েছে কাছাকাছি একটি খালি জায়গায়।

এই মাসের শুরুতে ইরাক ও সিরিয়ায় মার্কিন কূটনীতিক ও বাহিনীর সদস্যদের ওপর তিন দফা রকেট ও ড্রোন হামলা হয়। এর মধ্যে এক হামলায় একটি বিমান ঘাঁটিতে ১৪টি রকেট আছড়ে পড়ে দুই মার্কিন সেনা আহতও হয়।

কোনো গোষ্ঠী বৃহস্পতিবারের হামলার দায় স্বীকার না করলেও ইরান সমর্থিত গোষ্ঠী এ রকেট হামলার পেছনে থাকতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

/জেজে/

সম্পর্কিত

আমিরাতের বৃহত্তম র‍্যাফেল ড্র’র ঘোষণা, পুরস্কার ১৮০ কোটি টাকা

আমিরাতের বৃহত্তম র‍্যাফেল ড্র’র ঘোষণা, পুরস্কার ১৮০ কোটি টাকা

পারমাণবিক আলোচনা শুরুর আগে ইরানে গুরুত্বপূর্ণ রদবদল

ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে গুরুত্বপূর্ণ রদবদল

দুর্ঘটনায় ভিড় করলে ২৩ হাজার টাকা জরিমানা

দুর্ঘটনায় ভিড় করলে ২৩ হাজার টাকা জরিমানা

ইদলিবে আরও সেনা এবং সামরিক সরঞ্জাম পাঠালো তুরস্ক

ইদলিবে সামরিক উপস্থিতি বাড়ালো তুরস্ক

মোদির ঘুম কেড়ে নেওয়ার হুঁশিয়ারি এসএফজে-র

আপডেট : ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৩:২৮

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির ঘুম কেড়ে নেওয়ার হুঁশিয়ারি দিয়েছে ‘শিখস ফর জাস্টিস’ (এসএফজে) নামের একটি সংগঠন। দিল্লির উপকণ্ঠে কৃষক আন্দোলনের পক্ষ নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রে বিক্ষোভ দেখানোর পরিকল্পনা নিয়েছে দলটি।

এই কর্মসূচির জন্য বেছে নেওয়া হয়েছে মোদির আসন্ন যুক্তরাষ্ট্র সফরের সময়কে। সেই সময় হোয়াইট হাউসের সামনে বিক্ষোভ দেখানোর পরিকল্পনা রয়েছে খালিস্তানপন্থী সংগঠনটির।

কৃষকদের বিরুদ্ধে দেশজুড়ে সন্ত্রাস চালাচ্ছে দিল্লির শাসকগোষ্ঠী। এমন অভিযোগে মোদির ‘রাতের ঘুম কেড়ে নেওয়া’র হুমকি দিয়েছে দলটি।

২০১৯ সালের ১০ জুলাই ‘শিখস ফর জাস্টিস’ নামের সংগঠনটিকে নিষিদ্ধ ঘোষণা করে ভারত। দেশটির নিরাপত্তা বিশেষজ্ঞরা বলছেন, রাজনৈতিক নয় বরং পুরোপুরিভাবে ব্যবসায়িক ভিত্তিতে চলে এই সংগঠনটি। শিখ সম্প্রদায়ের মানুষের মধ্যে শিখস ফর জাস্টিস-এর প্রতি সমর্থন ক্রমশ কমছে, পাঞ্জাবি তরুণদের মধ্যেও প্রভাব প্রায় নেই বললেই চলে।

গোয়েন্দা সূত্রে খবর, এই সংগঠনের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে পাকিস্তান, বিশেষ করে আইএসআই এজেন্টদের ছড়াছড়ি। ভারত-বিরোধী কার্যকলাপে আর্থিক মদত যোগায় দলটি। এমনকি নেটমাধ্যমে ভারত বিরোধী পোস্ট দিতে পারলে বিদেশের কোনও দেশে নাগরিকত্ব জোগাড় করে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়ে তরুণদের প্রভাবিত করে এই সংগঠন।

জো বাইডেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট হওয়ার পর প্রথমবারের মতো দেশটি সফরে যাচ্ছেন মোদি। আগামী ২৪ সেপ্টেম্বর মার্কিন প্রেসিডেন্টের আয়োজনে জাপানের প্রধানমন্ত্রী ইয়োশিহিদে সুগা ও অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসনের সঙ্গেই কোয়াড বৈঠকে হাজির থাকবেন মোদি। জাতিসংঘ সাধারণ অধিবেশনেও অংশ নেওয়ার কথা রয়েছে নরেন্দ্র মোদির।

