X
মঙ্গলবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০২১, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৮

সেকশনস

অনিয়মের ঋণকে খেলাপি হিসেবে দেখানোর নির্দেশ

আপডেট : ০৪ অক্টোবর ২০২১, ০৯:৩৫

আর্থিক প্রতিষ্ঠানের জাল-জালিয়াতি, সংঘটিত ডাকাতি ও আত্মসাৎ করা অর্থ এখন থেকে খেলাপি হিসেবে দেখাতে হবে। এছাড়া জালিয়াতির অর্থ আদায়ের সম্ভাবনা না থাকলে পুরো অর্থ অর্থাৎ শতভাগই সংস্থান সংরক্ষণ (প্রভিশন) করতে হবে। তবে আদায়ের সম্ভাবনা থাকলে সংরক্ষণ করতে হবে ৫০ ভাগ।

রবিবার (৩ অক্টোবর) বাংলাদেশ ব্যাংকের আর্থিক প্রতিষ্ঠান ও বাজার বিভাগের মহাব্যবস্থাপক মো. জুলকার নায়েনের সই করা এক সার্কুলারে এসব নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

বাংলাদেশ ব্যাংক বলছে, আর্থিক প্রতিষ্ঠানের অসমন্বিত অগ্রিম দফা, অসমন্বিত অগ্রিম আইনি খরচ, তছরূপকৃত অর্থ বা প্রটেস্টেড বিল এবং অন্যান্য ব্যয় বা ক্ষতিবাচক দফা প্রকৃতপক্ষে সম্পদ না হওয়া সত্ত্বেও ‘অন্যান্য সম্পদ’ হিসেবে দেখানো হচ্ছে। তাই আর্থিক প্রতিষ্ঠান তাদের বার্ষিক আর্থিক বিবরণীতে ‘অন্যান্য সম্পদ’-এর শ্রেণিকরণ এবং সংস্থান নিশ্চিত করতে নতুন নির্দেশনা দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক।

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নির্দেশনায় বলা হয়েছে, এখন থেকে অগ্রিম প্রদত্ত বেতন-ভাতা, ভ্রমণ ব্যয়, আপ্যায়ন ব্যয়, বিজ্ঞাপন ব্যয়, ব্যবসায় উন্নয়ন ব্যয় ১২ মাস বা তার বেশি সময় অসমন্বিত অবস্থায় থাকলে তা ‘মন্দ ও ক্ষতি’ মানে শ্রেণিকরণ (খেলাপি) করতে হবে। পাশাপাশি এ ধরনের ব্যয়ের বিপরীতে ১০০ শতাংশ অর্থ সংস্থান হিসাবে সংরক্ষণ করতে হবে।

অসমন্বিত অগ্রিম আইনি খরচ যে কোনও অনিষ্পন্ন আইনি ব্যবস্থায় অনিশ্চয়তা বিদ্যমান থাকায় এ সংশ্লিষ্ট অসমন্বিত আইনি ব্যয় ‘সন্দেহজনক’ মানে শ্রেণিকৃত হবে এবং এসব ব্যয়ের বিপরীতে ৫০ শতাংশ সংস্থান সংরক্ষণ করতে হবে বলেও নির্দেশনায় বলা হয়েছে। সেই সঙ্গে কোন নিষ্পন্ন আইনি ব্যবস্থার বিপরীতে অসমন্বিত ব্যয় থাকলে সেগুলোকে ‘মন্দ ও ক্ষতি’ মানে শ্রেণিকরণ করে এসব ব্যয়ের বিপরীতে ১০০ শতাংশ সংস্থান সংরক্ষণ নিশ্চিত করতে হবে। 

নির্দেশনায় আরও বলা হয়েছে, আর্থিক প্রতিষ্ঠানে জাল-জালিয়াতি, সংঘটিত ডাকাতি, অর্থ আত্মসাৎ, তহবিল তছরুপ এমন সব বিষয়ে তাৎক্ষণিকভাবে হিসাবায়নের জন্য এ ধরনের খাত বা সম্পদ সৃষ্টি করা হয়। গুণগত মাপকাঠির ভিত্তিতে বিচার-বিশ্লেষ করে প্রোটেস্টেড বিল হতে আদায়ের সম্ভাবনা থাকলে তা ‘সন্দেহজনক’ মানে শ্রেণিকরণ করে এর বিপরীতে ৫০ শতাংশ অর্থ সংস্থান সংরক্ষণ করতে হবে। তবে, প্রোটেস্টেড বিল হতে অর্থ আদায়ের কোন সম্ভাবনা না থাকলে তা ‘মন্দ ও ক্ষতি’ মানে শ্রেণিকরণ করে এর বিপরীতে ১০০ শতাংশ সংস্থান সংরক্ষণ করতে হবে।

‘অন্যান্য সম্পদ’ হিসেবে প্রদর্শিত অন্যান্য ব্যয় বা ক্ষতিবাচক দফাসমূহকে ‘মন্দ ও ক্ষতি’ মানে শ্রেণিকরণ করে এর বিপরীতে ১০০ শতাংশ সংস্থান সংরক্ষণ করতে হবে।

