X
রবিবার, ০২ অক্টোবর ২০২২
১৭ আশ্বিন ১৪২৯

শামসুন্নাহারের সামনে কোনও বাধাই টেকেনি

আতাউর রহমান জুয়েল, ময়মনসিংহ
২২ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৯:৪২আপডেট : ২২ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৯:৫২

‘মাত্র ১১ বছর বয়সে মাকে হারিয়েছে শামসুন্নাহার। তখন সে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ছিল। দরিদ্র পরিবারে কষ্টে মানুষ হয়েছে সে। ২০ ফুট বাই ৮ ফুটের একটিমাত্র টিনশেড ঘর আমাদের। এই ঘরেই চার ছেলের মধ্যে দুই ছেলে, তাদের স্ত্রী, চার সন্তান ও আমি থাকি। ঘরের ছোট্ট বারান্দায় থাকে শামসুন্নাহার ও তার ছোট বোন নাজমুন নাহার। বারান্দাতে এক টেবিলে দুই বোন লেখাপড়া করে। খেয়ে না খেয়ে লেখাপড়ার পাশাপাশি ফুটবল খেলেছে শামসুন্নাহার। অনেক কষ্টে সে আজ সাফল্যের মুখ দেখেছে।’ আবেগাপ্লুত হয়ে কথাগুলো বলছিলেন সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে প্রথম গোল দেওয়া ফুটবলার শামসুন্নাহার জুনিয়রের বাবা নেকবর আলী (৭০)।

আরও খবর: যেভাবে জাতীয় দলে এলেন কলসিন্দুরের ৮ তারকা

ময়মনসিংহের সীমান্তবর্তী উপজেলা ধোবাউড়ার কলসিন্দুর গ্রামের বাসিন্দা নেকবর আলী বলেন, ‘আমি কৃষিকাজ করি। যা ফসল হয় তা দিয়েই পুরো সংসার চলে। আমার চার ছেলে, তিন মেয়ে। ছেলেদের বিয়ে দিয়েছি। এক মেয়েরও বিয়ে হয়েছে। এখন রয়েছে শামসুন্নাহার ও নাজমুন নাহার। গত ছয় বছর ধরে হার্টের রোগে আক্রান্ত হয়ে ঘরে বসে আছি। ওষুধ বাবদ প্রতি মাসে তিন হাজার টাকা ব্যয় হয়। অসুস্থতার কারণে কৃষিকাজও করতে পারি না। অর্থের অভাবে ছেলেদের জন্য আলাদা ঘরের ব্যবস্থা করতে পারছি না।’ শামসুন্নাহার জুনিয়রের বাবা নেকবর আলী শামসুন্নাহারের বড় ভাই হাদিকুল ইসলাম বলেন, ‘শামসুন্নাহার ফুটবল খেলুক প্রথম দিকে এটা পরিবারের কেউ চাইতো না। আশপাশের লোকজনও চাইতো না। আস্তে আস্তে যখন সে ভালো করতে থাকলো তখন সবাই তাকে সহায়তা করেছে। সাফ চ্যাম্পিয়নশিপে প্রথম গোল দিয়ে শুধু পরিবার না, দেশের মুখ উজ্জ্বল করেছে শামসুন্নাহার। আমরা গরিব পরিবারে অনেক কষ্টে বাস করি। এখন শামসুন্নাহার সামনের দিকে এগিয়ে যাবে, ভালো আয়-রোজগার করবে, আমাদের সংসারে সুখ-শান্তি ফিরে আসবে– এটাই প্রত্যাশা।’

আরও খবর: এই মেয়েরাই একদিন বিশ্বকাপ জয় করবে: কলসিন্দুরের টিম ম্যানেজার

তিনি আরও বলেন, ‘বুধবার (২১ সেপ্টেম্বর) রাতে মোবাইল ফোনে ভিডিও কলে শামসুন্নাহারের সঙ্গে কথা হয়েছে। জানিয়েছে, সে অনেক ক্লান্ত এবং শারীরিকভাবে দুর্বল। তবে জয়ের সাফল্যে অনেক আনন্দিত।’

কলসিন্দুর ফুটবল দলের টিম ম্যানেজার মালা রানী সরকারের(বাঁ থেকে দ্বিতীয়) সঙ্গে শামসুন্নাহার জুনিয়র(বাঁ থেকে তৃতীয়)  শামসুন্নাহারের প্রতিবেশী সম্পর্কের চাচি খুদেজা আক্তার (৫৫) বলেন, ‘ছোটবেলায় মা মারা যাওয়ায় ভাবিদের কাছে বেড়ে উঠেছে শামসুন্নাহার। অভাবের সংসারে খুব কষ্ট করে তাদের চলতে হয়েছে। খেয়ে না খেয়ে লেখাপড়ার পাশাপাশি ফুটবল খেলা চালিয়ে গেছে। কষ্টের ফল হিসেবে আজ সে সাফল্যের মুখ দেখেছে। তার সাফল্যে আমরা এলাকাবাসী খুব খুশি।’