এই পরিস্থিতিতে এসএফজে-এর হুমকিকে যথেষ্ট গুরুত্ব দিচ্ছেন নিরাপত্তা কর্মকর্তারা। সূত্রের খবর, সম্প্রতি দিল্লিতে নিরাপত্তা কর্মকর্তাদের সঙ্গে গোপন বৈঠক করেছে পাঞ্জাব পুলিশ। এ সময় এসএফজে-কে নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়েছে। সেই অনুযায়ী কাজও শুরু হয়ে গেছে। সূত্র: আনন্দবাজার।

/এমপি/

সম্পর্কিত

তালেবানকে হঠাতে মার্কিন অস্ত্র চান মাসুদ

তালেবানকে হঠাতে মার্কিন অস্ত্র চান মাসুদ

নিয়ন্ত্রণ নয়, তালেবানকে ‘উৎসাহিত’ করার কথা বললেন ইমরান খান

তালেবানকে ‘উৎসাহিত’ করার কথা বললেন ইমরান খান

বাংলাদেশকে ভারতের কূটনৈতিক স্বীকৃতির দিনে পালিত হবে ‘মৈত্রী দিবস’  

বাংলাদেশকে ভারতের কূটনৈতিক স্বীকৃতির দিনে পালিত হবে ‘মৈত্রী দিবস’  

তালেবানে বাস্তববাদী ও কট্টরপন্থীদের বিরোধ বাড়ছে

তালেবান নেতাদের বিরোধ শুধুই কি জল্পনা?

তালেবানকে হঠাতে মার্কিন অস্ত্র চান মাসুদ

আপডেট : ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০২:২৩

আফগানিস্তানের মসনদ থেকে তালেবানকে সরাতে যুক্তরাষ্ট্রের দ্বারস্থ হয়েছেন দেশটির নর্দার্ন অ্যালায়েন্সের অন্যতম নেতা আহমেদ মাসুদ। তালেবান-বিরোধী জোটে ওয়াশিংটনকে পাশে পেতে রবার্ট স্ট্রিক নামের একজন লবিস্টের সঙ্গে চুক্তি করেছেন তিনি।

নিউ ইয়র্ক টাইমস-এর প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, উত্তরের জোটের হাতে অত্যাধুনিক মার্কিন অস্ত্রভাণ্ডার তুলে দিতে বাইডেন প্রশাসনকে ‘প্রভাবিত’ করাই হবে ওই লবিস্টের কাজ।

ওয়াশিংটনে মাসুদের পক্ষে সওয়াল করবে স্ট্রিক। অতীতে কঙ্গোর সাবেক প্রেসিডেন্ট জোসেফ কাবিলা থেকে শুরু করে ভেনেজুয়েলার প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরোর লবিস্ট হিসেবে কাজ করেছেন তিনি। তার সঙ্গে মাসুদের চুক্তির কথা স্বীকার করেছেন নর্দার্ন অ্যালায়েন্সের মুখপাত্র আলি নাজারি।

তিনি জানিয়েছেন, শুধু অস্ত্র সাহায্য নিয়ে আলোচনাই নয়, তালেবান সরকারকে জো বাইডেন প্রশাসন যাতে কোনও পরিস্থিতিতেই স্বীকৃতি না দেয়, তা নিয়েও ওয়াশিংটনের সঙ্গে কথা বলবেন স্ট্রিক। সূত্র: আনন্দবাজার।

/এমপি/

সম্পর্কিত

মোদির ঘুম কেড়ে নেওয়ার হুঁশিয়ারি এসএফজে-র

মোদির ঘুম কেড়ে নেওয়ার হুঁশিয়ারি এসএফজে-র

কাবুলে রকেট হামলা

কাবুলে রকেট হামলা

নিয়ন্ত্রণ নয়, তালেবানকে ‘উৎসাহিত’ করার কথা বললেন ইমরান খান

তালেবানকে ‘উৎসাহিত’ করার কথা বললেন ইমরান খান

কাবুলে রকেট হামলা

আপডেট : ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০১:২৬

আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলের একটি জেলায় বৃহস্পতিবার রকেট হামলার খবর পাওয়া গেছে। আফগান সংবাদমাধ্যম টোলো নিউজের বরাত দিয়ে এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে রুশ সংবাদমাধ্যম স্পুটনিক।

