X
বৃহস্পতিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১, ৮ আশ্বিন ১৪২৮

সেকশনস

আসামের মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে এফআইআর মিজোরাম পুলিশের

আপডেট : ৩১ জুলাই ২০২১, ১৭:৪৫

আসাম-মিজোরাম সীমানা বিরোধ এবার নতুন মাত্রা পেয়েছে। গত ২৬ জুলাই ভারতের এই দুই রাজ্যের মধ্যে সীমানা নিয়ে সংঘর্ষ হয়। ওই ঘটনায় এবার আসামের মুখ্যমন্ত্রী হিমন্ত বিশ্বশর্মার বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করেছে মিজোরামের পুলিশ। এছাড়াও, এফআইআর-এ নাম রয়েছে আসামের আরও ছয় জন উচ্চপদস্থ পুলিশ কর্মকর্তার। তাদের বিরুদ্ধে দণ্ডবিধির একাধিক ধারা এবং মিজোরাম মহামারি আইন লঙ্ঘনের অভিযোগ আনা হয়েছে।

আসামের কাছার জেলা সংলঙ্গ মিজোরামের কোলাসিবের থানাতে এইআফআরটি করা হয়েছে। আসামের মুখ্যমন্ত্রী ছাড়াও এতে নাম রয়েছে রাজ্যের আইজি অনুরাগ আগারওয়াল, কাছারের ডিআইজি দেবজ্যোতি মুখোপাধ্যায়, ডিসি ক্ষেত্রী জাল্লি, ডিআইজি শূন্যদেও চৌধুরী, পুলিশ সুপার চন্দ্রকান্ত নিমবাল্কর এবং স্থানীয় থানার ওসি সাহাবউদ্দীনের। মিজোরামের তরফে বিষয়টি আসামের কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে। এফআইআর-এ নাম উল্লেখিত ব্যক্তিদের কোলাসিবের ভাইরেংটে থানায় হাজিরার কথা বলা হয়েছে।

এর আগে আসামের মুখ্যমন্ত্রী হিমন্ত বিশ্বশর্মার সরকারও নির্দেশনা জারি করে তার রাজ্যের বাসিন্দাদের মিজোরামে যেতে বারণ করে। হিমন্ত বলেন, ‘মিজোরামের মানুষের হাতে একে-৪৭, স্নাইপারের মতো অত্যাধুনিক অস্ত্র রয়েছে। মানুষ আতঙ্কিত। মিজো সরকারের তা বাজেয়াপ্ত করা দরকার। এর আগে কিভাবে অসমিয়ারা ওই রাজ্যে যাবে? অবস্থা স্বাভাবিক ও খতিয়ে দেখা পর্যন্ত আসামবাসীকে মিজোরামে না যাওয়ার জন্য অনুরোধ করছি। সেখানে শান্তি ফিরলে তবেই যাওয়া উচিত হবে।’

গত ২৬ জুলাই আসাম-মিজোরাম সীমান্তে সংঘর্ষ হয়। এতে নিহত হন আসাম পুলিশের ছয় সদস্য এবং একজন বেসামরিক নাগরিক। এই ঘটনায় মিজোরামের কোলাসিব জেলার ছয় সরকারি কর্মীকে সমন পাঠিয়েছে আসাম পুলিশ। ঢোলাই থানায় এফআইআর দায়ের করা হয়। ২ আগস্ট অভিযুক্তদের থানায় হাজিরা দিতে বলা হয়েছে। অস্ত্র আইন, সরকারি সম্পত্তি নষ্ট ও উস্কানির অভিযোগের বিষয়টি এফআইআর-এ উল্লেখ রয়েছে।

পুলিশ পাঠানো হয়েছে মিজোরামের এমপি কে ভালনাভিমার দিল্লির বাসভবনেও। তবে এ সময় ওই এমপি বাড়িতে ছিলেন না। আসাম পুলিশ রেসিডেন্সিশিয়াল কমিশনারের মাধ্যমে তার কাছে সমন পৌঁছানোর চেষ্টা করলেও অফিসার তা গ্রহণ করতে অস্বীকার করেন। ফলে তার বাসভনের বাইরে সেটি সেঁটে দেওয়া হয়েছে।

