X
শনিবার, ১৬ অক্টোবর ২০২১, ৩১ আশ্বিন ১৪২৮

সেকশনস

মাদক নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরের সহকারী পরিচালকসহ ৭ জনের বিরুদ্ধে মামলা

আপডেট : ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২১:৪৫

চাঁদপুরের চান্দ্রা এলাকায় এক ব্যবসায়ীকে ইয়াবা দিয়ে ফাঁসানোর অভিযোগে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরের (ডিএনসি) সহকারী পরিচালক একেএম দিদারুল আলমসহ সাত জনের নামে মামলা হয়েছে। মঙ্গলবার চাঁদপুর আমলি আদালতে মামলাটি করেন কাপড় ব্যবসায়ী জহির মিজি। আদালত মামলাটির তদন্তভার সিআইডিকে দিয়ে ১৫ কার্যদিবসের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দিয়েছেন।

মামলার অন্য আসামিরা হলেন– সদর উপজেলার বাখরপুর গ্রামের মো. জামাল গাজী, চাঁদপুর মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরের বিভাগীয় পরিদর্শক বাপন সেন, উপপরিদর্শক মো. মজিবুর রহমান, মো. পিয়ার হোসেন, সহকারী উপপরিদর্শক মো. আশ্রাফ আলী ও সিপাহী মো. সাইফুল ইসলাম।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, ২০২০ সালের ৫ ডিসেম্বর জহির মিজি বাড়ি থেকে বের হয়ে চান্দ্রা চৌরাস্তায় এলে তাকে ঘেরাও করে মারধর করেন আসামিরা। তার কাছে থাকা ব্যাগ থেকে ৫ লাখ ৬০ হাজার টাকা ছিনিয়ে নেন তারা। এরপর পরিকল্পিতভাবে জহিরের কাছ থেকে ৪২০টি ইয়াবা জব্দ করা হয়েছে দেখিয়ে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা করা হয়। পরে তাকে আদালতে সোপর্দ করা হয়।

এ ঘটনায় মামলার প্রধান সাক্ষী মোক্তার আহমেদ মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরের মহাপরিচালকের কাছে জহিরকে ফাঁসানোর বিষয়ে একটি অভিযোগ দেন। মহাপরিচালক চট্টগ্রামের বিভাগীয় কার্যালয়কে তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেন। ঘটনাস্থল পরিদর্শন, আসামিদের জবানবন্দি ও বিভিন্ন তথ্যের ভিত্তিতে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরের উপপরিচালক হুমায়ুন কবির আখন্দ তদন্ত করে ২৪ জুন বিভাগীয় কার্যালয়ে প্রতিবেদন জমা দেন। প্রতিবেদনে ব্যবসায়ী জহির মিজি ঘটনার শিকার বলে উল্লেখ করা হয় এবং তাকে মাদক দিয়ে ফাঁসিয়ে মিথ্যা মামলায় জড়িত করানোর ঘটনায় অভিযুক্ত সহকারী পরিচালক এ কে এম দিদারুল আলমের বিরুদ্ধে প্রশাসনিক ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য আবেদন করা হয়।

মামলার বাদী জহির মিজি বলেন, ‘আমার তথ্যের ভিত্তিতে এলাকার একজন চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ীকে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরের কর্মকর্তারা আটক করেন। পরে ওই মাদক ব্যবসায়ী জেল থেকে বেরিয়ে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরের কর্মকর্তার যোগসাজশে ষড়যন্ত্র করে আমাকে মাদক দিয়ে ফাঁসিয়ে গ্রেফতার করায়। পরে অফিসে আনার পর তিনি আমাকে প্রস্তাব দেওয়া হয় ৫ লাখ টাকা দিলে মাদক কম দেখানো হবে। টাকা না দেওয়ায় আমার বাবা এবং ছোট ভাইকে গ্রেফতার করে তারা। এক সপ্তাহ কারাগারে থাকার পর তারা জেল থেকে জামিনে মুক্ত হন। পরে ওই মামলাটি মিথ্যা প্রমাণিত হয়। আমাকে রিমান্ডে নিয়ে তিনি বলেন, “যদি টাকাটা আমাকে দিয়ে দিতি তাহলে তোর এত বড় বিপদ হতো না”।’

