X
মঙ্গলবার, ২৬ অক্টোবর ২০২১, ১০ কার্তিক ১৪২৮

সেকশনস

বিএনপি জোট ছেড়ে দেবে খেলাফত মজলিস?

আপডেট : ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০০:৪৯

গত আগস্ট মাসেই আলোচনায় ছিল বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোট ছেড়ে দিচ্ছে খেলাফত মজলিস। সেই আলোচনা এখন জোরালো হয়ে উঠেছে দলটিতে। আগামী শুক্রবার (১ অক্টোবর) অনুষ্ঠেয় দলের কেন্দ্রীয় শুরার বৈঠক থেকে এমন ঘোষণা আসতে পারে বলে গুঞ্জন রয়েছে। মজলিসের কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির প্রভাবশালী একাধিক দায়িত্বশীলের সঙ্গে আলাপকালে এ তথ্য জানা গেছে।

মজলিস নেতাদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, ২০১৯ সালে দলের মজলিসে শুরার বৈঠকেই বিএনপি জোট থেকে বেরিয়ে আসার মৌলিক সিদ্ধান্ত ছিল। ওই সিদ্ধান্ত এখন চূড়ান্ত করে আনুষ্ঠানিকভাবে জানানোর পরিকল্পনা রয়েছে দলটির।

জানতে চাইলে মঙ্গলবার (২৮ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় খেলাফত মজলিসের আমির মাওলানা মুহাম্মদ ইসহাক বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘এগুলো এখনই কিছু বলা যাচ্ছে না। শুক্রবার শুরার বৈঠক রয়েছে। বৈঠকে যা সিদ্ধান্ত হবে, তা-ই হবে। অগ্রিম বলা যাচ্ছে না।’

কিন্তু ২০১৯ সালে শুরার সিদ্ধান্ত ছিল—অকার্যকর হওয়ায় ২০ দলীয় জোটে আর যাবে না মজলিস। এ প্রসঙ্গে মুহাম্মদ ইসহাক বলেন, ‘হ্যাঁ, শুরার মতামত এমন ছিল।’

মজলিসের একাধিক নেতার সঙ্গে আলাপকালে জানা গেছে, দীর্ঘদিন ধরেই বিএনপি-জোট নিষ্ক্রিয় ও অকার্যকর। আর এই জোটে থাকার রাজনৈতিক মূল্যায়নও পায়নি মজলিস। সর্বশেষ হেফাজতের ঘটনায় দলটির মহাসচিব অধ্যাপক আহমদ আবদুল কাদের গ্রেফতার হয়ে কারাগারে রয়েছেন। এ বিষয়টি নিয়ে দলে নানা মত রয়েছে বলে জানান দলটির একাধিক নেতা।

এর আগে, জোটের শরিক দলের যথাযথ মূল্যায়ন না করাসহ কয়েকটি কারণ দেখিয়ে গত ১৪ জুলাই বিএনপি জোট ছেড়ে দেয় জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম। এরপর ১৮ জুলাই থেকে মুক্তি পেতে শুরু করেন ওই দলের কেন্দ্রীয় ও জেলা কমিটির নেতারা। বর্তমানে জমিয়তের অধিকাংশ নেতা জামিনে কারাগার থেকে বেরিয়ে এসেছেন।

এ বিষয়ে দলের আমির মাওলানা মুহাম্মদ ইসহাক বলেন, ‘আমরা মহাসচিবের মুক্তির জন্য আইনি চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। তার বাড়িঘরের খবর নেওয়া হচ্ছে।’

তবে খেলাফত মজলিসের জোট ত্যাগ করার পেছনে রাজনৈতিক কারণই প্রধান বলে জানান একাধিক নেতা। তারা বলছেন, রাষ্ট্রীয় চাপ ও আন্তর্জাতিক বাস্তবতায় ধর্মভিত্তিক রাজনীতি নিয়ে নতুন আঙ্গিকে চিন্তা করার প্রয়োজন রয়েছে। একই সঙ্গে দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখেও পরিকল্পনায় পরিবর্তন আনার চিন্তাভাবনা চলছে মজলিসে।

মজলিসের কেন্দ্রীয় নেতারা,  মহাসচিব বর্তমানে কারাগারে রয়েছেন (ফাইল ফটো) দলীয় সূত্র জানায়, আগামী শুক্রবার পুরানা পল্টনের কালভার্ট রোড এলাকার একটি হোটেল মিলনায়তনে খেলাফত মজলিসের কেন্দ্রীয় শুরার বৈঠক অনুষ্ঠান হবে। অন্তত দুই শতাধিক শুরা সদস্য এতে অংশ নেবেন।