প্রতিবেদনে বলা হয়, কাবুলের একটি বিদ্যুৎকেন্দ্রের কাছেই এই রকেট হামলার ঘটনা ঘটে। তবে তাৎক্ষণিকভাবে ঘটনার বিস্তারিত জানা যায়নি। কোনও হতাহতেরও খবর পাওয়া যায়নি।

এদিকে যুক্তরাষ্ট্রের মোস্ট ওয়ান্টেড সন্ত্রাসী তালিকায় থাকা তালেবান সরকারের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সিরাজুদ্দিন হাক্কানির সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন জাতিসংঘের দূত দেবোরাহ লিওনস। তালেবানের মুখপাত্র সুহাইল শাহিন জানান, আফগান জনগণের জন্য জরুরিভিত্তিতে মানবিক সহায়তা দেওয়ার বিষয়ে কাবুলে নিযুক্ত জাতিসংঘ মিশনের প্রধান দেবোরাহ লিওনস ও সিরাজউদ্দিন হাক্কানির মধ্যে বৈঠক হয়।

বুধবার (১৫ সেপ্টেম্বর) উভয় পক্ষের আলোচনায় হাক্কানি জাতিসংঘ দূতকে নিশ্চিত করেন, ‘কোনও বাধা ও ভয়ভীতি ছাড়াই জাতিসংঘের কর্মীরা আফগানিস্তানে কাজ করতে পারবেন। আফগান জনগণকে সহায়তা করতে পারবে জাতিসংঘ‌‌।‌‌’

/এমপি/

সম্পর্কিত

তালেবানকে হঠাতে মার্কিন অস্ত্র চান মাসুদ

তালেবানকে হঠাতে মার্কিন অস্ত্র চান মাসুদ

নিয়ন্ত্রণ নয়, তালেবানকে ‘উৎসাহিত’ করার কথা বললেন ইমরান খান

তালেবানকে ‘উৎসাহিত’ করার কথা বললেন ইমরান খান

তালেবানে বাস্তববাদী ও কট্টরপন্থীদের বিরোধ বাড়ছে

তালেবান নেতাদের বিরোধ শুধুই কি জল্পনা?

এবার নারী মন্ত্রণালয়ে নারীদের প্রবেশ নিষিদ্ধ করলো তালেবান

এবার নারী মন্ত্রণালয়ে নারীদের প্রবেশ নিষিদ্ধ করলো তালেবান

কয়েদিদের প্রেমের সম্পর্কে জড়ানো নিষিদ্ধ করলো ডেনমার্ক

আপডেট : ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২৩:৫২

ডেনমার্ক সরকার একটি আইন পাস করেছে যাতে যাবজ্জীবন সাজা ভোগকারী কয়েদিদের নতুন প্রেমের সম্পর্কে জড়ানো নিষিদ্ধ করা হয়েছে। এই নিষেধাজ্ঞার ফলে অপরাধী গোষ্ঠীদের উত্থান ঠেকানো সম্ভব মনে করছেন দেশটির মন্ত্রীরা। 

এমন আইনের পেছনে কারণ হিসেবে বলা হচ্ছে, সম্প্রতি ১৭ বছর বয়সী এক কিশোরী ক্যামিলা কারস্টাইন এক খুনী পিটার ম্যাডসনের প্রেমে পড়েছিলেন। ম্যাডসন সাংবাদিক কিম ওয়ালকে হত্যার দায়ে দোষী সাব্যস্ত হন। পরে সাংবাদিকের মরদেহ টুকরো টুকরো করে সাগরে ফেলে দেন। অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় আদালত ২০১৮ সালে তাকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড প্রদান করেন।

ক্যামিলা কারস্টাইন স্বীকার করেছেন যে তিনি দুই বছর ধরে চিঠি বিনিময় ও ফোনে কথা বলার পর ম্যাডসেনের প্রেমে পড়েন। কিন্তু ২০২০ সালে কারাবন্দি অবস্থায় জেনিন কার্পেন (৩৯) নামের এক রুশ নারীকে বিয়ে করেন ম্যাডসন। আর ঘটনাটি জানতে পারেন কিশোরী ক্যামিলা। 

এমন ঘটনায় নড়েচড়ে বসেছে ডেনামার্ক প্রশাসন। দেশটির বিচারমন্ত্রী নিক হেককারুপ এক বিবৃতিতে বলেন, ‘এই ধরনের সম্পর্ক অবশ্যই বন্ধ করা উচিত। অপরাধীরা আমাদের কারাগারগুলোকে ডেটিং সেন্টার কিংবা মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম হিসেবে ব্যবহার করতে পারবেন না’।