তিনি বলেন, ‘আমার বিরুদ্ধে কোথাও এর আগে একটি মামলাও হয়নি। প্রয়োজনে আমার ডোপ টেস্ট করা হোক। তিনি আমাকে মাদক মামলায় ফাঁসিয়েছেন। এ ঘটনার পর স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরসহ সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন দফতরে অভিযোগ দিই। এর পরিপ্রেক্ষিতে চট্টগ্রাম বিভাগীয় তদন্ত হয়। ওই তদন্তে চাঁদপুর মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরের সহকারী পরিচালক এ কে এম দিদারুল আলমকে দায়ী করা হয়েছে। তদন্ত রিপোর্ট আসার পর আমি মামলা করতে বাধ্য হয়েছি। তিনি রক্ষক হয়ে ভক্ষকের ভূমিকায় অবর্তীর্ণ হয়েছেন।’

এ বিষয়ে এ কে এম দিদারুল আলম বলেন, ‘এ ঘটনায় আদালতে মামলা হয়েছে, তা আমি শুনেছি। তবে ইতোমধ্যে যে তদন্ত প্রতিবেদন দেওয়া হয়েছে তার কোনও ভিত্তি নেই। এ কারণে নতুন করে আরও একটি তদন্ত টিম গঠন করে দিয়েছি।’

মামলার বাদীপক্ষের আইনজীবী হুমায়ুন কবির সুমন বলেন, ‘মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরের সহকারী পরিচালক এ কে এম দিদারুল আলম একজন মাদক ব্যবসায়ীর সঙ্গে হাত মিলিয়ে অন্যায়ভাবে জহির মিজিকে ফাঁসিয়েছেন। এ বিষয়টি নিয়ে চট্টগ্রাম বিভাগীয় তদন্তে জহির নির্দোষ প্রমাণিত হয়েছেন। এ কারণে দিদারুলের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা করা হয়েছে। আদালত মামলাটি সিআইডিকে তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন।’

/এমএএ/

সম্পর্কিত

নির্বাচনে প্রার্থী হতে গিয়ে জানলেন তিনি মৃত

নির্বাচনে প্রার্থী হতে গিয়ে জানলেন তিনি মৃত

কৃষক লীগ নেতার মনোনয়নপত্র ছিঁড়ে মারধরের অভিযোগ

কৃষক লীগ নেতার মনোনয়নপত্র ছিঁড়ে মারধরের অভিযোগ

সন্তানদের সাঁতার শেখাতে গিয়ে পাইলটের মৃত্যু

সন্তানদের সাঁতার শেখাতে গিয়ে পাইলটের মৃত্যু

মাদকসেবনে বাধা দেওয়ায় স্ত্রীকে হত্যা

মাদকসেবনে বাধা দেওয়ায় স্ত্রীকে হত্যা

‘মোস্তফা’ পুরস্কার নিতে ইরান যাচ্ছেন বাংলাদেশি বিজ্ঞানী

আপডেট : ১৬ অক্টোবর ২০২১, ২২:০২

‘মোস্তফা’ পুরস্কার নিতে শনিবার (১৬ অক্টোবর) যুক্তরাষ্ট্র থেকে ইরানে রওনা হয়েছেন বাংলাদেশি বিজ্ঞানী ড. এম জাহিদ হাসান তাপস। ইরানে তিনি কয়েকদিন থাকবেন। মহানবী (সা.)-এর পৃথিবীতে আগমন দিবসে পুরস্কারটি  হাতে তুলে দেওয়া হবে।

ড. এম জাহিদ হাসান তাপসের ছোট ভাই ও গাজীপুর জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ জামিল হাসান দুর্জয় এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, শুক্রবার (১৫ অক্টোবর) আমার ভাইয়ের সঙ্গে কথা হয়েছে। পুরস্কার পাওয়ার পরপরই ভাইকে চিঠি দিয়ে বিষয়টি জানিয়েছে ইরান সরকার।