মজলিসের নির্ভরযোগ্য কয়েকজন নেতা জানান, দেশের চলমান রাজনৈতিক বাস্তবতায় দলের অনুসারী ও নেতাকর্মীদের সামনে মজলিসের সর্বশেষ রাজনৈতিক অবস্থান ও জোটগত রাজনীতি নিয়ে দলের সিদ্ধান্ত আনুষ্ঠানিকভাবে ব্রিফ করতে পারেন দলের শীর্ষ নেতারা।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে খেলাফত মজলিসের নায়েবে আমির আহমদ আলী কাসেমী বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘একটি রাজনৈতিক দলের শুরার বৈঠক হচ্ছে—অবশ্যই এর তাৎপর্য আছে। যেহেতু আমরা রাজনৈতিক দল, সেহেতু রাজনৈতিক সিদ্ধান্ত থাকতেই পারে। আশা করি, বৈঠকে দুই শতাধিক সদস্যের কাছাকাছি অংশগ্রহণ করবেন।’

প্রসঙ্গত, ১৯৯৯ সালের ৬ জানুয়ারি জাতীয় পার্টি, জামায়াতে ইসলামী ও ইসলামী ঐক্যজোটকে সঙ্গে নিয়ে ‘চারদলীয় জোট’ গঠন করেছিল বিএনপি। পরে এরশাদের নেতৃত্বাধীন জাতীয় পার্টি বেরিয়ে গেলে যুক্ত হয় নাজিউর রহমান মঞ্জুর বাংলাদেশ জাতীয় পার্টি (বিজেপি)। পরবর্তীতে ২০১২ সালের ১৮ এপ্রিল নতুন ১২টি দলের সংযুক্তির মাধ্যমে নির্দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনের দাবিতে আন্দোলনে থাকা চারদলীয় জোট কলেবরে বেড়ে দাঁড়ায় ১৮ দলীয় জোটে। এরপর জোটের পরিধি দাঁড়ায় ২০ দলে।

তবে ২০ দলীয় জোট থেকে ইসলামী ঐক্যজোট, এনপিপি, ন্যাপ ও এনডিপি বেরিয়ে গেলেও একই নামে এসব দলের একাংশকে জোটে রেখে দেয় বিএনপি। জোট ছেড়ে যায় আন্দালিভ রহমান পার্থের বিজেপিও। সর্বশেষ, গত ১৮ জুলাই জমিয়ত বেরিয়ে গেলেও একই নামে আরেকটি অংশ রয়েছে জোটে। তবে খেলাফত মজলিস বেরিয়ে গেলে এই নামে কোনও অংশকে জোটে রাখবে কিনা বিএনপি, এমন কোনও পরিকল্পনার কথা মঙ্গলবার সন্ধ্যা পর্যন্ত জানা যায়নি।

আরও পড়ুন:

এবার বিএনপি-জোট ছাড়ার আলোচনা খেলাফত মজলিসে

/এপিএইচ/এমওএফ/

সম্পর্কিত

নয়া পল্টনে মিছিলের প্রস্তুতি নিচ্ছেন বিএনপি নেতাকর্মীরা

নয়া পল্টনে মিছিলের প্রস্তুতি নিচ্ছেন বিএনপি নেতাকর্মীরা

ধর্মান্ধ চক্রান্তের সঙ্গে বিএনপির একটা রাজনৈতিক সম্পর্ক আছে: ইনু

ধর্মান্ধ চক্রান্তের সঙ্গে বিএনপির একটা রাজনৈতিক সম্পর্ক আছে: ইনু

উপাসনালয়ে সিসি ক্যামেরা বাধ্যতামূলক করার দাবি

উপাসনালয়ে সিসি ক্যামেরা বাধ্যতামূলক করার দাবি

শিবিরের শাখা সেক্রেটারি থেকে কল্যাণ পার্টির মহাসচিব

শিবিরের শাখা সেক্রেটারি থেকে কল্যাণ পার্টির মহাসচিব

‘যেকোনও ইস্যুকে রাজনৈতিক রূপ দিয়ে বিতর্কিত করাই বিএনপির কাজ’

আপডেট : ২৬ অক্টোবর ২০২১, ১৩:২৭

অপপ্রচার করাই বিএনপির শেষ আশ্রয়স্থল বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, ‘যেকোনও ইস্যুকে রাজনৈতিক রূপ দিয়ে বিতর্কিত করাই বিএনপির কাজ।’

মঙ্গলবার (২৬ অক্টোবর) তার সরকারি বাসভবনে ব্রিফিংয়ে এ কথা বলেন ওবায়দুল কাদের। 

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘কুমিল্লাসহ দেশের বিভিন্ন জেলায় পূজামণ্ডপে হামলা নাকি সরকারের নীলনকশা, সরকার নাকি হামলাকারীদের বিচারের উদ্যোগ নেয়নি, বিএনপি নেতাদের এসব অভিযোগ গোয়েবলসকেও হার মানায়।’