পুলিশ জানিয়েছে, তাকে সমন দেওয়া হয়েছে। এবার তিনি থানায় হাজিরা না দিলে আইন অনুসারে পরবর্তী পদক্ষেপ নেওয়া হবে। জারি হতে পারে গ্রেফতারি পরোয়ানা। ১ আগস্ট তাকে ঢোলাই থানায় আবশ্যিক হাজিরার কথা বলা হয়েছে।

পরস্পর অবিশ্বাসের আবহেই মিজোরামের মুখ্যমন্ত্রী বলেছেন, ‘মিজোরামের তরফে প্রথমে গুলি চলেনি। তবে আমরা আমরা শান্তিপূর্ণ সমাধান চাই। হিমন্তও শান্তিপূর্ণ সমাধানে আগ্রহী। প্রয়োজনে সব মুখ্যমন্ত্রীদের নিয়ে দ্বিতীয় দফার বৈঠকে রাজি আছি।’ সূত্র‍: ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস।

/এমপি/

সম্পর্কিত

ভবানীপুর জিতে বিজেপিকে দুর্বল করতে চান মমতা

ভবানীপুর জিতে বিজেপিকে দুর্বল করতে চান মমতা

উচ্ছেদ অভিযান ঘিরে রণক্ষেত্র আসাম, পুলিশের গুলিতে নিহত ২

উচ্ছেদ অভিযান ঘিরে রণক্ষেত্র আসাম, পুলিশের গুলিতে নিহত ২

‘টিকায় বৈষম্য মানবতার জন্য কলঙ্ক’

আপডেট : ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২৩:০৫

বিশ্বের দরিদ্র এবং উন্নয়নশীল অনেকে দেশই করোনার প্রতিষেধক টিকা চাহিদা মোতাবেক পাচ্ছে না। এতে ওইসব দেশে করোনার সংক্রমণ ও মৃত্যুর লাগাম টানা কষ্টকর হয়ে পড়ছে। এমন অবস্থায় টিকায় বৈষম্যকে মানবতার জন্য কলঙ্ক বলে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন দক্ষিণ আফ্রিকার প্রেসিডেন্ট সিরিল রামফোসা।

বৃহস্পতিবার (২৩ সেপ্টেম্বর) নিউ ইয়র্কে জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদে তার একটি রেকর্ড করা ভাষণ প্রচার করা হয়। সেখানে তিনি তিনি বলেন, বিশ্বজুড়ে ভ্যাকসিনের অসম বন্টন মানবতার জন্য কলঙ্ক।

গত একবছরে বিশ্বব্যাপী প্রায় ছয়শ’ কোটি করোনার ডোজ দেওয়া হয়েছে। যা বিশ্বের জনসংখ্যার ৪৩ ভাগ। কিন্তু নিম্ন আয়ের দেশগুলোকে টিকার জন্য লড়াই করতে হচ্ছে। অনেকে দেশের মাত্র ২ থেকে ৩ শতাংশ মানুষ ভ্যাকসিন নিতে পেরেছেন।

কোভিড ভ্যাকসিনের সুষম বন্টন না হওয়ায় এই সংকট তৈরি হয়েছে মনে করছেন অনেকেই। পরিস্থিতি মোকাবিলায় জাতিসংঘ বার বার ধনী দেশের সরকার প্রধানদের প্রতি দৃষ্টি আকর্ষণ করছে। এদিকে, দক্ষিণ আফ্রিকায় এ পর্যন্ত করোনায় মারা গেছেন ৮৬ হাজারের বেশি মানুষ। আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ২৮ লাখ ৮৯ হাজার।

/এলকে/

সম্পর্কিত

জাতিসংঘ অধিবেশনে গিয়ে করোনায় আক্রান্ত ব্রাজিলের স্বাস্থ্যমন্ত্রী

জাতিসংঘ অধিবেশনে গিয়ে করোনায় আক্রান্ত ব্রাজিলের স্বাস্থ্যমন্ত্রী

চীন কখনও কর্তৃত্ব চাইবে না: শি জিনপিং

চীন কখনও কর্তৃত্ব চাইবে না: শি জিনপিং

জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশনে কথা বলতে চায় তালেবান

জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশনে কথা বলতে চায় তালেবান

ভবানীপুর জিতে বিজেপিকে দুর্বল করতে চান মমতা

আপডেট : ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২২:২৯

পশ্চিমবঙ্গের ভবানীপুর উপনির্বাচনে জয়ী হয়ে ভারতের ক্ষমতাসীন দল বিজেপিকে আরও দুর্বল করতে চান বলে জানিয়েছেন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বৃহস্পতিবার পদ্মপুকুরে এক নির্বাচনি জনসভায় তিনি একথা জানান। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস এখবর জানিয়েছে।