এর আগে ওআইসি প্রদত্ত ‘মোস্তফা’ পুরস্কারে মনোনীত হন পদার্থবিজ্ঞানী ড. এম জাহিদ হাসান তাপস। জাতিসংঘের পর দ্বিতীয় বৃহত্তম অর্ধশতাধিক মুসলিম রাষ্ট্রের এই সংগঠন পদার্থবিজ্ঞানে অবদান রাখার জন্য ২০২১ সালে যৌথভাবে তাকে এ পুরস্কারের জন্য মনোনীত করে। ১৩ অক্টোবর এ পুরস্কার ঘোষণা করে সংশ্লিষ্টরা।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রিন্সটন বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক, পদার্থবিদ, বিজ্ঞানী ও গবেষক ড. এম জাহিদ হাসান তাপসের সঙ্গে যৌথভাবে কামরুন ওয়াকার নামে ইরানের এক বিজ্ঞানীও একই পুরস্কারের জন্য মনোনীত হয়েছেন। চার কোটি টাকার বেশি অর্থমূল্য রয়েছে পুরস্কারটির। ইতোমধ্যে ড. জাহিদ হাসান তাপসকে চিঠি দিয়ে মনোনয়নের বিষয়টি জানানো হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছে তার পরিবার। তাপস যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী।

জামিল হাসান দুর্জয় জানান, তার ভাই বিজ্ঞানী ড. জাহিদ হাসান তাপস রাজধানীর ধানমন্ডি সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয় ও ঢাকা কলেজের প্রাক্তন শিক্ষার্থী। ঢাকা শিক্ষাবোর্ডের অধীনে ১৯৮৬ সালের মাধ্যমিক পরীক্ষায় দ্বিতীয় হন। ১৯৮৮ সালে উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় অংশ নিয়ে সম্মিলিত মেধা তালিকায় প্রথম স্থান অধিকার করেন। ছোটবেলায় জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান জাহিদ হাসান তাপসেকে কোলে নিয়ে তার বাবাকে বলেছিলেন, ‘তোমার ছেলে একদিন বিশ্বে নাম করবে।’ বঙ্গবন্ধুর সেই বাক্যটি পরিবারের সদস্যদের মনে করিয়ে দিচ্ছে আজ।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পদার্থবিজ্ঞানের অধ্যাপক ড. কামরুল হাসান মামুন ফেসবুকে লিখেছেন, বিজ্ঞানীরা বিশ্বের সব দেশের সব ধর্মের মানুষ। নিউটন, আলবার্ট আইনস্টাইন, আব্দুস সালাম, স্টিফেন হকিংসহ বিজ্ঞানীদের কাজ দিয়ে যুগ যুগ ধরে যত মানুষ জন্মাবে সবাই উপকৃত হবে। ড. এম জাহিদ হাসান তাপস 'Weyl fermion seminetal' এর ওপর কাজের জন্য মনোনীত হয়েছেন।

দুঃখপ্রকাশ করে তিনি বলেন, বাংলাদেশ তাকে আজও পুরস্কৃত করেনি। সত্যি কথা বলতে কি, বিজ্ঞানীদের পুরস্কৃত করার জন্য সেই মাপের কোনও পুরস্কার ফাউন্ডেশন আজও গঠিত হয়নি।


২০১৫ সাল থেকে ইরানে মোস্তফা পুরস্কারের যাত্রা শুরু হয়। মুসলিম বিশ্বের নোবেল হিসেবে পুরস্কারটি পরিচিত। তথ্যপ্রযুক্তি, চিকিৎসাবিজ্ঞান ও ন্যানো টেকনোলজিসহ চার ক্যাটাগরিতে অবদান রাখার জন্য এই পুরস্কার দেওয়া হয়।