তিনি বলেন, ‘পূজামণ্ডপে হামলার পর থেকে বিএনপি মিথ্যাচার এবং অপপ্রচারের ফানুস উড়িয়েই যাচ্ছে। তাদের এসব অভিযোগ কল্পনাপ্রসূত, এর সঙ্গে বাস্তবতার কোনও সম্পর্ক নেই।’

‘কোনও সরকার কি চায় দেশের পরিস্থিতি অস্থিতিশীল করতে? আর তা করে সরকারের কী লাভ?- এ প্রশ্ন রাখেন ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, ‘দোষারোপের রাজনীতি যেহেতু বিএনপির আদর্শ, সেহেতু সরকারের বিরুদ্ধে কিছু না কিছু বলতেই হবে। এ ধরনের কল্পিত ও অন্তঃসারশূন্য অভিযোগ তারই ধারাবাহিকতা।’

বিএনপি নেতারা হিন্দু সম্প্রদায়ের জন্য মায়াকান্না করলেও প্রকৃতপক্ষে পূজামণ্ডপে হামলার বিচার তারা চাননি দাবি করে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘ভিডিও ফুটেজ অনুযায়ী সুনির্দিষ্ট অভিযোগের ভিত্তিতে মামলা হলেও তারা বলছেন বিরোধীদের হেনস্তা করার জন্য মামলা করা হয়েছে। এটা বিএনপির ডাবল স্ট্যান্ডার্ড।’

সেতুমন্ত্রী বলেন, ‘ঘটনার পর বিএনপির পক্ষ থেকে কেউ হিন্দু সম্প্রদায়ের পাশে দাঁড়ায়নি অথচ এখন প্রায় দুই সপ্তাহ পর বিএনপির  টিম বিভিন্ন মন্দির পরিদর্শন করছে। ঘটনার রেশ কেটে যাওয়ার পর এই লোক দেখানো পরিদর্শন দলীয়ভাবে বিএনপির দায়িত্বহীনতাকেই স্পষ্ট করছে।’

বিএনপি নেতারা অভিযোগ করেছেন, সরকার নাকি পুরোহিতদের বাধা দিয়েছে বিএনপির সঙ্গে কথা বলতে, এমন সৃজনশীল মিথ্যাচার বিএনপির মুখেই মানায় বলেও মন্তব্য করেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক।

 

/পিএইচসি/আইএ/

সম্পর্কিত

আ.লীগের নয়, নির্বাচন হবে কমিশনের অধীনে: ওবায়দুল কাদের

আ.লীগের নয়, নির্বাচন হবে কমিশনের অধীনে: ওবায়দুল কাদের

তৃণমূল থেকে বিতর্কিতদের নাম বাদ দিন: ওবায়দুল কাদের

তৃণমূল থেকে বিতর্কিতদের নাম বাদ দিন: ওবায়দুল কাদের

নয়া পল্টনে বিএনপি নেতাকর্মীদের সাথে পুলিশের ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া

আপডেট : ২৬ অক্টোবর ২০২১, ১২:৩৪

সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি রক্ষায় সরকারের ব্যর্থতার অভিযোগ এনে এর প্রতিবাদে ডাকা বিএনপির বিক্ষোভ মিছিল হয়নি। তবে সংক্ষিপ্ত সমাবেশ করে দলটি। সমাবেশের পর একদল নেতাকর্মীর সঙ্গে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ঘটনা ঘটেছে।

মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে সমাবেশ শেষের পর ছাত্রদল নেতা ইসহাক সরকারের নেতৃত্বে একটি মিছিল শুরু করে। মিছিলটি থেকে পুলিশকে লক্ষ্য করে ব্যানারের লাঠি ছুঁড়ে দেওয়ার পর এ ঘটনা ঘটে। এসময় তাদের ছত্রভঙ্গ করতে পুলিশ লাঠিচার্জ ও কয়েকরাউন্ড টিয়ারগ্যাস শেল নিক্ষেপ করে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, মিছিলটি নয়া পল্টন থেকে কাকরাইলের দিকে যাওয়ার সময় মাঝামাঝি পথে দুই পাশের গলিতে অন্তত ১০ মিনিট এই ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে।

এরপর বিপুল সংখ্যক পুলিশের সদস্য বিএনপির অফিসের দু’পাশে অবস্থান নেয়। এ প্রতিবেদন লেখার সময় দলের নেতাকর্মীদের একটি অংশ কার্যালয়ের ভেতরে ও সামনে অবস্থান করছেন। এলাকায় থমথমে পরিবেশ বিরাজ করছে।

বিএনপি কার্যালয়ের সামনে অবস্থান করছেন আইন শৃঙ্খলারক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা

এ বিষয়ে জানতে চাইলে সেখানে উপস্থিত যাত্রাবাড়ী থানা স্বেচ্ছাসেবক দলের যুগ্ম আহ্বায়ক তাহেরুল ইসলাম বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, আমরা বিক্ষোভ সমাবেশ থেকে শান্তিপূর্ণভাবে যাচ্ছিলাম। নাইটিংগেল মোড়ের দিকে একটু এগোতেই দু’পাশ দিয়ে পুলিশ ব্যারিকেড দিয়ে নেতাকর্মীদের ওপর হামলা করে। আমাদের শরীরে, ঘাড়ে পিঠে লাথি দেয়। যেভাবে ইচ্ছে (পুলিশ) ব্যবহার করেছে। তিনি নিজেও পিঠে-কোমরে আঘাত পেয়েছেন বলে দাবি করেন এই স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতা। 

পুলিশের পক্ষ থেকে নেতাকমীদের মিছিল থেকে লাঠি নিক্ষেপের অভিযোগ করা হয়েছে, এমন প্রশ্নে তাহেরুল ইসলাম বলেন, ‘না, পুলিশ প্রথমে আক্রমণ করেছে, লাঠিপেটা করেছে।’

কার্যালয়ে অবস্থান করছেন বিএনপি নেতাকর্মীরা

অন্যদিকে পুলিশের পক্ষ থেকে তাৎক্ষণিকভাবে বলা হয়, সমাবেশ থেকে তাদের দলীয় নেতা (মির্জা ফখরুল) মিছিল করবেন না বলে জানালেও তারা একটি মিছিল বের করেন। মিছিল থেকে কোনও ধরনের উসকানি ছাড়াই পুলিশকে লক্ষ্য করে ইটপাটকেল ছোড়া হয়। পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে বাধ্য হয়ে লাঠিচার্জ ও টিয়ারশেল নিক্ষেপ করে।

পরে মতিঝিল জোনের এডিসি এনামুল হক মিঠু বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, আজ অনুমতি ছাড়াই  বিএনপির একটি কমর্সূচি ছিলো৷ তারপরও আমরা শান্তিপূর্ণভাবে সেখানে ছিলাম। কিন্তু সমাবেশ শেষে বিএনপির নেতাকর্মীরা নাইটিঙ্গেল মোড়ে পুলিশের উপর অতর্কিতে উসকানিমূলক আচরণ করে। পরে আমরা তাদের লাঠিচার্জ করি। ছত্রভঙ্গ করে দেই। 

তিনি জানান, সংঘর্ষে অন্তত ছয়জন পুলিশ আহত হয়েছে। তিনি বলেন, ‘এটা এখনও চূড়ান্ত হিসাব হয়নি। তবে ছয়জনের মতো (আহত) রয়েছেন।’

সংঘর্ষের পর অন্তত ৩০ নেতাকর্মীকে আটক করার কথাও জানান তিনি। তবে কত রাউন্ড টিয়ারশেল ব্যবহার করা হয়েছে, তা তিনি জানাতে পারেননি। তিনি বলেন, এটা হিসাব হয়নি। আরও পর বলা যাবে।

সংক্ষিপ্ত সমাবেশে বক্তব্য রাখছেন বিএনপি নেতারা

এর আগে দলীয় কার্যালয়ের সামনে সংক্ষিপ্ত সমাবেশে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, ‘আমরা মিছিল করছি না, সম্প্রীতি রক্ষার স্বার্থে আমরা মিছিল করছি না।’

এসময় তিনি অভিযোগ করেন, ‘সমাবেশকে কেন্দ্র করে সকাল থেকে অন্তত ৫০ জনকে আটক করা হয়েছে।’

এর আগে গত শনিবার (২৩ অক্টোবর) স্থায়ী কমিটির বৈঠকে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি রক্ষায় সরকারের ব্যর্থতার অভিযোগ এনে এর প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিলের ডাক দেয় বিএনপি। আজ মঙ্গলবার (২৬ অক্টোবর) সকাল ১১টা থেকে মিছিল শুরু হওয়ার কথা ছিল। তবে মিছিলকে কেন্দ্র করে এদিন সকাল ১০টা থেকেই রাজধানীর নয়া পল্টনে জড়ো হতে থাকেন বিএনপি ও দলটির অঙ্গ- সহযোগী সংগঠনগুলোর নেতাকর্মীরা। 

বিক্ষোভ মিছিল কেন্দ্র করে নয়া পল্টনে বিএনপির অফিসের সামনে একটি ছোট ট্রাকে করা হয় অস্থায়ী মঞ্চ। ‘সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি রক্ষার দাবি’ নিয়ে কমর্সূচি হলেও বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতেও স্লোগান দেন নেতাকর্মীরা। তবে শেষমুহূর্তে মিছিল না করার ঘোষণা দেন দলের মহাসচিব। 