বিধানসভা নির্বাচনে নন্দিগ্রামে হেরে গেলেও মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব নিয়েছেন মমতা। তবে এজন্য ৫ নভেম্বরের মধ্যে কোনও আসন থেকে জয়ী হতে হবে। এজন্য তিনি ভবানীপুর আসনের উপ-নির্বাচনে প্রার্থী হয়েছেন। ৩০ সেপ্টেমর আসনটিতে ভোট অনুষ্ঠিত হবে। এতে বিজেপি প্রার্থী করেছে প্রিয়াঙ্কা তিব্রেওয়ালকে।

জনসভায় মমতা বলেন, ভবানীপুর থেকেই ভারতবর্ষ শুরু হয়। মনে রাখবেন বি-তে ভবানীপুর, বি- থেকেই ভারতবর্ষ।

জনতার কাছে আবেদন করেন তাকে ভোট দিয়ে জেতানোর জন্য যাতে তিনি মুখ্যমন্ত্রী থাকতে পারেন। তিনি বলেন, বিধায়ক না হলে মুখ্যমন্ত্রী থাকা শোভনীয় হবে না। নন্দীগ্রামের মনোনয়নের দিনই জোর করে আহত করা হলো। পায়ে চোট, তাও হুইলচেয়ারে প্রচার করেছি। কিন্তু মা-মাটি-মানুষ আমার সঙ্গে ছিল। অনেক অত্যাচার, বিজেপি ডেলি প্যাসেঞ্জারি করেও আমাদের মানুষ জিতিয়েছেন। কেউ হয়তো ভাবতেও পারেনি তৃণমূল এত ভোটে জিতবে।

বিজেপি বিধায়কদের দলবদল নিয়েও মন্তব্য করেন মমতা। তিনি বলেন, কয়েকটা আসন থেকে অনেকে চলেও এসেছেন। ৮ মাস ধরে কৃষক আন্দোলন চলছে। কেউ কথাই বলছে না। কৃষকদের জন্য আমি অনেক আন্দোলন করেছি।

এর আগে বুধবার তিনি বলেছিলেন নন্দীগ্রামে কী হয়েছে শুনলে সবাই ভয় পাবে। মুখ্যমন্ত্রী থাকতে হলে ভবানীপুর থেকেই জিততে হব। এটাই ভবিতব্য। ওপরওয়ালা লিখে রেখেছেন। তাই আপনাদের ছেড়ে আমার কোথাও যাওয়া সম্ভব নয়।

 

/এএ/

সম্পর্কিত

উচ্ছেদ অভিযান ঘিরে রণক্ষেত্র আসাম, পুলিশের গুলিতে নিহত ২

উচ্ছেদ অভিযান ঘিরে রণক্ষেত্র আসাম, পুলিশের গুলিতে নিহত ২

অকাস জোটে ভারত-জাপানকে রাখছে না যুক্তরাষ্ট্র

অকাস জোটে ভারত-জাপানকে রাখছে না যুক্তরাষ্ট্র

গনিমতের মাল নিয়েও তালেবানে বিরোধ

গনিমতের মাল নিয়েও তালেবানে বিরোধ

তালেবান শাসনে বন্ধ আফগানিস্তানের ১৫০টি পত্রিকা

আপডেট : ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২২:০০

আর্থিক সংকট ও তালেবানের চাপে আফগানিস্তানের প্রায় ১৫০টি দৈনিক পত্রিকা বন্ধ হয়ে গেছে। এ তথ্য জানিয়েছে দেশটির জাতীয় সাংবাদিক ইউনিয়ন।