অধ্যাপক ড. এম জাহিদ হাসানের নেতৃত্বে যুক্তরাষ্ট্রের প্রিন্সটন বিশ্যবিদ্যালয়ের একদল বিজ্ঞানী এর আগে পরীক্ষাগারে গবেষণা করে দীর্ঘ ৮৫ বছরের প্রতীক্ষার পর খোঁজে পেয়েছিলেন 'ভাইল ফার্মিয়ন কণা'। এই আবিস্কারের মাধ্যমে তিনি পদার্থবিজ্ঞানে কৃতিত্বের স্বাক্ষর রাখেন। পদার্থবিজ্ঞানে তার অসামান্য অবদানের জন্য যুক্তরাষ্ট্রের এনার্জি ডিপার্টমেন্টের কাছ থেকে ২০২০ সালে 'আর্নেস্ট অরল্যান্ডো লরেন্স অ্যাওয়ার্ড' পান তিনি।

জাহিদ হাসান তাপস আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য সাবেক প্রতিমন্ত্রী ও গাজীপুর-৩ আসনের প্রয়াত এমপি অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ রহমত আলীর বড় ছেলে। তার বাড়ি গাজীপরের শ্রীপুর পৌর শহরে।

/এএম/

সম্পর্কিত

বাসা থেকে ডেকে নিয়ে এক ব্যক্তিকে হত্যা

বাসা থেকে ডেকে নিয়ে এক ব্যক্তিকে হত্যা

ট্রেনের নিচে ঝাঁপ দিয়ে সিঙ্গাপুর প্রবাসীর আত্মহত্যা

ট্রেনের নিচে ঝাঁপ দিয়ে সিঙ্গাপুর প্রবাসীর আত্মহত্যা

‘পাবজি খেলাকে কেন্দ্র করে’ স্কুলছাত্রকে হত্যা

‘পাবজি খেলাকে কেন্দ্র করে’ স্কুলছাত্রকে হত্যা

নারীকে বাঁচাতে যাওয়ায় সাংবা‌দি‌ককে মারধর, গ্রেফতার ১ 

নারীকে বাঁচাতে যাওয়ায় সাংবা‌দি‌ককে মারধর, গ্রেফতার ১ 

নির্বাচনে প্রার্থী হতে গিয়ে জানলেন তিনি মৃত

আপডেট : ১৬ অক্টোবর ২০২১, ২২:০২

ইউনিয়ন পরিষদের দ্বিতীয় ধাপের নির্বাচনের ভোটগ্রহণ হবে আগামী ১১ নভেম্বর। এ ধাপে চট্টগ্রামের মীরসরাইয়ের ১৬ ইউনিয়নে নির্বাচন হবে। এ নির্বাচনে উপজেলার ৪নং ধুম ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ড থেকে সদস্য (মেম্বার) পদে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেন অর্জুন চন্দ্র দাশ নামের একজন। তিনি ওই ওয়ার্ডের ধুম গ্রামের মৃত সুধীর চন্দ্র দাশের ছেলে। তবে অবাক করা বিষয় হলো- নির্বাচনি এলাকার ভোটার তালিকা সংগ্রহ করে দেখেন, সেখানে তিনি মৃত। এই বিষয়ে নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ে লিখিত অভিযোগ করেছেন অর্জুন।

জানা গেছে, অর্জুন চন্দ্র দাশ গত ১০ অক্টোবর রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয় থেকে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেন। ১৩ অক্টোবর সংগৃহীত ভোটার তালিকার সিডিতে নিজের নাম না পেয়ে বিষয়টি উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. ফারুক হোছাইনকে জানান। এরপর তিনি (ফারুক হোছাইন) অনলাইনে খোঁজ নিয়ে দেখেন, ২০১২ সালের ২৫ মার্চ অর্জুন মারা মারা গেছেন বলে ভোটার তালিকায় উল্লেখ রয়েছে। সেখানে ধুম ইউনিয়নের ধুম গ্রামের (৯নং ওয়ার্ডের অংশ) তালিকায় ৩৩৫নং সিরিয়াল কর্তন করা হয়েছে লেখা আছে।