/এসটিএস/ইউএস/

সম্পর্কিত

চার বছরেও রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে সাফল্য নেই: জিএম কাদের

চার বছরেও রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে সাফল্য নেই: জিএম কাদের

সম্প্রীতি রক্ষায় সরকারের ব্যর্থতার প্রতিবাদে বিএনপির মিছিল কাল

সম্প্রীতি রক্ষায় সরকারের ব্যর্থতার প্রতিবাদে বিএনপির মিছিল কাল

ধর্মান্ধ চক্রান্তের সঙ্গে বিএনপির একটা রাজনৈতিক সম্পর্ক আছে: ইনু

ধর্মান্ধ চক্রান্তের সঙ্গে বিএনপির একটা রাজনৈতিক সম্পর্ক আছে: ইনু

‘আক্রমণ হওয়ার পর পুলিশ এসে বলে আপনারা চিন্তা করবেন না’

‘আক্রমণ হওয়ার পর পুলিশ এসে বলে আপনারা চিন্তা করবেন না’

‘সম্প্রীতির স্বার্থে’ বিক্ষোভ মিছিল করেনি বিএনপি

আপডেট : ২৬ অক্টোবর ২০২১, ১১:৫৮

‘সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি রক্ষার স্বার্থে’ পূর্বনির্ধারিত বিক্ষোভ মিছিল করেনি বিএনপি। মঙ্গলবার (২৬ অক্টোবর) সকালে রাজধানীর নয়া পল্টন থেকে প্রেসক্লাব পর্যন্ত বিক্ষোভ মিছিল করার কথা থাকলেও তা হয়নি। সকালে দলীয় কার্যালয়ের সামনে অনুষ্ঠিত সংক্ষিপ্ত সমাবেশে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, ‘আমরা মিছিল করছি না, সম্প্রীতি রক্ষার স্বার্থে আমরা মিছিল করছি না।’

এর আগে গত শনিবার (২৩ অক্টোবর) স্থায়ী কমিটির বৈঠকে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি রক্ষায় সরকারের ব্যর্থতার অভিযোগ এনে এর প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিলের ডাক দেয় বিএনপি। আজ মঙ্গলবার (২৬ অক্টোবর) সকাল ১১টা থেকে মিছিল শুরু হওয়ার কথা ছিল। তবে মিছিলকে কেন্দ্র করে এদিন সকাল ১০টা থেকেই রাজধানীর নয়া পল্টনে জড়ো হতে থাকেন বিএনপি ও দলটির অঙ্গ- সহযোগী সংগঠনগুলোর নেতাকর্মীরা। 

বিক্ষোভ মিছিল কেন্দ্র করে নয়া পল্টনে বিএনপির অফিসের সামনে একটি ছোট ট্রাকে অস্থায়ী মঞ্চ করা হয়েছে। ‘সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি রক্ষার দাবি’ নিয়ে কমর্সূচি হলেও বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতেও স্লোগান দেন নেতাকর্মীরা। তবে শেষমুহূর্তে মিছিল না করার ঘোষণা দেন দলের মহাসচিব। 

বিক্ষোভকে উপলক্ষ করে একেরপর এক মিছিল এসে যোগ দিচ্ছে বিএনপির অফিসের সামনের বিক্ষোভে। জমায়েতের কারণে নয়া পল্টনে দলটির কার্যালয়ের সামনের সড়কটি অনেকটাই বন্ধ হয়ে যায়। আশপাশের এলাকায় দেখা দেয় তীব্র যানজট। বিএনপি অফিসের সামনে থেকে কাকরাইল ইসলামী ব্যাংক মোড় পর্যন্ত সড়কটিতে অবস্থান নেন নেতাকর্মীরা।  বিএনপির কর্মসূচি উপলক্ষে নয়া পল্টন এলাকায় আইনশৃঙ্খলাবাহিনীর বিপুল সংখ্যক সদস্য মোতায়েন করা হয়। দলটির কার্যালয়ের পূর্ব দিকে রাখা হয় সাজোয়া যান।

এদিকে সংক্ষিপ্ত সমাবেশ শেষ হওয়ার পর নেতাকর্মীরা বিক্ষিপ্তভাবে ফিরে যাওয়ার সময় পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। পুলিশ তাদের ছত্রভঙ্গ করতে লাঠিচার্জ ও  টিয়ারশেল নিক্ষেপ করে।