তালেবান ক্ষমতায় আসার পর একের পর এক বন্ধ হতে চলছে পত্রিকাগুলো। এ বিষয়ে ‘দ্য আফগানিস্তান ন্যাশনাল জার্নালিস্ট ইউনিয়নের’ প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা আহমাদ শোয়াইব ফানা সতর্ক করে বলেন, ‘দেশে প্রিন্ট মিডিয়া বন্ধ হয়ে যাচ্ছে। এভাবে চলতে থাকলে আমরা ভবিষ্যতে সামাজিক সংকটের মুখে পড়বো’।

দৈনিক পত্রিকার অধিকাংশগুলো বন্ধ হতে থাকলেও কিছু অনলাইন চালু আছে। সুবহা পত্রিকার সাংবাদিক আলী হাকমাল জানান, আমাদের পত্রিকা আর ছাপা হচ্ছে না। সংবাদ প্রকাশ হচ্ছে শুধু অনলাইনে।

‘জনগণের প্রত্যাশা পূরণে যতটুকু সম্ভব আমরা চেষ্টা করছি। এখন অনলাইন সংবাদে মনযোগ দিচ্ছি পাশাপাশি দেশের ঘটনা জানাতে মানুষকে সঠিক তথ্য দেওয়ার চেষ্টা চালাচ্ছি’।

একই পত্রিকার উপ-সম্পাদক আশিক আলী এহসাস বলেন, তালেবান গোষ্ঠী ক্ষমতায় আসার আগে দৈনিক সুবহা পত্রিকার ১৫ হাজার কপি ছাপা হতো। কিন্তু গণি সরকারের পতনের পর আর্থিক সংকটের কারণে তা বন্ধ হয়ে যায়। এছাড়া তালেবানের হুমকি ধামকির কারণে আতঙ্কে সাংবাদিকরা। 

গত ১১ আগস্টের পর আফগানিস্তানের ৫১টি মিডিয়া সংস্থার একই পরিণতি ঘটেছে। ৪টি টেলিভিশন ও ৪৪টি রেডিও এখন বন্ধ।

/এলকে/
টাইমলাইন: আফগানিস্তান সংকট
২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২১:৫৪
তালেবান শাসনে বন্ধ আফগানিস্তানের ১৫০টি পত্রিকা
২১ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৪:২৫
২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২১:২৯
১৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২২:১৮

সম্পর্কিত

গনিমতের মাল নিয়েও তালেবানে বিরোধ

গনিমতের মাল নিয়েও তালেবানে বিরোধ

‘আমরা কি আফগানিস্তানে বাস করছি?’, পুলিশের সমালোচনায় ইসরায়েলি বিচারক

‘আমরা কি আফগানিস্তানে বাস করছি?’, পুলিশের সমালোচনায় ইসরায়েলি বিচারক

উচ্ছেদ অভিযান ঘিরে রণক্ষেত্র আসাম, পুলিশের গুলিতে নিহত ২

আপডেট : ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২১:৫১

ভারতের আসাম রাজ্যে উচ্ছেদ অভিযান ঘিরে পুলিশের সঙ্গে স্থানীয়দের সংঘর্ষ হয়েছে। এসময় পুলিশের গুলিতে ২ ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। স্থানীয়দের হামলায় ৭ পুলিশ সদস্য আহত হয়েছে বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ। বৃহস্পতিবার দরং জেলার সিপাছাড় এলাকায় এই সংঘর্ষ হয়।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তারা উচ্ছেদ অভিযানে যান সিপাঝড়-ঢোলপুর এলাকায়। এসময় তাদের সঙ্গে ছিল সশস্ত্র নিরাপত্তাকর্মীদের বিশাল বাহিনী। স্থানীয় বাসিন্দারা উচ্ছেদের প্রতিবাদ করেন। দুপক্ষের সংঘর্ষে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে এলাকা। স্থানীয় বাসিন্দারা লাঠি, ধারালো অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে পুলিশ ও জেলা প্রশাসনের কর্তাদের ওপর হামলা চালায় বলে অভিযোগ। পরিস্থিতি হাতের বাইরে  চলে গেলে পুলিশ লাঠি চালায়,  কাঁদানে গ্যাস ছোঁড়ে। কিন্তু তাতেও সামাল দিতে না পেরে পুলিশ গুলি চালায়।  এতে দুজন নিহত হয়।