অর্জুন চন্দ্র দাশ বলেন, ‘‘আমার জাতীয় পরিচয়পত্র (নং- ১৯৭৭১৫১৫৩২২০০০০০১, পাসপোর্ট (বি কিউ ০৪৩৮২৬১), ওয়ারিশ সনদ, চারিত্রিক সনদ, ব্যবসায়িক ট্রেড লাইসেন্স, স্থানীয় চেয়ারম্যানের প্রত্যয়নপত্র, ট্যাক্স আদায়ের রশিদ ও ব্যাংক অ্যাকাউন্টে জীবিত লেখা রয়েছে। আমি পারিবারিক ও সামাজিক সব ধরনের কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছি। শুধু তাই নয়, ২০১৭-২০১৮ সালে চিকিৎসার জন্য ভিসা নিয়ে ভারতে আসা-যাওয়া করেছি। অথচ ভোটার তালিকায় ২০১২ সালের ২৫ মার্চ আমি মারা গেছি উল্লেখ করা হয়েছে। উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তার সঙ্গে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন, ‘ভোটার তালিকায় নাম না থাকায় আমি নির্বাচন করতে পারবো না’। আমি জনগণের সেবা করতে চাই, আমি নির্বাচন করতে চাই।’’

উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. ফারুক হোছাইন বলেন, ‘ভোটার তালিকায় অর্জুন চন্দ্র দাশের নাম মৃত অন্তর্ভুক্ত হওয়ার বিষয়টি সমাধানের জন্য নির্বাচন কমিশনে তথ্য পাঠিয়েছি। সেখান থেকে যদি অনুমতি দেয়, তাহলে তিনি নির্বাচনে অংশ নিতে পারবেন। অন্যথায় মনোনয়নপত্র বাতিল হয়ে যাবে।’

/এফআর/

সম্পর্কিত

কৃষক লীগ নেতার মনোনয়নপত্র ছিঁড়ে মারধরের অভিযোগ

কৃষক লীগ নেতার মনোনয়নপত্র ছিঁড়ে মারধরের অভিযোগ

সন্তানদের সাঁতার শেখাতে গিয়ে পাইলটের মৃত্যু

সন্তানদের সাঁতার শেখাতে গিয়ে পাইলটের মৃত্যু

দুই সন্তানসহ স্ত্রীর লাশ উদ্ধার, স্বামীর বিরুদ্ধে মামলা

দুই সন্তানসহ স্ত্রীর লাশ উদ্ধার, স্বামীর বিরুদ্ধে মামলা

কৃষক লীগ নেতার মনোনয়নপত্র ছিঁড়ে মারধরের অভিযোগ

আপডেট : ১৬ অক্টোবর ২০২১, ২১:৩১

চট্টগ্রামের মীরসরাইয়ে ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান পদে এক স্বতন্ত্র প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দিতে গেলে স্থানীয় নির্বাচন অফিসের সামনে থেকে তাঁর মনোনয়নপত্র কেড়ে নিয়ে ছিঁড়ে ফেলার অভিযোগ উঠেছে। শনিবার (১৬ অক্টোবর) বিকাল সাড়ে ৩টার দিকে উপজেলা সদরে এ ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, মীরসরাই সদর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেন ইউনিয়নের কিছমত জাফরাবাদ গ্রামের মৃত শফিউল আলমের ছেলে মেজবাউল আলম। তিনি ইউনিয়ন কৃষক লীগের সভাপতি। শনিবার বিকালে কয়েকজন কর্মী-সমর্থককে নিয়ে উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তার কাছে মনোনয়নপত্র জমা দিতে যান। সেখানে কয়েকজন সন্ত্রাসী তার হাত থেকে মনোনয়নপত্র কেড়ে নিয়ে তা প্রকাশ্যে ছিঁড়ে ফেলে দেয়। এরপর তাকে বেধড়ক মারধর করে। পরে তিনি মিরসরাই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা নেন।

চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী মেজবাউল আলম অভিযোগ করে বলেন, ‘আমি মনোনয়নপত্র জামা দিতে গেলে ৯ নম্বর সদর ইউনিয়নের নৌকা প্রতীকের প্রার্থী শামসুল আলম দিদারের লোক ইকবাল, নোমানসহ অজ্ঞাত ১৫-২০ জন সন্ত্রাসী নির্বাচন কর্মকর্তার অফিসের সামনে থেকে আমার মনোনয়নপত্র কেড়ে নেয় এবং প্রকাশ্যে ছিঁড়ে ফেলে দেয়। এরপর আমাকে পিটিয়ে তাড়িয়ে দেয়। পরে আমি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা নিয়েছি।’