/এসটিএস/ইউএস/

সম্পর্কিত

খালেদা জিয়া সুস্থ আছেন: মির্জা ফখরুল

খালেদা জিয়া সুস্থ আছেন: মির্জা ফখরুল

খালেদা জিয়ার বিষয়ে সংবাদ সম্মেলন করবেন মির্জা ফখরুল

খালেদা জিয়ার বিষয়ে সংবাদ সম্মেলন করবেন মির্জা ফখরুল

অভ্যন্তরীণ সমস্যা ভুলে একসঙ্গে সংগ্রামের অনুরোধ মির্জা ফখরুলের

অভ্যন্তরীণ সমস্যা ভুলে একসঙ্গে সংগ্রামের অনুরোধ মির্জা ফখরুলের

নিত্যপণ্যের দাম কমাতে ব্যর্থ সরকার: মির্জা ফখরুল 

নিত্যপণ্যের দাম কমাতে ব্যর্থ সরকার: মির্জা ফখরুল 

নয়া পল্টনে মিছিলের প্রস্তুতি নিচ্ছেন বিএনপি নেতাকর্মীরা

আপডেট : ২৬ অক্টোবর ২০২১, ১১:১৫

সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি রক্ষায় সরকারের ব্যর্থতার অভিযোগ এনে এর প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল করবে বিএনপি। আজ মঙ্গলবার (২৬ অক্টোবর) সকাল ১১টা থেকে মিছিল শুরু হওয়ার কথা। তবে মিছিলকে কেন্দ্র করে এদিন সকাল ১০টা থেকেই রাজধানীর নয়া পল্টনে জড়ো হতে থাকেন বিএনপি ও দলটির অঙ্গ- সহযোগী সংগঠনগুলোর নেতাকর্মীরা। 

বিক্ষোভ মিছিল কেন্দ্র করে নয়া পল্টনে বিএনপির অফিসের সামনে একটি ছোট ট্রাকে অস্থায়ী মঞ্চ করা হয়েছে। ‘সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি রক্ষার দাবি’ নিয়ে কমর্সূচি হলেও বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতেও স্লোগান দিচ্ছেন নেতাকর্মীরা।

মঙ্গলবার সকাল পৌনে ১১টার দিকে এ প্রতিবেদন লেখার সময় মঞ্চে মহানগর নেতারা বক্তব্য দিতে দেখা গেছে।

বিক্ষোভকে উপলক্ষ করে একেরপর এক মিছিল এসে যোগ দিচ্ছে বিএনপির অফিসের সামনের বিক্ষোভে। জমায়েতের কারণে নয়া পল্টনে দলটির কার্যালয়ের সামনের সড়কটি অনেকটাই বন্ধ। যানবাহনের চাপে ইতোমধ্যে আশপাশের এলাকাতের যানজট ছড়িয়ে পড়েছে। বিএনপি অফিসের সামনে থেকে কাকরাইল ইসলামী ব্যাংক মোড় পর্যন্ত সড়কটিতে অবস্থান নিয়েছেন নেতাকর্মীরা।

এদিকে বিএনপির কর্মসূচি উপলক্ষে নয়া পল্টন এলাকায় আইনশৃঙ্খলাবাহিনীর বিপুল সংখ্যক সদস্য মোতায়েন করা হয়েছে। দলটির কার্যালয়ের পূর্ব দিকে রাখা হয়েছে সাজোয়া যান।

দলের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, বিক্ষোভ মিছিলে বিএনপির মহাসচিবসহ স্থায়ী কমিটির সদস্যরা অংশ নেবেন। ইতোমধ্যে দলের কেন্দ্রীয় কয়েকজন নেতা মঞ্চে এসে উপস্থিত হয়েছেন।

গত শনিবার স্থায়ী কমিটির বৈঠকে ‘সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি রক্ষায় ব্যর্থতা’য় আজ মঙ্গলবার বিক্ষোভ করার সিদ্ধান্ত নেয় বিএনপি।

/এসটিএস/ইউএস/

সম্পর্কিত

ধর্মান্ধ চক্রান্তের সঙ্গে বিএনপির একটা রাজনৈতিক সম্পর্ক আছে: ইনু

ধর্মান্ধ চক্রান্তের সঙ্গে বিএনপির একটা রাজনৈতিক সম্পর্ক আছে: ইনু

উপাসনালয়ে সিসি ক্যামেরা বাধ্যতামূলক করার দাবি

উপাসনালয়ে সিসি ক্যামেরা বাধ্যতামূলক করার দাবি

শিবিরের শাখা সেক্রেটারি থেকে কল্যাণ পার্টির মহাসচিব

শিবিরের শাখা সেক্রেটারি থেকে কল্যাণ পার্টির মহাসচিব

‘আমাদের ঘরে আগুন লেগেছে, কেউই নিরাপদ নই’

‘আমাদের ঘরে আগুন লেগেছে, কেউই নিরাপদ নই’