নতুন নির্দেশনা অনুযায়ী ত্রৈমাসিক ভিত্তিতে অর্থাৎ ৩১ মার্চ, ৩০ জুন, ৩০ সেপ্টেম্বর এবং ৩১ ডিসেম্বর ভিত্তি তারিখে ‘অন্যান্য সম্পদ’-এর শ্রেণিকরণ এবং সংস্থান সংরক্ষণ করবে। নির্ধারিত ত্রৈমাসিক শেষে পরবর্তী ৩০ দিনের মধ্যে সংযুক্ত টেমপ্লেট অনুযায়ী এ সংক্রান্ত বিবরণী বাংলাদেশ ব্যাংকের আর্থিক প্রতিষ্ঠান ও বাজার বিভাগে পাঠাতে হবে। পাশাপাশি বাংলাদেশ ব্যাংকের এন্টারপ্রাইজ ডাটা ওয়্যারহাউজ (ইডিডব্লিউ)-এ আপলোড করবে। এসব নির্দেশনা এই বছরের সেপ্টেম্বর থেকে ত্রৈমাসিক হিসাবে কার্যকর হবে।

/জিএম/ইউএস/

সম্পর্কিত

ব্যাংকের নিয়ন্ত্রক কে?

ব্যাংকের নিয়ন্ত্রক কে?

কেমন আছে ব্যাংক খাত?

কেমন আছে ব্যাংক খাত?

গতি নেই ঋণ বিতরণে

গতি নেই ঋণ বিতরণে

প্রশ্নপত্র ফাঁস নিয়ে যা বললো বাংলাদেশ ব্যাংক

প্রশ্নপত্র ফাঁস নিয়ে যা বললো বাংলাদেশ ব্যাংক

সম্পর্কিত

ব্যাংকের নিয়ন্ত্রক কে?

ব্যাংকের নিয়ন্ত্রক কে?

কেমন আছে ব্যাংক খাত?

কেমন আছে ব্যাংক খাত?

গতি নেই ঋণ বিতরণে

গতি নেই ঋণ বিতরণে

ছাপার পর দুই সেট প্রশ্ন নিয়ে যেতেন বুয়েটের এক শিক্ষক!

ব্যাংকে নিয়োগ পরীক্ষার প্রশ্নফাঁসছাপার পর দুই সেট প্রশ্ন নিয়ে যেতেন বুয়েটের এক শিক্ষক!

প্রশ্নপত্র ফাঁস নিয়ে যা বললো বাংলাদেশ ব্যাংক

প্রশ্নপত্র ফাঁস নিয়ে যা বললো বাংলাদেশ ব্যাংক

সুগন্ধি চাল রফতানিতে প্রণোদনা নেই

সুগন্ধি চাল রফতানিতে প্রণোদনা নেই

নিয়োগ পরীক্ষার প্রশ্নফাঁস চক্রে বাংলাদেশ ব্যাংকের কর্মকর্তা!

নিয়োগ পরীক্ষার প্রশ্নফাঁস চক্রে বাংলাদেশ ব্যাংকের কর্মকর্তা!

বাংলাদেশ ব্যাংক ও প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংকের নিয়োগ পরীক্ষা শুক্রবার

বাংলাদেশ ব্যাংক ও প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংকের নিয়োগ পরীক্ষা শুক্রবার

সর্বশেষ

ডা. মুরাদ ছাত্রদলের প্রচার সম্পাদক ছিলেন, জানালেন সভাপতি-সম্পাদক

ডা. মুরাদ ছাত্রদলের প্রচার সম্পাদক ছিলেন, জানালেন সভাপতি-সম্পাদক

‘ছাত্রনেত্রীদের নিয়ে করা মন্তব্যগুলো বিকৃত মানসিকতার পরিচায়ক’

‘ছাত্রনেত্রীদের নিয়ে করা মন্তব্যগুলো বিকৃত মানসিকতার পরিচায়ক’

মুরাদ হাসানকে গ্রেফতারের দাবি এলডিপির

মুরাদ হাসানকে গ্রেফতারের দাবি এলডিপির

তিন বছরেও শেষ হয়নি মুজিব কিল্লার কাজ, বাড়ছে মেয়াদ

তিন বছরেও শেষ হয়নি মুজিব কিল্লার কাজ, বাড়ছে মেয়াদ

মোনাশ কলেজের স্টাডি সেন্টারের অনুমোদন দেয়নি ইউজিসি

মোনাশ কলেজের স্টাডি সেন্টারের অনুমোদন দেয়নি ইউজিসি

ভারত সফরে পুতিন

ভারত সফরে পুতিন

ডা. মুরাদকে পদত্যাগের নির্দেশ, ‘খুশি’ জামালপুরের আ.লীগ নেতারা 

ডা. মুরাদকে পদত্যাগের নির্দেশ, ‘খুশি’ জামালপুরের আ.লীগ নেতারা 

পাঁচ লাখ ৮৪ হাজার ডোজ টিকা দেওয়া হয়েছে সোমবার

পাঁচ লাখ ৮৪ হাজার ডোজ টিকা দেওয়া হয়েছে সোমবার

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

ব্যাংকের নিয়ন্ত্রক কে?

ব্যাংকের নিয়ন্ত্রক কে?

কেমন আছে ব্যাংক খাত?

কেমন আছে ব্যাংক খাত?

গতি নেই ঋণ বিতরণে

গতি নেই ঋণ বিতরণে

প্রশ্নপত্র ফাঁস নিয়ে যা বললো বাংলাদেশ ব্যাংক

প্রশ্নপত্র ফাঁস নিয়ে যা বললো বাংলাদেশ ব্যাংক

সুগন্ধি চাল রফতানিতে প্রণোদনা নেই

সুগন্ধি চাল রফতানিতে প্রণোদনা নেই

© 2021 Bangla Tribune