তিনি আরও বলেন, ‘উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা এবং মীরসরাই থানায় অভিযোগ দেওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছি।’

উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. ফারুক হোছাইন সাংবাদিকদের বলেন, ‘এ ধরনের ঘটনার বিষয়ে প্রার্থী কোনও লিখিত অভিযোগ দেয়নি। নির্বাচন অফিসের বাইরে এ ধরনের ঘটনা ঘটলে আমাদের কিছু করার নেই। তবে অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

মীরসরাই থানার ওসি মজিবুর রহমান বলেন, ‘এমন একটি ঘটনা শুনেছি। তবে নির্বাচন কর্মকর্তা জানিয়েছেন, এ  ধরনের কোনও অভিযোগ তিনি পাননি। আমরা থানায় অভিযোগ পেলে অবশ্যই তদন্ত করে দেখবো।’

প্রসঙ্গত, আগামী ১১ নভেম্বর মীরসরাই উপজেলার ১৬ ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

/এফআর/

সম্পর্কিত

সন্তানদের সাঁতার শেখাতে গিয়ে পাইলটের মৃত্যু

সন্তানদের সাঁতার শেখাতে গিয়ে পাইলটের মৃত্যু

দুই সন্তানসহ স্ত্রীর লাশ উদ্ধার, স্বামীর বিরুদ্ধে মামলা

দুই সন্তানসহ স্ত্রীর লাশ উদ্ধার, স্বামীর বিরুদ্ধে মামলা

পুকুরে ডুবে ভাইবোনের মৃত্যু

পুকুরে ডুবে ভাইবোনের মৃত্যু

মিরসরাইয়ে সড়ক দুর্ঘটনায় আ.লীগ নেতা নিহত

মিরসরাইয়ে সড়ক দুর্ঘটনায় আ.লীগ নেতা নিহত

বাসা থেকে ডেকে নিয়ে এক ব্যক্তিকে হত্যা

আপডেট : ১৬ অক্টোবর ২০২১, ২০:৪৫

নারায়ণগঞ্জে বাসা থেকে ডেকে নিয়ে সুজন ফকির (৪৫) নামে এক ব্যক্তিকে দুর্বৃত্তরা ছুরিকাঘাতে হত্যা করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। শনিবার সকাল ৮টায় ফতুল্লার নয়াবাজার মসলিমনগর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহত সুজন ফতুল্লার নবীনগরের শাহ আলমের বাড়িতে ভাড়া থাকতেন।

সুজনের স্ত্রী মর্জিনা বেগম জানান, হত্যার ঘটনার আধঘণ্টা আগেই অজ্ঞাত ব্যক্তিরা তাকে মোবাইল ফোনে কল করে বাসা থেকে ডেকে নিয়ে যায়। পরে তাকে হত্যা করে লাশ ফেলে যায়। সুজন কাজ করতেন বিসিকের একটি পোশাক কারখানায়। জটিল রোগে অসুস্থ হয়ে পড়লে তার অস্ত্রোপচার হয়। সুস্থ হওয়ার পর চাকরি ছেড়ে ভাড়ায় ইজিবাইক চালানো শুরু করেন তিনি।

ফতুল্লা মডেল থানার ওসি মো. রাকিবুজ্জামান জানান, ধারণা করা হচ্ছে, পরিকল্পিতভাবে বাসা থেকে ডেকে নিয়ে সুজনকে হত্যা করা হয়েছে। হত্যার সঙ্গে জড়িতদের গ্রেফতারে অভিযান চলছে। এ ঘটনায় নিহতের ছেলে বাদী হয়ে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন।

পুলিশ নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে।

 