কলসিন্দুর ফুটবল দলের টিম ম্যানেজার মালা রানী সরকার বলেন, ‘ঘরে মা না থাকায় শামসুন্নাহারের যত্ন নেওয়ার মতো কেউ ছিল না। সে ছোটবেলা থেকেই পুষ্টিহীনতায় ভুগেছে। কিন্তু ফুটবল খেলার প্রতি আগ্রহ থাকায় এক বছরের ওপরে আমরা আর্থিক সহায়তা দিয়ে তার যত্ন নেওয়ার ব্যবস্থা করেছিলাম। অনেক কষ্ট আর লড়াইয়ের মধ্যে দিয়ে শামসুন্নাহার জাতীয় দলে জায়গা করে নিয়ে সাফ চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করেছে।’

প্রসঙ্গত, নেপালকে ৩-১ গোলে হারিয়ে সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে জয় ছিনিয়ে এনেছে বাংলাদেশ নারী ফুটবল দল। ওই দলের মধ্যে ময়মনসিংহের কলসিন্দুর গ্রামের আট ফুটবলারের একজন শামসুন্নাহার জুনিয়র।

/আরকে/এমএএ/
সম্পর্কিত
নিজ এলাকায় দেড় লাখ টাকা পুরস্কার পেলেন ডিফেন্ডার নীলা
নিজ এলাকায় দেড় লাখ টাকা পুরস্কার পেলেন ডিফেন্ডার নীলা
ঠাকুরগাঁওয়ে সাফজয়ী দুই ফুটবলারকে ছাদখোলা গাড়িতে সংবর্ধনা
ঠাকুরগাঁওয়ে সাফজয়ী দুই ফুটবলারকে ছাদখোলা গাড়িতে সংবর্ধনা
নিজ এলাকায় কৃষ্ণা পেলেন সোয়া ৩ লাখ টাকা ও সোনার চেইন
নিজ এলাকায় কৃষ্ণা পেলেন সোয়া ৩ লাখ টাকা ও সোনার চেইন
ঘরে ফিরেই মাকে জড়িয়ে ধরলেন রুপনা, হাতে তুলে দিলেন ট্রফি
ঘরে ফিরেই মাকে জড়িয়ে ধরলেন রুপনা, হাতে তুলে দিলেন ট্রফি
বাংলা ট্রিবিউনের সর্বশেষ
সোনারগাঁওয়ে ব্যবসায়ী মনির হত্যা: চার জনের মৃত্যুদণ্ড কমে যাবজ্জীবন
সোনারগাঁওয়ে ব্যবসায়ী মনির হত্যা: চার জনের মৃত্যুদণ্ড কমে যাবজ্জীবন
মানি লন্ডারিং ও অনলাইন জুয়া ঠেকাতে তৎপর আইনশৃঙ্খলা বাহিনী
মানি লন্ডারিং ও অনলাইন জুয়া ঠেকাতে তৎপর আইনশৃঙ্খলা বাহিনী
৩৭ বছর শিক্ষকতা, অবসর ভাতার জন্য ঘুরছেন শাহ আলম
৩৭ বছর শিক্ষকতা, অবসর ভাতার জন্য ঘুরছেন শাহ আলম
১৯৭৭ সালের ‘সেনা হত্যাকাণ্ডে’ স্বাধীন তদন্ত কমিশন গঠনের দাবি
১৯৭৭ সালের ‘সেনা হত্যাকাণ্ডে’ স্বাধীন তদন্ত কমিশন গঠনের দাবি
এ বিভাগের সর্বশেষ
নিজ এলাকায় দেড় লাখ টাকা পুরস্কার পেলেন ডিফেন্ডার নীলা
নিজ এলাকায় দেড় লাখ টাকা পুরস্কার পেলেন ডিফেন্ডার নীলা
ঠাকুরগাঁওয়ে সাফজয়ী দুই ফুটবলারকে ছাদখোলা গাড়িতে সংবর্ধনা
ঠাকুরগাঁওয়ে সাফজয়ী দুই ফুটবলারকে ছাদখোলা গাড়িতে সংবর্ধনা
নিজ এলাকায় কৃষ্ণা পেলেন সোয়া ৩ লাখ টাকা ও সোনার চেইন
নিজ এলাকায় কৃষ্ণা পেলেন সোয়া ৩ লাখ টাকা ও সোনার চেইন
ঘরে ফিরেই মাকে জড়িয়ে ধরলেন রুপনা, হাতে তুলে দিলেন ট্রফি
ঘরে ফিরেই মাকে জড়িয়ে ধরলেন রুপনা, হাতে তুলে দিলেন ট্রফি
সাফ জয়ের পর যে ভালোবাসা পেয়েছি তা আগে পাইনি: সানজিদা
সাফ জয়ের পর যে ভালোবাসা পেয়েছি তা আগে পাইনি: সানজিদা