এলাকাটি থেকে বৃহস্পতিবার পাঁচ শতাধিক পরিবারকে উচ্ছেদ করা হয়। এর আগে সোমবার আট শতাধিক পরিবারকে উচ্ছেদ করা হয়েছিল। তারা প্রায় সাড়ে চার হাজার বিঘা জমি দখল করে বসবাস করছিল।  

সংঘর্ষের ঘটনাকে কেন্দ্র করে রাজনৈতিক উত্তেজনাও ছড়িয়ে পড়েছে। আসাম কংগ্রেস সভাপতি ভূপেন বোরা পুলিশের গুলিতে প্রাণহানির তীব্র নিন্দা করে  রাজ্যে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির ক্রমাবনতির জন্য  রাজ্য সরকারকে দায়ী করেছেন।

মুখ্যমন্ত্রী হিমন্ত বিশ্বশর্মা পুলিশের গুলি চালনাকে সমর্থন জানিয়েছেন। তিনি দাবি করেছেন, পুলিশকে লক্ষ্য করে পাথর ছোঁড়া হয়। সূত্র: দ্য ওয়াল

/এএ/

সম্পর্কিত

ভবানীপুর জিতে বিজেপিকে দুর্বল করতে চান মমতা

ভবানীপুর জিতে বিজেপিকে দুর্বল করতে চান মমতা

অকাস জোটে ভারত-জাপানকে রাখছে না যুক্তরাষ্ট্র

অকাস জোটে ভারত-জাপানকে রাখছে না যুক্তরাষ্ট্র

গনিমতের মাল নিয়েও তালেবানে বিরোধ

গনিমতের মাল নিয়েও তালেবানে বিরোধ

অকাস জোটে ভারত-জাপানকে রাখছে না যুক্তরাষ্ট্র

আপডেট : ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২২:০৮

চীনকে মোকাবিলায় সম্প্রতি অকাস নামের একটি নিরাপত্তা জোট গঠন করেছে যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য ও অস্ট্রেলিয়া। ওই জোটে ভারত ও জাপানকে অন্তর্ভুক্ত করার সম্ভাবনা নেই বলে জানিয়েছেন হোয়াইট হাউজের প্রেস সেক্রেটারি জেন সাকি। 

বুধবার (২২ সেপ্টেম্বর) নিয়মিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি জানান, ‘এই চুক্তি ঘোষণার সময়েই পরিষ্কার করে বলা হয়েছে, তিনটি শক্তি একসঙ্গে ভারত মহাসাগর ও প্রশান্ত মহাসাগরীয় রাজনীতিতে কাজ করবে। এই তিনটি দেশের মধ্যে অন্য কোনও দেশের অন্তর্ভুক্তি সম্ভব নয়’।

প্রেস সেক্রেটারি সাকি আরও বলেন, ‘গত সপ্তাহের ঘোষণা কোনও সূচনা হওয়ার কথা নয়। আমি মনে করি প্রেসিডেন্ট বাইডেন ফরাসি প্রেসিডেন্ট ম্যাক্রোঁর কাছেও এই বার্তাই দিয়েছেন, ইন্দো-প্রশান্ত মহাসাগরের নিরাপত্তায় অন্তর্ভুক্ত হওয়ার মতো আর কেউ নেই।

সম্প্রতি অকাস নামের নিরাপত্তা চুক্তিতে উপনীত হয় যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য ও অস্ট্রেলিয়া। এতে যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্যের পক্ষ থেকে অস্ট্রেলিয়াকে পারমাণবিক সাবমেরিন নির্মাণের জন্য উন্নত প্রতিরক্ষা প্রযুক্তি সরবরাহের প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়। ওই চুক্তির পরপরই প্যারিসের সঙ্গে কয়েকশ‌’ কোটি ডলারের সাবমেরিন নির্মাণ চুক্তি বাতিলের ঘোষণা দেয় অস্ট্রেলীয় সরকার। এ ঘটনায় ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করে ফ্রান্স। যুক্তরাষ্ট্র ও অস্ট্রেলিয়ায় নিযুক্ত ফরাসি রাষ্ট্রদূতদেরও দেশে ফিরিয়ে নেওয়া হয়।