/এমএএ/

সম্পর্কিত

ট্রেনের নিচে ঝাঁপ দিয়ে সিঙ্গাপুর প্রবাসীর আত্মহত্যা

ট্রেনের নিচে ঝাঁপ দিয়ে সিঙ্গাপুর প্রবাসীর আত্মহত্যা

স্বামীকে হত্যার অভিযোগে স্ত্রী আটক

স্বামীকে হত্যার অভিযোগে স্ত্রী আটক

‘পাবজি খেলাকে কেন্দ্র করে’ স্কুলছাত্রকে হত্যা

‘পাবজি খেলাকে কেন্দ্র করে’ স্কুলছাত্রকে হত্যা

আবাসিক হোটেলে গার্মেন্টসকর্মীর ঝুলন্ত মরদেহ, স্বামী আটক

আবাসিক হোটেলে গার্মেন্টসকর্মীর ঝুলন্ত মরদেহ, স্বামী আটক

টিকার লাইনে দাঁড়ানো নারীর চেইন ছিনতাই, আটক ৫

আপডেট : ১৬ অক্টোবর ২০২১, ২০:৪৪

বগুড়ার শিবগঞ্জে করোনাভাইরাসের টিকা নিতে লাইনে দাঁড়ানো মরিয়ম বেগম (৫০) নামের এক নারীর গলা থেকে সোনার চেইন ছিনিয়ে নিয়ে পালানোর সময় পাঁচ নারীকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছে উপস্থিত জনতা। শনিবার (১৬ অক্টোবর) সকালে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স চত্বরে ঘটনাটি ঘটে।

আটকদের গ্রেফতার দেখিয়ে বিকালে আদালতের মাধ্যমে বগুড়া জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে। শিবগঞ্জ থানার ওসি সিরাজুল ইসলাম জানান, এদের বাড়ি হবিগঞ্জ ও ব্রাহ্মণবাড়িয়াতে হলেও তারা স্থানীয় মোকামতলায় ভাড়া বাড়িতে থেকে চুরি, ছিনতাই, পকেটকাটাসহ বিভিন্ন অপরাধ করতেন।

গ্রেফতার নারীরা হলেন- ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগর উপজেলার দলমডল গ্রামের ইউনুস আলীর স্ত্রী নাজমা বেগম (৩৫), একই এলাকার কাওসার আলীর স্ত্রী ফুলতারা বেগম (২৫), মো. শামীমের স্ত্রী রাবেয়া বেগম (২১) এবং হবিগঞ্জ জেলা সদরের উচাইল গ্রামের আলমগীর হোসেনের স্ত্রী শাহানা বেগম (২৫) ও একই জেলার চুনারুঘাট উপজেলার জোয়ার লালচাঁন গ্রামের বাশির উদ্দিনের স্ত্রী জোসনা বেগম (২৬)।

পুলিশ ও মামলার এজাহার সূত্রে জানা গেছে, শনিবার সকাল ১০টার দিকে শিবগঞ্জ উপজেলার মোকামতলা ইউনিয়নের চকপাড়া গ্রামের হুজ্জাতুল ইসলামের স্ত্রী মরিয়ম বেগম করোনার টিকার দ্বিতীয় ডোজের টিকা নিতে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আসেন। তিনি টিকাদান কেন্দ্রের সামনে অন্যদের সঙ্গে লাইনে দাঁড়ান। এ সময় নাজমা বেগম ও তার চার সহযোগী মরিয়মের গা ঘেঁষে দাঁড়ান। তাদের সরে যেতে বলা হলেও কর্ণপাত করেননি। এক পর্যায়ে পেছনে থাকা নাজমা বেগম বোরকার ভেতরে হাত দিয়ে গলা থেকে সোনার চেইন ছিনিয়ে নিয়ে দৌড় দেন। মরিয়ম বেগম টের পেয়ে চিৎকার দিলে উপস্থিত জনতা তাকে হাতেনাতে আটক করেন। এছাড়া পলায়নরত তার চার সহযোগীকেও আটক করা হয়। পরে তাদের শিবগঞ্জ থানা পুলিশে সোপর্দ করা হয়। এ বিষয়ে মরিয়ম বেগমের ছেলে হাসান আলী থানায় ওই পাঁচ নারীর বিরুদ্ধে মামলা করেছেন।