খালেদা জিয়ার চিকিৎসায় বায়োপসি করা হয়েছে: ডা. জাহিদ

আপডেট : ২৫ অক্টোবর ২০২১, ১৭:৫১

খালেদা জিয়ার চিকিৎসক দলের অন্যতম সদস্য জেড এম জাহিদ হোসেন বলেছেন, ‘বিএনপি চেয়ারপারসনের ছোট্ট একটি অপারেশন হয়েছে। তার শারীরিক পরীক্ষা-নিরীক্ষা করার পর চিকিৎসকরা দেখলেন উনার একটা বায়োপসি করা দরকার। ছোট একটা লাম্প আছে এক জায়গায়। যেহেতু লাম্প আছে, তার ন্যাচার অব ভিউ জানার জন্য বায়োপসি করা হয়েছে। অপারেশনের পরে বেগম জিয়া সুস্থ আছেন। পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে আলাপ করেছেন। এখন তিনি আইসিইউতে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। তিনি বিপদমুক্ত।’

সোমবার (২৫ অক্টোবর) বিকালে গুলশানে চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে জরুরি সংবাদ সম্মেলনে ডা. জাহিদ এসব কথা জানান।

অপারেশনের পর ফলাফল পেতে কেমন সময় লাগতে পারে—এমন প্রশ্নের জবাবে জাহিদ হোসেন বলেন, ‘৭২ ঘণ্টা লাগতে পারে। এ ধরনের অপারেশনের পর কখনও ১৫ থেকে ২১ দিনও সময় লাগে। আমেরিকার মতো জায়গায়ও এমন হয়। ফলে, আজকেই বলা যাবে না—ন্যাচার অর অরিজিন কী।’

সংবাদ সম্মেলনে ডা. জাহিদ হোসেন, ফখরুল ইসলাম আলমগীর ও ডা. আল মামুন

জাহিদ হোসেন জানান, ‘অপারেশনের পর বেগম জিয়ার ভাইটাল প্যারামিটারগুলো স্ট্যাবল আছে। এখন তিনি আইসিইউতে চিকিৎসাধীন আছেন। বায়োপসি ডায়গনোস্টিক পার্ট, পরের চিকিৎসা কী হবে, সেটা ঠিক হবে পরে।’

এসময় ডা. জাহিদ হোসেন যোগ করেন, ‘ডেডিকেটেড হাসপাতালে তার চিকিৎসার প্রয়োজন আছে। আপনারা সবাই তার জন্য দোয়া করবেন। তিনি দেশবাসীর কাছে দোয়া চেয়েছেন। তিনি যেন দ্রুত সুস্থ হয়ে ওঠেন এবং দেশের বাইরে  চিকিৎসা নিশ্চিত করা যায়, সবাই যথাযথ ভূমিকা পালন করবেন।’

বেগম জিয়ার উন্নত চিকিৎসার জন্য বিদেশে চিকিৎসা প্রয়োজন: ফখরুল

এসময় মির্জা ফখরুল সাংবাদিকদের বলেন, ‘খালেদা জিয়াকে বিদেশে উন্নত চিকিৎসার জন্য নেওয়ার বিষয়ে তার মেডিক্যাল বোর্ড পরামর্শ দিয়েছেন’। তিনি বলেন, ‘ম্যাডাম বিপদমুক্ত। যতগুলো পুরনো ডিজিজ তার আছে, এজন্য তার মাল্টি অ্যাডভান্স সেন্টারে চিকিৎসা প্রয়োজন। আমাদের দেশের হাসপাতালগুলোতে এই ব্যবস্থা নেই। এটা আমরা বারবার বলে আসছি।’

এক প্রশ্নের জবাবে বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘তার মুক্তিতে আইনগত বাধা আছে বলে মনে করি না। কেন তিনি জামিন পাবেন না? জামিন তার প্রাপ্য, এটা অধিকার, দয়া নয়। জামিন পাওয়াটা তার অধিকার। অবিলম্বে তার বিদেশে যাওয়ার সুযোগ দেওয়া দরকার।’

সংবাদ সম্মেলনে খালেদা জিয়ার চিকিৎসক দলের সদস্য ডা. আল মামুন, চেয়ারপারসনের মিডিয়া উইং সদস্য শায়রুল কবির খান, শামসুদ্দিন দিদার উপস্থিত ছিলেন।

প্রসঙ্গত, সোমবার সকালে বেগম জিয়ার চিকিৎসা কার্যক্রমে যুক্ত একাধিক দায়িত্বশীল জানান, বিএনপি চেয়ারপারসনের শারীরিক প্যারামিটারগুলো আপ-ডাউন করছে। বিষয়টি নিয়ে চিকিৎসকরা উদ্বিগ্ন। সোমবার মেডিক্যাল বোর্ড তার সর্বশেষ শারীরিক পরিস্থিতি পর্যালোচনা করবেন।