এ অবস্থায় নতুন করে প্রশ্ন দেখা দেয়, ত্রিদেশীয় ওই জোটে এশিয়ার জাপান ও ভারতের মতো শক্তিকে রাখা হচ্ছে কিনা। এরমধ্যেই বিষয়টি নাকচ করে দিলো হোয়াইট হাউজ।

/এলকে/এমওএফ/

সম্পর্কিত

ভবানীপুর জিতে বিজেপিকে দুর্বল করতে চান মমতা

ভবানীপুর জিতে বিজেপিকে দুর্বল করতে চান মমতা

উচ্ছেদ অভিযান ঘিরে রণক্ষেত্র আসাম, পুলিশের গুলিতে নিহত ২

উচ্ছেদ অভিযান ঘিরে রণক্ষেত্র আসাম, পুলিশের গুলিতে নিহত ২

১২ তলা থেকে ঝাঁপ, তারপর...

১২ তলা থেকে ঝাঁপ, তারপর...

বাইডেন-ম্যাক্রোঁ ‘বন্ধুত্বপূর্ণ’ ফোনালাপ, যুক্তরাষ্ট্রে ফিরছেন ফরাসি দূত

বাইডেন-ম্যাক্রোঁ ‘বন্ধুত্বপূর্ণ’ ফোনালাপ, যুক্তরাষ্ট্রে ফিরছেন ফরাসি দূত

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

ভবানীপুর জিতে বিজেপিকে দুর্বল করতে চান মমতা

ভবানীপুর জিতে বিজেপিকে দুর্বল করতে চান মমতা

উচ্ছেদ অভিযান ঘিরে রণক্ষেত্র আসাম, পুলিশের গুলিতে নিহত ২

উচ্ছেদ অভিযান ঘিরে রণক্ষেত্র আসাম, পুলিশের গুলিতে নিহত ২

অকাস জোটে ভারত-জাপানকে রাখছে না যুক্তরাষ্ট্র

অকাস জোটে ভারত-জাপানকে রাখছে না যুক্তরাষ্ট্র

গনিমতের মাল নিয়েও তালেবানে বিরোধ

গনিমতের মাল নিয়েও তালেবানে বিরোধ

‘আমরা কি আফগানিস্তানে বাস করছি?’, পুলিশের সমালোচনায় ইসরায়েলি বিচারক

‘আমরা কি আফগানিস্তানে বাস করছি?’, পুলিশের সমালোচনায় ইসরায়েলি বিচারক

চীন, রাশিয়া ও পাকিস্তানের কূটনীতিকদের যা বললো তালেবান

চীন, রাশিয়া ও পাকিস্তানের কূটনীতিকদের যা বললো তালেবান

তালেবান পরিকল্পনার বিস্তারিত জানালেন পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী

তালেবান পরিকল্পনার বিস্তারিত জানালেন পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী

আফগানিস্তানের অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞার অবশ্যই অবসান হতে হবে: চীন

আফগানিস্তানের ওপর নিষেধাজ্ঞা অবসানের তাগিদ চীনের

সর্বশেষ

‘অক্টোবরে রংপুরে থানা-ওয়ার্ড কমিটি গঠনে আ.লীগের বর্ধিত সভা’

‘অক্টোবরে রংপুরে থানা-ওয়ার্ড কমিটি গঠনে আ.লীগের বর্ধিত সভা’

সঞ্চয়পত্রের মুনাফা কমায় ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন যারা

সঞ্চয়পত্রের মুনাফা কমায় ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন যারা

‘জিনের বাদশার’ কথায় ২৮ লাখ টাকা হারালেন প্রবাসী

‘জিনের বাদশার’ কথায় ২৮ লাখ টাকা হারালেন প্রবাসী

জানা গেলো তামিমের নেপাল যাওয়ার কারণ

জানা গেলো তামিমের নেপাল যাওয়ার কারণ

টাকা নিয়ে দ্বন্দ্ব, মারধরের ৮ দিন পর ছাত্রলীগকর্মীর মৃত্যু

টাকা নিয়ে দ্বন্দ্ব, মারধরের ৮ দিন পর ছাত্রলীগকর্মীর মৃত্যু

© 2021 Bangla Tribune