শিবগঞ্জ থানার ওসি সিরাজুল ইসলাম আরও জানান, উদ্ধার করা চেইনটি মালিককে ফিরিয়ে দেওয়া হয়েছে। গ্রেফতার পাঁচজনকে বিকালে আদালতের মাধ্যমে বগুড়া জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।

/এফআর/

সম্পর্কিত

মাদকসেবনে বাধা দেওয়ায় স্ত্রীকে হত্যা

মাদকসেবনে বাধা দেওয়ায় স্ত্রীকে হত্যা

স্বামীকে হত্যার অভিযোগে স্ত্রী আটক

স্বামীকে হত্যার অভিযোগে স্ত্রী আটক

যমুনার খালে গোসলে নেমে মেডিক্যাল ছাত্রের মৃত্যু

যমুনার খালে গোসলে নেমে মেডিক্যাল ছাত্রের মৃত্যু

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

নির্বাচনে প্রার্থী হতে গিয়ে জানলেন তিনি মৃত

নির্বাচনে প্রার্থী হতে গিয়ে জানলেন তিনি মৃত

কৃষক লীগ নেতার মনোনয়নপত্র ছিঁড়ে মারধরের অভিযোগ

কৃষক লীগ নেতার মনোনয়নপত্র ছিঁড়ে মারধরের অভিযোগ

সন্তানদের সাঁতার শেখাতে গিয়ে পাইলটের মৃত্যু

সন্তানদের সাঁতার শেখাতে গিয়ে পাইলটের মৃত্যু

মাদকসেবনে বাধা দেওয়ায় স্ত্রীকে হত্যা

মাদকসেবনে বাধা দেওয়ায় স্ত্রীকে হত্যা

দুই সন্তানসহ স্ত্রীর লাশ উদ্ধার, স্বামীর বিরুদ্ধে মামলা

দুই সন্তানসহ স্ত্রীর লাশ উদ্ধার, স্বামীর বিরুদ্ধে মামলা

পুকুরে ডুবে ভাইবোনের মৃত্যু

পুকুরে ডুবে ভাইবোনের মৃত্যু

মিরসরাইয়ে সড়ক দুর্ঘটনায় আ.লীগ নেতা নিহত

মিরসরাইয়ে সড়ক দুর্ঘটনায় আ.লীগ নেতা নিহত

চার দিনেও সন্ধান মেলেনি নিখোঁজ ব্যবসায়ীর

চার দিনেও সন্ধান মেলেনি নিখোঁজ ব্যবসায়ীর

১১ বছর পর লক্ষ্মীপুরে বিএনপির নতুন কমিটি

১১ বছর পর লক্ষ্মীপুরে বিএনপির নতুন কমিটি

সর্বশেষ

রাষ্ট্রীয় সেন্সরশিপ, চীনে বন্ধ হচ্ছে মাইক্রোসফটের লিঙ্কডইন

রাষ্ট্রীয় সেন্সরশিপ, চীনে বন্ধ হচ্ছে মাইক্রোসফটের লিঙ্কডইন

‘মোস্তফা’ পুরস্কার নিতে ইরান যাচ্ছেন বাংলাদেশি বিজ্ঞানী

‘মোস্তফা’ পুরস্কার নিতে ইরান যাচ্ছেন বাংলাদেশি বিজ্ঞানী

নির্বাচনে প্রার্থী হতে গিয়ে জানলেন তিনি মৃত

নির্বাচনে প্রার্থী হতে গিয়ে জানলেন তিনি মৃত

শঙ্কা কেটে গেছে, মাহমুদউল্লাহকে নিয়েই শুরু বিশ্বকাপ

শঙ্কা কেটে গেছে, মাহমুদউল্লাহকে নিয়েই শুরু বিশ্বকাপ

কাশ্মিরে নিখোঁজ ২ ভারতীয় জওয়ানের মরদেহ উদ্ধার

কাশ্মিরে নিখোঁজ ২ ভারতীয় জওয়ানের মরদেহ উদ্ধার

© 2021 Bangla Tribune