গত মঙ্গলবার (১২ অক্টোবর) বিকালে শারীরিক অবস্থার ফলোআপ করাতে এভারকেয়ার হাসপাতালে ভর্তি হন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। পরদিন থেকে তার শারীরিক পরীক্ষা-নিরীক্ষা শুরু হয়।

/এসটিএস/এমআর/এমওএফ/

সম্পর্কিত

খালেদা জিয়া সুস্থ আছেন: মির্জা ফখরুল

খালেদা জিয়া সুস্থ আছেন: মির্জা ফখরুল

খালেদা জিয়ার বিষয়ে সংবাদ সম্মেলন করবেন মির্জা ফখরুল

খালেদা জিয়ার বিষয়ে সংবাদ সম্মেলন করবেন মির্জা ফখরুল

খালেদা জিয়াকে দেখে এলেন মির্জা ফখরুল, দুপুরে সংবাদ সম্মেলন

খালেদা জিয়াকে দেখে এলেন মির্জা ফখরুল, দুপুরে সংবাদ সম্মেলন

হাসপাতালেই আরও কয়েকদিন থাকতে হচ্ছে খালেদা জিয়াকে

হাসপাতালেই আরও কয়েকদিন থাকতে হচ্ছে খালেদা জিয়াকে

সর্বশেষসর্বাধিক
quiz

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

নয়া পল্টনে মিছিলের প্রস্তুতি নিচ্ছেন বিএনপি নেতাকর্মীরা

নয়া পল্টনে মিছিলের প্রস্তুতি নিচ্ছেন বিএনপি নেতাকর্মীরা

ধর্মান্ধ চক্রান্তের সঙ্গে বিএনপির একটা রাজনৈতিক সম্পর্ক আছে: ইনু

ধর্মান্ধ চক্রান্তের সঙ্গে বিএনপির একটা রাজনৈতিক সম্পর্ক আছে: ইনু

উপাসনালয়ে সিসি ক্যামেরা বাধ্যতামূলক করার দাবি

উপাসনালয়ে সিসি ক্যামেরা বাধ্যতামূলক করার দাবি

শিবিরের শাখা সেক্রেটারি থেকে কল্যাণ পার্টির মহাসচিব

শিবিরের শাখা সেক্রেটারি থেকে কল্যাণ পার্টির মহাসচিব

‘আমাদের ঘরে আগুন লেগেছে, কেউই নিরাপদ নই’

‘আমাদের ঘরে আগুন লেগেছে, কেউই নিরাপদ নই’

হিন্দুদের ক্ষতিগ্রস্ত বাড়িঘর ও মন্দির পুনর্নির্মাণের দাবি চরমোনাই পীরের

হিন্দুদের ক্ষতিগ্রস্ত বাড়িঘর ও মন্দির পুনর্নির্মাণের দাবি চরমোনাই পীরের

'সাম্প্রদায়িক হামলা'র প্রতিবাদে গণফোরামের মানববন্ধন

'সাম্প্রদায়িক হামলা'র প্রতিবাদে গণফোরামের মানববন্ধন

ব্যবসায়ী সিন্ডিকেটে সরকারের লোকজন আছে: মান্না

ব্যবসায়ী সিন্ডিকেটে সরকারের লোকজন আছে: মান্না

ইকবালকে ‘ভবঘুরে’ বলে লঘু করে দেখার অবকাশ নেই: মেনন

ইকবালকে ‘ভবঘুরে’ বলে লঘু করে দেখার অবকাশ নেই: মেনন

জোটে থাকলেও তারা যোগ দিতে চান বিএনপিতে

জোটে থাকলেও তারা যোগ দিতে চান বিএনপিতে

সর্বশেষ

‘যেকোনও ইস্যুকে রাজনৈতিক রূপ দিয়ে বিতর্কিত করাই বিএনপির কাজ’

‘যেকোনও ইস্যুকে রাজনৈতিক রূপ দিয়ে বিতর্কিত করাই বিএনপির কাজ’

ভালোবাসার মানুষের জন্য রাজপ্রাসাদ ছাড়লেন জাপানের রাজকন্যা

ভালোবাসার মানুষের জন্য রাজপ্রাসাদ ছাড়লেন জাপানের রাজকন্যা

দুবলার চরে যাচ্ছেন জেলেরা 

দুবলার চরে যাচ্ছেন জেলেরা 

মুহিবুল্লাহ হত্যা: তিন আসামি ২ দিনের রিমান্ডে

মুহিবুল্লাহ হত্যা: তিন আসামি ২ দিনের রিমান্ডে

ম্যারাডোনা কাপে খেলবে বার্সা-বোকা

ম্যারাডোনা কাপে খেলবে বার্সা-বোকা

© 2021 Bangla Tribune