মন্ত্রী আরও যোগ করে বলেন, ‘কারাগারে বন্দি অপরাধীরা সহানুভূতি পেতে তরুণদের সঙ্গে যোগাযোগ করে গুরুতর অপরাধ করেছেন’। 

এ অবস্থায় নতুন আইনের ফলে কারাগারের দীর্ঘমেয়াদি বন্দিদের অপরাধ বন্ধ হবে মনে করছেন অনেকে। নতুন বিলে ড্যানিশ পার্লামেন্টের ডানপন্থী বিরোধী দল সমর্থনের ইঙ্গিত দিয়েছে। সব ঠিক থাকলে আগামী বছরের শুরুতেই নতুন আইন কার্যকর হতে পারে।

/এলকে/

সম্পর্কিত

টিকাদানের হার ৮০ শতাংশ, সব বিধিনিষেধ তুললো ডেনমার্ক

করোনা সংক্রান্ত সব বিধিনিষেধ তুললো ডেনমার্ক

কারাগারে অগ্নিকাণ্ডে ইন্দোনেশিয়ায় অন্তত ৪১ জনের মৃত্যু

ইন্দোনেশিয়ার কারাগারে আগুন, অন্তত ৪১ জনের মৃত্যু

পৃথিবীর সর্ব উত্তরের দ্বীপের সন্ধান পেলেন বিজ্ঞানীরা

পৃথিবীর সর্ব উত্তরের দ্বীপের সন্ধান পেলেন বিজ্ঞানীরা

আফগানিস্তানে দূতাবাস বন্ধের ঘোষণা ইউরোপের একাধিক দেশের

আফগানিস্তানে দূতাবাস বন্ধের ঘোষণা ইউরোপের একাধিক দেশের

নিয়ন্ত্রণ নয়, তালেবানকে ‘উৎসাহিত’ করার কথা বললেন ইমরান খান

আপডেট : ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২৩:২৪

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান বলেছেন, আফগানিস্তানে শান্তি ও স্থিতিশীলতার সবচেয়ে ভালো উপায় তালেবানকে নারীর অধিকার ও অন্তর্ভুক্তিমূলক সরকার ইস্যুতে ‘উৎসাহ’ দিয়ে তাদের সঙ্গে সম্পৃক্ত হওয়া। বুধবার ইসলামাবাদে মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএনকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি এই মন্তব্য করেন। কাবুলে তালেবানদের ক্ষমতা দখল ও মার্কিন সেনাদের আফগানিস্তান ত্যাগের পর কোনও আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া ইমরান খানের এটাই প্রথম সাক্ষাৎকার।

ইমরান খান দাবি করেছেন, সংকট এড়াতে তালেবানরা আন্তর্জাতিক ত্রাণের সন্ধানে রয়েছে। যেটিকে কাজে লাগিয়ে তাদের বৈধ পথের সঠিক দিশায় নিয়ে যাওয়া সম্ভব। তবে তিনি সতর্ক করে বলেছেন, বাইরের শক্তি দ্বারা আফগানিস্তানকে নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব না।

তার কথায়, কোনও পুতুল সরকার আফগান জনগণের সমর্থন পায়নি। তাই তাদেরকে নিয়ন্ত্রণ করার কথা বসে বসে চিন্তা করার চেয়ে আমাদের উচিত উৎসাহিত করা। কারণ, আফগানিস্তানের বর্তমান সরকার স্পষ্টভাবে অনুভব করে যে আন্তর্জাতিক সহযোগিতা ও ত্রাণ ছাড়া তারা এই সংকট এড়াতে পারবে না। তাই আমাদের উচিত তাদেরকে সঠিক পথে ঠেলে নিয়ে যাওয়া।

তালেবান সরকারকে সময় দেওয়া উচিত উল্লেখ করে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী বলেন, এখান থেকে আফগানিস্তান কোথায় যাবে আমরা কেউ তা ধারণা করতে পারি না। আমরা আশা করি এবং প্রার্থনা করি যে, ৪০ বছর পর দেশটিতে শান্তি প্রতিষ্ঠা হবে।

ইমরান খান বলেন, তালেবান আগেই বলেছে, তারা অন্তর্ভুক্তিমূলক সরকার গঠন করবে। তারা তাদের প্রেক্ষাপট থেকে নারীর অধিকার দিতে চায়। তারা মানবাধিকার চায়, তারা সাধারণ ক্ষমা ঘোষণা করেছে। এখন পর্যন্ত তারা যা বলেছে তাতে পরিষ্কার ইঙ্গিত পাওয়া যায়, তারা আন্তর্জাতিক গ্রহণযোগ্যতা চাইছে। কিন্তু যদি ভুল হয়, তাহলে সত্যিই আমরা চিন্তিত আফগানিস্তানে আবার গোলযোগ ও বিশৃঙ্খলা দেখা দেবে। বৃহত্তম মানবিক সংকট সৃষ্টি হবে, বিশাল আকারের উদ্বাস্তু সমস্যা তৈরি হবে।

আফগানিস্তান আবার অস্থিতিশীল হবে এবং আফগান ভূখণ্ডে সন্ত্রাসবাদ মাথাচাড়া দিয়ে উঠতে পারে বলেও সতর্ক করেন ইমরান খান।

 

/এএ/

সম্পর্কিত

মোদির ঘুম কেড়ে নেওয়ার হুঁশিয়ারি এসএফজে-র

মোদির ঘুম কেড়ে নেওয়ার হুঁশিয়ারি এসএফজে-র

তালেবানকে হঠাতে মার্কিন অস্ত্র চান মাসুদ

তালেবানকে হঠাতে মার্কিন অস্ত্র চান মাসুদ

কাবুলে রকেট হামলা

কাবুলে রকেট হামলা

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

আমিরাতের বৃহত্তম র‍্যাফেল ড্র’র ঘোষণা, পুরস্কার ১৮০ কোটি টাকা

আমিরাতের বৃহত্তম র‍্যাফেল ড্র’র ঘোষণা, পুরস্কার ১৮০ কোটি টাকা

পারমাণবিক আলোচনা শুরুর আগে ইরানে গুরুত্বপূর্ণ রদবদল

ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে গুরুত্বপূর্ণ রদবদল

দুর্ঘটনায় ভিড় করলে ২৩ হাজার টাকা জরিমানা

দুর্ঘটনায় ভিড় করলে ২৩ হাজার টাকা জরিমানা

ইদলিবে আরও সেনা এবং সামরিক সরঞ্জাম পাঠালো তুরস্ক

ইদলিবে সামরিক উপস্থিতি বাড়ালো তুরস্ক

আসাদের সঙ্গে বৈঠক পুতিনের

আসাদের সঙ্গে বৈঠক পুতিনের

কোনও হুমকি সহ্য করা হবে না: ইরান

কোনও হুমকি সহ্য করা হবে না: ইরান

জেনারেল সিসির আমন্ত্রণে মিসরে ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী

জেনারেল সিসির আমন্ত্রণে মিসরে ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী

পারমাণবিক কেন্দ্রের ক্যামেরা নিয়ে জাতিসংঘ সংস্থার সঙ্গে ইরানের সমঝোতা

ইরানের পারমাণবিক কেন্দ্রের ক্যামেরা নিয়ে সমঝোতা

আফগানিস্তান সফরে কাতারের পররাষ্ট্রমন্ত্রী

আফগানিস্তান সফরে কাতারের পররাষ্ট্রমন্ত্রী

ইরান সফরে ইরাকি প্রধানমন্ত্রী

ইরান সফরে ইরাকি প্রধানমন্ত্রী

সর্বশেষ

মোদির ঘুম কেড়ে নেওয়ার হুঁশিয়ারি এসএফজে-র

মোদির ঘুম কেড়ে নেওয়ার হুঁশিয়ারি এসএফজে-র

তালেবানকে হঠাতে মার্কিন অস্ত্র চান মাসুদ

তালেবানকে হঠাতে মার্কিন অস্ত্র চান মাসুদ

কাবুলে রকেট হামলা

কাবুলে রকেট হামলা

ছিনতাইকারীকে ধরতে গিয়ে ছুরিকাঘাতে আহত দিনমজুরের মৃত্যু

ছিনতাইকারীকে ধরতে গিয়ে ছুরিকাঘাতে আহত দিনমজুরের মৃত্যু

ইভ্যালিতে প্রতারিতরা কি টাকা ফেরত পাবেন?

ইভ্যালিতে প্রতারিতরা কি টাকা ফেরত পাবেন?

© 2021 Bangla Tribune